* বঙ্গবন্ধু প্রজন্মলীগ রাবি শাখার আনুষ্ঠানিক যাত্রা শুরু           * গাজীপুর কাপাসিয়া যানজট নিরসনে ট্রাফিক ব্যবস্থা চালু           * গাজীপুরে প্রশাসনের আপত্তিতে জেলা ইজতেমা প্রথম দিনেই সম্পন্ন           * কাঁদতে কাঁদতে পরীক্ষা দিলো তৈশী           * নেত্রকোনা-৩ অবশেষে মানিকের ভাগ্যেই জুটবে নৌকা এ আশাই তৃণমূলের           * সাত বছরের সাজার বিরুদ্ধে খালেদার আপিল           *  খুলনা-২ শেখ জুয়েলের জন্য মাঠ ছাড়লেন এমপি মিজান           *  ইয়াবাসহ বহিষ্কৃত এএসআই গ্রেপ্তার           *  ভোটেও নেই ফালু           *  কুড়িগ্রামে পারিবারিক কলহের জেরে বৃদ্ধের আত্মহত্যা           *  নেত্রকোণায় তরুণীর লাশ উদ্ধার           *  সংসদে আটটি আসন দাবি হিজড়াদের           * প্রাথমিক সমাপনী পরীক্ষা শুরু           *  দীপিকার জন্য সুখবর           *  নিষেধাজ্ঞা মোকাবেলায় বহুমুখী পরিকল্পনা রয়েছে: ইরান           *  সবার আগে সেমিতে পর্তুগাল           * পালিয়ে বিয়ের পর লাশ হলেন মল্লিকা            * ভোট বর্জন ভুল ছিল: ড. কামাল           * বেনাপোল সীমান্ত থেকে বিপুল পরিমান ফেন্সিডিল উদ্ধার           * জামাল খাসোগি হত্যা: ১৭ সৌদি নাগরিকের ওপর নিষেধাজ্ঞা যুক্তরাষ্ট্রের          
*  খুলনা-২ শেখ জুয়েলের জন্য মাঠ ছাড়লেন এমপি মিজান           *  কুড়িগ্রামে পারিবারিক কলহের জেরে বৃদ্ধের আত্মহত্যা           *  নেত্রকোণায় তরুণীর লাশ উদ্ধার          

পাথরঘাটায় পরীক্ষার নির্ধারিত সময়ের পূর্বেই উত্তরপত্র কেড়ে নেন কক্ষ পরিদর্শক দায়িত্ব থেকে অব্যহতি ॥ শাস্তির দাবী অবিভাবকদের

