* ময়লা, আর্বজনা ও বজ্র ফেলে দূষন হচ্ছে ফুলবাড়ী ছোট যমুনা নদী, দেখার কি কেউ নেই ?           * ঝিনাইগাতীতে বধ্যভূমিগুলো আজো সংরক্ষণ করা হয়নি           * রাবিতে সড়ক দুর্ঘটনায় আহত : ২           * অভয়নগরের মাদকব্যবসায়ী নড়াইল ডিবি পুলিশ ১৯০ পিছ ইয়াবাসহ গ্রেফতার           *  আইজিপি এ কে এম শহীদুল হক ময়মনসিংহের মানুষের সঙ্গে আমার আত্মিক সম্পর্ক           * গাজীপুরে প্যাকেজিং কারখানায় আগুন           *  ময়মনসিংহের দুই উপজেলায় গ্রেপ্তার ৭           * নকলায় ডিআরএইচ’র সম্মাননা ও বই প্রদান            * শেরপুরে সরকারিভাবে আমন চাল সংগ্রহ অভিযান শুরু           * নেত্রকোনায় বারী সিদ্দিকী স্মরণসভা           *  স্কুলে অতিরিক্ত ফি নিলে ব্যবস্থা: হাইকোর্ট           *  ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষক সমিতির নির্বাচনে ভোট চলছে           *  প্রশ্নপত্র ‘ফাঁসে’ নয়জন আটক, ১১৩ প্রাথমিকে পরীক্ষা স্থগিত           *  ২৫ বছর পর আলাবামার সিনেট ডেমোক্র্যাটদের দখলে           * ৫ বছরে বাংলাদেশের ৩৫ টেস্ট           *  বেনাপোলে ট্রাকবোঝাই ফেনসিডিলসহ পাচারকারী আটক           * ইরানে আবার ভূমিকম্প, আহত ৫৫           * ভোলায় পুলিশের মাদকবিরোধী সাইকেল র‌্যালি           * নন্দীগ্রাম হানাদারমুক্ত দিবস পালিত           * হত্যার তিন দিন পর লাশ ফেরত দিলো বিএসএফ          
* মুক্তিযুদ্ধের সৈনিক এখন ভিক্ষুক           * আ.লীগ আবার ক্ষমতায় না এলে দেশ পিছিয়ে যাবে’           * বদলগাছীর সাগরপুর-সন্ন্যাসতলা সড়ক কাজ না করেই বিল উত্তেলন করলেন ঠিকাদার          

চীনের সঙ্গে যুদ্ধের প্রস্তুতি অতিরিক্ত বাজেট চাইল ভারতের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, | বুধবার, আগস্ট ৯, ২০১৭
চীনের সঙ্গে যুদ্ধের প্রস্তুতি
অতিরিক্ত বাজেট চাইল ভারতের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়
চীনের সঙ্গে চলমান যুদ্ধের আশঙ্কার মধ্যে কেন্দ্রীয় সরকারের কাছে অতিরিক্ত ২০ হাজার কোটি টাকা চেয়েছে ভারতের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়। যুদ্ধের জন্য তৈরি থাকার জন্যই ওই অর্থ বরাদ্দের দাবি জানানো হয়েছে। ডোকালাম নিয়ে চীনের সঙ্গে বিবাদের ৮ সপ্তাহ বাদে ওই অর্থ চাওয়া হল।

২০১৭ সালে কেন্দ্রীয় সরকারের পক্ষ থেকে ২ লাখ ৭৪ হাজার ১১৩ কোটি টাকার প্রতিরক্ষা বাজেট পেশ করা হয়েছিল, যা জিডিপি’র ১.৬২ শতাংশ ছিল। একইসঙ্গে ওই বাজেট ছিল গত বছরের চেয়ে ৬ শতাংশ বেশি।

প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় সূত্রে প্রকাশ, বাজেটের অর্ধেক অংশ তারা পেয়েছেন এবং এরইমধ্যে এক-তৃতীয়াংশ অর্থ তারা খরচ করেছেন। কয়েক সপ্তাহ আগেও প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় সেনাবাহিনীর উপ-প্রধানকে যুদ্ধাস্ত্র কেনার জন্য বলেছিল। সেনাবাহিনীকে যেকোনো সময় কমপক্ষে ১০ দিনের যুদ্ধের জন্য তৈরি থাকতে হয়। এর আগে চলতি বছরের শুরুতে প্রতিরক্ষা সামগ্রী আমদানিতে শুল্ক প্রত্যহার করে নেয়া হয়েছে। এ জন্য আগে সেনাবাহিনীকে অনেক অর্থ ব্যয় করতে হতো।

