*  চিকেন মোমো তৈরির রেসিপি           *  যমজ সন্তান মর্গে এলো বাবাকে খুঁজতে           * বোনের খোঁজে দিশেহারা ভাই           *  ত্রিশালবাসীর ভাগ্যোন্নয়নে কাজ করেছেন উপজেলা প্রেসক্লাবের সাংবাদিকরা           * নকলা চন্দ্রকোনায় ৭ গোডাউনে আগুন           *  ঝিনাইগাতী সরকারী হাসপাতালটি কর্তৃপক্ষের অবহেলায় ভেস্তে গেছে চিকিৎসা সেবা            *  সমস্যার আবর্তে ব্রাহ্মণবাড়িয়া বক্ষব্যাধি হাসপাতাল           *  ময়মনসিংহে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ মাদক বিক্রেতা নিহত           *  হাতিয়া পিআইওর বিরুদ্ধে অনিয়মের অভিযোগ           *  ময়মনসিংহে ভাষা দিবসে ছাত্রলীগ নেতার ব্যতিক্রমী উদ্যোগ           * রাসায়নিক নয়, গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণে মৃত্যুপুরী চকবাজার           *  বাংলাদেশে আর্ন্তজাতিক কেরাত সম্মেলন অনুষ্ঠিত           * ওসির আহাদের সহায়তায় রক্ষা পেলেন খাদে পড়া প্রাইভেটকার যাত্রীরা           * গফরগাঁওয়ে চালকের গলাকেটে রিকশা ছিনতাই           *  বাংলার সঠিক চর্চা নিয়ে ভাষা সৈনিক শহিদুল্লাহর আক্ষেপ           * কিডনী সমস্যায় রাবি শিক্ষার্থীর মৃত্যু           * কলা গাছের শহীদ মিনারে শিক্ষার্থীদের শ্রদ্ধা           * ভাষা শহীদদের প্রতি গ্রীস প্রবাসীদের শ্রদ্ধা           *  ভাষা শহীদদের প্রতি রাষ্ট্রপতি-প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা           * গুলিতে নিহত ৩ ঠাকুরগাঁও আদালতে বিজিবির বিরুদ্ধে মামলার আবেদন          
*  যমজ সন্তান মর্গে এলো বাবাকে খুঁজতে           *  ত্রিশালবাসীর ভাগ্যোন্নয়নে কাজ করেছেন উপজেলা প্রেসক্লাবের সাংবাদিকরা           *  সমস্যার আবর্তে ব্রাহ্মণবাড়িয়া বক্ষব্যাধি হাসপাতাল          

ওদের কোনো দয়া মায়া নাই!

জেলা প্রতিনিধি | সোমবার, অক্টোবর ১৯, ২০১৫
ওদের কোনো দয়া মায়া নাই!
গোপালগঞ্জের বড়ফা গ্রামের ১০ বছরের মেয়ে লিয়া। ঢাকায় গিয়েছিল গৃহকর্মীর কাজ নিয়ে। সেখানে গুড়া দুধ চুরি করে খাওয়ার অপবাদ দিয়ে তারা সারাশরীরে গরম খুন্তির ছ্যাঁকা দিয়ে পুড়িয়ে দেয়া হয়েছে। করা হয়েছে বেধড়ক মারধরও। ভেঙে দেয়া হয়েছে সামনের পাটির চারটি দাঁতও।

এভাবে নির্যাতন চালিয়ে তাকে ফেরত পাঠিয়েছে নির্যাতনকারীরা। শেষে লিয়াকে ভর্তি করা হয়েছে গোপালগঞ্জ ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে।

লিয়া গোপালগঞ্জ সদর উপজেলার বড়ফা গ্রামের রহমান মীনার মেয়ে। ছয় মাস আগে একই গ্রামের শাহাবুদ্দিন মীনা ও তার স্ত্রী লিয়াকে নিয়ে ঢাকার খিলগাঁয়ে মেয়ে তিম্মি ও তার জামাই নজরুল ইসলামের বাসায় কাজের জন্য রেখে আসেন। এরপর থেকেই লিয়ার ওপর চলে নির্যাতন।  

হাসপাতালে গিয়ে দেখা যায়, মেয়েটির শরীরে এখনও নির্যাতনের চিহ্ন স্পষ্ট। মুখ, হাতসহ বিভিন্ন স্থানে ঘাগুলো প্রায় শুকিয়ে গেছে। তবে শরীর এখনো সুস্থ নয়। মুখের ভেতরের দাঁত ভেঙে দেয়া হয়েছে তা বোঝা যাচ্ছে।

