*  কক্সবাজারে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ দুই মাদক বিক্রেতা নিহত           *  মনোহরদীতে গৃহবধূর গলাকাটা লাশ উদ্ধার           * ইসলামপুরে ট্রাক চাপায় চা ব্যবসায়ীর মৃত্যু           * বেনাপোল সীমান্ত থেকে নাইজেরিয়ান নাগরিক ও হুন্ডি ব্যাবসায়ী আটক           *  কেন্দুয়ায় গ্রাম পুলিশ সদস্যদের ওসি যেখানেই বিশৃঙ্খলা সেখানেই পুলিশ থাকবে            * ঝিনাইগাতীতে এসএসসি পরীক্ষার ফরম পূরণের দাবিতে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ            * গফরগাঁও ২২০ বিএনপি নেতাকর্মীর আগাম জামিন           * প্রধানমন্ত্রীকন্যা পুতুলকে মন্ত্রিসভার অভিনন্দন           * মানুষ বলবে, শামীম ওসমান পাগল ছিল            * নতুন খবর দিলেন অপু বিশ্বাস            * যুক্তরাষ্ট্রে হাসপাতালে বন্দুকধারীর হামলা: নিহত ৪           * বাংলাদেশ-ওয়েস্ট ইন্ডিজের মধ্যকার পরিসংখ্যান           * আবুধাবিতে নিউজিল্যান্ডের রুদ্ধশ্বাস জয়           *  চার হাজারে ফোরজি ফোন দিচ্ছে রবি           *  দাদি হলেন মমতাজ           *  ছয় মাস পর্ন সাইট বন্ধের নির্দেশ হাইকোর্টের           * সাত খুন মামলার রায়ের পূর্ণাঙ্গ অনুলিপি প্রকাশ           * হারানো সন্তানকে খুঁজে ফিরছেন বাবা-মা           *  ময়মনসিংহের নান্দাইলে দিনমজুরকে পিটিয়ে হত্যা           * নেত্রকোনায় পিএসসিতে অনুপস্থিত ৪ হাজার শিক্ষার্থী          
*  কক্সবাজারে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ দুই মাদক বিক্রেতা নিহত           *  মনোহরদীতে গৃহবধূর গলাকাটা লাশ উদ্ধার           * ইসলামপুরে ট্রাক চাপায় চা ব্যবসায়ীর মৃত্যু          

ইবিতে বিএনসিসি ক্যাডেটের উপর ছাত্রলীগের হামলা

কুষ্টিয়া জেলা প্রতিনিধি : | রবিবার, নভেম্বর ২৯, ২০১৫
ইবিতে বিএনসিসি ক্যাডেটের উপর ছাত্রলীগের হামলা

 ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের (ইবি) আরবী ভাষা ও সাহিত্য বিভাগের মাস্টার্সের ছাত্র ও বিএনসিসি’র নৌ শাখার এক সদস্য রাশেদুল ইসলামের অতর্কিত হামলা করেছে ছাত্রলীগের কর্মীরা। ইবি শাখা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি মিজানুর রহমান মিজুর নির্দেশে রোববার দুপুর ১২ টার দিকে অনুষদ ভবনের নিচ

তলায় এ ঘটনা ঘটে। হামলায় গুরুতর আহত হয়েছে বলে জানা গেছে। বর্তমানে ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।
হামলাকারীররা ভর্তি পরীক্ষায় জালিয়াতিকারী সাজ্জাদের সহকারী। এখনও ধরা ছোয়ার বাইরে সাজ্জাদ। নিরব প্রশাসন।

প্রত্যক্ষ্যদর্শীরা জানায়,২০১৫-১৬ শিক্ষাবর্ষের অনার্স প্রথম বর্ষের ভর্তি পরীক্ষা চলাকালে মেইন গেটে ভর্তিচ্ছুদের সেবা ও শৃংঙ্খলা দায়িত্ব পালন করে বিএনসিসি’র নৌ শাখার সদস্য রাশেদ।

বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের নির্দেশে ভর্তি পরীক্ষা চলাকালে কোন শিক্ষার্থী যাতে ক্যাম্পাসে প্রবেশ না করে সেজন্য ক্যাডেটদের ভুমিকা রাখতে বলে।
মেইন গেটে দায়িত্ব পালন কালে ইবি শাখা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি মিজানুর রহমান মিজু গ্রুপের তুষার নামে এক কর্মীকে বিএনসিসির ক্যাডেট রাশেদ ক্যাম্পাসে প্রবেশে বাধা দেয়। এতে ওই ছাত্রলীগ কর্মী ক্যাডেটদের সাথে বিতর্কে জড়িয়ে পরে।

এসময় মেইন গেটে কুষ্টিয়া জেলার পুলিশ কর্মকর্তা এএসপি মাজবুবুজ্জামান মাহবুব তুষারকে বুঝানোর চেষ্টা করতে গেলে তার সাথেও ওই ছাত্রলীগ কর্মী তুষার অসৌজন্য আচরন করে। এতে এএসপি মাহবুব তাকে একটি থাপ্পর মারেন।

