* বদলে যাচ্ছে রাজশাহীর পদ্মাপাড়ের চিত্র           * বাসের চাপায় পা হারানো রোজিনার অবস্থা সঙ্কটাপন্ন           * আগুন নেভাতে দারুণ কার্যকর বলটি           * একটি স্বভাব আপনাকে সকলের থেকে দুরে ঢেলে দেবে!           * রাঙ্গাবালীতে কমিউনিটি পুলিশিং সভা           * রাঙামাটিতে পাহাড় ধসের ক্ষয়ক্ষতি ঠেকাতে আগাম উদ্যোগ নিলেন জেলা প্রশাসক           * ভুলবশত প্রশ্ন প্রকাশ: এইচএসসির এক বিষয়ের পরীক্ষা স্থগিত           * পনের বছর পর জুটি বাঁধলেন আলেকজান্ডার-মুনমুন            * দৃষ্টিভঙ্গি বদলালেই কেবল মার্কিন বন্দিদের মুক্তি : ইরান            * কাবুলে আত্মঘাতী বিস্ফোরণে নিহত ৩১           * ফ্রান্সে চামড়াজাত পণ্যের প্রদর্শনীতে যাচ্ছে বাংলাদেশ           * নতুন চুক্তিভুক্ত তিন ক্রিকেটারের একজন লিটন দাস!            * শাকিবকে নিয়ে ‘ভিলেন’ মানসীর আফসোস           * খালেদার পুরো দায়িত্ব সরকারকে নিতে হবে : নজরুল            * ১৭ পদাতিক ডিভিশনের পাঁচ নতুন ইউনিটের পতাকা উত্তোলন           * ফুলবাড়ীতে ঐতিহ্যবাহী চরক মেলা অনুষ্ঠিত            * ঝিনাইগাতীতে সড়ক পাকাকরণের অভাবে ৩০ হাজার মানুষের দুর্ভোগ চরমে           * নড়াইলে ভিক্ষে করে নয়,বাদাম বিক্রির টাকায় পড়াশুনা করে সপ্তম শ্রেণির এই অদম্য শিক্ষার্থী সাকিবের!           * প্রেস বিজ্ঞপ্তি আজ ২২ এপ্রিল ২০১৮ মানববন্ধন ও জেলা প্রশাসক এর মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি           *  প্রাইভেটকার-কাভার্ডভ্যানের মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহত -৩           
*  প্রাইভেটকার-কাভার্ডভ্যানের মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহত -৩            * বাস-ট্রাক সংঘর্ষে নিহত ৪           *  বাসদ নেতাসহ ৬৬ জনের বিরুদ্ধে মামলা          

হেসে-খেলে টিউলিপদের বিলেত জয়

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, | শুক্রবার, জুন ৯, ২০১৭

হেসে-খেলে টিউলিপদের বিলেত জয়
যুক্তরাজ্যের ক্ষমতায় কনজারভেটিভ, নাকি লেবার পার্টি সেই সিদ্ধান্ত ঝুলন্ত পার্লামেন্টের হাতে ছেড়ে দিয়ে তার চেয়েও গুরুত্বপূর্ণ দেশটির পার্লামেন্টে প্রতিনিধিত্ব করবেন বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত তিন নারী। লেবার পার্টির টিকিটে নির্বাচনে জিতে জয়ী হয়েছেন বাংলাদেশি রোশনারা আলী, রূপা হক এবং বঙ্গবন্ধুর নাতনি টিউলিপ সিদ্দিক।

এদের মধ্যে রুশনারা আলী টানা তৃতীয় বারের মতো ব্রিটেনের এমপি নির্বাচিত হলেন। আর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নাতনি শেখ রেহানার মেয়ে টিউলিপ সিদ্দিক এবং রূপা হক জিতেছেন দ্বিতীয়বারের মত। তিনজনই ভোটের ব্যবধান বাড়িয়েছেন উল্লেখযোগ্য পরিমাণে। অর্থাৎ দুই বছরে তিন জনের গ্রহণযোগ্যতা এবং জনপ্রিয়তার পারদ আরও উঁচুতে উঠেছে।

২০১৫ সালের নির্বাচনে বঙ্গবন্ধুর নাতনির জয়ের ব্যবধান ছিল এক হাজার ১৩৮ ভোট। এবার ভোটের ব্যবধান বেড়েছে প্রায় ১৫ গুণ। দুইবছর পর বৃহস্পতিবারের ভোটে তিনি জিতেছেন ১৫ হাজার ৫৬০ ভোটের ব্যবধানে।

অপরদিকে গতবার হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ের পর মাত্র ২৭৪ ভোটের ব্যবধানে যুক্তরাজ্যের পার্লামেন্ট নির্বাচনে জয় পেয়েছিলেন রূপা হক। তবে এবার অনেকটাই হেসে-খেলে জয় ছিনিয়ে নিয়েছেন পাবনার এই মেয়ে। যদিও লন্ডনের মধ্যে এবার রুপার আসনটি এবার সবচেয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ। ৪৩ বছর বয়সী রূপা লন্ডনের ইলিং সেন্ট্রাল অ্যান্ড অ্যাকটন আসনে দ্বিতীয় মেয়াদে নির্বাচিত হলেন। লেবার দলীয় প্রার্থী রূপা হকের প্রাপ্ত ভোট ৩৩ হাজার ৩৭। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী কনজারভেটিভ দলের প্রার্থী জয় মোরিসি পেয়েছেন ১৯ হাজার ২৩০ ভোট।

কিংসটন ইউনিভার্সিটির সমাজবিজ্ঞানের জ্যেষ্ঠ শিক্ষক রূপা লন্ডনে জন্মগ্রহণ করেন। বাংলাদেশে তার আদি বাড়ি পাবনায়।

