* হালুয়াঘাটে পুলিশের হাতে ফের আটক-৬           *  ঝিনাইগাতীতে বাবা শ্রেষ্ঠ শিক্ষক মেয়ে সেরা শিক্ষার্থী           * ভারত থেকে প্রশিক্ষন প্রাপ্ত ২০ টি ঘোড়া আমদানী           *  ফুলপুরে ৭৭ জন ভিক্ষুকের মাঝে সেলাই মেশিন বিতরণ            * কেন্দুয়ায় নারী বিসিএস ক্যাডারকে অপহরণের অভিযোগ           * মাদ্রাসায় জোড়া খুন: পরিচালকের বিরুদ্ধে মামলা           * তরুণীরা আবেদনময়ী সেলফি তোলেন কেন?            * মাথাপিছু আয় বেড়েছে ১৬,৩৮৮ টাকা           * সৌন্দর্যের গোপন রহস্য জানালেন শ্রীদেবীর মেয়ে            * নবনিযুক্ত দুই রাষ্ট্রদূতের রাষ্ট্রপতির কাছে পরিচয়পত্র পেশ           * শ্রীলঙ্কার দুর্দিন দেখে অবসর ভেঙে ফেরার ইঙ্গিত দিলশানের            * স্মার্টফোনের আসক্তি কাটানোর নয়া অস্ত্র           * আলোচনায় বসতে মোদিকে ইমরানের চিঠি           * খালেদার অনুপস্থিতিতে বিচার প্রশ্নে আদেশ আজ           * ময়মনসিংহে পিবিআই’য়ের প্রতি আস্থা হারাচ্ছে জনগন            * ফরিদপুরে ভাইয়ের হাতে ভাই খুন           * ময়মনসিংহ জেলা আওয়ামী লীগকে শুভেচ্ছা জানালেন ইকবাল হোসেন           * বদলগাছীতে ইউনিয়ন ডিজিটাল সেবা গুলো প্রত্যন্ত গ্রাামের চেহারা বদলে দিয়েছে           * কুড়িগ্রামে যুবক-যুবতির মরদেহ উদ্ধার            * গাজীপুরের পূবাইলে নিজ হাতে থানা বানিয়ে নিজেই হলেন প্রথম বন্দি           
* নবনিযুক্ত দুই রাষ্ট্রদূতের রাষ্ট্রপতির কাছে পরিচয়পত্র পেশ           * শ্রীলঙ্কার দুর্দিন দেখে অবসর ভেঙে ফেরার ইঙ্গিত দিলশানের            * আলোচনায় বসতে মোদিকে ইমরানের চিঠি          

ফেনী পৌর নির্বাচন: আ.লীগে তোড়জোড়, নিশ্চুপ বিএনপি

নিজস্ব প্রতিবেদক | শনিবার, অক্টোবর ২৪, ২০১৫
ফেনী পৌর নির্বাচন: আ.লীগে তোড়জোড়, নিশ্চুপ বিএনপি
 ফেনীর পাঁচ পৌরসভায় নির্বাচনের আগাম হাওয়া বইছে। আওয়ামী লীগ সমর্থিত সম্ভাব্য মেয়র-কাউন্সিলর প্রার্থীরা মনোনয়ন পেতে জেলা নেতাদের কাছে দৌঁড়ঝাপের পাশাপাশি প্রচারণা শুরু করেছেন। তবে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার নিজ জেলায় বিএনপি-জামায়াত প্রার্থীরা এখনো নিশ্চুপ।


সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, নভেম্বরে পৌরসভায় নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা হতে পারে। সেই অনুযায়ী ডিসেম্বরের তৃতীয় সপ্তাহে নির্বাচন অনুষ্ঠানের প্রস্তুতি নিচ্ছে কমিশন।


ফেনী পৌরসভায় জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় যুগ্ম-মহাসচিব মেয়র হাজী আলাউদ্দিন ছাড়াও পৌর আওয়ামী লীগ সভাপতি আয়নুল কবীর শামীম, জেলা আওয়ামী লীগের সহ-প্রচার সম্পাদক আবু সুফিয়ান প্রার্থী হবেন বলে শোনা যাচ্ছে। দলীয় টিকিট পেতে সবাই তদবির চালাচ্ছেন। একই অবস্থা জেলার দাগনভূঞা, সোনাগাজী, ছাগলনাইয়া ও পরশুরামেও।


দাগনভূঞা পৌর নির্বাচনে আওয়ামী লীগ প্রার্থীদের মধ্যে পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মেয়র ওমর ফারুক খাঁন, গতবারের প্রার্থী ব্যবসায়ী নেতা আবুল কায়েস রিপন, যুবলীগ নেতা মো. আলমগীর প্রার্থী হতে পারেন।


