* আষাঢ়ের দাবাদহে তপ্ত বরেন্দ্রঞ্চল           * ময়মনসিংহ রেঞ্জে শ্রেষ্ঠ পুলিশ অফিসারদের পুরষ্কার বিতরন           * জীবন দিয়ে হলেও ভোট কারচুপি ঠেকাবো: হাসান সরকার           * ঐতিহ্যপূর্ন মৃৎ শিল্পের যৌবন হারানোর পথে           * চাঁদার দাবিতে প্রবাসীর পরিবারকে বোমা মেরে হত্যার হুমকি           * ছাতকে নিখোজ আ,লীগ নেতার গলাকাটা লাশ উদ্ধার           *  ঝিনাইগাতীতে একই ধান গাছ থেকে দু’বার ফলন!           * ময়মনসিংহে অলস মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর           * চার ছাত্রলীগ নেতা ডিবি পুলিশ হেফাজতে           * থিয়াগো সিলভাকে অপমান করেছেন নেইমার!            * দীপিকার পারিশ্রমিক নিয়ে মন্তব্য করলেন তার সাবেক প্রেমিক           * বিলাসী জীবনের লোভে ইয়াবার কারবার, আটক চার           * বদলগাছীতে স্বামীর পরকীয়ার জেরে লিঙ্গ কর্তন করেছেন স্ত্রী           * ময়মনসিংহে বিরল রোগে আক্রান্ত শিশু ফিহা বাঁচতে চায়           * দ্বীনের ওপর অবিচল থাকার আসমানি পুরস্কার           * কোটি টাকার গাড়ির দাম লাখ টাকা           * শারীরিক সম্পর্কের পর যেসব সমস্যা লুকিয়ে রাখেন নারীরা           * ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে শ্রমিক বিক্ষোভ, অবরোধ           * ঘুম নষ্ট হতে পারে এসব খাবারে           * খালেদা জিয়ার জামিনের বিরুদ্ধে আপিল শুনানি চলছে          
* ময়মনসিংহে অলস মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর           * চার ছাত্রলীগ নেতা ডিবি পুলিশ হেফাজতে           * ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে শ্রমিক বিক্ষোভ, অবরোধ          

মুদ্রাপাচার নিয়ে প্রতিবেদন তথ্যভিত্তিক নয়: মুহিত

নিজস্ব প্রতিবেদক, | সোমবার, ফেব্রুয়ারী ২৬, ২০১৮

মুদ্রাপাচার নিয়ে প্রতিবেদন তথ্যভিত্তিক নয়: মুহিত
বাংলাদেশ থেকে ব্যাপকহারে অর্থপাচার ও অর্থনীতি নিয়ে শঙ্কার বিষয়ে গণমাধ্যমে আসা প্রতিবেদন তথ্যভিত্তিক নয় বলে দাবি করেছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। তার দাবি, সামনে অর্থনীতিকে সুসময় অপেক্ষা করছে।

সোমবার জাতীয় সংসদে চলতি অর্থবছরের প্রথম ত্রৈমাসিক প্রতিবেদন উপস্থাপন করে অর্থমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

মুহিত বলেন, ‘কাগজপত্রে যে অনেক কিছু বলা হচ্ছে যে দেশের ভবিষ্যৎ একটু সন্দেহজনক, এটার কোনো ভিত্তি এই সব তথ্যের মধ্যে পাওয়া যায় না। এবং পরবর্তী যে তিন মাস এর মধ্যেই গত হয়েছে সেখানেও তার কোনো ইঙ্গিত নেই।’

‘আমি আস্থার সাথে বলতে পারি যে, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বলিষ্ঠ নেতৃত্বে আমরা আমাদের অভিষ্ঠ লক্ষ্যে অবশ্যই পৌঁছে যাব।’

