*  ময়মনসিংহে বিএনপির স্বারকলিপি প্রদান           * গৌরীপুরে গৃহবধুকে মধ্যযুগী কায়দায় নির্যাতন, ৩ নারী আটক            * প্রেমের পর বিয়ে, সন্তান অস্বীকার করছেন বাবা           * ত্রিশালে বই মেলার শুভ উদ্বোধন           * দুই উপজেলার ১০ গ্রামের মানুষের ভরসা বাঁশের সাঁকো            * গলাচিপায় ককটেল ও পিস্তল সহ ২ ডাকাত আটক, আহত ৮           * রাবিতে ড. শামসুজ্জোহা দিবস পালন           * গাছে গাছে মুকুলের মৌ মৌ গন্ধে জানান দিচ্ছে বসন্তের আগমনী বার্তা           * গৌরীপুরে গৃহবধুকে মধ্যযুগী কায়দায় নির্যাতন হাসপাতালে ভর্তি !           * চট্টগ্রামের সেই ইউসুফ মারা গেছেন           * নড়াইলের মানচিত্র থেকে হারিয়ে যেতে বসেছে জমিদার বাবুদের চিত্রার নাম!           * চুয়াডাঙ্গায় তিন পুলিশ সদস্যকে কুপিয়ে জখম           *  দেশে ফিরেছেন প্রধানমন্ত্রী           *  জেলা প্রশাসকদের আজ স্মারকলিপি দেবে বিএনপি           *  মেক্সিকোতে হেলিকপ্টার বিধ্বস্ত হয়ে নিহত ১৩           * মিতুর ‘স্বপ্ন ভেঙে চুরমার’           * সিলেটে শেষ সম্মান রক্ষার লড়াই           * হালুয়াঘাটে চেয়ারম্যান কামরুলের ১৫৩ টি উন্নয়ন প্রকল্প            * রাজশাহীর বাজারে আগাম তরমুজ           * সাফারি পার্কে ব্ল্যাক সোয়ানের ৬ ছানা          
* গৌরীপুরে গৃহবধুকে মধ্যযুগী কায়দায় নির্যাতন, ৩ নারী আটক            * ঝিনাইগাতীতে কমিউনিটি ক্লিনিক বন্ধ : সেবা ব্যাহত           * ময়মনসিংহে ১১শ পিচ ইয়াবাসহ মাদক ব্যবসায়ী রনি ডিবি কর্তৃক আটক           

গোয়ালঘরে ফেলে রাখা মায়ের পাশে-- ডিসি

নিজস্ব প্রতিবেদক | শনিবার, জুন ৩, ২০১৭
গোয়ালঘরে ফেলে রাখা মায়ের পাশে-- ডিসি
বৃদ্ধা মাকে গোয়াল ঘরে রেখে এসেছিলেন সন্তানেরা। তার এই দুর্ভোগের খবর গণমাধ্যমে প্রকাশ হলে ঘটে তোলপাড়। পরে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয় । শনিবার ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি ময়মনসিংহের ফুলবাড়িয়া উপজেলার তেজপাটুলি গ্রামের বৃদ্ধা মরিয়ম নেছার খোঁজ খবর নেন, ময়মনসিংহ জেলা প্রশাসক (ডিসি) মো:খলিলুর রহমান । এসময় তিনি বলেন, তিনি আগের চেয়ে ভালো আছেন। হাসপাতালে তার চিকিৎসায় প্রয়োজনীয় সকল ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে।
এর আগে এ মায়ের জন্য দুঃখ পান সংসদের বিরোধীদলীয় নেতা রওশন এরশাদ। মুক্তাগাছায় দলীয় সংসদ সদস্যকে তিনি সেই মায়ের খোঁজ নিতে পাঠান।একই জেলার ফুলবাড়ীয়ায় আওয়ামী লীগের সংসদ সদস্য মোছলেম উদ্দিনও পাশে দাঁড়িয়েছেন সেই মায়ের। অ্যাম্বুলেন্স পাঠিয়ে তিনি তাকে এনে ভর্তি করেছেন হাসপাতালে। জানিয়েছে, এই মায়ের চিকিৎসার দায়িত্ব তিনি নিয়েছেন।এর আগে সংবাদ মাধ্যমে বৃদ্ধা মরিয়ন নেছার দুর্ভোগের খবর ছাপা হয়। মরিয়ন নেছার তিনজন সস্তান মুখলেছুর রহমান, মোবারক হোসেন এবং মারফত মিয়া। বড় ও মেঝো ছেলে বিয়ে করে স্ত্রী-সন্তান নিয়ে অন্যত্র চলে গেছে। আর ছোট ছেলেন গোয়ালঘরেই একটু গোঁজার ঠাঁই হয় তার। ভিক্ষাবৃত্তি করে অর্ধাহারে-অনাহারে কোন মতে দিন পার করছিলেন তিনি। অরক্ষিত গোয়াল ঘরে শেয়ালের কামড়ে এই মায়ের চিকিৎসার উদ্যোগও নেননি তার সন্তানেরা।‘হতভাগা সেই মায়ের আশ্রয় গোয়ালঘর’ এই শিরোনামে  ময়মনসিংহ প্রতিদিনে সংবাদটি প্রকাশের পরই তার বিষয়ে জানতে পারেন স্থানীয় সংসদ সদস্যরা।সংসদে বিরোধীদলীয় নেতা রওশন এরশাদের দৃষ্টি আকর্ষণ হলে তিনি ওই বৃদ্ধার ভরণ- পোষণসহ যাবতীয় ব্যয়ভার বহনের সিদ্ধান্ত নেন। তিনি তার প্রতিনিধি হিসাবে ফুলবাড়িয়ায় পাঠান জাতীয় পার্টি যুগ্ম মহাসচিব মুক্তাগাছার সংসদ সদস্য সালাহউদ্দিন আহমেদ মুক্তিকে।সোমবার মুক্তি বিষয়টি ময়মনসিংহের জেলা প্রশাসক, পুলিশ সুপারসহ ফুলবাড়ীয়ায় উপজেলা প্রশাসনকে জানান। উপজেলা পরিষদে সংসদ সদস্য মুক্তি উপস্থিত হলে, সেখানকার সংসদ সদস্য মোছলেম উদ্দিন তাকে জানান, সেই বৃদ্ধার দায়িত্ব গ্রহণ করেছেন তিনি। পরে মুক্তি বিষয়টি রওশন এরশাদকে জানালে তিনি মুক্তিকে নির্দেশ দেন ওই বৃদ্ধার খোঁজ খবর রাখার।সংসদ সদস্য মুক্তি বলেন, ‘এই মায়ের দুর্দশার সংবাদটি পড়ে আমাদের নেত্রী আমাকে নির্দেশ দিয়েছিলেন তার পাশে থাকতে। যদিও এলাকার সংসদ সদস্য তাকে হাসপাতালে ভর্তি করে তার দায়-দায়িত্ব নিয়েছেন, তারপরও আমাদের নেত্রী বলেছেন তার বিষয়ে খোঁজ খবর রাখতে।’ ভবিষ্যতে তার যে কোনো সমস্যায় বিরোধীদলীয় নেতা রওশন ও আমি এগিয়ে আসব।  