বরগুনা প্রতিনিধি : | শুক্রবার, নভেম্বর ৪, ২০১৬
পাথরঘাটায় পরীক্ষার নির্ধারিত সময়ের পূর্বেই উত্তরপত্র কেড়ে নেন কক্ষ পরিদর্শক
দায়িত্ব থেকে অব্যহতি ॥ শাস্তির দাবী অবিভাবকদের
বরগুনার পাথরঘাটা কে এম  মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের জেএসসি পরিক্ষা কেন্দ্র থেকে নির্ধারিত তিন ঘন্টা সময় পার হওয়ার পূর্বেই উত্তর পত্র কেড়ে নেন কর্তব্যরত শিক্ষক। এতে করে পরিক্ষায় কাংক্ষিত ফলাফল থেকে বঞ্চিত হওয়ার আশংকা করছেন পরীক্ষার্থীরা।কেন্দ্র পরিদর্শকের দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তির দাবী করছে শিক্ষার্থী ও অবিভাবকরা। এ ঘটনায় অভিযুক্ত দু’শিক্ষককে সাময়ীক দায়িত্ব্য থেকে অব্যহতি দিয়েছে কতৃপক্ষ।
জানা গেছে, পহেলা নভেম্বর থেকে শুরু হয়েছে জেএসসি ও জেডিসি পরীক্ষা। মোট ২৮টি কক্ষে ৮৯২জন জন শিক্ষার্থী অংশ নেয় পাথরঘাটা কে এম মাধ্যমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে। পরীক্ষার প্রথমদিন বাংলা ১ম পত্র পরীক্ষা চলাকালিন নির্ধারিত সময় পার হওয়ার পূর্বেই কালমেঘা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ২৪জন শিক্ষার্থীর উত্তর পত্র কেড়ে নেন কক্ষ পরিদর্শক মির্জা মাহাতাফ ও সুবাস চন্দ্র ভট্টাচার্জ । কালমেঘা মাধ্যমিক বিদ্যালয় ও পাথরঘাটা আদর্শ বালিকা বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা ৩নং কক্ষে পরিক্ষায় অংশ গ্রহন করেন। এই কক্ষে ৪৮জন শিক্ষার্থী থাকলেও কালমেঘা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ২৪জনার উত্তর পত্র নির্ধারিত সময়ের পূর্বে টেনে নেয়া হয়। ৩নং কক্ষ পরিদর্শকের দায়িত্য¡ পালন করেন, তাসলিমা মেমোরিয়াল মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক মির্জা মাহাতাফ ও হাতিমপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক সুবাস চন্দ্র ভট্টাচার্জ। নির্ধারিত সময় পর্যন্ত পরীক্ষা না দিতে পারার কারনে অনেকে ফেল করারও আশংকা করছেন। তাছাড়া উত্তরপত্র চেক করার সুযোগও দেয়া হয়নি বলে জানান পরীক্ষার্থীরা। কালমেঘা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের জেএসসি পরীক্ষার্থী, সুমাইয়া, সোনিয়া, লিমা, তানজিলাসহ ২৪জন পরীক্ষার্থী বলেন, নির্ধারীত সময়ের ৫মিনিট পূর্বে তাদের উত্তর পত্র জোড় করে টেনে নেয়া হয়। এতে তারা অনেক প্রশ্নের উত্তর লিখতে পারেনি। এমনকি বিগত সময় কি লিখেছে তাও চেক করতে পারেনি।এর ফলে রেজাল্টে বড় ধরনের প্রভাব পরলে দায় কে নিবে বলেও অভিযোগ করেন পরীক্ষার্থীরা। কালমেঘা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. শহিদুর রহমান বলেন, কালমেঘা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের রেজাল্ট খারাপ করার জন্য একটি মহল পরিকল্পিত ভাবে এ ঘটনা সৃস্টি করেছেন। শুধু দায়িত্ব থেকে তাদের অব্যাহতি দেয়া হলো এতে আমার যে সকল ছাত্রছাত্রী যা লিখতে পারেনি তা কি আর ফিরে পাবে? প্রশ্ন প্রধান শিক্ষকের।প্রতি বছর এমন ঘটনাই ঘটানো হয় এই কেন্দ্রে।অভিযুক্ত শিক্ষকদের দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তির দাবী করেন প্রধান শিক্ষক। জানতে চাইলে তাসলিমা মেমোরিয়াল মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক মির্জা মাহাতাফ বলেন, ঘটনা এ পর্যন্ত গড়াবে তা জানলে উত্তরপত্র আগে নেয়া হতোনা। হাতিমপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক সুবাস চন্দ্র ভট্টাচার্জ বলেন, ঘন্টা পড়ার পরেই আমি উত্তরপত্র নিয়েছি।
পাথরঘাটা একে মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের কেন্দ্র সচীব বীরেন্দ্র নাথ বেপারি বলেন, তাৎক্ষনিক উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে ঘটনাটি জানালে তিনি ঐ শিক্ষকদের পরবর্তী পরীক্ষাগুলোতে দায়িত্ব্য পালন থেকে অব্যাহতি দেয়ার নির্দেশ দেন। পাথরঘাটা উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. রবিউল ইসলাম বলেন, ঘটনা তদন্তে উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসারকে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে । তদন্তে দোশী প্রমানিত হলে তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।




আরও পড়ুন



সম্পাদক ও প্রকাশকঃ
মোঃ খায়রুল আলম রফিক

বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয়ঃ ৬৫/১ চরপাড়া মোড়, সদর, ময়মনসিংহ।
ফোন- +৮৮০৯৬৬৬৮৪, +৮৮০১৭৭৯০৯১২৫০, +৮৮০১৯৫৩২৫২০৩৭
ইমেইল- aporadhshongbad@gmail.com
(নিউজ) এডিটর-ইন-চিফ,
ইমেইল- khirulalam250@gmail.com
close