* প্রাথমিক শিক্ষার ভিত্তি আধুনিক যুগোপযোগী করতে হবে ঃ প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রী            *  কাজলা বিল ভরাটে হাইকোর্টের নিষেধাজ্ঞা           *  মিসফিটের হাইব্রিড স্মার্টওয়াচ           *  ডিএসইতে লেনদেন কমেছে, বেড়েছে সিএসইতে           * ভালুকায় ইউপি চেয়ারম্যানের হস্তক্ষেপে বাল্যবিয়ে বন্ধ           * ফের বাড়ল বিদ্যুতের দাম           * সফল হতে চাইলে ইতিবাচক চিন্তা করুন           * সবুজ ত্রিশাল এর রূপকার হিসেবে ত্রিশাল উপজেলা নির্বাহী অফিসার আবুজাফর রিপনকে সংবর্ধনা            *  বঙ্গবন্ধুর ভাষণ ইউনেস্কোর স্বীকৃতিতে ময়মনসিংহে ২৫ নভেম্বর শুভাযাত্রা           * সাতক্ষীরায় বাসের ধাক্কায় বৃদ্ধা নিহত           * অপচিকিৎসার শিকার চরের মানুষেরা           * মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে জনসংহতি সমিতির স্মারকলিপি           * মুন্সীগঞ্জে মাদকদ্রব্য বহনকারী গাড়িচাপায় পথচারী নিহত           * বাহরাইনে বিশ্ব কুরআন প্রতিযোগিতায় তৃতীয় হলো বাংলাদেশি তকী           * মাঝপথে দল পাল্টাতে পারবেন সাকিব-মুস্তাফিজরা           *  ‘একটা লম্বা বিরতির দরকার ছিল’           *  সিরিয়ায় সন্ত্রাসীদের চিরতরে ধ্বংসে কাজ করবে তিন প্রেসিডেন্ট           * মমতার মুখে কালি, ৯ বিজেপি নেতাকর্মী গ্রেপ্তার           *  রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নেবে মিয়ানমার, চুক্তি সই           *  ছাত্র-শ্রমিক সংঘর্ষের পর দিনাজপুরে পরিবহন ধর্মঘট          
* ব্যবসায়ী অপহরণের অভিযোগে বি.বাড়িয়ায় দুই পুলিশ গ্রেপ্তার           * পরানগঞ্জে আপদ হয়ে গেল ভাগ্নের কাছে           *  ত্রিশাল নিউজের তিন সাংবাদিক আটক          

ধর্ষন তো সবাই করে কয়জনের বিচার হয়.... তালেব আলী ম্যাটসের অভ্যন্তরে যে ঘটনা ঘটছে

স্টাফ রিপোর্টার | বুধবার, নভেম্বর ১, ২০১৭
ধর্ষন তো সবাই করে কয়জনের বিচার হয়....
তালেব আলী ম্যাটসের অভ্যন্তরে যে ঘটনা ঘটছে

তালেব আলী ম্যাটস ময়মনসিংহ শহরের রামকৃষ্ণ মিশন রোডের শিকাদার বাড়ী মোড়ে । এখানে মেডিকেল এ্যাসিস্ট্যান্ট এবং টেকনলজী  বিয়য়ে কারিগরী ৪ বছর  ্ও প্যাথলজী ১ বছর এবং নার্সিং ৩ বছর মেয়াদী কোর্স করানো হয়। এই চার বছর শিক্ষা কোর্সে তালেব আলী ম্যাট্স প্রতি শিক্ষার্থীর কাছ থেকে আদায় করছে ২ লক্ষ ৩ হাজার টাকা।

কিন্ত প্রধান শর্ত হলো ম্যাট্রিক এবং উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার মূল মার্কসীট এবং সনদ পত্র চেয়ারম্যান ফজলুল হক এর কাছে  গচ্ছিত রাখতে হবে। ছাত্রছাত্রীরা সরল বিশ্বাসে প্রতিষ্ঠানের চেয়ারম্যান ফজলুল হকের কাছে মার্কসীট ও সনদ পত্রের মূল কপি জমা দিয়ে ভর্তি হন। ব্যাপক অভিযোগে জানা যায়, ছাত্রছাত্রীদের মূল সম্পদ হাতে পাবার পরপরই চেয়ারম্যানের আসল চেহারা বেরিয়ে আসে। শুরু হয় ব্ল্যাক মেইলীং। চেয়ারম্যান তার ভাড়াটে বাহিনী মাধ্যমে প্রায় সময়ই তার পছন্দ মত ছাত্রীদের ডেকে নিয়ে সরাসরি যৌনকর্মের প্রস্তাব দিয়ে বসে এবং তার প্রস্তাবে রাজি না হলে সনদপত্র এবং মার্কসীট দেয়া হবে না বলে জানিয়ে দেয়।

