* ত্রিশালে যুবলীগ নেতাকে কুপানোর দায়ে মামলায় আসামী ৩০, গ্রেফতার ৯           *  ময়মনসিংহে দুই সাংবাদিকের নামে তথ্যপ্রযুক্তি আইনে মামলা           * ‘পাকিস্তানের বিশ্বাস নেই, যেদিন খেলে কাউকে পাত্তা দেয় না           * কেউ খোঁজ রাখেনি মুক্তিযোদ্ধাদের ‘মা’ ইছিমন বেওয়া'র           * এক মাছের পেটে মিলল ৬১৪ পিস ইয়াবা            * মোদির জন্য নোবেল!            * ৫ লাখ রোহিঙ্গা বাংলাদেশে ঢোকার অপেক্ষায় রয়েছে           * শিক্ষায় বিনিয়োগের আহ্বান শেখ হাসিনার            * ডাক্তারদের সেবার মনোভাব কম: স্বাস্থ্যমন্ত্রী           * ফুলপুরে জঙ্গীবাদ বিরোধী মা সমাবেশ অনুষ্টিত           * দুই মণ গাঁজাসহ ৩ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার            * নামাযে অজু নিয়ে সন্দেহ হলে কি করবেন?           * ৭-২৮ অক্টোবর ইলিশ ধরা নিষিদ্ধ           * মদ না খেয়েও মাতাল যারা!           * মোদির দলের হয়ে লড়বেন অক্ষয়-কঙ্গনা-সুনিল           * পাকিস্তানকে সবক শেখাতে চান ভারতের সেনাপ্রধান           * পৃথিবীকে বাংলাদেশ থেকে শিখতে বলল বিশ্বব্যাংক           * নগ্ন হয়ে ঘর পরিষ্কার করে তার মাসিক আয় ৪ লাখ টাকা            * প্রতিপক্ষকে ফাঁসাতে সন্তানকে হত্যা করলো মা            * মোস্তাফিজ একজন ম্যাজিসিয়ান : মাশরাফি           
* ‘পাকিস্তানের বিশ্বাস নেই, যেদিন খেলে কাউকে পাত্তা দেয় না           * মোদির জন্য নোবেল!            * ৫ লাখ রোহিঙ্গা বাংলাদেশে ঢোকার অপেক্ষায় রয়েছে          

প্রতিকার চেয়ে স্বরাষ্ট্র সচিবের কাছে লিখিত অভিযোগ উত্তরাঞ্চলের বিভিন্ন রুট থেকে আসা পরিবহণে বরিশালে চাঁদাবাজির মহোৎসব

আবু বকর | শনিবার, ডিসেম্বর ৩১, ২০১৬
প্রতিকার চেয়ে স্বরাষ্ট্র সচিবের কাছে লিখিত অভিযোগ

উত্তরাঞ্চলের বিভিন্ন রুট থেকে আসা পরিবহণে বরিশালে চাঁদাবাজির মহোৎসব

পরিবহন সেক্টরে চাঁদাবাজী-অরাজকতা নতুন কোন অধ্যায় নয়। নানা কৌশলে প্রকাশ্যে-গোপনে চলে আসছে এই চাঁদাবাজী। সর্ব মহল এ বিষয়ে জ্ঞাত থাকলেও একটি সংঘ বদ্ধ চক্র অনেকটা ঐতিহ্যের মতই লালন করছে এই প্রথা। তারই ধারাবাহিকতায় বরিশালে নব্য প্রক্রিয়ায় শুরু হয়েছে চাঁদাবাজী।

তবে শুধু চাঁদাবাজী শব্দটির মধ্যেই সীমাবদ্ধ নেই চক্রটির কার্যক্রম। বাস স্টাফদের মারধর লাঞ্চিত করা এবং জোড়পূর্বক এক ধরনের অঙ্গীকারনামায়ও স্বাক্ষর রাখছে তারা। ঢাকাসহ উত্তরাঞ্চল থেকে বরিশাল তথা বৃহত্তর দক্ষিন অঞ্চলের বিভিন্ন রুটে প্রবেশ করা পরিবহন চলাচলে বাঁধা এবং কোন কোন ক্ষেত্রে চাঁদা দাবী এমনকি অর্থ চুক্তির প্রেক্ষিতে সমঝোতা এই চক্রটির নতুন ফায়দা।  বরিশাল ও পটুয়াখালী মিনি বাস মালিক সমিতির সাধারন সম্পাদক শিপন ও তার কয়েকজন সহযোগীর বিরুদ্ধে পাওয়া গেছে এই চাঞ্চল্যকর অভিযোগ।

মিলেছে প্রমানও। এ বিষয়ে ভুক্তভোগী বাস-ট্রাক ওনার্স এসোসিয়েশনের পক্ষ থেকে সিনিয়র স্বরাষ্ট্র সচিবের কাছে লিখিত অভিযোগ করা হয়েছে। এছাড়া সংশ্লিষ্ট সকল দপ্তরে দেয়া হয়েছে অনুলিপি। জানা গেছে, বিগত এক যুগেরও বেশী সময় ধরে দক্ষিণাঞ্চলের বিভিন্ন রুটে চলাচল করে আসছে মেঘনা, সুগন্ধা, সোনার তরী, গোল্ডেন লাইন সহ বেশ কিছু পরিবহন। কিন্তু গত কয়েক মাস ধরে এই চলাচলে বাধ সেজেছেন বরিশাল ও পটুয়াখালী মিনি বাস মালিক সমিতির সাধারন সম্পাদক শিপন। তিনি সঙ্গীয়দের নিয়ে বাকেরগঞ্জের মূল সড়কে স্ব-ঘোষিত চেক পোষ্ট বসিয়ে উল্লেখিত বাসগুলো থামিয়ে বর্নিত কর্মগুলো করে থাকেন।

