* হালুয়াঘাটে পুলিশের হাতে ফের আটক-৬           *  ঝিনাইগাতীতে বাবা শ্রেষ্ঠ শিক্ষক মেয়ে সেরা শিক্ষার্থী           * ভারত থেকে প্রশিক্ষন প্রাপ্ত ২০ টি ঘোড়া আমদানী           *  ফুলপুরে ৭৭ জন ভিক্ষুকের মাঝে সেলাই মেশিন বিতরণ            * কেন্দুয়ায় নারী বিসিএস ক্যাডারকে অপহরণের অভিযোগ           * মাদ্রাসায় জোড়া খুন: পরিচালকের বিরুদ্ধে মামলা           * তরুণীরা আবেদনময়ী সেলফি তোলেন কেন?            * মাথাপিছু আয় বেড়েছে ১৬,৩৮৮ টাকা           * সৌন্দর্যের গোপন রহস্য জানালেন শ্রীদেবীর মেয়ে            * নবনিযুক্ত দুই রাষ্ট্রদূতের রাষ্ট্রপতির কাছে পরিচয়পত্র পেশ           * শ্রীলঙ্কার দুর্দিন দেখে অবসর ভেঙে ফেরার ইঙ্গিত দিলশানের            * স্মার্টফোনের আসক্তি কাটানোর নয়া অস্ত্র           * আলোচনায় বসতে মোদিকে ইমরানের চিঠি           * খালেদার অনুপস্থিতিতে বিচার প্রশ্নে আদেশ আজ           * ময়মনসিংহে পিবিআই’য়ের প্রতি আস্থা হারাচ্ছে জনগন            * ফরিদপুরে ভাইয়ের হাতে ভাই খুন           * ময়মনসিংহ জেলা আওয়ামী লীগকে শুভেচ্ছা জানালেন ইকবাল হোসেন           * বদলগাছীতে ইউনিয়ন ডিজিটাল সেবা গুলো প্রত্যন্ত গ্রাামের চেহারা বদলে দিয়েছে           * কুড়িগ্রামে যুবক-যুবতির মরদেহ উদ্ধার            * গাজীপুরের পূবাইলে নিজ হাতে থানা বানিয়ে নিজেই হলেন প্রথম বন্দি           
* নবনিযুক্ত দুই রাষ্ট্রদূতের রাষ্ট্রপতির কাছে পরিচয়পত্র পেশ           * শ্রীলঙ্কার দুর্দিন দেখে অবসর ভেঙে ফেরার ইঙ্গিত দিলশানের            * আলোচনায় বসতে মোদিকে ইমরানের চিঠি          

নরসিংদীতে গৃহবধুকে পিটিয়ে হত্যার পর লাশ সিলিং ফ্যানের সাথে ঝুলিয়ে রাখার অভিযোগ

এম লুৎফর রহমান নরসিংদী প্রতিনিধি | মঙ্গলবার, আগস্ট ২৩, ২০১৬
নরসিংদীতে গৃহবধুকে পিটিয়ে হত্যার পর লাশ
সিলিং ফ্যানের সাথে ঝুলিয়ে রাখার অভিযোগ

