* ঘূর্ণিঝড় ‘দেয়ি’ : ৩ নম্বর সঙ্কেত বহাল            * নূপুর আছে মরিয়ম নেই, রাজহাঁসের বুকের ২ টুকরা মাংস নেই           * বাকৃবিতে কর্মকর্তা কর্মচারীদের বিক্ষোভ           * বিসিএস উত্তীর্ণ মেয়েকে উদ্ধারে থানার সামনে অবস্থান বাবা-মায়ের           * ক্লান্ত মাশরাফিদের সামনে সতেজ ভারত           * নিউইয়র্কের উদ্দেশে সকালে ঢাকা ছাড়ছেন প্রধানমন্ত্রী           *  প্রতারক কামাল-মাসুদ এর বিরুদ্ধে চার মামলা            * হালুয়াঘাটে পুলিশের হাতে ফের আটক-৬           *  ঝিনাইগাতীতে বাবা শ্রেষ্ঠ শিক্ষক মেয়ে সেরা শিক্ষার্থী           * ভারত থেকে প্রশিক্ষন প্রাপ্ত ২০ টি ঘোড়া আমদানী           *  ফুলপুরে ৭৭ জন ভিক্ষুকের মাঝে সেলাই মেশিন বিতরণ            * কেন্দুয়ায় নারী বিসিএস ক্যাডারকে অপহরণের অভিযোগ           * মাদ্রাসায় জোড়া খুন: পরিচালকের বিরুদ্ধে মামলা           * তরুণীরা আবেদনময়ী সেলফি তোলেন কেন?            * মাথাপিছু আয় বেড়েছে ১৬,৩৮৮ টাকা           * সৌন্দর্যের গোপন রহস্য জানালেন শ্রীদেবীর মেয়ে            * নবনিযুক্ত দুই রাষ্ট্রদূতের রাষ্ট্রপতির কাছে পরিচয়পত্র পেশ           * শ্রীলঙ্কার দুর্দিন দেখে অবসর ভেঙে ফেরার ইঙ্গিত দিলশানের            * স্মার্টফোনের আসক্তি কাটানোর নয়া অস্ত্র           * আলোচনায় বসতে মোদিকে ইমরানের চিঠি          
* ঘূর্ণিঝড় ‘দেয়ি’ : ৩ নম্বর সঙ্কেত বহাল            * বাকৃবিতে কর্মকর্তা কর্মচারীদের বিক্ষোভ           * বিসিএস উত্তীর্ণ মেয়েকে উদ্ধারে থানার সামনে অবস্থান বাবা-মায়ের          

টার্গেট মাসে ৮ লক্ষ টাকা, দরকার অভিজ্ঞ টি আই

আনিসুর রহমান | শুক্রবার, ফেব্রুয়ারী ২৩, ২০১৮
টার্গেট মাসে ৮ লক্ষ টাকা, দরকার অভিজ্ঞ টি আই

একজন হাবিলদার হিসেবে ১৯৯৭ সন  থেকে রাজধানীর ডিএমপিতে  আব্দুল কাদের খান চাকুরী করে আসছে । ২০১৭ সনে সাত জন সার্জেন্টকে ওভারটেক করে আব্দুল কাদের খান এখন টি আই অর্থ্যাৎ  ট্রাফিক ইন্সপেক্টর।

মাসে ৮ লক্ষ টাকা হাত সাফাইয়ের একটি মিশনে নেমে ময়মনসিংহের টি আই আঃ কাদের খান সারা শহর দাপিয়ে বেড়াচ্ছে আর টোল আদায়ের মত যেখানে যত টাকা পাচ্ছেন পকেটে ভরছেন টার্গেট পুরনের জন্য। ময়মনসিংহে হঠাৎ লাল নীল অটো বৃদ্ধি পাওয়ার এটাও একটা কারন বলে মনে করছেন শহর বাসী। সাধারন একজন হাবিলদার থেকে ট্রাফিক সার্জেন্টে উত্থানে আব্দুল কাদের খানের রয়েছে চমকপ্রদ কাহিনী। যা রহস্যজনকও বটে।