এছাড়া রূপাতলী-ঝালকাঠি রুটে একটি স্থানে বসে চেকপোষ্ট বসিয়ে একই ধরনের কার্যকলাপ চালিয়ে যাচ্ছে শিপন। অনেকটা প্রশাসন ও ট্রাফিক পুলিশের মত তার এই চেক পোষ্টের ধরন। প্রশাসন তথা বাস মালিক সমিতির নেতৃবৃন্দ বিষয়টি জানলেও সবাই যার যার অবস্থান থেকে রয়েছে নিশ্চুপ। এই ঘটনা নিয়ে সমিতির নেতৃবৃন্দের মধ্যে চরম ক্ষোপ থাকলেও কেউ এর প্রতিবাদ করতে পারছে না। কারন সদ্য ঘোষিত বরিশাল মহানগর আওয়ামী লীগের কমিটিতে সদস্য পদে স্থান রয়েছে তার। যে কারনে এই একচেটিয়া ও খামখেয়ালীর রাজত্ব চালিয়ে যাচ্ছে সিপন। সরেজমিন বাস মালিক সমিতি ও ভুক্তভোগী সূত্রে জানা গেছে।

উল্লেখিত ঐ দুই স্থানে সপ্তাহের মধ্যে ২/১ দিন নিজে উপস্থিত হয়ে সড়কের পাশে টেবিল চেয়ার বসিয়ে চেকপোষ্ট বসায় সিপন বাহিনী। ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা পরিবহন গুলো দেখলেই সিপনের নির্দেশে তার বাহিনীর সদস্যরা থামিয়ে ফেলে বাসগুলো এরপর ঘন্টা পর ঘন্টা দার করিয়ে রেখে নানাভাবে হয়রানির পর্ব শুরু করে। একপর্যায়ে এই হয়রানীর অর্থ লেনদের দিকে টান করে। যারা এই প্রস্তাবে রাজি হয়। তাদেরকে ছেড়ে দেওয়া হয়। আর যারা প্রস্তাবে রাজি না হয় তাদেরকে রাখা হয় আটকিয়ে এমনকি মারধর করা হয় বাস ষ্টাফদের একাধিক বাস মালিক ও ষ্টাফরা এই অভিযোগ করেছেন। তারা জানান, সিপনের বক্তব্য অবৈধ ভাবে নাকি দক্ষিনের বিভিন্ন রুটে চালানো হচ্ছে এই পরিবহনগুলো। অথচ বাস মালিকরা জানিয়েছেন দীর্ঘ এক যুগেরও বেশি সময় ধরে সংশ্লিষ্ট সমিতি ও প্রশাসনের অনুমোদনক্রমে বৈধভাবেই বাস চলাচ্ছেন তারা। এদিকে এই ঘটনায় গত কয়েকমাস পূর্বে সিনিয়র সরাষ্ট্র সচিব বরাবরে লিখিত অভিযোগ করে এই হয়রানির প্রতিকার চেয়েছেন বাস মালিকরা। কিন্তু অদ্যাবধি এর কোন সমাধান পায়নি তারা। যে কারনে হয়রানির স্বীকার হচ্ছেন প্রতিনিয়ত। জানতে চাইলে রূপাতলী পটুয়াখালী মিনিবাস মালিক সমিতির সভাপতি আজিজুল হক শাহীন বলেন, অভিযোগের সত্যতা রয়েছে।

আমি ভূক্তভোগীদের কাছ থেকে মৌখিকভাবে এই অভিযোগ শুনেছি। বিষয়টির সম্পর্কে প্রশাসন সহ বাস মালিক সমিতির নেতৃবৃন্দ অবগত আছেন। আশা করছি তারাই এর সমাধান করবেন। মেঘনা পরিবহনের মালিক জানান, অনেক মাস ধরে চলছে এই অবস্থা দক্ষিনের রুটে বাস চালাতে এখন আমাদের হিমশিম খেতে হচ্ছে। বলতে গেলে জিম্মি হয়ে পড়ছি আমরা। এমন অবস্থা চলতে থাকলে বাধ্য হয়ে দক্ষিনের রুটে বাস চলাচল বন্ধ করে দিতে হবে আমাদের।





আরও পড়ুন



প্রধান সম্পাদকঃ
ড. মো: ইদ্রিস খান

সম্পাদক ও প্রকাশকঃ
মোঃ খায়রুল আলম রফিক

সিয়াম এন্ড সিফাত লিমিটেড
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয়ঃ ৬৫/১ চরপাড়া মোড়, সদর, ময়মনসিংহ।
ফোন- +৮৮০৯৬৬৬৮৪, +৮৮০১৭৭৯০৯১২৫০, +৮৮০১৯৫৩২৫২০৩৭
ইমেইল- aporadhshongbad@gmail.com
(নিউজ) এডিটর-ইন-চিফ,
ইমেইল- khirulalam250@gmail.com
close