* ময়লা, আর্বজনা ও বজ্র ফেলে দূষন হচ্ছে ফুলবাড়ী ছোট যমুনা নদী, দেখার কি কেউ নেই ?           * ঝিনাইগাতীতে বধ্যভূমিগুলো আজো সংরক্ষণ করা হয়নি           * রাবিতে সড়ক দুর্ঘটনায় আহত : ২           * অভয়নগরের মাদকব্যবসায়ী নড়াইল ডিবি পুলিশ ১৯০ পিছ ইয়াবাসহ গ্রেফতার           *  আইজিপি এ কে এম শহীদুল হক ময়মনসিংহের মানুষের সঙ্গে আমার আত্মিক সম্পর্ক           * গাজীপুরে প্যাকেজিং কারখানায় আগুন           *  ময়মনসিংহের দুই উপজেলায় গ্রেপ্তার ৭           * নকলায় ডিআরএইচ’র সম্মাননা ও বই প্রদান            * শেরপুরে সরকারিভাবে আমন চাল সংগ্রহ অভিযান শুরু           * নেত্রকোনায় বারী সিদ্দিকী স্মরণসভা           *  স্কুলে অতিরিক্ত ফি নিলে ব্যবস্থা: হাইকোর্ট           *  ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষক সমিতির নির্বাচনে ভোট চলছে           *  প্রশ্নপত্র ‘ফাঁসে’ নয়জন আটক, ১১৩ প্রাথমিকে পরীক্ষা স্থগিত           *  ২৫ বছর পর আলাবামার সিনেট ডেমোক্র্যাটদের দখলে           * ৫ বছরে বাংলাদেশের ৩৫ টেস্ট           *  বেনাপোলে ট্রাকবোঝাই ফেনসিডিলসহ পাচারকারী আটক           * ইরানে আবার ভূমিকম্প, আহত ৫৫           * ভোলায় পুলিশের মাদকবিরোধী সাইকেল র‌্যালি           * নন্দীগ্রাম হানাদারমুক্ত দিবস পালিত           * হত্যার তিন দিন পর লাশ ফেরত দিলো বিএসএফ          
* মুক্তিযুদ্ধের সৈনিক এখন ভিক্ষুক           * আ.লীগ আবার ক্ষমতায় না এলে দেশ পিছিয়ে যাবে’           * বদলগাছীর সাগরপুর-সন্ন্যাসতলা সড়ক কাজ না করেই বিল উত্তেলন করলেন ঠিকাদার          

আওয়ামী লীগ যার ধ্যান জ্ঞান সিংহপুরুষ জননেতা এহতেশামুল আলম

খায়রুল আলম রফিক | বৃহস্পতিবার, সেপ্টেম্বর ১৪, ২০১৭
আওয়ামী লীগ যার ধ্যান জ্ঞান
সিংহপুরুষ জননেতা এহতেশামুল আলম

ময়মনসিংহে একজন সিংহ পুরুষ এহতেশামুল আলম । উনসত্তরে গণঅভ্যুত্থানে ২৩ জানুয়ারি পুলিশের গুলিতে শহীদ আলমগীর মনসুর মিন্টুর লাশ কবরের উদ্দেশ্যে কাঁধে নিয়ে যাওয়া সেই টগবগে কিশোর এহতেশামুল আলম আজ ময়মনসিংহ মহানগর আওয়ামী লীগ এর সভাপতি ।

শহীদ আলমগীর মনসুরের লাশ কাঁধে নিয়ে যাওয়ার সময় পুলিশ লাশ বহনকারীদের ওপরও চালায় নির্বিচারে গুলি । সেখানে গুলিবিদ্ধ হন এহতেশামুলের ঘনিষ্ঠ একজন বন্ধু ।
সেই থেকে বঙ্গবন্ধু এবং তারই রাজনৈতিক দল আওয়ামীলীগের সহযোগী সংগঠন ছাত্রলীগের একজন কর্মী হিসেবে কিশোর আলমের শুরু করেছিলেন পথচলা।

ময়মনসিংহের ঐতিহ্যবাহী জিলাস্কুল, আনন্দমোহন কলেজে সক্রিয় ছিলেন ছাত্রলীগের রাজনীতিতে । বিনাপ্রতিদ্বন্দিতায় যুবলীগের সভাপতি নির্বাচত হয়েছিলেন ১৯৯১ সালে ।   এরপর থেকে সব পরিচয় ছাপিয়ে এখনো তিনি ‘আলম ভাই’ হিসেবেই ময়মনসিংহের মানুষের কাছে বেশি সমাদৃত।

