* শীতকালে শুষ্ক ও ফাটা ত্বকের ঘরোয়া সমাধান           *  ইতিহাস গড়ে জিতল বাংলাদেশ           *  দণ্ডিতদের ভোটে আসার পথ আটকাই থাকল           *  গোলাম মাওলা রনির মনোনয়নপত্র বাতিল           * হিরো আলমের প্রার্থিতা বাতিল           *  ইবি অধ্যাপক নূরী আর নেই           * কেন্দুয়ায় চিথোলিয়া গ্রামে বসেছিল রাতব্যাপী লালন সংগীতের আসর           * গাজীপুরে মরুভূমি ফুল এর মানবন্ধন           *  শান্তিচুক্তির ২১ বছর পাহাড়ে থামেনি ভাতৃঘাতী সংঘাত           *  প্রতিপক্ষকে প্রথমবার ফলোঅন করালো বাংলাদেশ           *  ১৫০ সিসির নতুন পালসার আনল বাজাজ           *  গাঁজা সেবনের দায়ে যুবকের জেল           *  সেরা ডিজিটাল ব্যাংকের পুরস্কার পেল সিটি ব্যাংক           * দেশে পৌঁছেছে ‘হংসবলাকা’            * মোদি কেমন হিন্দু, প্রশ্ন রাহুলের            * মিরাজের ঘূর্ণিতে ফলোঅনে উইন্ডিজ           * কাঠবোঝাই ট্রাক চাপায় প্রাণ গেল তিন শ্রমিকের           * নারায়ণগঞ্জে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ মাদক বিক্রেতা নিহত           * আলাস্কায় ভয়াবহ ভূমিকম্প, ৬ ঘণ্টায় ৪০ বার কম্পন           * জাতিসংঘের মিশনে বিমান বাহিনীর ২০২ সদস্যের কঙ্গো গমন          
* দেশে পৌঁছেছে ‘হংসবলাকা’            * মোদি কেমন হিন্দু, প্রশ্ন রাহুলের            * মিরাজের ঘূর্ণিতে ফলোঅনে উইন্ডিজ          

জীবন পাল্টাতে দৃষ্টিভঙ্গি পাল্টান

এ এম আব্দুল্লাহ্ | বুধবার, এপ্রিল ১১, ২০১৮
জীবন পাল্টাতে দৃষ্টিভঙ্গি পাল্টান
বেশিরভাগ মানুষকে বিনা কারণে খুব হতাশ হতে অথবা চাকচিক্যময় জীবনের স্বপ্নে মূল্যবান সময় নষ্ট করতে দেখা যায়। কিন্তু দৃষ্টিভঙ্গির পরিবর্তনই পারে মানুষকে হতাশা থেকে মুক্তি দিয়ে সত্যি সত্যি স্বপ্নময় করে তুলতে।

বিমা কোম্পানির অধিকাংশ প্রতিনিধির কাছে তাদের চাকরিটা খুবই চ্যালেঞ্জিং। হয়তো দশজন মানুষের কাছে বিমা করার প্রস্তাব নিয়ে গেলে আগ্রহ দেখান মাত্র একজন। আবার আগ্রহী পাঁচজন মানুষের মধ্যে শেষ পর্যন্ত একজন মাত্র ব্যক্তি বিমা করবেন। অর্থাৎ একটি দৃষ্টিকোণ থেকে তার সাফল্যের হার শতকরা দশভাগের কম। কিন্তু বিষয়টিকে যদি এভাবে নেওয়া যায় যে, একজন মানুষকে বিমা করানোর জন্য দশজনকে বলতে হবে, একজন আগ্রহ দেখাবেন। এভাবে আগ্রহী পাঁচজনের মধ্যে প্রকৃতপক্ষে একজন বিমা পলিসি গ্রহণ করবেন। এক্ষেত্রে কিন্তু সাফল্যের হার শতভাগ। তবে এই মানসিকতা ধারণ করার জন্য প্রয়োজন অদম্য মনোবল আর পরিশ্রম।

পাঁচ-দশ বছর পর পর সমাজে কিছু সফল মানুষ নতুন করে খুঁজে পাওয়া যায়। কিছুদিন আগেও যারা অন্য আর দশজনের মতোই ছিল, আজ তারা প্রতিষ্ঠিত। আসলে অন্যরা শুধুমাত্র তাদের সাফল্য দেখতে পায়। সাফল্যের পেছনে শ্রম আর অধ্যবসায় দেখতে পায় না। দেখতে পায় না বলেই সব কিছুর জন্য পারিপার্শ্বিকতাকে দায়ী করে। কিংবা অন্যকে তার উন্নতির পথে বাধা বলে মনে করে। আসলে গভীরভাবে দেখলে দেখা যায় সাফল্য প্রত্যেকের হাতের নাগালে ঘোরাফেরা করে। কিন্তু সেই সাফল্য খুঁজে পেতে সে নিজেকে সঠিকভাবে প্রস্তুত করতে পারে না।

নিজের সময় অনর্থক নষ্ট করে দিনদিন ব্যর্থতার চোরাবালিতে নিমজ্জিত হয়। ইন্টারনেটের সুবিধা নিয়ে অনেক ছাত্রছাত্রী, যুবক-যুবতী কিছু শেখার পরিবর্তে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম আর পর্নো ছবি দেখে সময় কাটায়। নিজে প্রতিষ্ঠিত হতে না পারলে কোনো বন্ধুত্বও শেষ পর্যন্ত টিকে থাকে না। তবে এই সত্য অনুধাবন করতে তার অনেক দেরি হয়ে যায়। পর্নো দেখে ভালো লাগার যে অনুভূতি তৈরি হয় তা শেষ হয়ে অতি দ্রুত হতাশা তৈরি হয়। পর্নো ছবি চারিত্রিক দৃঢ়তা নষ্ট করে শারীরিক ও মানসিক যন্ত্রণার কারণ হয়ে দাঁড়ায় ।

ছাত্রজীবনের অফুরন্ত সময় হতে পারে জীবন গড়ার মূলমন্ত্র। তাই প্রতিটি জীবনের জন্য মূল্যবান যে সময় তাকেই সবচেয়ে গুরুত্ব দেওয়া প্রয়োজন। জীবনের সাফল্যের জন্য অন্য কিছু নয়, নিজের প্রচেষ্টা সবচেয়ে বড় ভূমিকা রাখতে পারে। বিশ্বাস করুন এই দৃষ্টিভঙ্গি পাল্টে দেবে আপনার জীবন। আর এই দৃষ্টিভঙ্গির পরিবর্তন এনে দেবে সফলতা।




আরও পড়ুন



সম্পাদক ও প্রকাশকঃ
মোঃ খায়রুল আলম রফিক

বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয়ঃ ৬৫/১ চরপাড়া মোড়, সদর, ময়মনসিংহ।
ফোন- +৮৮০৯৬৬৬৮৪, +৮৮০১৭৭৯০৯১২৫০, +৮৮০১৯৫৩২৫২০৩৭
ইমেইল- aporadhshongbad@gmail.com
(নিউজ) এডিটর-ইন-চিফ,
ইমেইল- khirulalam250@gmail.com
close