সোনাগাজী পৌরসভায় উপজেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি রুহুল আমিন, সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট রফিকুল ইসলাম খোকন, প্যানেল মেয়র নুর নবী লিটন, বিএনপি থেকে বর্তমান মেয়র ও উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক জামাল উদ্দিন সেন্টু, পৌর বিএনপির সভাপতি আবুল মোবারক ভিপি দুলাল, উপজেলা শ্রমিক দলের সভাপতি মঞ্জুর হোসেন বাবরের নাম শোনা যাচ্ছে।


পরশুরামে জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মেয়র নিজাম উদ্দিন আহমেদ চৌধুরী সাজেলই একমাত্র প্রার্থী হবেন বলে জানা গেছে। আর বিএনপি থেকে কাউন্সিলর মাহফুজুল আলম, উপজেলা প্রচার সম্পাদক সিরাজুল ইসলাম, উপজেলা যুবদল সভাপতি আবদুল করিম শাহজাহানের নাম শোনা যাচ্ছে।


ছাগলনাইয়ায় উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মেয়র মো. আলমগীর বি.এ দলের একক প্রার্থী হবেন বলে প্রায় নিশ্চিত। তবে আওয়ামী লীগ এখনো প্রার্থী বাছাইয়ে সংকটে রয়েছে।


এদিকে সরকারবিরোধী আন্দোলনের সময় সহিংসতার ঘটনায় দায়ের হওয়া মামলায় বিএনপি-জামায়াত নেতাদের অধিকাংশই পালিয়ে বেড়াচ্ছেন। পৌর নির্বাচন নিয়ে দলীয় সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত না হওয়ায় এ ব্যাপারে বিএনপি-জামায়াতের জেলা পর্যায়ের দায়িত্বশীল নেতাদের কেউ মুখ খুলছেন না। সম্ভাব্য প্রার্থী তালিকায় কারো কারো নাম আলোচিত হলেও মাঠে দেখা মিলছে না তাদের।


একইভাবে বসে নেই কাউন্সিলর পদ-প্রত্যাশীরাও। বিশেষ করে ফেনী পৌর এলাকার নিজ নিজ ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থীরা সরব হয়ে উঠেছেন। বিভিন্ন সূত্র ও ওয়ার্ড পর্যায়ের নেতাদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, জেলা শহরের ভিআইপি ওয়ার্ড হিসেবে পরিচিত ১ ও ২ নং ওয়ার্ডে পুরনোদের পাশাপাশি নতুনরাও মনোনয়ন পেতে যোগাযোগ শুরু করেছেন।


গত নির্বাচনে ১ নং ওয়ার্ডে কাউন্সিলর নির্বাচিত হন জেলা কৃষকলীগের সাধারণ সম্পাদক আশ্রাফুল আলম গীটার। এবারও তিনি প্রার্থী হবেন বলে জানা গেছে। এছাড়া দলীয় মনোনয়ন পেতে চেষ্টা-তদবির করছেন পৌর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক গিয়াস উদ্দিন মেজবাহ হাজারী ও গতবারের প্রতিদ্বন্দ্বী পৌর যুবলীগের আহ্বায়ক রফিকুল ইসলাম ভূঞা।


২নং ওয়ার্ডে প্রার্থী নিয়ে দ্বিধাদ্বন্দ্বে সরকারি দল আওয়ামী লীগ। ফেনী-২ আসনের সংসদ সদস্য ও জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নিজাম উদ্দিন হাজারীর নিজ ওয়ার্ডে কাকে বাদ দিয়ে কাকে প্রার্থী দেবে এনিয়েও নেতাকর্মীদের মাঝে জল্পনা-কল্পনা চলছে। এ এলাকায় দ্বিতীয়বারের মতো নির্বাচনে ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ সভাপতি মোসলেহউদ্দিন হাজারী বাদল কাউন্সিলর নির্বাচিত হন। এবারও এই জনপ্রতিনিধি প্রার্থী  হবেন বলে তার ঘনিষ্ঠরা জানিয়েছে। তবে কোনো কারণে বাদল হাজারী বাদ পড়লে সাংসদের চাচাতো ভাই রাশেদুল হক হাজারী অথবা লুৎফুর রহমান খোকন হাজারী প্রার্থী হতে পারেন বলে শোনা যাচ্ছে।


অপরদিকে সংখ্যালঘু অধ্যুষিত ও আওয়ামী লীগের ঘাঁটি হিসেবে পরিচিত এ দুটি ওয়ার্ডে বিগত কয়েকটি নির্বাচনের মতো এবারও বিএনপির প্রার্থী সংকট রয়েছে।