কোনদিন জনপ্রতিনিধি হিসাবে দায়িত্বে না থাকলেও সুখে-দুঃখে মানুষ ছুটে যান এহতেশামুল আলমের কাছে। আলমও চেষ্টা করেন সাধ্যমতো সহযোগিতার। যদিও এহতেশামুল আলমের ছাত্র রাজনীতির গন্ডি ছিল ময়মনসিংহ মহানগরের ভিতরে সীমাবদ্ধ। তবে, যুবলীগে পদার্পনের পর সেই গন্ডি পেড়িয়ে বিসৃতি চলে যায় গোটা জেলাব্যাপী ।

 যুবলীগের পর আওয়ামীলীগে ময়মনসিংহ জেলা এবং তৎপরবর্তীতে মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন তিনি। তার রাজনীতির শুরু বিভিন্ন ইস্যুতে নেতা-কর্মীদের চাঙ্গা করে রাজপথ ‘গরম’ রাখতে তার বিকল্প নেই আওয়ামীলীগে । মহানগরের সর্বত্র চষে বেড়ান এহতেশামুল আলম ।

এহতেশামুল আলম একজন রাজনৈতিক ব্যক্তিই নন । তিনি ময়মনসিংহের বরেণ্য ক্রীড়াবিদ ও ক্রীড়া সংগঠক । খেলাধুলার পাশাপাশি সাংস্কৃতিক অঙ্গনে ‘বহুমুখী প্রতিভার অধিকারী’ ।
তিনি ময়মনসিংহের ক্রীড়াঙ্গন ও সংস্কৃতিকে এক অনন্য উচ্চতায় নিয়ে গেছেন।

এহতেশামুল আলম আওয়ামীলীগের সকল পদের প্রার্থীদের হয়ে চষে বেড়িয়েছেন গোটা ময়মনসিংহ বিভাগ। নৌকা প্রতীকের সমর্থনে এবং আওয়ামীলীগের প্রার্থীদের হয়ে তিনি ছুটে গেছেন ভোটারদের দ্বারে দ্বারে। বিভাগের প্রায় সব জেলা উপজেলা , পৌরসভায় আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থীদের পক্ষে প্রচারণায় অংশ নিয়েছেন। ভোটারদের কাছে গিয়ে তুলে ধরেছেন বর্তমান সরকার তথা আওয়ামীলীগের উন্নয়নের ফিরিস্তি। সুবক্তা এহতেশামুলের প্রচারণায় মন গলেছে ভোটারদের। অভ্যন্তরীণ কোন্দলে যেসব দলীয় নেতা-কর্মীরা প্রচারণা থেকে দূরে ছিলেন, এহতেশামুল আলমের উপস্থিতিতে তারাও নেমেছেন মাঠে। সব মিলিয়ে গত নির্বাচনগুলিতে ময়মনসিংহ বিভাগের আওয়ামী লীগের ভোট বিপ্লবে এহতেশামুল আলমের বড় ভূমিকা ছিল বলে মনে করছেন আওয়ামীলীগ দলীয় নেতা-কর্মীরা।
গত উপজেলা পরিষদ নির্বাচনেও এহতেশামুল আলম ছুটে গিয়েছিলেন দল সমর্থিত প্রার্থীর পক্ষে। বিভাগের যেসব উপজেলায় তিনি প্রচারণায় অংশ নিয়েছিলেন সেসব স্থানে নির্বাচনী ফলও ভালো হয়েছে।

ময়মনসিংহ মহানগরীর নেতা হয়েও গোটা জেলা ও বিভাগে নির্বাচনী প্রচারণায় অংশ নেওয়াকে ইতিবাচক দৃষ্টিতে দেখছেন দলীয় নেতা-কর্মীরা। শুধু নির্বাচন নয়, ময়মনসিংহ বিভাগের কোনো জেলা ও উপজেলায় দলীয় কর্মসূচিতে অংশ নেওয়ার সুযোগ পেলেই সেখানে ছুটে যান এহতেশামুল আলম । দলীয় নেতা-কর্মীদের দৃষ্টিতে এহতেশামুল আলম হচ্ছেন সৌভাগ্যবান রাজনীতিবিদ। গণমানুষের দোয়া সব সময় সঙ্গে থাকে বলেই একাধিকবার বিএনপি জামায়াতের সন্ত্রাসী হামলার শিকার হয়েও প্রাণে বেঁচে গেছেন তিনি।

