* রাজশাহীর জলে-স্থলে নৌকার ছড়াছড়ি           * সিডার মেশিন দ্বারা লাইন পদ্ধতিতে ফসল চাষে ব্যপক সাফল্য           *  আশুলিয়ায় ফার্নিচার কারখানা পুড়ে ছাই           * টাইগারের ধুন্ধুমার অ্যাকশনে ভরপুর ‘বাঘি ২’ ট্রেলার           *  ‘তারেক পরিবারের যুক্তরাজ্যে নাগরিকত্বের আবেদন অপপ্রচার’           *  পেরুতে দ্বিতল বাসে খাদে, নিহত ৪৪           *  আরেকটি বিরল রেকর্ডের সামনে আফগান স্পিনার রশিদ           * বঙ্গবন্ধুর জন্ম না হলে বাংলাদেশ স্বাধীন হতো না ----- ধর্মমন্ত্রী           * পেট ব্যথার ৫ প্রাকৃতিক সমাধান           * নকিয়ার ফোনে ‘ডিএসএলআর ক্যামেরা’           *  ঢাকায় নারীদের সাপ্তাহিক হাট           * গাজীপুরে ৩০ কোটি টাকার বনভূমি উদ্ধার           * নড়াইল জেলা প্রশাসক, পুলিশ সুপার এর শহীদ মিনারের বেদিতে শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবদেন           * বদলগাছীতে শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস ২০১৮ উদ্যাপন           *  আসামি ধরতে গিয়ে দুই পুলিশ সদস্য আহত           *  ওভারব্রিজে ধাক্কা লেগে চার ট্রেনযাত্রী নিহত           *  কিশোরগঞ্জের নতুন ডিসি সারওয়ার মুর্শেদ           * নতুন কুঁড়ি থেকে রুপালি পর্দায় তিশা           * ব্যাটিংয়ে শীর্ষে কোহলি, জায়গা ধরে রেখেছেন সাকিব           * যুক্তরাষ্ট্রে কেন এত বন্দুক হামলা?          
* বঙ্গবন্ধুর জন্ম না হলে বাংলাদেশ স্বাধীন হতো না ----- ধর্মমন্ত্রী           * পরিদর্শক সজিব রহমানের নেতৃত্বে মাদক বিরোধী ছিনতাই রোধে হার্ডলাইনে ২নং ফাঁড়ি পুলিশ           * বিকালে সংবাদ সম্মেলনে আসছেন প্রধানমন্ত্রী          

কতদিন কারাগারে থাকতে হবে খালেদাকে?

নিজস্ব প্রতিবেদক | সোমবার, ফেব্রুয়ারী ১২, ২০১৮
কতদিন কারাগারে থাকতে হবে খালেদাকে?
দুর্নীতির মামলায় তিন বছরের কারাদণ্ড পাওয়া কক্সবাজারের সংসদ সদস্য আবদুর রহমান বদির আপিল করে জামিনে মুক্তি পেতে সময় লেগেছিল ১৮ দিন। ঘটনাটি পুরনো হলেও বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার সাজার পর আপিল ও জামিন আবেদনের চেষ্টা চলার কারণে বদির বিষয়টি উদাহরণ হিসেবে সামনে এসেছে।

গত ৮ ফেব্রুয়ারি দুর্নীতির মামলায় পাঁচ বছরের কারাদণ্ড পেয়ে কারাগারে গেছেন সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়া। তার দণ্ডের আদেশ হওয়ার পর পর আইনজীবীরা আপিল করে জামিন আবেদনের ইচ্ছার কথা জানিয়েছিলেন। আর রবিবারের মধ্যে এই আপিল করা আশাও করছিলেন তারা।

কিন্তু আপিল করতে হলে রায়ের সার্টিফাইড কপি লাগবে। মোট ৬৩২ পৃষ্ঠার রায়ের সার্টিফাইড কপি অবশ্য রবিবারের মধ্যে পাওয়া যায়নি।

কাজেই দণ্ডের রায়ের বিরুদ্ধে খালেদা জিয়ার আপিল আর জামিন আবেদন কবে হবে, তার আগ পর্যন্ত তাকে কত দিন কারাগারে থাকতে হবে, এই বিষয়টি নিয়ে তার সমর্থকদের মধ্যে এক ধরনের প্রশ্ন আছে।

আইনজীবীরা বলছেন, এই বিষয়টি নিশ্চিত করে বলা কঠিন। কারণ, সার্টিফাইড কপি পাওয়ার পর কোন কোন যুক্তিতে আপিল করা হবে, এই বিষয়গুলো আগেই ঠিক করে তা জমা দিতে হবে। কারণ, এর ওপরই নির্ভর করবে আপিলের রায়। কাজেই তাড়াহুড়ো করে ভুল করলে পরে ক্ষতি হবে খালেদা জিয়ারই।

