* শীতকালে শুষ্ক ও ফাটা ত্বকের ঘরোয়া সমাধান           *  ইতিহাস গড়ে জিতল বাংলাদেশ           *  দণ্ডিতদের ভোটে আসার পথ আটকাই থাকল           *  গোলাম মাওলা রনির মনোনয়নপত্র বাতিল           * হিরো আলমের প্রার্থিতা বাতিল           *  ইবি অধ্যাপক নূরী আর নেই           * কেন্দুয়ায় চিথোলিয়া গ্রামে বসেছিল রাতব্যাপী লালন সংগীতের আসর           * গাজীপুরে মরুভূমি ফুল এর মানবন্ধন           *  শান্তিচুক্তির ২১ বছর পাহাড়ে থামেনি ভাতৃঘাতী সংঘাত           *  প্রতিপক্ষকে প্রথমবার ফলোঅন করালো বাংলাদেশ           *  ১৫০ সিসির নতুন পালসার আনল বাজাজ           *  গাঁজা সেবনের দায়ে যুবকের জেল           *  সেরা ডিজিটাল ব্যাংকের পুরস্কার পেল সিটি ব্যাংক           * দেশে পৌঁছেছে ‘হংসবলাকা’            * মোদি কেমন হিন্দু, প্রশ্ন রাহুলের            * মিরাজের ঘূর্ণিতে ফলোঅনে উইন্ডিজ           * কাঠবোঝাই ট্রাক চাপায় প্রাণ গেল তিন শ্রমিকের           * নারায়ণগঞ্জে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ মাদক বিক্রেতা নিহত           * আলাস্কায় ভয়াবহ ভূমিকম্প, ৬ ঘণ্টায় ৪০ বার কম্পন           * জাতিসংঘের মিশনে বিমান বাহিনীর ২০২ সদস্যের কঙ্গো গমন          
* দেশে পৌঁছেছে ‘হংসবলাকা’            * মোদি কেমন হিন্দু, প্রশ্ন রাহুলের            * মিরাজের ঘূর্ণিতে ফলোঅনে উইন্ডিজ          

হালুয়াঘাটে একের পর এক আটটি খুন। আতংকে মানুষ

ওমর ফারুক সুমন, হালুয়াঘাটঃ | শনিবার, এপ্রিল ২১, ২০১৮
হালুয়াঘাটে একের পর এক আটটি খুন।  আতংকে মানুষ

ময়মনসিংহের হালুয়াঘাট উপজেলায় গত কয়েক মাসে আলোচিত আটটি খুনের ঘটনায় আতংকে রয়েছেন প্রতিটি বিবেকবান মানুষ। ৭ বৎসরের শিশু শিক্ষার্থী ফরহাদ থেকে শুরু করে খুন হয়েছে একাধিক কলেজ ছাত্র যা আজ বিবেকের কাছে প্রশ্ন হয়ে দাঁড়িয়েছে। গত ২৩ আগষ্ট ঔটি গ্রামে আছমা খাতুন নামে এক গৃহবধূকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে পানিতে নিক্ষেপ করে তার স্বামী। এ ঘটনায় আছমার পিতা নছিমউদ্দিন বাদী হয়ে ঐ গৃহবধূর স্বামী মোফাচ্ছেলকে প্রধান আসামী করে মোট পাঁচজনের বিরুদ্ধে হালুয়াঘাট থানায় মামলা দায়ের করেন। পুলিশ পরে বখাটে স্বামী মোফাচ্ছেলকে আটক করে এবং মোফাচ্ছেল আদালতে খুনের কথা স্বীকার করে ।

২০১৭ সালের ২ জানুয়ারী সোমবার সংড়া গ্রামের নজরুল ইসলামের ৬ বৎসরের শিশু ফরহাদের সাথে একই এলাকার মাসুদ মিয়ার শিশু জুনায়েতের খেলা নিয়ে বিরোধ কে কেন্দ্র করে লাঠি দিয়ে শিশু ফরহাদের মাথায় উপর্যুপরি আঘাত করে খুন করেন নজরুল নামে এক মাদকাসক্ত বখাটে। পরে  পুলিশ তৎক্ষনাৎ অভিযান চালিয়ে ঘাটক নজরুলকে আটক করেন। ঐ দিনই নিহত শিশু ফরহাদের মাতা বাদী হয়ে হালুয়াঘাট থানায় মামলা দায়ের করেন।
গত বছরের ১৮ নভেম্বর গাজীরভিটা গ্রামের সবুজ নামে একজনকে হত্যা করে কতিপয় দুর্বৃত্ত। পরে  ঘটনায় তাৎক্ষনিক জড়িত একজন আটক করে পুলিশ। ১০ আগষ্ট ধুরাইল গ্রামের রইছ উদ্দিন (৫৫) মেম্বার কে কোদাল দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করা হয়। পরে  তাৎক্ষনিক জড়িত একজনকে আটক করে হালুয়াঘাট থানা পুলিশ এবং পরে আটককৃত আসামী স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দীও প্রদান করেন। 