শিক্ষার্থী ছাত্রীরা ভয়ে আতঙ্কে এভাবেই মারাত্মক ব্ল্যাক মেইলিং এর শিকার হয়ে সর্বস্য হারাচ্ছেন। জানাগেছে, গত ২০১৬ সালে এই প্রতিষ্টানের দুই ছাত্রী ধর্ষিতা হবার ঘটনা চাউর হয়ে গেলে স্থানীয় বাসি এই প্রতিষ্টান গুড়িয়ে দিয়েছিল। পরবর্তীতে এই ঘটনায় একটি মামলা হয় এবং জেলা প্রশাসক বরাবর সুনিদির্ষ্ট আসামিদের চিহ্নিত করে অভিযোগ দায়ের করা হয়।

জানাগেছে, তালেব আলী ম্যাটস এর সরকারী আইনে কোন হোস্টেল রাখার নিয়ম নেই। কিন্ত ধূর্ত চেয়ারম্যান প্রতিষ্টানের অভ্যন্তরেই ৩ টি কক্ষে হোস্টেল বানিয়ে পাশাপাশী ২টি কক্ষ ছাত্রদের হোস্টেল এবং মধ্যের কক্ষটি ছাত্রীদের হোস্টেল বানিয়েছেন। এমনকি ছাত্রীদের খাবার ছাত্ররা গিয়ে দিয়ে আসে। এতে ছাত্রীরা বিব্রত হন এবং ছাত্রীরা থাকেন আতঙ্কে।

এটি চেয়ারম্যান ফজলুল হকের বিকৃত মনের পরিচায়ক বলে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক নির্ভরযোগ্য সূত্র জানায়। অভিযোগে আরও জানা গেছে, তালেব আলী ম্যাট্সে কয়েকজন ডাক্তার সার্বক্ষনিক থাাকার কথা থাকলেও মচিমহার ইন্টারনী চিকিৎসকদের দিয়ে বাড়তি দায়িত্ব দিয়ে কাজ করানো হচ্ছে যা ছাত্র দিয়ে ছাত্র পড়ানোরই নামান্তর।এদিকে চেয়ারম্যান ফজলুল হকের জোরপূর্বক ছাত্রী ধর্ষনের জের হিসাবে একাদিক ছাত্রী অন্তঃস্বত্তার শিকার হচ্ছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। কিন্ত ছাত্রীরা তাদের মার্কসীট ও

সনদপত্র হারানোর ভয়ে মুখ বন্ধ রেখেছেন। জানাগেছে, ফজলুল হকের বেপরোয়া অসভ্যতার অন্যতম সাক্ষী দ¦ীন মোহাম্মদ। এ ব্যপারে দ্বীন মোহাম্মদের কাছে জানতে চাইলে দ্বীন ক্ষীপ্ত হয়ে জানায়, ধর্ষন তো সবাই করে কয়জনের বিচার হয়.. যা পারেন লিখেন গিয়া .. তালেব আলী ম্যাট্সের টাকা আছে... সব বন্ধ করে দিবে..  পরবর্তী চেয়ারম্যান ফজলুল হকের কাছে  জানতে চাইলে তিনি বলেন.. যা পারেন লিখেন গিয়া .. কত দেখলাম মামলা আমি খাইয়া ফালাই... আমার ম্যাটসের সম্পকে সবাই জানে.

.. যারা অভিযোগ করে তাদের কাজ থেকে জাইন্যা নিবেন.. তাদেরকে কত টাকা দেই..... এই ধৃষ্টতাপূর্ণ আচরন শুধু তারাই করতে পারে যারা অবৈধ ভাবে ব্ল্যাক মানির ধান্ধা করতে পারে পাশাপাশী সবকিছুই টাকা দিয়ে বন্ধ রাখার  ব্যর্থ চেষ্টা চালায়। তালেব আলী ম্যাটসের অভ্যন্তরে যা ঘটে যাচ্ছে সেগুলো জেলা গোয়েন্দা বাহিনী যদি গোপনে অথবা প্রকাশ্যে অনুসন্ধান করেন তবে এর সত্যতা মিলবে। ছাত্রীরা শুধু আহাজারি করে জেলা প্রশাসক মহোদয়ের দৃষ্টি আকর্ষন করে জানিয়েছেন, তারা যেন মূল মার্কসীট ও সনদপত্র ফিরে পান এবং অবর্ননীয়  দুর্ভোগের নিরসনে চেয়ারম্যান ফজলুল হকের বিরুদ্ধে স্বচ্ছ তদন্ত করা হয় ।





আরও পড়ুন



প্রধান সম্পাদকঃ
ড. মো: ইদ্রিস খান

সম্পাদক ও প্রকাশকঃ
মোঃ খায়রুল আলম রফিক

সিয়াম এন্ড সিফাত লিমিটেড
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয়ঃ ৬৫/১ চরপাড়া মোড়, সদর, ময়মনসিংহ।
ফোন- +৮৮০৯৬৬৬৮৪, +৮৮০১৭৭৯০৯১২৫০, +৮৮০১৯৫৩২৫২০৩৭
ইমেইল- aporadhshongbad@gmail.com
(নিউজ) এডিটর-ইন-চিফ,
ইমেইল- khirulalam250@gmail.com
close