* ঘূর্ণিঝড় ‘দেয়ি’ : ৩ নম্বর সঙ্কেত বহাল            * নূপুর আছে মরিয়ম নেই, রাজহাঁসের বুকের ২ টুকরা মাংস নেই           * বাকৃবিতে কর্মকর্তা কর্মচারীদের বিক্ষোভ           * বিসিএস উত্তীর্ণ মেয়েকে উদ্ধারে থানার সামনে অবস্থান বাবা-মায়ের           * ক্লান্ত মাশরাফিদের সামনে সতেজ ভারত           * নিউইয়র্কের উদ্দেশে সকালে ঢাকা ছাড়ছেন প্রধানমন্ত্রী           *  প্রতারক কামাল-মাসুদ এর বিরুদ্ধে চার মামলা            * হালুয়াঘাটে পুলিশের হাতে ফের আটক-৬           *  ঝিনাইগাতীতে বাবা শ্রেষ্ঠ শিক্ষক মেয়ে সেরা শিক্ষার্থী           * ভারত থেকে প্রশিক্ষন প্রাপ্ত ২০ টি ঘোড়া আমদানী           *  ফুলপুরে ৭৭ জন ভিক্ষুকের মাঝে সেলাই মেশিন বিতরণ            * কেন্দুয়ায় নারী বিসিএস ক্যাডারকে অপহরণের অভিযোগ           * মাদ্রাসায় জোড়া খুন: পরিচালকের বিরুদ্ধে মামলা           * তরুণীরা আবেদনময়ী সেলফি তোলেন কেন?            * মাথাপিছু আয় বেড়েছে ১৬,৩৮৮ টাকা           * সৌন্দর্যের গোপন রহস্য জানালেন শ্রীদেবীর মেয়ে            * নবনিযুক্ত দুই রাষ্ট্রদূতের রাষ্ট্রপতির কাছে পরিচয়পত্র পেশ           * শ্রীলঙ্কার দুর্দিন দেখে অবসর ভেঙে ফেরার ইঙ্গিত দিলশানের            * স্মার্টফোনের আসক্তি কাটানোর নয়া অস্ত্র           * আলোচনায় বসতে মোদিকে ইমরানের চিঠি          
* ঘূর্ণিঝড় ‘দেয়ি’ : ৩ নম্বর সঙ্কেত বহাল            * বাকৃবিতে কর্মকর্তা কর্মচারীদের বিক্ষোভ           * বিসিএস উত্তীর্ণ মেয়েকে উদ্ধারে থানার সামনে অবস্থান বাবা-মায়ের          

নয় মাস পর কবর থেকে ব্যবসায়ীর কঙ্কাল উত্তোলন

অপরাধ সংবাদ ডেস্ক | সোমবার, জুন ২৫, ২০১৮
নয় মাস পর কবর থেকে ব্যবসায়ীর কঙ্কাল উত্তোলন

কুমিল্লায় দাফনের নয় মাস পর হত্যার রহস্য উন্মোচন হলে ময়নাতদন্তের জন্য কবর থেকে ব্যবসায়ীর কঙ্কাল উত্তোলন করা হয়েছে। আদালতের নির্দেশে রবিবার সন্ধ্যায় কুমিল্লা আদর্শ সদর উপজেলার কালির বাজার ইউনিয়নের ধনুয়াইশ গ্রামের মৃত খলিলুর রহমানের কঙ্কাল উত্তোলন করা হয়। খলিলুর রহমান ওই একই এলাকার মৃত নুরুল ইসলামের ছেলে। স্ট্রোকে মৃত্যু এমন সংবাদে দাফনের পর পাওনা টাকা ফেরত চাওয়া  এবং পরক্রিয়ায় হত্যার রহস্য ভেসে উঠে।

পরবর্তীতে ব্যবসায়ী খলিলুর রহমানের মা মাফিয়া বেগম বাদী হয়ে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে ১০ জনকে আসামি করে কুমিল্লা আদালতে একটি হত্যা মামলা করেন।

মামলা সূত্রে জানা গেছে, মৃত খলিলুর রহমান কুমিল্লা সদরের কালিরবাজারে একটি স্টুডিওসহ পাঁচটি দোকানের মালিক ছিলেন। তার সাথে পাশের উজিরপুর গ্রামের আলমগীর হোসেনের মেয়ে স্কুলছাত্রী আক্তারের সাথে পরককীয়ায় জড়িয়ে পড়ে। তারপর এক পর্যায়ে আলমগীরের পরিবারের সাথে খলিলের গোপন সম্পর্ক তৈরি হয়। খলিলুর রহমানের স্ত্রী ও ছেলে থাকা সত্বেও পরকীয়ায় জড়িত হওয়ায় পর মামলার আসামি আলমগীর, তার স্ত্রী শাহিদা বেগম চাপ দেয় মেয়ে রুনা আক্তারকে বিয়ে করার জন্য। এক পর্যায়ে ২০১৭ সালের ৪ সেপ্টেম্বর রাতে কালিরবাজারে নিপা স্টুডিও থেকে রুনা আক্তার ও তার মা শাহিদা বেগম ফুসলিয়ে পাশের বরুড়া উপজেলার আমতলী খটকপুর গ্রামের নানার বাড়িতে নিয়ে যায় খলিলকে। সেখানে খলিলুর রহমানকে বিয়ের জন্য জোর করলে খলিল অস্বীকার করলে তাকে কৌশলে হত্যা করে। পরদিন ৫ সেপ্টেম্বর সকালে খলিলের পরিবারকে জানানো হয়, খলিল স্ট্রোক করেছে। তাকে কুমিল্লা টাওয়ার হাসপাতালে নেয়া হয়েছে। খলিলের পরিবার বিশ্বাস করে হাসপাতাল থেকে মরদেহ এনে পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করে।