বৃদ্ধা মায়ের দায়িত্ব নিতে যখন সংসদ সদস্যদের মধ্যে ‘প্রতিযোগিতা’ তখন এই নারীর তিন সন্তান পালিয়ে বেড়াচ্ছেন। মাকে অবহেলায় ফেলে রাখার ঘটনায় এলাকায় সমালোনা হলেও তারা গায়ে মাখেননি। কিন্তু সংবাদ প্রকাশ আর সংসদ সদস্যদের তৎপরতা শুরু হলে তারা এলাকা ছেড়ে আত্মগোপনে যান।পরে পুলিশ তার বড় পুত্রকে গ্রেফতার করে ।
স্থানীয়রা এই মায়ের পাশে দাঁড়ানোয় সংসদ সদস্যদেরকে ধন্যবাদ জানানোর পাশাপাশি বৃদ্ধার তিন সন্তানের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার দাবিও জানিয়েছেন।এক সময় যে মায়ের কাছে পুত্ররা অবলম্বন থাকে, সময়ের পরিবর্তনে পুত্রদেরকে ভূমিকা বদল করতে হয়। মায়ের সাহচর্য যে কতটা মূল্যবান, এটা যে পুত্র অনুভব করতে পারেনি সে অতি হতভাগ্য। পুত্রদের ভবিষ্যৎ-চিন্তায় মা প্রাণপাত করেন নিজেদের শখ-শৌখিনতা বিসর্জন দেন। পুত্র-কন্যাকে তার ভবিষ্যতের ‘বিনিয়োগ’ না ভেবেই।পরিবার বলতে কি শুধুই নিজের স্ত্রী আর সন্তান? মা অপাংক্তেয় সেখানে? মায়ের প্রতি দায়িত্ব পালন যদি বোঝা হয়, তবে স্ত্রীর প্রতি, নিজ ছেলে-মেয়ের প্রতি ন্যূনতম দায়িত্ব পালন করতে হয় সামাজিক জীব হিসেবে, তা-ও তো বোঝাসদৃশ!নিঃসঙ্গ বা শারীরিক ও মানসিক যন্ত্রণাময় জীবনের সমাধান হয়েছে এক মায়ের গোয়ালঘরে। সেই মা একবেলা খাদ্য সংস্থান প্রয়োজনীয় চিকিৎসার ব্যবস্থা পাচ্ছেন না পুত্রদের অবজ্ঞা-অবহেলায়।গোয়ালঘরে শেয়ালের কামড়ে আহত, জরাগ্রস্থ  কঠিন ব্যধিতে আক্রান্ত হয়ে নেতিয়ে পড়েন সেই মা।পৃথিবীর সব নিষ্ঠুরতাকে হার মানানো এ ঘটনাটি ঘটে ।রাতে ওই গোয়ালঘরে হানা দেয় বেশকিছু শেয়াল। শেয়ালের পাল মরিয়ম নেছাকে কামড়ে দেয়, খেয়ে ফেলে পায়ের অনেক মাংস। সন্তানদের অবহেলায় ওই গোয়ালঘরেই এখন বিনা চিকিৎসায় কাতড়ান বৃদ্ধা মরিয়ম।





আরও পড়ুন



প্রধান সম্পাদকঃ
ড. মো: ইদ্রিস খান

সম্পাদক ও প্রকাশকঃ
মোঃ খায়রুল আলম রফিক

সিয়াম এন্ড সিফাত লিমিটেড
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয়ঃ ৬৫/১ চরপাড়া মোড়, সদর, ময়মনসিংহ।
ফোন- +৮৮০৯৬৬৬৮৪, +৮৮০১৭৭৯০৯১২৫০, +৮৮০১৯৫৩২৫২০৩৭
ইমেইল- aporadhshongbad@gmail.com
(নিউজ) এডিটর-ইন-চিফ,
ইমেইল- khirulalam250@gmail.com
close