সামরিক সরকারের জিয়াউর রহমান, এরশাদ এবং খালেদা জিয়ার সরকারের আমলে তিনবার কারানির্যাতিত এহতেশামুল আলমের পথচলায় বার বার প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি হলেও কখনো থেমে যাননি। সব বাধা ও হুমকি উপেক্ষা করে তিনি সরব রয়েছেন রাজনীতির মাঠে। এহতেশামুল আলমের ধ্যানজ্ঞান এখনও শুধুই রাজনীতি।

জীবনের শেষ মুহূর্ত পর্যন্ত মুজিব আদর্শের একজন সৈনিক হিসেবে কাজ করে যাওয়ার অভিপ্রায় ব্যক্ত করে এহতেশামুল আলম দৈনিক ময়মনসিংহ প্রতিদিনকে বলেন, ‘দল ও নেতা-কর্মীদের সুখ-দুঃখ আমাকে আন্দোলিত করে। তাই যখনই সুযোগ পাই দলের জন্য, মানুষের জন্য ময়মনসিংহের আনাচে-কানাচে ছুটে যাই।

ছাত্রজীবন থেকে ছাত্রলীগের রাজনীতি দিয়ে রাজনীতিতে উঠে আসা এহতেশামুল আলমের একটা নিজস্ব ইমেজ আছে । ময়মনসিংহের রাজনীতিতে এহতেশামুল আলম একজন আলোকিত মুখ।
শুধু এহতেশামুল আলমই যে পরিবারে একা আওয়ামীলীগ তা নয় । আসলে তিনি একজন পরম্পরার আওয়ামীলীগ । তার পিতা: মৃত আব্দুল খালেক । যিনি আদালতের একজন সরকারি চাকুরীজীবী হয়েও সমৃক্ত ছিলেন আওয়ামীলীগের রাজনীতিতে । আওয়ামীলীগকে ভালোবেসে তাদের বাসভবন ময়মনসিংহ শহরের কাচিঝুলিতে স্থাপন করেন ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের কার্যালয় ।

সেসময় তার পিতা: ছিলেন ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি ।মূলত তার পিতার বঙ্গবন্ধুর প্রতি অগাধ ভালোবাসা, আদর্শ , অনুপ্রেরণাতেই এহতেশামুল আলমের রাজনৈতিক জীবনের পদার্পণ । এহতেশামুল আলমের গৃহকর্তী তিনিও গৃহে বন্দি নন । ময়মনসিংহের সফল মহিলা আওয়ামীলীগ নেত্রী । এহতেশামুল আলমের পতœীও তার রাজনীতির অনুপ্রেরণা । এহতেশামুল আলম দম্পতি দুই সন্তানের পুত্র সন্তানও ছাত্রলীগ রাজনীতির দুই যোদ্ধা ।

এহতেশামুল আলমের গোটা পরিবারই আওয়ামীলীগের রাজনীতিই তাদের ধ্যান, জ্ঞান। বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে বুকে নিয়ে তাদের পথচলা । নিরাবরণ, নিরহংকারী, সাধারণ জীবনযাপনে অভ্যস্ত এহতেশামুল আলম তার আদর্শিক রাজনীতির পূর্বসূরিদের সাদামাঠা জীবনকেই অনুসরণ করেছেন। কখনও সাদা পায়জামা-পাঞ্জাবি ।

আবার কখনও শার্ট- পেন্ট সুদর্শন চেহারার অধিকারী এহতেশামুল আলম বিত্ত বৈভব, বিলাসী জীবন, রাজনীতির বাইরে কোনো অনৈতিক আসক্তি এই গণমুখী রাজনৈতিক নেতাকে কখনো স্পর্শ করেনি।
দৃঢ় প্রত্যয়ী এহতেশামুল আলমের ভক্ত, অনুরাগী ও নেতাকর্মীদের মধ্যে তিনি আশার আলো ।--(চলবে)





আরও পড়ুন



প্রধান সম্পাদকঃ
ড. মো: ইদ্রিস খান

সম্পাদক ও প্রকাশকঃ
মোঃ খায়রুল আলম রফিক

সিয়াম এন্ড সিফাত লিমিটেড
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয়ঃ ৬৫/১ চরপাড়া মোড়, সদর, ময়মনসিংহ।
ফোন- +৮৮০৯৬৬৬৮৪, +৮৮০১৭৭৯০৯১২৫০, +৮৮০১৯৫৩২৫২০৩৭
ইমেইল- aporadhshongbad@gmail.com
(নিউজ) এডিটর-ইন-চিফ,
ইমেইল- khirulalam250@gmail.com
close