মামলা সূত্রে আরও জানা যায়, পরবর্তীতে খলিলের পরিবার খোঁজ নিয়ে জানতে পারে স্ট্রোক নয়- তাকে হত্যা করা হয়েছে। মেয়ের সাথে পরকীয়ার সুবাদে আলমগীর হোসেন বিভিন্ন সময় বিভিন্ন কারণ দেখিয়ে খলিলুর রহমান থেকে প্রচুর টাকা ধার দেয়। ধার নেওয়া টাকা ফেরত চাওয়া ও মেয়েকে বিয়ে না করায় তাকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করা হয়। পরে মা মাফিয়া বেগম রুনা আক্তারকে প্রধান আসামি করে তার মা শাহিদা বেগম, বাবা আলমগীর হোসেন, মামা ও খালুসহ ১০ জনের নাম উল্লেখ করে কুমিল্লা আদালতে একটি হত্যা মামলা করেন। আদালত হত্যা মামলাটি পুলিশ ব্যুরো ইনভেস্ট্রিগেশনকে (পিবিআই) তদন্তের দায়িত্ব দেন। মামলার তদন্তের স্বার্থে ময়নাতদন্তের জন্য রবিবার আদালতের নির্দেশে মৃত খলিলুর রহমানের মরদেহের কঙ্কাল করব থেকে উত্তোলন করে।

কঙ্কাল উত্তোলনের সময় উপস্থিত ছিলেন- কুমিল্লা জেলা প্রশাসকের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট এ কে এম ফয়সাল, পুলিশ ব্যুরো ইনভেস্ট্রিগেশন (পিবিআই) কুমিল্লা শাখার ইন্সপেক্টর আলাউদ্দিন চৌধুরী, কুমিল্লা কালিরবাজার ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মো. সিকান্দার আলী। 

মামলার বাদী খলিলের মা মাফিয়া বেগম ও স্ত্রী খাদিজা অভিযোগ করে বলেন, পরকীয়ার জের ও ধার দেওয়া টাকা ফেরত চাওয়ায় খলিলুর রহমানকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করা হয়েছে। সঠিক তদন্তের মাধ্যমে হত্যাকারীদের বিচার চান মা ও স্ত্রী।

কুমিল্লা কালিরবাজার ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মো. সিকান্দার আলী বলেন, ব্যবসায়ী খলিলুর রহমান একজন ভালো ছেলে ছিলেন। যারাই খলিলকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করেছে, আমি চাই সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে তাদের বিচারের আওতায় আনা হোক।

পুলিশ ব্যুরো ইনভেস্ট্রিগেশন (পিবিআই) কুমিল্লা শাখার ইন্সপেক্টর আলাউদ্দিন চৌধুরী ও মামলার তদন্ত কর্মকর্তা বলেন, আদালত পিবিআইকে মামলাটি তদন্তের দায়িত্ব দিয়েছে। আমরা দীর্ঘদিন তদন্ত করে বিভিন্ন ধরনের হত্যার ক্লু পেয়েছি। যেহেতু মৃত্যুর পর মরদেহটির কোন ময়নাতদন্ত হয়নি। সেহেতু মামলার তদন্তের স্বার্থে আদালতের কাছে আবেদন করলে আদালতের নির্দেশ অনুযায়ী ময়নাতদন্তের জন্য লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। কবর থেকে উদ্ধার কঙ্কালগুলো ময়নাতদন্ত শেষে সোমবার আবার দাফন করা হবে।





আরও পড়ুন



প্রধান সম্পাদকঃ
ড. মো: ইদ্রিস খান

সম্পাদক ও প্রকাশকঃ
মোঃ খায়রুল আলম রফিক

সিয়াম এন্ড সিফাত লিমিটেড
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয়ঃ ৬৫/১ চরপাড়া মোড়, সদর, ময়মনসিংহ।
ফোন- +৮৮০৯৬৬৬৮৪, +৮৮০১৭৭৯০৯১২৫০, +৮৮০১৯৫৩২৫২০৩৭
ইমেইল- aporadhshongbad@gmail.com
(নিউজ) এডিটর-ইন-চিফ,
ইমেইল- khirulalam250@gmail.com
close