* পিবিআইয়ের রিপোর্ট প্রত্যাখ্যান করেছে সাংবাদিকরা মচিমহায় কোন ঘটনা ঘটেনি            * ময়মনসিংহ জেলা আওয়ামীলীগের ৭৫ সদস্য বিশিষ্ট পূর্ণাঙ্গ কমিটি অনুমোদন           * ময়মনসিংহ মহানগর আওয়ামী লীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি অনুমোদন           * যমুনার পানি বিপদসীমা ছুঁই ছুঁই           * ‘পরকীয়া জানাজানি হওয়ায়’ গৃহবধূর আত্মহত্যা           * খাগড়াছড়িতে ৮০০ ইয়াবাসহ আটক ২           * মাদক কারবারিদের নতুন ‘হিটলিস্টে’ সাংসদসহ প্রভাবশালীরা           * সাশ্রয়ী দামের ল্যাপটপ আনলো লেনোভো           * ছিনতাইকারীকে তরুণীর পেটানো ভিডিও ভাইরাল           *  চাঁদপুরের পদ্মা ও মেঘনায় ইলিশের আকাল           *  তিন জেলায় ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ৫           * ‘আড়াই লাখ বাংলাদেশি পাকিস্তানের নাগরিকত্ব পাবেন’           *  মানে মনোযোগী আরমান           * শ্রীলঙ্কাকে বিদায় করে সুপার ফোরে আফগানিস্তান           * ভুটানের প্রধানমন্ত্রী হচ্ছেন ময়মনসিংহ মেডিকেলের ছাত্র           * মেয়ের গায়ে হলুদের দিন মায়ের মৃত্যু            * নদীভাঙন : পূর্বপ্রস্তুতি না নেয়ায় প্রধানমন্ত্রীর ক্ষোভ            * দুর্বৃত্তদের অতর্কিত হামলা ও গুলিতে দুই হিজড়াসহ চারজন আহত            * আবারো শুদ্ধাচার পুরস্কার পেলেন গফরগাঁও ইউএনও           * ভারতে পাচারকালে চার শিশুসহ রোহিঙ্গা নারী আটক          
* পিবিআইয়ের রিপোর্ট প্রত্যাখ্যান করেছে সাংবাদিকরা মচিমহায় কোন ঘটনা ঘটেনি            * ময়মনসিংহ জেলা আওয়ামীলীগের ৭৫ সদস্য বিশিষ্ট পূর্ণাঙ্গ কমিটি অনুমোদন           * ময়মনসিংহ মহানগর আওয়ামী লীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি অনুমোদন          

দূর্ঘটনা এখন নিত্য দিনের শরীয়তপুর-চাঁদপুর মহাসড়কের বেহালদশা

শেখ জাভেদ, শরীয়তপুর প্রতিনিধি | বুধবার, জানুয়ারী ২৭, ২০১৬
দূর্ঘটনা এখন নিত্য দিনের শরীয়তপুর-চাঁদপুর মহাসড়কের বেহালদশা

শরীয়তপুর জেলার প্রধান রাস্তা সংস্কার না করায় শরীয়তপুর-চাঁদপুরের যোগাযোগ ব্যবস্থা একেবারেই ভেঙ্গে পড়েছে। এসব পাকা রাস্তা র্দীঘ দিন ধরে সংস্কার বিহীন থাকায় সব কার্পেটিং উঠে গিয়ে বড় বড় খানাখন্দের সৃষ্টি হয়েছে। ফলে লোক চলাচলের জন্য এসব রাস্তায় এখন মানুষের জন্য পরিনত হয়েছে মরণ ফাঁদে। যা সামান্য কাজ হয়েছে তাও সাবেক ও বর্তমান প্রকৌশলী কর্মকর্তা, অফিসের  হিসাব সহকারী ও ঠিকাদারদের পকেট ভারি হয়েছে। রাস্তা তেমন সংস্কার করা হয়নি। প্রশাসনের এসব দেখার জন্য যেন কেউ নেই।

শরীয়তপুর-চাঁদপুর মহাসড়কের একটি মাত্র রাস্তায় ৩টি উপজেলার ৪৪টি ইউনিয়নের প্রায় ৬ লক্ষ মানুষের বসবাস। তৎকালীন পানি সম্পদমন্ত্রী আব্দুল রাজ্জাকের ১৯৯৬ সালে প্রায় ৪০ কিলোমিটার রাস্তাটি শরীয়তপুর-চাঁদপুর মহাসড়ক নির্মাণ করা হলে, বৃহত্তর ফরিদপুর অঞ্চলের ও বৃহত্তর বরিশাল অঞ্চলের যোগাযোগ ব্যবস্থা শরীয়তপুরের ভেদরগঞ্জ উপজেলার সখিপুর থানার ইব্রাহিমপুর ফেরী ঘাট দিয়ে চাঁদপুর, লক্ষীপুর, রায়পুর, নোয়াখালী, ফেনী, কুমিল্লা ও চট্রগ্রাম জেলা সহ রাজধানী’র সাথে সরাসরী যোগাযোগ ব্যবস্থা স্থাপিত হয়। এছাড়া এই শরীয়তপুর মহাসড়ক গুলো দিয়ে অল্প সময়ের জন্য রাজধানীতে কৃষিপন্য ও ব্যবসা বানিজ্য সহ মানুষের নিত্য দিনের কাজ গুলো দ্রুত করার জন্য এই রাস্তাটি ব্যবহার করা হয়।