এদিকে, ডোকালাম নিয়ে চীনের পক্ষ থেকে একনাগাড়ে হুমকি দেয়া হচ্ছে। আজ বুধবার গণমাধ্যমে প্রকাশ, চীনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সীমান্ত ও  পানিসীমা সংক্রান্ত বিষয়ের উপ-নির্দেশক ওয়াং ওয়েনলি বলেছেন, ভারত, চীন ও ভুটানের ত্রিদেশীয় সংযোগস্থলে ডোকালাম অবস্থিত। এই যুক্তিতে ভারত ডোকালামে সেনা পাঠিয়েছে। কিন্তু ত্রিদেশীয় সংযোগস্থল অনেক রয়েছে। একই যুক্তিতে আমরা যদি চীন-ভারত-নেপালের সংযোগস্থল কালাপানি এলাকায় ঢুকে যাই কিংবা ভারত-পাকিস্তানের মধ্যে থাকা কাশ্মিরে ঢুকে যাই, তা হলে ভারত কি করবে?’

চীনের দাবি, ডোকালামে যে এলাকায় ভারত সেনাবাহিনী পাঠিয়েছে, সেটিকে চীনের এলাকা বলে মেনে নিচ্ছে থিম্পুও। এই মর্মে তারা বার্তাও দিয়েছে।

চীনের সরকারি গণমাধ্যম ‘গ্লোবাল টাইমস’-এর সম্পাদকীয়তে ভারতের উদ্দেশ্য হুঁশিয়ারি দিয়ে বলা হয়েছে, ‘১৯৬২ সালের পর থেকে আজও ভারত পরিবর্তন হয়নি। জওহরলাল নেহেরুর সময়েও তারা যেমন শিশুসুলভ আচরণ করেছিল,  নরেন্দ্র মোদির আমলেও ভারতের সেই একই দশা। সব দেশের সরকারই শক্তিশালী প্রতিবেশির সঙ্গে সংঘাত এড়িয়ে চললেও ১৯৬২ সালের পরে দীর্ঘকাল বাদেও নয়াদিল্লি শিক্ষা নেয়নি।’

‘চীনের হুঁশিয়ারি না শুনলে যুদ্ধ অনিবার্য হয়ে উঠবে’ বলে গ্লোবাল টাইমস পত্রিকার প্রধান সম্পাদক হুমকি দিয়েছেন। ভারত ভুল পথে চললে আন্তর্জাতিক আইন মেনে চীন যে কোনো পদক্ষেপ করতে পারে বলেও সেদেশের এক মুখপাত্র হুঁশিয়ারি দিয়েছেন।

ভারতের পক্ষ থেকে অবশ্য পররাষ্ট্রমন্ত্রী সুষমা স্বরাজ থেকে শুরু করে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি কেউই আর ‘যুদ্ধংদেহী’ মনোভাব নিচ্ছেন না। তাদের মুখ থেকে কঠোর কোনো বার্তাও শোনা যাচ্ছে না। বরং সুর নরম করে সংলাপের মাধ্যমেই অচলাবস্থার নিরসনের ওপর তারা জোর দিচ্ছেন।

সূত্র: পার্স টুডে




আরও পড়ুন



প্রধান সম্পাদকঃ
ড. মো: ইদ্রিস খান

সম্পাদক ও প্রকাশকঃ
মোঃ খায়রুল আলম রফিক

সিয়াম এন্ড সিফাত লিমিটেড
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয়ঃ ৬৫/১ চরপাড়া মোড়, সদর, ময়মনসিংহ।
ফোন- +৮৮০৯৬৬৬৮৪, +৮৮০১৭৭৯০৯১২৫০, +৮৮০১৯৫৩২৫২০৩৭
ইমেইল- aporadhshongbad@gmail.com
(নিউজ) এডিটর-ইন-চিফ,
ইমেইল- khirulalam250@gmail.com
close