* প্রাথমিক শিক্ষার ভিত্তি আধুনিক যুগোপযোগী করতে হবে ঃ প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রী            *  কাজলা বিল ভরাটে হাইকোর্টের নিষেধাজ্ঞা           *  মিসফিটের হাইব্রিড স্মার্টওয়াচ           *  ডিএসইতে লেনদেন কমেছে, বেড়েছে সিএসইতে           * ভালুকায় ইউপি চেয়ারম্যানের হস্তক্ষেপে বাল্যবিয়ে বন্ধ           * ফের বাড়ল বিদ্যুতের দাম           * সফল হতে চাইলে ইতিবাচক চিন্তা করুন           * সবুজ ত্রিশাল এর রূপকার হিসেবে ত্রিশাল উপজেলা নির্বাহী অফিসার আবুজাফর রিপনকে সংবর্ধনা            *  বঙ্গবন্ধুর ভাষণ ইউনেস্কোর স্বীকৃতিতে ময়মনসিংহে ২৫ নভেম্বর শুভাযাত্রা           * সাতক্ষীরায় বাসের ধাক্কায় বৃদ্ধা নিহত           * অপচিকিৎসার শিকার চরের মানুষেরা           * মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে জনসংহতি সমিতির স্মারকলিপি           * মুন্সীগঞ্জে মাদকদ্রব্য বহনকারী গাড়িচাপায় পথচারী নিহত           * বাহরাইনে বিশ্ব কুরআন প্রতিযোগিতায় তৃতীয় হলো বাংলাদেশি তকী           * মাঝপথে দল পাল্টাতে পারবেন সাকিব-মুস্তাফিজরা           *  ‘একটা লম্বা বিরতির দরকার ছিল’           *  সিরিয়ায় সন্ত্রাসীদের চিরতরে ধ্বংসে কাজ করবে তিন প্রেসিডেন্ট           * মমতার মুখে কালি, ৯ বিজেপি নেতাকর্মী গ্রেপ্তার           *  রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নেবে মিয়ানমার, চুক্তি সই           *  ছাত্র-শ্রমিক সংঘর্ষের পর দিনাজপুরে পরিবহন ধর্মঘট          
* ব্যবসায়ী অপহরণের অভিযোগে বি.বাড়িয়ায় দুই পুলিশ গ্রেপ্তার           * পরানগঞ্জে আপদ হয়ে গেল ভাগ্নের কাছে           *  ত্রিশাল নিউজের তিন সাংবাদিক আটক          

কে হচ্ছেন প্রধান বিচারপতি?

নিজস্ব প্রতিবেদক | শনিবার, নভেম্বর ১১, ২০১৭

কে হচ্ছেন প্রধান বিচারপতি?
পরধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহার পদত্যাগপত্র রাষ্ট্রপতির হাতে পৌঁছার খবর নিশ্চিত হওয়ার পর এখন সামনে এসেছে নতুন প্রধান বিচারপতি নিয়োগের প্রশ্নটি।

সুরেন্দ্র কুমার সিনহা গত ৩ অক্টোবর থেকে ছুটিতে গেলে ভারপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতির দায়িত্ব পান আপিল বিভাগের অবশিষ্ট পাঁচ বিচারপতির মধ্যে কর্মে জ্যেষ্ঠ বিচারপতি আবদুল ওয়াহ্‌হাব মিঞা। পরে বিচারপতি সিনহার ছুটির মেয়াদ বাড়লে বিচারপতি আবদুল ওয়াহ্‌হাব মিয়াকে দায়িত্বপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতি হিসেবে নিয়োগ দিয়ে প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়।

গত ৩ অক্টোবর থেকে ১০ নভেম্বর পর‌্যন্ত ছুটি কাটিয়ে প্রধান বিচারপতি সিনহা গতকাল শুক্রবার পদত্যাগ করেন। গতকাল বিচারপতি সিনহা সিঙ্গাপুরে বাংলাদেশ কনস্যুলারে পদত্যাগপত্র জমা দিয়ে কানাডা যান। এর আগে গত সোমবার অস্ট্রেলিয়া থেকে সিঙ্গাপুরে পৌঁছান প্রধান বিচারপতি। গত ১৩ অক্টোবর বিচারপতি সিনহা অস্ট্রেলিয়ার উদ্দেশে ঢাকা ছাড়েন।  

আজ শনিবার রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ প্রধান বিচারপতির পদত্যাগপত্র পেয়েছেন বলে নিশ্চিত করেছেন তার প্রেস সেক্রেটারি জয়নুল আবেদীন।

প্রধান বিচারপতির পদত্যাগের তথ্য বঙ্গভবন থেকে তিনি জেনেছেন বলে আইনমন্ত্রী আনিসুল হক শনিবার বিকেলে তার দপ্তরে সাংবাদিকদের  নিশ্চিত করেন।

প্রধান বিচারপতি পদত্যাগ করায় এখনো কি বিচারপতি আবদুল ওয়াহ্হাব মিঞা দায়িত্ব চালিয়ে যাবেন, নাকি প্রধান বিচারপতির পদটি শূন্য হয়েছে; সে ক্ষেত্রে নতুন প্রধান বিচারপতি কবে কাকে নিয়োগ দেয়া হচ্ছে-  সংবাদ ব্রিফিংয়ে এসব বিষয়ে জানতে চান সাংবাদিকরা।