৩নং ওয়ার্ডে গত নির্বাচনে দলীয় প্রার্থী ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক কোহিনুর আলম রানাকে হারিয়ে কাউন্সিলর নির্বাচিত হন আরিফুল আলম সুমন। এর আগে ১৯৯৯ সাল থেকে ২০১১ সাল পর্যন্ত টানা দু’বার কাউন্সিলর নির্বাচিত হন কোহিনুর আলম রানা। এবারও সুমনের পাশাপাশি কোহিনুর প্রার্থী হবেন বলে জানা গেছে। এছাড়া স্থানীয় যুবলীগ নেতা সাহাবউদ্দিন ও নুর করিম শিপন দলীয় মনোনয়ন চাইতে পারেন বলে জানা গেছে। অতীতে এ ওয়ার্ডে বিএনপি প্রার্থী হিসেবে আবদুর রউফ নির্বাচন করলেও এবার তিনি ও তার সমর্থকরা নিরব।


৪নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ও কাউন্সিলর মজিবুর রহমান ভূঞা মজিব এবারও প্রার্থী হবেন বলে শোনা যাচ্ছে। এছাড়া পৌর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আবুল কাশেম ও ওয়ার্ড যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক শাহীন আলমের প্রার্থিতার আগ্রহ রয়েছে বলে ঘনিষ্ঠরা জানিয়েছেন।


৫নং ওয়ার্ডে ফের প্রার্থী হতে পারেন বহুল আলোচিত ফেনী পৌরসভার কাউন্সিলর আবদুল্লাহিল মাহমুদ শিবলু। গত দু’বারের নির্বাচনে দলীয় মনোনয়ন পেয়ে বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হন তিনি।


প্রসঙ্গত, ২০১৪ সালের ২০ মে নিজ দলীয় ফুলগাজী উপজেলা চেয়ারম্যান একরামুল হক একরাম হত্যা মামলায় অন্যদের মতো আলোচিত হয় তার নাম।


এছাড়া ফেনী পৌরসভার প্যানেল মেয়র-৩ ও মহিলা আওয়ামী লীগ নেত্রী জেসমিন আক্তার, ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক জয়নাল আবেদীন লিটন হাজারী, বঙ্গবন্ধু পরিষদের ফেনী জেলা সভাপতি ও সাপ্তাহিক ফেনী খবর সম্পাদক রবিউল হক রবিও দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশী। তবে বিএনপির প্রার্থী হিসেবে সাবেক কাউন্সিলর দেলোয়ার হোসেন বাবুল ও পৌর বিএনপির প্রচার সম্পাদক রফিকুল ইসলাম এখনো মুখ না খুললেও পরিস্থিতি ভালো দেখলে প্রার্থী হবেন বলে জানা গেছে।


৬নং ওয়ার্ডে দ্বিতীয়বারের মত কাউন্সিলর নির্বাচিত হন জেলা বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক জয়নাল আবদীন ভিপির নিকটাত্মীয় পৌর বিএনপির সদস্য গোলাম ফারুক মজুমদার। সম্প্রতি ছাত্রলীগ নেতা হায়দার আলী হত্যা মামলায় আসামি হয়ে তিনি আত্মগোপনে আছেন। তাই হাফিজ আহমদ দলীয় সমর্থন পেতে আশাবাদী। অন্যদিকে ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক অমল কুমার, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক যুবলীগ সভাপতি নিজাম উদ্দিন পাটোয়ারী দলীয় মনোনয়ন পেতে জোর তদবির চালাচ্ছেন।


এ প্রসঙ্গে জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি ও সদর উপজেলা চেয়ারম্যান আবদুর রহমান বি.কম বলেন, তফসিল ঘোষণার পর জেলা কমিটির বৈঠকে প্রার্থী মনোনয়ন দেয়া হবে।




আরও পড়ুন



প্রধান সম্পাদকঃ
ড. মো: ইদ্রিস খান

সম্পাদক ও প্রকাশকঃ
মোঃ খায়রুল আলম রফিক

সিয়াম এন্ড সিফাত লিমিটেড
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয়ঃ ৬৫/১ চরপাড়া মোড়, সদর, ময়মনসিংহ।
ফোন- +৮৮০৯৬৬৬৮৪, +৮৮০১৭৭৯০৯১২৫০, +৮৮০১৯৫৩২৫২০৩৭
ইমেইল- aporadhshongbad@gmail.com
(নিউজ) এডিটর-ইন-চিফ,
ইমেইল- khirulalam250@gmail.com
close