* বঙ্গবন্ধুর জন্ম না হলে বাংলাদেশ স্বাধীন হতো না ----- ধর্মমন্ত্রী           * পেট ব্যথার ৫ প্রাকৃতিক সমাধান           * নকিয়ার ফোনে ‘ডিএসএলআর ক্যামেরা’           *  ঢাকায় নারীদের সাপ্তাহিক হাট           * গাজীপুরে ৩০ কোটি টাকার বনভূমি উদ্ধার           * নড়াইল জেলা প্রশাসক, পুলিশ সুপার এর শহীদ মিনারের বেদিতে শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবদেন           * বদলগাছীতে শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস ২০১৮ উদ্যাপন           *  আসামি ধরতে গিয়ে দুই পুলিশ সদস্য আহত           *  ওভারব্রিজে ধাক্কা লেগে চার ট্রেনযাত্রী নিহত           *  কিশোরগঞ্জের নতুন ডিসি সারওয়ার মুর্শেদ           * নতুন কুঁড়ি থেকে রুপালি পর্দায় তিশা           *  ব্যাটিংয়ে শীর্ষে কোহলি, জায়গা ধরে রেখেছেন সাকিব           *  যুক্তরাষ্ট্রে কেন এত বন্দুক হামলা?           * বেঁচে আছে ভাষা সৈনিক মতিনের চোখ           *  বিনম্র শ্রদ্ধায় ভাষা শহীদদের স্মরণ করছে জাতি           * ময়মনসিংহের মানুষ শান্তিপ্রিয়------------- এডিশনাল ইন্সপেক্টর জেনারেল মোঃ মোখলেসুর রহমান বিপিএম (বার)           * ময়মনসিংহে ৯ জুয়াড়ি গ্রেপ্তার           * ভাঙ্গায় বঙ্গবন্ধুর ছবি অবমাননাকারীদের বিচারের দাবিতে মানববন্ধন           * মিয়ানমার টালবাহানা করছে: প্রধানমন্ত্রী           * আপিলের সিদ্ধান্ত নিতে বৈঠকে খালেদার আইনজীবীরা          
* বঙ্গবন্ধুর জন্ম না হলে বাংলাদেশ স্বাধীন হতো না ----- ধর্মমন্ত্রী           * পরিদর্শক সজিব রহমানের নেতৃত্বে মাদক বিরোধী ছিনতাই রোধে হার্ডলাইনে ২নং ফাঁড়ি পুলিশ           * বিকালে সংবাদ সম্মেলনে আসছেন প্রধানমন্ত্রী          

চীনের সঙ্গে যুদ্ধের প্রস্তুতি অতিরিক্ত বাজেট চাইল ভারতের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, | বুধবার, আগস্ট ৯, ২০১৭
চীনের সঙ্গে যুদ্ধের প্রস্তুতি
অতিরিক্ত বাজেট চাইল ভারতের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়
চীনের সঙ্গে চলমান যুদ্ধের আশঙ্কার মধ্যে কেন্দ্রীয় সরকারের কাছে অতিরিক্ত ২০ হাজার কোটি টাকা চেয়েছে ভারতের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়। যুদ্ধের জন্য তৈরি থাকার জন্যই ওই অর্থ বরাদ্দের দাবি জানানো হয়েছে। ডোকালাম নিয়ে চীনের সঙ্গে বিবাদের ৮ সপ্তাহ বাদে ওই অর্থ চাওয়া হল।

২০১৭ সালে কেন্দ্রীয় সরকারের পক্ষ থেকে ২ লাখ ৭৪ হাজার ১১৩ কোটি টাকার প্রতিরক্ষা বাজেট পেশ করা হয়েছিল, যা জিডিপি’র ১.৬২ শতাংশ ছিল। একইসঙ্গে ওই বাজেট ছিল গত বছরের চেয়ে ৬ শতাংশ বেশি।

প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় সূত্রে প্রকাশ, বাজেটের অর্ধেক অংশ তারা পেয়েছেন এবং এরইমধ্যে এক-তৃতীয়াংশ অর্থ তারা খরচ করেছেন। কয়েক সপ্তাহ আগেও প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় সেনাবাহিনীর উপ-প্রধানকে যুদ্ধাস্ত্র কেনার জন্য বলেছিল। সেনাবাহিনীকে যেকোনো সময় কমপক্ষে ১০ দিনের যুদ্ধের জন্য তৈরি থাকতে হয়। এর আগে চলতি বছরের শুরুতে প্রতিরক্ষা সামগ্রী আমদানিতে শুল্ক প্রত্যহার করে নেয়া হয়েছে। এ জন্য আগে সেনাবাহিনীকে অনেক অর্থ ব্যয় করতে হতো।