নরসিংদীতে ফারজানা আক্তার সুইটি (২১) নামে এক গৃহবধুর ঝুলন্ত মৃতদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। গত সোমবার রাতে জেলার শিবপুর উপজেলার, বাঘাব ইউনিয়নের বাহেরদিয়া গ্রাম থেকে নিহতের মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়। নিহতের পরিবারের অভিযোগ, যৌতুকের দাবী মেটাতে না পারায় পরিকল্পিতভাবে তাকে পিটিয়ে হত্যা  করে লাশ সিলিং ফ্যানের সাথে ঝুলিয়ে রাখা হয়।
নিহতের পরিবারের লোকজন জানায়, প্রায় আড়াই বছর পূর্বে শিবপুরের বাহেরদিয়া গ্রামের দেলোয়ার হোসেন পাঠানের ছেলে আলী পাঠানের সঙ্গে ইসলামী শরীয়ত মোতাবেক একই জেলার মনোহরদীর নোয়াদিয়া গ্রামের জাহাঙ্গীর আলমের মেয়ে ফারজানা আক্তার সুইটির বিয়ে হয়। দাম্পত্য জীবনে তাদের ৯ মাসের একটি কন্যা সন্তান রয়েছে। বিয়ের পর থেকে স্বামী ও তার পরিবারের লোকজন ফারজানাকে বাপের বাড়ি থেকে যৌতুকের টাকা আনার জন্য চাপ দিতে থাকে। কিন্তু ফারজানার পরিবার টাকা দিতে না পারায় তার উপর নির্যাতন করা হয়। এরই মধ্যে ফারজানার স্বামী আলী পাঠান অন্যত্র আরেকটি বিয়ে করেছেন বলে অভিযোগ করেন ফারজানার বাবা জাহাঙ্গীর আলম। এরই ধারাবাহিকতা ও যৌতুকের টাকা নিয়ে স্বামী স্ত্রীর মধ্যে দ্বন্ধের সৃষ্টি হয়। মঙ্গলবার রাতে স্বামীর বাড়ি থেকে ফারজানার ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। ঘটনার পর থেকে স্বামী আলী পাঠান পলাতক রয়েছে।
নিহতের পিতা জাহাঙ্গীর আলম বলেন, বিয়ের পর থেকেই যৌতুকের জন্য মেয়ের উপর নির্যাতন চালায় জামাই ও তার পরিবারের লোকজন। সে বার বার কান্নাকাটি করে আমার কাছে টাকা চাইতো। আমি গরিব মানুষ যতটুকু পেরেছি ততটুকু দিয়ে স্বামীর বাড়ির লোকদের খুশি রাখার চেষ্টা করেছি। সর্বশেষ ৪ দিন আগে মেয়ের জামাই আবার পাঁচলক্ষ টাকা আমার নিকট থেকে এনে দিতে আমার মেয়েকে চাপ দেয়। আমার মেয়ে টাকা আনিয়া দিতে অস্বীকার করলে এরই জের হিসেবে সোমবার গভির রাতে তার স্বামী সহ বাড়ির সকলে মিলে একযোগে আমার মেয়েকে হত্যা করেছে। পরে ঘটনা ধামাচাপা দিতে তার লাশ সিলিং ফ্যানে ঝুলিয়ে রাখে।
শিবপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) খন্দকার ইমাম হোসেন বলেন, ফারজানা হত্যাকান্ডের ঘটনায় শিবপুর মডেল থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে। এতে ফারজানার স্বামী আলী পাঠান, স্বামীর ভাই আসাদ পাঠান, বাকির পাঠান, মোস্তফা পাঠান, পিতা দৌলত পাঠান, ফারুক মিয়া পিতা সাইদ মিয় সহ অজ্ঞাত ৭/৮ জনকে আসামী করা হয়েছে। মঙ্গলবার
ফাজানার বাবার বাড়ি নোয়দিয়া গ্রামে লাশ নেয়া হলে সেখানে এসময় হৃদয় বিদারক দৃশ্যের অবতারনা হয়। গ্রামের শত শত নারী, পুরুষ ও শিশু ফারজানার লাশ দেখে কান্নায় ভেঙ্গে পরে। গ্রাম বাসিরা অবিলম্বে হত্যাকারিদের গ্রেফতার ও দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তির দাবি জানায়।





আরও পড়ুন



প্রধান সম্পাদকঃ
ড. মো: ইদ্রিস খান

সম্পাদক ও প্রকাশকঃ
মোঃ খায়রুল আলম রফিক

সিয়াম এন্ড সিফাত লিমিটেড
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয়ঃ ৬৫/১ চরপাড়া মোড়, সদর, ময়মনসিংহ।
ফোন- +৮৮০৯৬৬৬৮৪, +৮৮০১৭৭৯০৯১২৫০, +৮৮০১৯৫৩২৫২০৩৭
ইমেইল- aporadhshongbad@gmail.com
(নিউজ) এডিটর-ইন-চিফ,
ইমেইল- khirulalam250@gmail.com
close