* জামাল খাসোগি হত্যা: ১৭ সৌদি নাগরিকের ওপর নিষেধাজ্ঞা যুক্তরাষ্ট্রের           * মানুষের অধিকার প্রতিষ্ঠায় আজীবন কাজ করেছেন মওলানা ভাসানী           * আমার স্ত্রী সত্যিই দারুণ: জাস্টিন বিবার           * চট্টগ্রাম টেস্টে নেই তামিম           * টাঙ্গাইলের দুই আসনে মনোনয়নপত্র কিনলেন কাদের সিদ্দিকী           *  নতুন আইপ্যাড আনল অ্যাপল           *  সুনামগঞ্জ পৌর মেয়রের সঙ্গে ভারতের সহকারী হাইকমিশনারের সাক্ষাৎ           * রাজশাহীতে বাস উল্টে নিহত ১, আহত ১০           * বিশ্ব ইজতেমা স্থগিত           * নবদম্পতির বিয়ের ছবি নিলামে উঠছে           * খাসোগি হত্যা ১৭ সৌদি নাগরিকের বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্রের নিষেধাজ্ঞা           * স্পেনকে হারিয়ে প্রতিশোধ ক্রোয়েশিয়ার           * গণভবনে প্রধানমন্ত্রীর অনুষ্ঠান থেকে এসে মুক্তিযোদ্ধা মানিক শেখ হাসিনার যোগ্য নেতৃত্বেই সারাদেশে হবে নৌকার বিজয়            * নির্বাচন থেকে সরে গেলেন নিজামীপুত্র           *  বাইসাইকেলের ফ্রেমে ফেনসিডিল পাচার           *  কম খরচে সিসিটিভি ক্যামেরা কিনতে চান?           *  স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রে তাহসান-মেহজাবিন           * আইয়ুব বাচ্চু একজনই ছিল, একজনই থাকবে           * নির্বাচন এক ঘণ্টাও পেছাবেন না           * টেলরের ব্যাটে প্রতিরোধ জিম্বাবুয়ের           
* জামাল খাসোগি হত্যা: ১৭ সৌদি নাগরিকের ওপর নিষেধাজ্ঞা যুক্তরাষ্ট্রের           * মানুষের অধিকার প্রতিষ্ঠায় আজীবন কাজ করেছেন মওলানা ভাসানী           * আমার স্ত্রী সত্যিই দারুণ: জাস্টিন বিবার          

গড়াই নদীর ভাঙনে বিপাকে শত শত পরিবার

কুষ্টিয়া প্রতিনিধি, | শনিবার, আগস্ট ৬, ২০১৬
গড়াই নদীর ভাঙনে বিপাকে শত শত পরিবার
গড়াই নদীর অব্যাহত ভাঙনে হুমকির মুখে পড়েছে কুষ্টিয়ার কুমারখালী ও খোকসা উপজেলার নদীকূলবর্তী অসংখ্য মানুষ। চরম হতাশা আর আতঙ্কে দিন পার করছেন এই দুই উপজেলার শত শত পরিবার। এখন পর্যন্ত সরকারি কোন সহযোগিতা পায়নি তারা। দ্রুতই এই ভাঙন প্রতিরোধে স্থায়ী ব্যবস্থা গ্রহণ না করলে আরো ঘর-বাড়ি বিলীন হয়ে যাবে এমন আশঙ্কা এলাকাবাসীর।

সরোজমিনে দেখা গেছে, কুষ্টিয়ার কুমারখালী উপজেলার চাপড়া ইউনিয়নের মাধুলিয়া, বহলা, ভাড়–রা, যদুবয়রা ইউনিয়নের গোবিন্দপুর ও এনায়েতপুর এবং খোকসা উপজেলার ওসমানপুর, বেতবাড়িয়া ও খোকসা পৌরসভা সংলগ্ন কমলাপুর এলাকার মিয়া পাড়া, ঋষিপাড়া, হিজলাবট, খানপুর, চান্দট, জাগলবার এলাকায় গড়াই নদীর ভয়াবহ ভাঙনের মুখে পড়েছে।

ইতোমধ্যে গড়াই নদীর ভাঙনে গত কয়েকদিনে এসব গ্রামের শত শত ঘরবাড়ি, গাছপালা, শিক্ষা ও ধর্মীয়প্রতিষ্ঠান, রাস্তাঘাট এবং ফসলি জমি নদীগর্ভে বিলীন হয়ে গেছে। এই দুই উপজেলার নদীকূলবর্তী মানুষরা সব হারিয়ে মানবেতর দিন কাটাচ্ছেন।

খোকসার কমলাপুর মিয়াপাড়ার বাসিন্দা ফাতেমা বেগম বলেন, গত তিন বছরে তার তিনবার ঘর ভেঙেছে। এবারও ভাঙলো। এখন বৃদ্ধ স্বামী নিয়ে তার মাথা গোঁজার জায়গা নেই।

এ বিষয়ে কুমারখালী উপজেলার চাপড়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মনির হাসান রিন্টু জানান, পানি উন্নয়ন বোর্ডের কর্মকর্তাদের নিয়ে ভাঙন এলাকা পরিদর্শন করেছি। ভাঙন প্রতিরোধে প্রয়োজনীয় সব ধরনের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

খোকসা পৌর মেয়র তারিকুল ইসলাম বলেন, কমলাপুরের নদী ভাঙনরোধে অস্থায়ী ভিত্তিতে ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। এছাড়া ভাঙন রোধে স্থায়ী ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য পানি উন্নয়ন বোর্ডকে জানানো হয়েছে।

খোকসা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রেবেকা খান জানান, সরেজমিন পরিদর্শনে লোকজনের সঙ্গে কথা বলে শতাধিক বাড়ি বিলীন হয়েছে বলে প্রাথমিকভাবে জানা গেছে। কৃষি জমির থেকে মানুষের বসতবাড়ি বেশি বিলীন হচ্ছে। তাদের তালিকা করা হচ্ছে। জরুরিভিত্তিতে তাদের চালসহ অনান্য সহায়তার জন্যে ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। তাছাড়া বেশি ক্ষতিগ্রস্তদের খাস জমি বন্দোবস্ত দিয়ে পুনর্বাসনের আওতায় নেওয়া হবে। এছাড়া নদী ভাঙন প্রতিরোধে ব্যবস্থা নিতে পানি উন্নয়ন বোর্ডকে লিখিতভাবে অবহিত করা হচ্ছে।




আরও পড়ুন



সম্পাদক ও প্রকাশকঃ
মোঃ খায়রুল আলম রফিক

বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয়ঃ ৬৫/১ চরপাড়া মোড়, সদর, ময়মনসিংহ।
ফোন- +৮৮০৯৬৬৬৮৪, +৮৮০১৭৭৯০৯১২৫০, +৮৮০১৯৫৩২৫২০৩৭
ইমেইল- aporadhshongbad@gmail.com
(নিউজ) এডিটর-ইন-চিফ,
ইমেইল- khirulalam250@gmail.com
close