আর লন্ডনের বেথনালগ্রিন ও বো আসনে রুশনারার জনপ্রিয়তার কথা তো বলাই বাহুল্য। এই নিয়ে তৃতীয় মেয়াদে এমপি নির্বাচিত হলেন তিনি, সেই সঙ্গে ব্যবধানও বাড়িয়েছেন।

২০১০ সালের নির্বাচনে বাংলাদেশি অধ্যুষিত পূর্ব লন্ডনের একই আসনে লেবার পার্টির এমপি নির্বাচিত হন রুশনারা। আর এই বিজয়ের মধ্যে দিয়ে ব্রিটিশ পার্লামেন্টে বাংলাদেশিদের অভিষেক ঘটে।

এবারের নির্বাচনে ৩৫ হাজার ৫৯৩ ভোটের ব্যবধানে বড় জয় পেয়েছেন রুশনারা। রুশনারা ৪২ হাজার ৯৬৯ ভোট পেয়েছেন। নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী কনজারভেটিভ পার্টির চার্লট চিরিকো পেয়েছেন ৭ হাজার ৫৭৬ ভোট।

গতবারের নির্বাচনে লেবার পার্টির টিকেটে রুশনারা পেয়েছিলেন ৩২ হাজার ৮৮৭ ভোট। নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী কনজারভেটিভ পার্টির ম্যাথিউ স্মিথ পেয়েছিলেন আট হাজার ৭০ ভোট। আর ২০১০ সালে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীর সঙ্গে ভোটের ব্যবধান ছিল ১২ হাজারের কিছু বেশি।

১৯৭৫ সালে জন্ম নেয়া রুশনারা প্রথমবার যুক্তরাজ্যের এমপি নির্বাচিত হয়ে আন্তর্জাতিক উন্নয়ন ও শিক্ষা-বিষয়ক ছায়ামন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করেন। এরপর তিনি পার্লামেন্টারি ট্রেজারি সিলেক্ট কমিটির সদস্য হিসেবে মেয়াদ পূর্ণ করেন।

লন্ডনের সবচেয়ে আলোচিত হ্যাম্পস্টেড অ্যান্ড কিলবার্ন আসনে লেবার পার্টির প্রার্থী টিউলিপ জয়ী হয়েছেন। তিনি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নাতনি।

বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছোট বোন শেখ রেহানার মেয়ে। লেবার পার্টির দখলে থাকা আসনটি ধরে রাখা টিউলিপের জন্য একটি চ্যালেঞ্জ ছিল। কনজারভেটিভ পার্টি এবার এই আসনটিকে ‘টার্গেট সিট’ বানায়। এসব কারণে আসনটির প্রতি গণমাধ্যমসহ সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের দৃষ্টি ছিল ভিন্ন। সংশ্লিস্ট প্রার্থীদের চ্যালেঞ্জও ছিল অন্যরকম।

হ্যাম্পস্টেড অ্যান্ড কিলবার্ন আসনে ১৯৯২ সাল থেকে লেবার পার্টির এমপি ছিলেন অস্কার জয়ী অভিনেত্রী গ্রেন্ডা জ্যাকসন। গ্রেন্ডা জ্যাকসন অবসর নেওয়ার ঘোষণা দিলে লেবার পার্টির স্থানীয় সদস্যদের ভোটে হ্যাম্পস্টেড অ্যান্ড কিলবার্ন আসনে এমপি পদে মনোনয়ন পান টিউলিপ। এই নিয়ে দ্বিতীয়বার এমপি পদে নির্বাচন করলেন তিনি। দুইবারই হেসেছেন বিজয়ের হাসি।

লন্ডনের মিচামে জন্ম নেওয়া টিউলিপ কিংস কলেজ থেকে স্নাতকোত্তর ডিগ্রী অর্জন করেন। ১৫ বছর বয়স থেকে হ্যাম্পস্টেড অ্যান্ড কিলবার্নে বসবাস করছেন তিনি। পড়েছেন একই এলাকার স্কুলে। ২০১০ সালে স্থানীয় ক্যামডেন কাউন্সিলে প্রথম বাঙালি নারী কাউন্সিলর নির্বাচিত হন তিনি।

লন্ডনের অন্যতম আলোচিত ইলিং সেন্ট্রাল অ্যান্ড একট্রন আসনে লেবার পার্টির প্রার্থি রূপা হক বিজয়ী হয়েছেন। ইলিং সেন্ট্রাল অ্যান্ড অ্যাকটন আসনটি গতবারের মতো এবারও লেবার পার্টির অন্যতম ‘টার্গেট সিট’ ছিল।

কিংস্টন ইউনিভার্সিটির সমাজবিজ্ঞান বিভাগের জ্যৈষ্ঠ প্রভাষক রূপা হক। ১৯৭২ সালে লন্ডনের ইলিংয়ে জন্ম নেওয়া রূপার আদি বাড়ি পাবনায়। 




আরও পড়ুন



প্রধান সম্পাদকঃ
ড. মো: ইদ্রিস খান

সম্পাদক ও প্রকাশকঃ
মোঃ খায়রুল আলম রফিক

সিয়াম এন্ড সিফাত লিমিটেড
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয়ঃ ৬৫/১ চরপাড়া মোড়, সদর, ময়মনসিংহ।
ফোন- +৮৮০৯৬৬৬৮৪, +৮৮০১৭৭৯০৯১২৫০, +৮৮০১৯৫৩২৫২০৩৭
ইমেইল- aporadhshongbad@gmail.com
(নিউজ) এডিটর-ইন-চিফ,
ইমেইল- khirulalam250@gmail.com
close