* আনন্দ উল্লাসের ফাঁকে ফ্রান্সে লুটপাট দাঙ্গা           *  সালিসের পর ধর্ষিতাকেই মারধর           * প্রেম বা ব্যবসায় ব্যর্থ হয়ে কেউ কেউ গুম হয়ে যান            * উন্নত রাষ্ট্রের পথে আরেক ধাপঃ রুপপুর পারমানবিক বিদ্যু কেন্দ্র           * টাকার বিনিময়ে সে আমাকে পতিতাপল্লীতে বিক্রি করে দিয়েছে’           * মেয়র খোকন বিদেশে, ঢাকা দক্ষিণের ‘দায়িত্বে’ বাবুল           * যৌন সম্পর্ক বন্ধ করে দিলে যেসব ‘ক্ষতি’ হয়           * বিয়ের আগে ভেবে দেখুন আরেকবার!           * ভারতে নিষিদ্ধ, অন্য দেশে পুরস্কৃত যেসব ছবি            * টাঙ্গাইলে মাইক্রোবাসে বিস্ফোরণ, নিহত ৩           * বাসায় ঢুকে কলেজছাত্রীকে ধর্ষণ, ৫ আসামির রিমান্ড           * ঘোষণা দিয়ে নববধূকে তুলে নিয়ে গণধর্ষণ           * ৬ মাসে গর্ভবতী ৮৫ বার!           *  আয়ের পুরোটাই দান করছেন এমবাপ্পে           * ‘ইজ্জতের মূল্য’ ৪৫ আর মাতব্বরদের ৫৫ হাজার!           * সংকটে চীনা মুসলিমরা!           *  চলন্ত ট্রেনে পাথর নিক্ষেপ প্রতিরোধে ইসলামপুরে জনসচেতনামূলক প্রচার           * ঢাবিতে হামলার প্রতিবাদে রাবিতে মানববন্ধন            *  হালুয়াঘাট পৌরসভার বাজেট ঘোষনা           * বলিউডে নিরাপদ বোধ করছেন না ক্যাটরিনা কাইফ          
* মেয়র খোকন বিদেশে, ঢাকা দক্ষিণের ‘দায়িত্বে’ বাবুল           *  আয়ের পুরোটাই দান করছেন এমবাপ্পে           * সংকটে চীনা মুসলিমরা!          

২০ বছরে ১৮ বার গর্ভপাতের পর ছেলে সন্তানের জন্ম

রিপোর্ট : | শনিবার, জুন ৩, ২০১৭

২০ বছরে ১৮ বার গর্ভপাতের পর ছেলে সন্তানের জন্ম
 ২০ বছরে ১৮ বার গর্ভপাত বা মিসক্যারেজের পরও সুস্থ ছেলে সন্তানের জন্ম দিলেন ভারতের  এক নারী।

বারবার গর্ভপাত হলেও কিছুতেই হাল ছাড়েননি আগ্রার বারহান গ্রামের রজনী। আর তার এ শিশুর জন্ম দিতেই , গিনেস বুক অব ওয়ার্ল্ড রেকর্ডসে নাম দেয়ার পরিকল্পনা রয়েছে।

৩৮ বছর বয়সী রজনী আগ্রার এক বেসররকারি হাসপাতালে ল্যাপ্রোস্কপি অপরেশনের মাধ্যমে জন্ম দেন সন্তানের।

তার স্বামী প্রেম কুমার বলেন, কোন উপায় না পেয়ে চিকিৎসক ড. অমিত ট্যান্ডন ও আইভিএফ বিশেষজ্ঞ ডাক্তার বৈশালী দম্পতির কাছে শরণাপন্ন হই।

বহু নারী বার বার গর্ভপাতের ঘটনায় মানসিকভাবে বিপর্যস্ত হয়ে পড়েন। তাদের কাছে এ ঘটনা হয়তো আশার নতুন দিক উন্মোচন করতে পারে।

ডা. ট্যান্ডন জানিয়েছেন, প্রতি বারই গর্ভধারণের ৫-৬ মাসের মাথায় সন্তান হারাচ্ছিলেন রজনী। তার ইনকম্পিটেন্ট সার্ভিক্সেরের সমস্যা ছিলো। এর মানে হচ্ছে ইউটেরাসের মুখ অত্যন্ত দুর্বল হওয়ায় তা ভ্রুণ ধরে রাখতে পারছিল না।

তারপর তার গর্ভবতী হওয়ার ৩ মাস অবস্থায়, স্টিচ করা হয় সার্ভিক্সে। এরপরই আসে সাফল্য।

তিনি জানান, মা ও শিশু দু’জনেই সুস্থ। এমন ঘটনা কার্যত ‘মির‌্যাকল’।

সূত্র : আরটিভি

 




আরও পড়ুন



প্রধান সম্পাদকঃ
ড. মো: ইদ্রিস খান

সম্পাদক ও প্রকাশকঃ
মোঃ খায়রুল আলম রফিক

সিয়াম এন্ড সিফাত লিমিটেড
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয়ঃ ৬৫/১ চরপাড়া মোড়, সদর, ময়মনসিংহ।
ফোন- +৮৮০৯৬৬৬৮৪, +৮৮০১৭৭৯০৯১২৫০, +৮৮০১৯৫৩২৫২০৩৭
ইমেইল- aporadhshongbad@gmail.com
(নিউজ) এডিটর-ইন-চিফ,
ইমেইল- khirulalam250@gmail.com
close