ব্রিফিংকালে আইনমন্ত্রী বলেন, বঙ্গভবন থেকে তাকে বিচারপতির সিনহার পদত্যাগপত্র পাওয়ার কথা জানানো হয়েছে। তবে পদত্যাগপত্রে প্রধানি বিচারপতি কী লিখেছেন তা তিনি জানে না। আইনমন্ত্রী বলেন, ‘আমি শুধু জেনেছি। পদত্যাগপত্র দেখিনি। তাই প্রধান বিচারপতি কী লিখেছেন  তা আমি বলতে পারব না।’  তাই এ নিয়ে তিনি কোনো কথা বলতে চান না বলে জানান।

নতুন প্রধানমন্ত্রী কে হচ্ছেন জানতে চাইলে আইনমন্ত্রী বলেন, সংবিধান অনুযায়ী রাষ্ট্রপতি নিয়োগ দেবেন নতুন প্রধান বিচারপতি। সংবিধানের ৯৫ অনুচ্ছেদে সে ক্ষমতা রাষ্ট্রপতিকে দেয়া হয়েছে।

প্রধান বিচারপতির ছুটিতে থাকাকালে ভারপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন বিচারপতি আবদুল ওয়াহ্‌হাব মিঞা। পদত্যাগ করায় এখন প্রধান বিচারপতির পদ শূন্য কি না জানতে চাইলে আনিসুল হক বলেন, এ ব্যাপারে সংবিধানের ৯৭ অনুচ্ছেদে বলা আছে। তিনি ৯৫ ও ৯৭ অনুচ্ছেদ একত্রে পড়তে সাংবাদিকদের পরামর্শ দেন।

সংবিধানের ৯৫(১) অনুচ্ছেদে বলা হয়েছে, ‘প্রধান বিচারপতি রাষ্ট্রপতি কর্তৃক নিযুক্ত হইবেন এবং প্রধান বিচারপতির সহিত পরামর্শ করিয়া রাষ্ট্রপতি অন্যান্য বিচারককে নিয়োগদান করিবেন।’

সংবিধানের ৯৭ অনুচ্ছেদে বলা হয়েছে, ‘প্রধান বিচারপতির পদ শূন্য হইলে কিংবা অনুপস্থিতি, অসুস্থতা বা অন্য কোন কারণে প্রধান বিচারপতি তাহার দায়িত্বপালনে অসমর্থ বলিয়া রাষ্ট্রপতির নিকট সন্তোষজনকভাবে প্রতীয়মান হইলে ক্ষেত্রমত অন্য কোন ব্যক্তি অনুরূপ পদে যোগদান না করা পর্যন্ত কিংবা প্রধান বিচারপতি স্বীয় কার্যভার পুনরায় গ্রহণ না করা পর্যন্ত আপীল বিভাগের অন্যান্য বিচারকের মধ্যে যিনি কর্মে প্রবীণতম, তিনি অনুরূপ কার্যভার পালন করিবেন।’

প্রধান বিচারপতির পদত্যাগের ফলে এখন নতুন করে প্রধান বিচারপতি নিয়োগের প্রশ্নটি আসে। এ ব্যাপারে জানতে চাইলে সাবেক আইনমন্ত্রী শফিক আহমেদ ঢাকাটাইমসকে বলেন, রাষ্ট্রপতি সংবিধান অনুযায়ী প্রধান বিচারপতি নিয়োগ দেবেন।

প্রধান বিচারপতি নিয়োগে জ্যেষ্ঠতা অনুসরণ রাষ্ট্রপতির জন্য বাধ্যবাধকতা নয় বলে ওঠে আসে সাবেক আইনমন্ত্রীর বক্তব্যে। তিনি বলেন, রাষ্ট্রপতি আপিল বিভাগ থেকে যে কাউকে প্রধান বিচারপতি হিসেবে নিয়োগ দিতে পারেন।

সুপ্রিম কোর্ট ওয়েবসাইট সূত্রে জানা গেছে, আপিল বিভাগে বর্তমানে পাঁচজন বিচারপতি রয়েছেন। বিচারপতি আবদুল ওয়াহহাব মিঞা ছাড়া অন্য জেষ্ঠ্যতার ভিত্তিতে অন্য চার বিচারক হলেন- বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন, বিচারপতি মোহাম্মদ ইমান আলী, বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকী ও বিচারপতি মির্জা হোসেইন হায়দার।




আরও পড়ুন



প্রধান সম্পাদকঃ
ড. মো: ইদ্রিস খান

সম্পাদক ও প্রকাশকঃ
মোঃ খায়রুল আলম রফিক

সিয়াম এন্ড সিফাত লিমিটেড
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয়ঃ ৬৫/১ চরপাড়া মোড়, সদর, ময়মনসিংহ।
ফোন- +৮৮০৯৬৬৬৮৪, +৮৮০১৭৭৯০৯১২৫০, +৮৮০১৯৫৩২৫২০৩৭
ইমেইল- aporadhshongbad@gmail.com
(নিউজ) এডিটর-ইন-চিফ,
ইমেইল- khirulalam250@gmail.com
close