* শীতকালে শুষ্ক ও ফাটা ত্বকের ঘরোয়া সমাধান           *  ইতিহাস গড়ে জিতল বাংলাদেশ           *  দণ্ডিতদের ভোটে আসার পথ আটকাই থাকল           *  গোলাম মাওলা রনির মনোনয়নপত্র বাতিল           * হিরো আলমের প্রার্থিতা বাতিল           *  ইবি অধ্যাপক নূরী আর নেই           * কেন্দুয়ায় চিথোলিয়া গ্রামে বসেছিল রাতব্যাপী লালন সংগীতের আসর           * গাজীপুরে মরুভূমি ফুল এর মানবন্ধন           *  শান্তিচুক্তির ২১ বছর পাহাড়ে থামেনি ভাতৃঘাতী সংঘাত           *  প্রতিপক্ষকে প্রথমবার ফলোঅন করালো বাংলাদেশ           *  ১৫০ সিসির নতুন পালসার আনল বাজাজ           *  গাঁজা সেবনের দায়ে যুবকের জেল           *  সেরা ডিজিটাল ব্যাংকের পুরস্কার পেল সিটি ব্যাংক           * দেশে পৌঁছেছে ‘হংসবলাকা’            * মোদি কেমন হিন্দু, প্রশ্ন রাহুলের            * মিরাজের ঘূর্ণিতে ফলোঅনে উইন্ডিজ           * কাঠবোঝাই ট্রাক চাপায় প্রাণ গেল তিন শ্রমিকের           * নারায়ণগঞ্জে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ মাদক বিক্রেতা নিহত           * আলাস্কায় ভয়াবহ ভূমিকম্প, ৬ ঘণ্টায় ৪০ বার কম্পন           * জাতিসংঘের মিশনে বিমান বাহিনীর ২০২ সদস্যের কঙ্গো গমন          
* দেশে পৌঁছেছে ‘হংসবলাকা’            * মোদি কেমন হিন্দু, প্রশ্ন রাহুলের            * মিরাজের ঘূর্ণিতে ফলোঅনে উইন্ডিজ          

ডিআইজি মিজানের গুলি কেনার আবেদন খারিজ

অপরাধ সংবাদ ডেস্ক | শনিবার, জুন ২, ২০১৮
ডিআইজি মিজানের গুলি কেনার আবেদন খারিজ

পুলিশের ডিআইজি মিজানুর রহমানের গুলি কেনার আবেদন খারিজ করেছেন মাগুরা জেলা প্রশাসক আতিকুর রহমান। সার্বিক দিক বিবেচনা করে এই সিদ্ধান্ত নেয়ার কথা জানিয়েছেন তিনি।

গত ২৮ মে একজন দেহরক্ষী পাঠিয়ে পিস্তলের গুলি কেনার জন্য মাগুরা জেলা প্রশাসকের কাছে আবেদন করেন সম্প্রতি বিভিন্ন ঘটনায় বিতর্ক সৃষ্টিকারী পুলিশ কর্মকর্তা।

আবেদনপত্রে নিজেকে মাগুরার সাবেক অতিরিক্ত পুলিশ সুপার হিসেবে পরিচয় দেন মিজান। তিনি উল্লেখ করেন, তিনি ২০১১ সালের ২৩ মে যুক্তরাষ্ট্রের তৈরি বেরেটা মডেলের পিস্তল কেনেন। তখন ১০টি গুলিও কেনেন। কিন্তু বর্তমানে তিনি ৩২ বোরের আরও ৪০ টি গুলি কিনতে চান।

নারী কেলেঙ্কারির কারণে ব্যাপক সমালোচিত পুলিশের এই জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা ১৯৯৭ সালের ৩০ জানুয়ারি থেকে ১৯৯৮ সালের ২২ ডিসেম্বর পর্যন্ত মাগুরায় অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ছিলেন।

মিজানুর রহমান ঢাকা জেলার পুলিশ সুপার ছিলেন। তিনি সিলেট মহানগর পুলিশ কমিশনার হিসেবেও দায়িত্বপালন করেছেন। কিন্তু মাগুরায় দুই বছর কর্মরত থাকার সুযোগে গুলি কেনার অনুমতির জন্য জেলা প্রশাসনকে বেছে নেয়ার বিষয়টি স্থানীয় প্রশাসনে মিশ্র প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়েছে।

গত জানুয়ারিতে এক নারী অভিযোগ করেন, তাকে অস্ত্রের মাধ্যমে তুলে এনে বিয়ে করেছেন বিবাহিত ডিআইজি মিজান। এই ঘটনা একটি জাতীয় দৈনিকে প্রকাশ হলে ওই সাংবাদিককে দেখে নেয়ার হুমকি দেয়া হয়।

অভিযোগের মুখে মিজানকে প্রত্যাহার করে পুলিশ সদরদপ্তরে সংযুক্ত করে ঘটনাটির তদন্ত করা হয়। ফেব্রুয়ারির শেষে এই তদন্ত প্রতিবেদন জমা পরে পুলিশ সদরদপ্তরে। পরে সিদ্ধান্ত নিতে সেটি পাঠানো হয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে। কিন্তু এখনও কোনো ব্যবস্থা নেয়া হয়নি।

এর মধ্যে ১০ এপ্রিল রাজধানীর বিমানবন্দর থানায় একটি বেসরকারি টেলিভিশনের উপস্থাপিকা অভিযোগ করেন, মোবাইল ফোনে তাকে এবং তার স্বামীকে টুকরো-টুকরো করার হুমকি দিয়েছেন ডিআইজি মিজান। কিন্তু এই অভিযোগেরও কোনো সুরাহা হয়নি।

এর মধ্যে অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে গত ৩ মে মিজানকে জিজ্ঞাসাবাদ করে দুদক। কিন্তু সংস্থাটির নির্দেশনা অনুযায়ী তদন্তে অসহযোগিতার কারণে তার বিরুদ্ধে মামলা করার কথা ভাবছে দুদক।





আরও পড়ুন



সম্পাদক ও প্রকাশকঃ
মোঃ খায়রুল আলম রফিক

বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয়ঃ ৬৫/১ চরপাড়া মোড়, সদর, ময়মনসিংহ।
ফোন- +৮৮০৯৬৬৬৮৪, +৮৮০১৭৭৯০৯১২৫০, +৮৮০১৯৫৩২৫২০৩৭
ইমেইল- aporadhshongbad@gmail.com
(নিউজ) এডিটর-ইন-চিফ,
ইমেইল- khirulalam250@gmail.com
close