গত কয়েক বছর ধরেই বাংলাদেশ থেকে মুদ্রা পাচার বিষয়ে প্রতিবেদন আসছে গণমাধ্যমে। এ বিষয়ে সুনির্দিষ্ট তথ্য না থাকলেও বিদেশি গবেষণা সংস্থার প্রতিবেদনই তথ্যের মূল উৎস। তবে তাদের তথ্যের উৎসও অজানা। তবে বিষয়টি বাংলাদেশে এক ধরনের রাজনৈতিক চাপ তৈরি করছে সরকারের জন্য।

খবরের কাগজে প্রকাশিত প্রতিবেদন তথ্যভিত্তিক নয় দাবি করে মন্ত্রী বলেন, ‘যেসব খবর বলা হচ্ছে, যেমন এখান থেকে ব্যাপকভাবে মুদ্রা পাচার হচ্ছে, যেমন অর্থনীতির জন্য দুর্দিন সামনে রয়েছে-এই সব কী বলব, নিরাশাবাদী যেসব বক্তব্য রয়েছে, সেটা যাতে খণ্ডিত হতে পারে, সে জন্য আমার এই ত্রৈমাসিক রিপোর্ট এই সময়ে এসেছে বলে আমার মনে হয়েছে ভালোই হয়েছে।’

‘আমি দৃঢ়ভাবে বলছি, আমাদের এই লক্ষ্যমাত্রা আদায়ে এই বছরে কোনো ধরনের বিচ্যুতি আমি আশা করি না। প্রথম প্রান্তিকের রিপোর্ট আমি উপস্থাপন করলাম, দ্বিতীয় প্রান্তিক শেষ হয়ে গেছে, এই প্রান্তিকের রিপোর্ট তৈরি করছি। আশা করি আগামী সেশনে সেটা দিতে পারব এবং আপনারা আরও নিশ্চিত হবেন যে দেশের অর্থনৈতিক সমস্যা কোনো জটিল কিছু এই মুহূর্তে আমাদের সামনে নেই।’

মন্ত্রী জানান, জুলাই থেকে সেপ্টেম্বর অবধি অর্থবছরের প্রথম দিন মাসে দেশে বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচি বাস্তবায়নের হার ১০.২ শতাংশ। বিগত অর্থবছরে যা ছিল ৮.৮ শতাংশ।

সার্বিকভাবে অর্থবছরের প্রথম প্রান্তিকে গত বছরের প্রথম প্রান্তিকের তুলনায় ব্যয় ৮.৮ শতাংশ বেড়েছে।

প্রথম তিন মাসে পূর্ববর্তী বছরের একই সময়ের তুলনায় বেসরকারি খাতে ঋণ সরবরাহ বেড়েছে ১৭.৮ শতাংশ। এটা অর্থনৈতিক খাতে ইতিবাচক পরিবর্তনের ইঙ্গিত বহন করে বলেও মন্তব্য করেন মুহিত।

‘অধিক পরিমাণে সঞ্চয়পত্র বিক্রির কারণে ব্যাংক ব্যবস্থা থেকে সরকারের ঋণ করার প্রয়োজনীয়তা কমেছে।’

অর্থবছরের প্রথম প্রান্তিকে খাদ্য মূল্যস্ফীতি বাড়লেও খাদ্য বহির্ভুত মূল্যস্ফীতি কমেছে বলেও জানান অর্থমন্ত্রী। ফলে গড় মূল্যস্ফীতি কমেছে। গত অর্থবছেরর ৫.৭ শতাংশ থেকে কমে সেটা ৫.৫ শতাংশ হয়েছে।

অর্থবছরের প্রথম প্রান্তিকে রপ্তানির প্রবৃদ্ধি হয়েছে ৭.৬ শতাংশ, যা আগের বছরের একই প্রান্তিকের প্রবৃদ্ধির দ্বিগুণ।

অভ্যন্তরীণ ভোগ বাড়ায় আমদানি ব্যয় বেড়েছে। বছরের প্রথম প্রান্তিকে আমদানি ব্যয় হয়েছে ১৩ হাজার ১৮৪ মিলিয়ন ডলার যা গত অর্থবছরের তুলনায় ২৮.৪ শতাংশ বেশি।