দুর্নীতি দমন কমিশনের মামলায় কক্সবাজারে আওয়ামী লীগের সংসদ সদস্য আব্দুর রহমান বদির তিন বছরের জন্য দণ্ডিত হয়ে কারাগারে যান গত ২ নভেম্বর। রায়ের বিরুদ্ধে আপিল ও জামিন আবেদন করতে করতে লেগে যায় ১৩ দিন।

১৫ নভেম্বর হাইকোর্টে এই আবেদন করার পর বদির জামিনে মুক্ত হতে লেগে যায় আরও পাঁচ দিন। ২০ নভেম্বর জামিনে কারাগার থেকে বের হন তিনি।

অবশ্য আপিল করে জামিন আবেদন করলেই যে উচ্চ আদালত কাউকে জামিন দেবেন, সেটাও সুনিশ্চিত নয় বলে জানিয়ছেন দুদকের আইনজীবী খুরশীদ আলম খান। ঢাকাটাইমসকে তিনি বলেন, ‘দুর্নীতি মামলায় কারাদণ্ড হওয়ার পর হাইকোর্ট থেকে জামিন মঞ্জুর ও জামিন না মঞ্জুর উভয় নজিরই আছে।’

দুদকে সম্পত্তির হিসাব জমা না দেয়ার মামলায় সাভারের রানা প্লাজার মালিক সোহেল রানার তিন বছরের কারাদণ্ডের বিরুদ্ধে আপিল হলেও তার জামিনের আবেদনে সায় দেয়নি হাইকোর্ট। অবশ্য সোহেলের বিরুদ্ধে আরও মামলা রয়েছে।

আবার হাইকোর্ট আব্দুর রহমান বদির জামিনের আদেশ দিলেও সেটির বিরুদ্ধে আপিল করেছে দুদক। সংস্থাটির আইনজীবী খুরশীদ আলম খান জানান, আবেদনটি এখন শুনানির জন্য অপেক্ষায় রয়েছে।

তবে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মওদুদ আহমদ আশা করছেন, খালেদা জিয়ার সাবেক প্রধানমন্ত্রী হিসেবে জামিনে বেগ পেতে হবে না। তিনি ঢাকাটাইমসকে বলেন, ‘রায়ের সার্টিফাইড কপি পেলেই আমরা আপিল করব। একইসঙ্গে জামিনের জন্য আবেদন করব। আমরা মনে করি তিনি জামিন পাবেন।’

তবে যে মামলায় খালেদা জিয়ার সাজা হয়েছে, সেটি ছাড়াও তার বিরুদ্ধে আরও ৩৫টি মামলা রয়েছে। এগুলোর মধ্যে জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতির মামলা একেবারেই শেষ পর্যায়ে রয়েছে। জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় রায়ের তারিখ ঘোষণার পর থেকে তিন দিন যু্ক্তি উপস্থাপন হয়েছে চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলায়। আগামী ২৫ ও ২৬ ফেব্রুয়ারি এই মামলায় যুক্তি উপস্থাপনের কথা আছে।

বাকি মামলাগুলোর মধ্যে একটি মামলায় খালেদা জিয়াকে গ্রেপ্তারের আদেশ আছে আদালতের। ২০১৬ সালের ১৭ নভেম্বর বিএনপি চেয়ারপারসনকে গ্রেপ্তারের আদেশ দেয় ঢাকার একটি আদালত। আগামী ১৪ ফেব্রুয়ারি খালেদা জিয়াকে এই মামলায় গ্রেপ্তারের বিষয়ে আদালতকে প্রতিবেদন দিতে হবে পুলিশকে।

এই মামলায় সাবেক প্রধানমন্ত্রীকে পুলিশ গ্রেপ্তার দেখালে এই মামলাতেও তাকে জামিন চেয়ে আবেদন করতে হবে বিচারিক আদালতে।

এই মামলাটি ছাড়া বাকি মামলাতেও খালেদা জিয়াকে গ্রেপ্তার দেখানো সম্ভব। যদিওন ঢাকা মহানগর পুলিশের জনসংযোগ ও গণমাধ্যম শাখার অতিরিক্ত উপকমিশনার ইউসুফ আলী ঢাকাটাইমসকে নিশ্চিত করেছেন, পুলিশ তা করবে না।

ইউসুফ আলী বলেন, ‘উনার (খালেদা জিয়) অধিকাংশ মামলিই বিচারাধীন। সেহেতু উনাকে কোনো মামলায় উনাকে শোন অ্যারেস্ট দেখানো হবে না।’




আরও পড়ুন



প্রধান সম্পাদকঃ
ড. মো: ইদ্রিস খান

সম্পাদক ও প্রকাশকঃ
মোঃ খায়রুল আলম রফিক

সিয়াম এন্ড সিফাত লিমিটেড
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয়ঃ ৬৫/১ চরপাড়া মোড়, সদর, ময়মনসিংহ।
ফোন- +৮৮০৯৬৬৬৮৪, +৮৮০১৭৭৯০৯১২৫০, +৮৮০১৯৫৩২৫২০৩৭
ইমেইল- aporadhshongbad@gmail.com
(নিউজ) এডিটর-ইন-চিফ,
ইমেইল- khirulalam250@gmail.com
close