এদিকে, ডোকালাম নিয়ে চীনের পক্ষ থেকে একনাগাড়ে হুমকি দেয়া হচ্ছে। আজ বুধবার গণমাধ্যমে প্রকাশ, চীনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সীমান্ত ও  পানিসীমা সংক্রান্ত বিষয়ের উপ-নির্দেশক ওয়াং ওয়েনলি বলেছেন, ভারত, চীন ও ভুটানের ত্রিদেশীয় সংযোগস্থলে ডোকালাম অবস্থিত। এই যুক্তিতে ভারত ডোকালামে সেনা পাঠিয়েছে। কিন্তু ত্রিদেশীয় সংযোগস্থল অনেক রয়েছে। একই যুক্তিতে আমরা যদি চীন-ভারত-নেপালের সংযোগস্থল কালাপানি এলাকায় ঢুকে যাই কিংবা ভারত-পাকিস্তানের মধ্যে থাকা কাশ্মিরে ঢুকে যাই, তা হলে ভারত কি করবে?’

চীনের দাবি, ডোকালামে যে এলাকায় ভারত সেনাবাহিনী পাঠিয়েছে, সেটিকে চীনের এলাকা বলে মেনে নিচ্ছে থিম্পুও। এই মর্মে তারা বার্তাও দিয়েছে।

চীনের সরকারি গণমাধ্যম ‘গ্লোবাল টাইমস’-এর সম্পাদকীয়তে ভারতের উদ্দেশ্য হুঁশিয়ারি দিয়ে বলা হয়েছে, ‘১৯৬২ সালের পর থেকে আজও ভারত পরিবর্তন হয়নি। জওহরলাল নেহেরুর সময়েও তারা যেমন শিশুসুলভ আচরণ করেছিল,  নরেন্দ্র মোদির আমলেও ভারতের সেই একই দশা। সব দেশের সরকারই শক্তিশালী প্রতিবেশির সঙ্গে সংঘাত এড়িয়ে চললেও ১৯৬২ সালের পরে দীর্ঘকাল বাদেও নয়াদিল্লি শিক্ষা নেয়নি।’

‘চীনের হুঁশিয়ারি না শুনলে যুদ্ধ অনিবার্য হয়ে উঠবে’ বলে গ্লোবাল টাইমস পত্রিকার প্রধান সম্পাদক হুমকি দিয়েছেন। ভারত ভুল পথে চললে আন্তর্জাতিক আইন মেনে চীন যে কোনো পদক্ষেপ করতে পারে বলেও সেদেশের এক মুখপাত্র হুঁশিয়ারি দিয়েছেন।

ভারতের পক্ষ থেকে অবশ্য পররাষ্ট্রমন্ত্রী সুষমা স্বরাজ থেকে শুরু করে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি কেউই আর ‘যুদ্ধংদেহী’ মনোভাব নিচ্ছেন না। তাদের মুখ থেকে কঠোর কোনো বার্তাও শোনা যাচ্ছে না। বরং সুর নরম করে সংলাপের মাধ্যমেই অচলাবস্থার নিরসনের ওপর তারা জোর দিচ্ছেন।

সূত্র: পার্স টুডে




আরও পড়ুন



প্রধান সম্পাদকঃ
ড. মো: ইদ্রিস খান

সম্পাদক ও প্রকাশকঃ
মোঃ খায়রুল আলম রফিক

সিয়াম এন্ড সিফাত লিমিটেড
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয়ঃ ৬৫/১ চরপাড়া মোড়, সদর, ময়মনসিংহ।
ফোন- +৮৮০৯৬৬৬৮৪, +৮৮০১৭৭৯০৯১২৫০, +৮৮০১৯৫৩২৫২০৩৭
ইমেইল- aporadhshongbad@gmail.com
(নিউজ) এডিটর-ইন-চিফ,
ইমেইল- khirulalam250@gmail.com
close