* ঘূর্ণিঝড় ‘দেয়ি’ : ৩ নম্বর সঙ্কেত বহাল            * নূপুর আছে মরিয়ম নেই, রাজহাঁসের বুকের ২ টুকরা মাংস নেই           * বাকৃবিতে কর্মকর্তা কর্মচারীদের বিক্ষোভ           * বিসিএস উত্তীর্ণ মেয়েকে উদ্ধারে থানার সামনে অবস্থান বাবা-মায়ের           * ক্লান্ত মাশরাফিদের সামনে সতেজ ভারত           * নিউইয়র্কের উদ্দেশে সকালে ঢাকা ছাড়ছেন প্রধানমন্ত্রী           *  প্রতারক কামাল-মাসুদ এর বিরুদ্ধে চার মামলা            * হালুয়াঘাটে পুলিশের হাতে ফের আটক-৬           *  ঝিনাইগাতীতে বাবা শ্রেষ্ঠ শিক্ষক মেয়ে সেরা শিক্ষার্থী           * ভারত থেকে প্রশিক্ষন প্রাপ্ত ২০ টি ঘোড়া আমদানী           *  ফুলপুরে ৭৭ জন ভিক্ষুকের মাঝে সেলাই মেশিন বিতরণ            * কেন্দুয়ায় নারী বিসিএস ক্যাডারকে অপহরণের অভিযোগ           * মাদ্রাসায় জোড়া খুন: পরিচালকের বিরুদ্ধে মামলা           * তরুণীরা আবেদনময়ী সেলফি তোলেন কেন?            * মাথাপিছু আয় বেড়েছে ১৬,৩৮৮ টাকা           * সৌন্দর্যের গোপন রহস্য জানালেন শ্রীদেবীর মেয়ে            * নবনিযুক্ত দুই রাষ্ট্রদূতের রাষ্ট্রপতির কাছে পরিচয়পত্র পেশ           * শ্রীলঙ্কার দুর্দিন দেখে অবসর ভেঙে ফেরার ইঙ্গিত দিলশানের            * স্মার্টফোনের আসক্তি কাটানোর নয়া অস্ত্র           * আলোচনায় বসতে মোদিকে ইমরানের চিঠি          
* ঘূর্ণিঝড় ‘দেয়ি’ : ৩ নম্বর সঙ্কেত বহাল            * বাকৃবিতে কর্মকর্তা কর্মচারীদের বিক্ষোভ           * বিসিএস উত্তীর্ণ মেয়েকে উদ্ধারে থানার সামনে অবস্থান বাবা-মায়ের          

গড়াই নদীর ভাঙনে বিপাকে শত শত পরিবার

কুষ্টিয়া প্রতিনিধি, | শনিবার, আগস্ট ৬, ২০১৬
গড়াই নদীর ভাঙনে বিপাকে শত শত পরিবার
গড়াই নদীর অব্যাহত ভাঙনে হুমকির মুখে পড়েছে কুষ্টিয়ার কুমারখালী ও খোকসা উপজেলার নদীকূলবর্তী অসংখ্য মানুষ। চরম হতাশা আর আতঙ্কে দিন পার করছেন এই দুই উপজেলার শত শত পরিবার। এখন পর্যন্ত সরকারি কোন সহযোগিতা পায়নি তারা। দ্রুতই এই ভাঙন প্রতিরোধে স্থায়ী ব্যবস্থা গ্রহণ না করলে আরো ঘর-বাড়ি বিলীন হয়ে যাবে এমন আশঙ্কা এলাকাবাসীর।

সরোজমিনে দেখা গেছে, কুষ্টিয়ার কুমারখালী উপজেলার চাপড়া ইউনিয়নের মাধুলিয়া, বহলা, ভাড়–রা, যদুবয়রা ইউনিয়নের গোবিন্দপুর ও এনায়েতপুর এবং খোকসা উপজেলার ওসমানপুর, বেতবাড়িয়া ও খোকসা পৌরসভা সংলগ্ন কমলাপুর এলাকার মিয়া পাড়া, ঋষিপাড়া, হিজলাবট, খানপুর, চান্দট, জাগলবার এলাকায় গড়াই নদীর ভয়াবহ ভাঙনের মুখে পড়েছে।

ইতোমধ্যে গড়াই নদীর ভাঙনে গত কয়েকদিনে এসব গ্রামের শত শত ঘরবাড়ি, গাছপালা, শিক্ষা ও ধর্মীয়প্রতিষ্ঠান, রাস্তাঘাট এবং ফসলি জমি নদীগর্ভে বিলীন হয়ে গেছে। এই দুই উপজেলার নদীকূলবর্তী মানুষরা সব হারিয়ে মানবেতর দিন কাটাচ্ছেন।

খোকসার কমলাপুর মিয়াপাড়ার বাসিন্দা ফাতেমা বেগম বলেন, গত তিন বছরে তার তিনবার ঘর ভেঙেছে। এবারও ভাঙলো। এখন বৃদ্ধ স্বামী নিয়ে তার মাথা গোঁজার জায়গা নেই।

এ বিষয়ে কুমারখালী উপজেলার চাপড়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মনির হাসান রিন্টু জানান, পানি উন্নয়ন বোর্ডের কর্মকর্তাদের নিয়ে ভাঙন এলাকা পরিদর্শন করেছি। ভাঙন প্রতিরোধে প্রয়োজনীয় সব ধরনের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

খোকসা পৌর মেয়র তারিকুল ইসলাম বলেন, কমলাপুরের নদী ভাঙনরোধে অস্থায়ী ভিত্তিতে ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। এছাড়া ভাঙন রোধে স্থায়ী ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য পানি উন্নয়ন বোর্ডকে জানানো হয়েছে।

খোকসা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রেবেকা খান জানান, সরেজমিন পরিদর্শনে লোকজনের সঙ্গে কথা বলে শতাধিক বাড়ি বিলীন হয়েছে বলে প্রাথমিকভাবে জানা গেছে। কৃষি জমির থেকে মানুষের বসতবাড়ি বেশি বিলীন হচ্ছে। তাদের তালিকা করা হচ্ছে। জরুরিভিত্তিতে তাদের চালসহ অনান্য সহায়তার জন্যে ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। তাছাড়া বেশি ক্ষতিগ্রস্তদের খাস জমি বন্দোবস্ত দিয়ে পুনর্বাসনের আওতায় নেওয়া হবে। এছাড়া নদী ভাঙন প্রতিরোধে ব্যবস্থা নিতে পানি উন্নয়ন বোর্ডকে লিখিতভাবে অবহিত করা হচ্ছে।




আরও পড়ুন



প্রধান সম্পাদকঃ
ড. মো: ইদ্রিস খান

সম্পাদক ও প্রকাশকঃ
মোঃ খায়রুল আলম রফিক

সিয়াম এন্ড সিফাত লিমিটেড
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয়ঃ ৬৫/১ চরপাড়া মোড়, সদর, ময়মনসিংহ।
ফোন- +৮৮০৯৬৬৬৮৪, +৮৮০১৭৭৯০৯১২৫০, +৮৮০১৯৫৩২৫২০৩৭
ইমেইল- aporadhshongbad@gmail.com
(নিউজ) এডিটর-ইন-চিফ,
ইমেইল- khirulalam250@gmail.com
close