২৪ জুন ২০০৮ সন থেকে কাদের খান ঢাকার ডিএমপি থেকে শুরু করে এটি এস আই থেকে  টি এস আই হিসেবে বিভিন্ন পুলিশ ফাঁড়িতে চাকুরী করেন যেখানে ট্রাফিক ইন্সপেক্টর হিসেবে তার কোন পূর্বাপর অভিজ্ঞতা নেই। অনুসন্ধান করে জানাগেছে, বিএনপি -জামায়াত জোট সরকারের আমলে ময়মনসিংহের ১নং ফাঁড়িতে থাকা কালীন সময় ঘুষ,যৌনকর্মী  নির্যাতন, মাদক ব্যবসা সহ বিভিন্ন অনৈতিক কাজে লিপ্ত থাকার অভিযোগ রয়েছে কাদের খানের বিরুদ্ধে। সেসময়টাতে কাদের ছিলেন বেপরোয়া। জানাগেছে, এসময় তার মুখের ওপর কেউ কথা বলতে পারতো না। অনেকটা মাফিয়া ডনের মত ছিল তার চলন বলন। ২০১৭ সনে অর্থ্যাৎ গত বছর হঠাৎ করেই তার টি আই পদবী লাভ করাতে অনেকেই বিস্মিত হোন। কারন  ট্রাফিক ইন্সপেক্টর পুলিশ ডিপার্টমেন্টের একটি ভিন্ন সাবজেক্ট যার কোন অভিজ্ঞতা তার নেই।

তদুপরি ৭জন দক্ষ সার্জেন্ট কে ডিঙিয়ে তার এই পদবী বিস্ময়কর এবং প্রশ্নবিদ্ধ করে রেখেছে ময়মনসিংহ পুলিশ বিভাগকে। তাকেই  ট্রাফিক ইন্সপেক্টর করতে হবে এর কারন এক বছরেও ধোয়াশা হয়ে আছে। জানাগেছে, টি আই হিসেবে যোগ দেবার পর থেকেই অদ্যাবধি আঃ কাদের খান প্রতিটি সেক্টর থেকে হয় পুরোটা নয় ফিফটি পার্সেন্ট বখড়া আদায় করে যাচ্ছে। ট্রাক,বাস,সিএনজি,অটো,ভটভটি প্রভৃতি গাড়ীগুলো ময়মনসিংহ শহরে ঢুকতে এবং বেরিয়ে  যেতে বখড়া তাকে দিতেই হবে।

জানাগেছে, ময়মনসিংহ শহরে লাল ও নীল অটো চলাচলে কাদের খানের সিস্টেম আশ্চর্য্যজনক ভটবে বদলে যায়। রাতারাতিই লাল অটোকে করে দেয়া হয় নীল রঙের আর নীল অটো হয়ে যায় লাল কালারে।এই প্রক্রিয়ায় প্রতিদিনই টি আই আব্দুল কাদের খান হাতিয়ে নিচ্ছে হাজার হাজার টাকা। জানাগেছে, তার চাহিদা পূরন করতে  টার্গেট ফুলফিল করতে টি আই কাদের খান এখন মরিয়া হয়ে উঠেছে। অটো এবং সিএনজি থেকে করছে বানিজ্যে, দিশেহারা গাড়ীর মালিক এবং দিশেহারা শহরবাসী। শহরবাসীকে বারবারই প্রশ্নবিদ্ধ করছে একজন হাবিলদার পরবর্তী টি এস আই, এটি এস আই কি করে একজন  ট্রাফিক ইন্সপেক্টর হতে পারে, যেখানে দক্ষ এবং অভিজ্ঞ ট্রাফিক ইন্সপেক্টর পদবী ধারী কর্মকর্তারা বর্তমান রয়েছে।

এই অনিয়ম অব্যবস্থাপনা ময়মনসিংহ ট্রাফিক ব্যবস্থাপনাকে একেবারেই ভেঙে দিচ্ছে বলে ময়মনসিংহ শহরবাসী উদ্বেগ প্রকাশ করে ময়মনসিংহ পুলিশ সুপার সৈয়দ নুরুল ইসলাম এর প্রতি জোর হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন পাশাপাশি স্পর্শকাতর ট্রাফিক সেক্টর থেকে ঘুষ বানিজ্যে সিদ্ধহস্ত প্রতিমাসে সাড়ে ৮ লক্ষ টাকা টার্গেট ধারী আঃ কাদের খানকে অবিলম্বে এই সেক্টর থেকে অন্যত্র সরিয়ে নেবার আহ্বান জানিয়েছেন।





আরও পড়ুন



প্রধান সম্পাদকঃ
ড. মো: ইদ্রিস খান

সম্পাদক ও প্রকাশকঃ
মোঃ খায়রুল আলম রফিক

সিয়াম এন্ড সিফাত লিমিটেড
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয়ঃ ৬৫/১ চরপাড়া মোড়, সদর, ময়মনসিংহ।
ফোন- +৮৮০৯৬৬৬৮৪, +৮৮০১৭৭৯০৯১২৫০, +৮৮০১৯৫৩২৫২০৩৭
ইমেইল- aporadhshongbad@gmail.com
(নিউজ) এডিটর-ইন-চিফ,
ইমেইল- khirulalam250@gmail.com
close