পরে তুষার ছাত্রলীগের মিজু গ্রুপের নেতাকর্মীদের ফোন দিয়ে ডেকে আনে এবং ভর্তি পরীক্ষা চলাকালে পুলিশের সাথে চরম হট্টগোল সৃষ্টি করে।
পরে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর প্রফেসর ড. মাহবুবর রহমান সেখানে গিয়ে ছাত্রলীগের নেতাকর্মী ও এএসপি মাহবুবের সাথে বসে বিষয়টি মীমাংসা করে দেন।

প্রতক্ষ্য দর্শীরা জানায়, সেই ঘটনার জের ধরে রোববার দুপুর ১২টার দিকে ছাত্রলীগের মিজুর নির্দেশে তার কর্মী ও আরবী ভাষা ও সাহিত্য বিভাগের ২০১২-১৩ শিক্ষাবর্ষের মাহমুদ জুবায়ের, আইন বিভাগের ২০১৩-১৪ শিক্ষাবর্ষের রিয়ন মিয়া, দাওয়াহ এন্ড ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগের ২০১৩-১৪ শিক্ষাবর্ষের সোহাগ, ইসলামের ইতিহাস ও স্বাস্কৃতিক বিভাগের ২০১৩-১৪ শিক্ষাবর্ষের সাজ্জাদ হোসেন বিপুল মিলে অনুষদ ভবনের করিডোরে ওই রাশেদ নামের ক্যাডেটকে একা পেয়ে তার উপর অতর্কিত হামলা চালায়।

এতে কিল ঘুষি লাথি ও লাঠির আঘাতে গুরুতর আহত হয়ে মাটিতে লুটিয়ে পরে রাশেদ। রাশেদকে মারধর করার পর তারা সেখান থেকে দ্রুত পালিয়ে যায়।
এসময় সে বাচাঁও বাচাঁও বলে চিৎকার করলে সাধারণ শিক্ষার্থীরা তাকে ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার করে বিশ্ববিদ্যালয়ের চিকিৎসা কেন্দ্রে নিয়ে যায়। চিকিৎসা কেন্দ্রে কর্তব্যরত ডাক্তার পারভেজ হাসান তার অবস্থার অবনতি দেখে হাসপাতালে পাঠানোর জন্য বলেন। পরে তাকে ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়।

এবিষয়ে রাশেদের বন্ধুর কাছে তার শারীরিক অবস্থার খোঁজ জানতে চাইলে তিনি বলেন,‘ রাশেদের অবস্থা খুইব খারাপ। ঘন ঘন বমি করছে, অজ্ঞান হয়ে পরছে। হাসপাতালের ডক্টর বলেছে সিটি স্কিন না করা পর্যন্ত কিছু বলা যাচ্ছেনা।’

মারধরের ঘটনায় বিএনসিসি’র নৌ প্লাটনের দায়িত্বে থাকা বাংলা বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ইয়াসমিন আরা সাথী বলেন,‘ আমি ঘটনাস্থলে ছিলাম এবং তাদেরকে নিষেধ করলেও তারা আমার কথা রাখেনি। এঘটনায় জড়িতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের কাছে জোর দাবি জানাচ্ছি।”

এবিষয়ে ছাত্রলীগের সভাপতি সাইফুল ইসলাম বলেন,‘যারা হামলা করেছে তারা সন্ত্রাসী। ছাত্রলীগের সাথে তাদের কোন সংশ্লিষ্টতা নেই। তাদের বিরুদ্ধে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন যে ব্যবস্থা গ্রহণ করবে তাতে ছাত্রলীগ সহযোগিতা করবে।

প্রক্টর প্রফেসর ড. মাহবুবর রহমান বলেন,‘ একটি ঘটনা ঘটেছিল সবার সাথে কথা বলে বিষয়টি মিমাংশা হয়ে গেছে। পরিস্থিতি বর্তমানে স্বাভাবিক আছে।
উল্লেখ্য, মিজু গ্রপের এই কর্মীদের বিরুদ্ধে ক্যাম্পাসে ইভটিজিং, ফাও  খাওয়া, চাদাবাজি, হলে মাদক দ্রব্য সরবরাহ,ভর্তি পরীক্ষায় জালিয়াতিতে সাজ্জাদের সহকারীসহ ডজন খানেক অভিযোগ রয়েছে। সাজ্জাদ এবারের ভর্তি পরীক্ষায় জালিয়াতি করতে গিয়ে ধরা পড়লেও ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি

মিজু গ্রুপের হওয়ায় সে এখনো ক্যাম্পাসে প্রকাশ্যে ঘুরে বেড়াতে দেখা গেছে। অথচ ভ্রাম্যমান আদালত তাকে দ্রুত গ্রেফতার করার নির্দেশ দিয়েছিলে। কিন্ত প্রশাসন এখনো তার বিরুদ্ধে কোন ব্যবস্থা নিতে পারে নি। জানা গেছে মিজুর হস্তক্ষেপে সাজ্জাদ পার পেয়ে যাচ্ছে।





আরও পড়ুন



সম্পাদক ও প্রকাশকঃ
মোঃ খায়রুল আলম রফিক

বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয়ঃ ৬৫/১ চরপাড়া মোড়, সদর, ময়মনসিংহ।
ফোন- +৮৮০৯৬৬৬৮৪, +৮৮০১৭৭৯০৯১২৫০, +৮৮০১৯৫৩২৫২০৩৭
ইমেইল- aporadhshongbad@gmail.com
(নিউজ) এডিটর-ইন-চিফ,
ইমেইল- khirulalam250@gmail.com
close