এ পরিস্থিতিতে মেয়েটি তার ওপর নির্যাতনের যে বর্ণনা দিয়েছে তাতে বিবেকবান যে কোনো মানুষই শিউরে উঠবেন। মানুষ যে কত নির্দয় হতে পারে তা ওই শিশুকে দেখলে বোঝা যায়।

নির্যাতনের শিকার লিয়া জানায়, ঢাকার খিলগাঁয়ে তিম্মি ম্যাডামের বাসায় প্রথম কিছুদিন ভালোই কেটে যায়। কিন্তু এরপর থেকে বাসার সব কাজ আমার ওপর এসে পড়ে। কাজের বেলায় এদিক ওদিক হলেই তিম্মি ম্যাডাম নির্যাতন করতেন।

লিয়া ঘটনার বর্ণনা দিয়ে বলে, ‘কাজের চাপে সে যখন দিশেহারা তখন এক ঘটনা ঘটে। একদিন ঘরের গুড়াদুধ গৃহকর্তার বড় মেয়ে খেয়ে দোষ চাপায় লিয়ার ওপর। এরপর দুধ চুরির অপবাদ দিয়ে তাকে ব্যাপক মারধর করেন ম্যাডাম। শরীরের বিভিন্ন স্থানে গরম খুন্তির ছ্যাঁকা দেন। রুটি বানানোর ব্যালন দিয়ে মুখের ওপর আঘাত করে ভেঙে ফেলেন ৪টি দাঁত।’

শিশুটির কান্নাকাটি শুনে পাশের বাসার এক নারী পুলিশকে খবর দেন। খবর পেয়ে খিলগাঁও থানা পুলিশ বাসা থেকে তাকে উদ্ধার করে নিয়ে আসে। তবে পরবর্তীতে মেয়েটির বাবা-মাকে ম্যানেজ করে গৃহকর্তা নজরুল ইসলাম তাকে বুধবার গভীর রাতে বাসায় ফেরৎ নিয়ে আসেন। এরপর শিশুটিকে পাঠিয়ে দেন গোপালগঞ্জে।

লিয়া কান্না জড়িত কণ্ঠে বলে, ওদের কোনো দয়া মায়া নাই। আমি আর ওদের বাসায় যাবো না। নির্যাতিতার মা মর্জিনা বেগম ও খালা কুলসুম বেগম লিয়ার ওপর নির্যাতনের বর্ণনা দিয়ে দোষীদের শাস্তি দাবি করেন।

এ বিষয়ে গোপিনাথপুর পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ ইদ্রিস আলী ও সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সেলিম রেজার সাথে কথা হলে তারা জানান, বিষয়টি যেহেতু ঢাকায় বসে হয়েছে সেজন্য তাদের সঠিক বিচার পেতে হলে সেখানেই অভিযোগ দিতে হবে এবং এ বিষয়ে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারকে তেমন পরামর্শও দেয়া হয়েছে।

বিষয়টিকে ন্যাক্কারজনক হিসেবে উল্লেখ করে জালালাবাদ ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান মজিবুর রহমান মীনা জানান, এ ধরনের ঘটনার সাথে যারা জড়িত তাদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি হওয়া দরকার।




আরও পড়ুন



১. প্রধান উপদেষ্টা ঃ এড. সাদির হোসেন (হাইকোর্ট আইনজীবি)
২. সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ মোঃ খায়রুল আলম রফিক
৩. নির্বাহী সম্পাদক ঃ প্রদীপ কুমার বিশ্বাস
৪. প্রধান প্রতিবেদক ঃ হাসান আল মামুন
প্রধান কার্যালয় ঃ ২৩৬/ এ, রুমা ভবন ,(৭ম তলা ), মতিঝিল ঢাকা , বাংলাদেশ । ফোন ঃ ০১৭৭৯০৯১২৫০
ফোন- +৮৮০৯৬৬৬৮৪, +৮৮০১৭৭৯০৯১২৫০, +৮৮০১৯৫৩২৫২০৩৭
ইমেইল- aporadhshongbad@gmail.com
(নিউজ) এডিটর-ইন-চিফ,
ইমেইল- khirulalam250@gmail.com
close