উপজেলা গুলোর উপর দিয়ে বয়ে যাওয়া মহা-সড়কটির রাস্তা এতটাই খারপ যে, কেউ রাস্তা দিয়ে একবার গেলে দ্বিতীয় বার আর যেতে চান না। কিন্তু বিভিন্ন জেলা থেকে ছেড়ে আসা পরিবহন ও মালবাহী ট্রাকগুলো বাধ্য হয়ে এই রাস্তা দিয়ে যেতে হয়। এতে করে প্রতিনিয়ত দূর্ঘটনা ঘটছে। তবে নিত্যদিনের যারা চাকুরি জীবী, অফিস গামী ও ছাত্র-ছাত্রীদের বিকল্প কোন রাস্তা না থাকায় এ রাস্তাটিই ব্যবহার করতে হয়, তবে ভুক্তভোগি ছাড়া বোঝার কোর উপায় নাই। তাদের মুখে শুধু হতাশার চিত্র ফুটে উঠে। এমপির এলাকা হলেও ভেঙ্গে পড়া খনা-খন্দে ভরা পাকা রাস্তাটি কবে সংস্কার করা হবে তা কেউ জানে না।

সরোজমিন ঘুরে দেখা যায়, আংগারিয়া বাজার, মনোহর বাজার, রুদ্রকর, বালার বাজার, আমিন বাজার, বুড়িরহাট, পাপরাইল, সাজনপুর, ভেদরগঞ্জ, কাশেমপুর, নারায়ণপুর, মোল্লার হাট, ডি-এম খালী, সখিপুর বালারবাজার সহ বিভিন্ন রাস্তায় দেখা যায় খনা-খন্দে ভরা পাকা রাস্তাটি। স্থানিয়রা অভিযোগ করে, এই একমাত্র চলাচলের রাস্তাটি সংস্কারের অভাবে বোঝার কোন উপায় নাই যে, এখানে কোন পাকা রাস্তা ছিল না কাঁচা রাস্তা ছিল।  
উল্লেখ্য, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাবেক পানি সম্পদমন্ত্রী আব্দুল রাজ্জাক ১৯৯৬ সালে এই রাস্তাটি চলাচলের জন্য উদ্বোধন করেন। পরবর্তীতে বিএনপি’র সময়ে ২০০১-০৬ সাল পর্যন্ত নামে মাত্র কাজ হয়েছিল। এরপর আওয়ামীলীগের ১ মেয়াদে এসে রাস্তাটি সংস্কারের কাজ করা হয়েছিল। কিন্তু বর্তমান আবারও সরকারের সময়ে যে নাম মাত্র সামান্য কাজ হয়েছে তাও ঠিকমত সংস্কার না করে সংশ্লিষ্ট সড়ক ও জনপদ অধিদপ্তরের প্রকোশলী কর্মকর্তা ও ঠিকাদারদের পকেট ভরার উন্নয়ন হয়েছে। ফলে মহাসড়কটির সংস্কার বেশি দিন টিকেনি। কিন্তু অতি দুঃখের বিষয় দীর্ঘ দিনেও ভাল ভাবে এক মাত্র এই মহাসড়কটির কোন সংস্কার কাজ না হওয়ায় আজ বেহাল দশা হয়ে মরণ ফাঁদে পরিনত হয়েছে।

এ ব্যপারে শরীয়তপুর নির্বাহী প্রকৌশলী (স ও জ) সড়ক বিভাগের কর্মকতা মিন্টু রঞ্জন দেবনাথ বলেন, ইতিমধ্যে এ রাস্তার জন্য বরাদ্দ এসেছে সুতরাং অতি দ্রুত মেরামতের কাজ শুরু করা হবে। সাবেক   প্রকৌশলী কর্মকর্তা, অফিসের হিসাব সহকারী ও ঠিকাদারদের পকেট ভারি হওয়ার কারণে রাস্তার কাজ ভাল হয়নি এ বিষয়টি জানতে চাওয়া হলে তিনি উক্ত বিষয়ে কোন মন্তব্য করতে রাজি হননি।

urume





আরও পড়ুন



প্রধান সম্পাদকঃ
ড. মো: ইদ্রিস খান

সম্পাদক ও প্রকাশকঃ
মোঃ খায়রুল আলম রফিক

সিয়াম এন্ড সিফাত লিমিটেড
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয়ঃ ৬৫/১ চরপাড়া মোড়, সদর, ময়মনসিংহ।
ফোন- +৮৮০৯৬৬৬৮৪, +৮৮০১৭৭৯০৯১২৫০, +৮৮০১৯৫৩২৫২০৩৭
ইমেইল- aporadhshongbad@gmail.com
(নিউজ) এডিটর-ইন-চিফ,
ইমেইল- khirulalam250@gmail.com
close