এই প্রান্তিকে মূলধনী যন্ত্রপাতি ১৬.১ শতাংশ এবং কাঁচমাল আমদানি ৪১ শতাংশ বেড়েছে জানিয়ে অর্থমন্ত্রী বলেন, ‘এই প্রবৃদ্ধি নিকট ভবিষ্যতে উৎপাদন বৃদ্ধির শুভ ইঙ্গিত বহন করছে।’

অর্থবছরের প্রথম প্রান্তিকে প্রবাসীদের পাঠানো আয়ও ৪.৪ শতাংশ বেড়েছে। এই প্রান্তিকে জনশক্তি রপ্তানি ২৪.৪ শতাংশ বেড়ে দুই লাখ ১৫ হাজার ৯৭১ জন হয়েছে বলেও জানান অর্থমন্ত্রী।

আমদানি বাড়লেও সার্বিক লেনদেন ভারসাম্যে অনুকূল অবস্থা বিরাজ করছে বলেও জানান অর্থমন্ত্রী। সেপ্টেম্বর শেষে রিজার্ভ ৩২.৮ বিলিয়ন ডলার হয়েছে।

বিদ্যুৎ উৎপাদনে ঘাটতি মেটানো হয়েছে বলেও জানান মন্ত্রী। গ্যাসের উৎপাদনও বাড়ানো হয়েছে, নতুন ১০৮টি কূপ খননের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।

মন্ত্রী বলেন, ‘দ্রুত ও স্থিতিশীল প্রবৃদ্ধি অর্জনে বাংলাদেশের অর্থনীতির সহজাত সক্ষমতা ইতিমধ্যে প্রমাণিত হয়েছে। ধারাবাহিক উন্নতির ফসলস্বরূপ বাংলাদেশ আজ উন্নয়নের বৈশ্বিক রোল মডেল।’

অর্থমন্ত্রী বলেন, ‘বর্তমানে রাজনৈতিক স্থিতিশীলতার সরাসরি ‍সুফল ভোগ করছে অর্থনীতির সকল খাত। বিদ্যুৎ, জ্বালানিও যোগাযোগসহ অবকাঠামো উন্নয়ন এবং প্রাতিষ্ঠানিক দক্ষতা বৃদ্ধির মাধ্যমে সৃষ্ট হয়েছে বিনিয়োগ সহায়ক পরিবেশ।’

‘অন্যদিকে বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি নির্ভর শিক্ষা ও প্রশিক্ষণ প্রবর্তনের ফলে দেশের বিপুল জনগোষ্ঠীর দক্ষতাও জীবনমানে এসেছে ইতিবাচক পরিবর্তন। উন্নয়নের এই মহা আয়োজনে প্রয়োজন সকলের কার‌্যকর অংশগ্রহণ।’

‘আমাদের আছে অকুতভয়, সৃজনশীল ও কর্মঠ জনশক্তি। সর্বোপরি সাহসী, প্রাজ্ঞ, গতিশীল ও জনহিতৈষী নেতৃত্ব। আর্তমানবতার জন্য সংবেদনশীল মানসিকতা, অভিজ্ঞতা, প্রজ্ঞা, মেধা, যোগ্যতা, আত্মপ্রত্যয় ও দূরদর্শীতার কারণে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এখন বিশ্ব নেতা।’




আরও পড়ুন



প্রধান সম্পাদকঃ
ড. মো: ইদ্রিস খান

সম্পাদক ও প্রকাশকঃ
মোঃ খায়রুল আলম রফিক

সিয়াম এন্ড সিফাত লিমিটেড
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয়ঃ ৬৫/১ চরপাড়া মোড়, সদর, ময়মনসিংহ।
ফোন- +৮৮০৯৬৬৬৮৪, +৮৮০১৭৭৯০৯১২৫০, +৮৮০১৯৫৩২৫২০৩৭
ইমেইল- aporadhshongbad@gmail.com
(নিউজ) এডিটর-ইন-চিফ,
ইমেইল- khirulalam250@gmail.com
close