৬ জানুয়ারী উপজেলার শাহপাড়া গ্রামে ব্যাডমিন্টন খেলাকে কেন্দ্র করে প্রতিপক্ষের ছুরিকাঘাতে নৃশংসভাবে খুন হোন কলেজ ছাত্র মোঃ শাহরীয়ার আকাশ ও আরিফ রব্বানী সৌরভ। এ ঘটনায় আকাশের  পিতা অধ্যাপক মজিবর রহমান  বাদী হয়ে সাহা পাড়া গ্রামের নাহিদ (৩২), সোহান (২৩), রাজীব(২২), আকাশ (২৪), অনিক (২০) সহ ৯ (নয়) জনকে এজাহার নামীয় ও অজ্ঞাত আরও ১০/১২ জনকে আসামী করে হালুয়াঘাট থানায় মামলা দায়ের করেন। খুনের সাথে জড়িতের অভিযোগে রাজীবসহ কয়েক জনকে আটক করে। রাজীব খুনের কথা স্বীকার করে আদালতে জবানবন্দী দেয়। এ মামলার অন্যতম আসামী আকাশকে এখনো আটক করতে পারেনি পুলিশ।  ১০ নভেম্বর ৮ নং নড়াইল ইউনিয়নের পূর্ব নড়াইল গ্রামের মোতালেবের বাড়ি সংলগ্ন শসা ক্ষেত থেকে সোহেল (৩০) নামে এক যুবকের লাশ উদ্ধার করে । পরে  সরাসরি খুনের সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে মুক্কুল(৩০) নামে একজনকে আটক করে পুলিশ। মুক্কুল খুনের কথা স্বীকার করেন।
গত ২৪ ফেব্রুয়ারী শনিবার দিবাগত রাত আনুমানিক সাড়ে সাতটার দিকে কড়ইতলীর কোচপাড়া গ্রামের আক্কাস আলীর বাড়ির সন্নিকটে প্রতিপক্ষের ছুরিকাঘাতে জসীম উদ্দিন ওরফে জসু (২৫) নামে আরেক যুবক খুন হয়েছে।

এ ঘটনায় জসুর পিতা বিল্লাল হোসেন বাদী হয়ে কড়ইতলীর কোচপাড়া গ্রামের সুলতানের পুত্র ইন্নছ আলী ও মন্নাছ আলী, ইন্নছ আলীর পিতা সুলতান, জহির উদ্দিনের পুত্র হেলাল ও অপর আরেক জহিরকে আসামী করে হালুয়াঘাট থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন। পুলিশ হত্যাকান্ডের সাথে জড়িতের সন্দেহে হেলাল,জহির ও ইন্নছ আলীকে  এই  তিনজনকে আটক করে। গত ৭ মার্চ বুধবার বিকাল আনুমানিক পাঁচটার দিকে পূর্ব বিরোধের জের ধরে কুতিকুড়া গ্রামের আবু সুফিয়ানের স্ত্রী হালিমা খাতুন(৩৫, আবু তাহেরের স্ত্রী আফরোজা খাতুন (৪০)ও তার মেয়ে ফারজানা খাতুন(১৬) সহ আরও কয়েকজনের সহযোগিতায় মোটা বাঁশ দিয়ে ফুজায়েল নামে মানসিক ভারসাম্যহীন এক যুবককে  মাথায় ও শরীরে এলোপাথাড়ি পিটিয়ে তাকে হত্যা করে। পরে ৯ মার্চ শুক্রবার সকালে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ফুজায়েল মারা যান।

এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে ৯ নং ধারা ইউনিয়নের কুতিকূড়া গ্রামের আবু তাহেরের স্ত্রী আফরোজা(৩৫), মৃত আব্দুল খালেকের পুত্র আবু তাহের (৪২) ও তার কন্যা ফারজানা (১৬)কে আটক করে। এই সকল হত্যাকান্ডের ঘটনায় জানতে চাইলে হালুয়াঘাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জাহাঙ্গীর আলম তালুকদার বলেন, প্রতিটি হত্যাকান্ড ঘটার সাথে সাথেই অভিযুক্ত মূল খুনী আটক হয়েছে এবং আটককৃত আসামীগণ আদালতে স্বীকারোক্তি মূলক জবানবন্দীও প্রদান করেছে। ইতিমধ্যে আমিও অত্র থানায় যোগদানের পর পরই হত্যাকান্ডে জড়িত থাকার অভিযোগে চারজনকে আটক করেছি। বাকীদেরকেও আটকের চেষ্টা চলছে। এছাড়া  তিনি আরও বলেন, আমরা সর্বোচ্চ গুরুত্ব সহকারে এই হত্যাকান্ডের মামলা গুলো তদন্ত করে যাচ্ছি। আইনের মাধ্যমে জড়িতদের সর্বোচ্চ শাস্তি হবে বলে ওসি জাহাঙ্গীর আলম তালুকদার আশাবাদ ব্যক্ত করেন।





আরও পড়ুন



সম্পাদক ও প্রকাশকঃ
মোঃ খায়রুল আলম রফিক

বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয়ঃ ৬৫/১ চরপাড়া মোড়, সদর, ময়মনসিংহ।
ফোন- +৮৮০৯৬৬৬৮৪, +৮৮০১৭৭৯০৯১২৫০, +৮৮০১৯৫৩২৫২০৩৭
ইমেইল- aporadhshongbad@gmail.com
(নিউজ) এডিটর-ইন-চিফ,
ইমেইল- khirulalam250@gmail.com
close