* ‘পাকিস্তানের বিশ্বাস নেই, যেদিন খেলে কাউকে পাত্তা দেয় না           * কেউ খোঁজ রাখেনি মুক্তিযোদ্ধাদের ‘মা’ ইছিমন বেওয়া'র           * এক মাছের পেটে মিলল ৬১৪ পিস ইয়াবা            * মোদির জন্য নোবেল!            * ৫ লাখ রোহিঙ্গা বাংলাদেশে ঢোকার অপেক্ষায় রয়েছে           * শিক্ষায় বিনিয়োগের আহ্বান শেখ হাসিনার            * ডাক্তারদের সেবার মনোভাব কম: স্বাস্থ্যমন্ত্রী           * ফুলপুরে জঙ্গীবাদ বিরোধী মা সমাবেশ অনুষ্টিত           * দুই মণ গাঁজাসহ ৩ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার            * নামাযে অজু নিয়ে সন্দেহ হলে কি করবেন?           * ৭-২৮ অক্টোবর ইলিশ ধরা নিষিদ্ধ           * মদ না খেয়েও মাতাল যারা!           * মোদির দলের হয়ে লড়বেন অক্ষয়-কঙ্গনা-সুনিল           * পাকিস্তানকে সবক শেখাতে চান ভারতের সেনাপ্রধান           * পৃথিবীকে বাংলাদেশ থেকে শিখতে বলল বিশ্বব্যাংক           * নগ্ন হয়ে ঘর পরিষ্কার করে তার মাসিক আয় ৪ লাখ টাকা            * প্রতিপক্ষকে ফাঁসাতে সন্তানকে হত্যা করলো মা            * মোস্তাফিজ একজন ম্যাজিসিয়ান : মাশরাফি            * ত্রিশালে দাখিল মাদ্রাসায় অভিভাবক সমাবেশ            * সিরাজদিখানে মুন্সীগঞ্জ-১ আসনে আওয়ামীলীগ মনোনয়ন প্রত্যাশী গিয়াস উদ্দিনের গণসংযোগ ও উঠান বৈঠক           
* ‘পাকিস্তানের বিশ্বাস নেই, যেদিন খেলে কাউকে পাত্তা দেয় না           * মোদির জন্য নোবেল!            * ৫ লাখ রোহিঙ্গা বাংলাদেশে ঢোকার অপেক্ষায় রয়েছে          

কনের বয়স ৮, বরের ৪০, বিয়ের রাতেই কনের মৃত্যু

অপরাধ সংবাদ ডেস্ক | বৃহস্পতিবার, জুন ২৮, ২০১৮
কনের বয়স ৮, বরের ৪০, বিয়ের রাতেই কনের মৃত্যু

সমাজে বাল্যবিবাহের করুণ-ভয়ংকর দুরবস্থার উদাহরণ অহরহ দেখা যায়। বাল্যবিবাহ মাঝে মধ্যে এমন সব ভয়ংকর অবস্থা বয়ে নিয়ে আসতে পারে যা অতি দুর্ভাগ্য। বাল্যবিবাহের কুফল শুধু একটি পরিবারের উপর নয়, সমাজ তথা রাষ্ট্রের উপর ভয়াবহ প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি করে।

তেমনি একটি ঘটনা ঘটেছে মধ্যপ্রাচ্যের দেশ ইয়েমেনে।

মেয়ের বয়স যত কম হবে ‘তত বেশি পণ’ পাবেন সেই কনের বাবা। মধ্যপ্রাচ্যের দেশ ইয়েমেনে- এই প্রথাটি প্রচলিত আছে। আর এই ‘লোভনীয়’ সুযোগটি হাতছাড়া করতে চান না মেয়ের বাবা রাও। তেমনি এই লোভে পা দেন মামেদ আলী নামে এক বাবা। ইয়েমেনের উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলের রাতান প্রদেশের ৮ বছর বয়সী শিশু রাওয়ানের বাবা মামেদ আলীও ‘লোভনীয়’ সুযোগটি হাতছাড়া করতে চাননি।

তাইতো কিছু অর্থের জন্য নিজের মেয়ের চেয়ে বয়সে ৫ গুণ বড় পাশের গ্রামের এক ব্যক্তির সঙ্গে বিয়ে দেন তার শিশু কন্যাকে। যার সঙ্গে শিশু রাওয়ানের বিয়ে হয়েছিল সেই বরের বয়স ছিল ৪০ বছর।

যুক্তরাজ্যের গণমাধ্যম দি ইনডিপেনডেন্টের বৃহস্পতিবার প্রকাশিত এক প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, সৌদি আরবের সীমান্তবর্তী ইয়েমেনের হারদ গ্রামে এই চাঞ্চল্যকর ঘটনাটি ঘটে। সেদিন জোর করে ৪০ বছর বয়সী ওই ব্যক্তির সঙ্গে শিশু রাওয়ানকে বিয়ে দেয়া হয়।

শিশু রাওয়ান বিয়ের আনুষ্ঠানিকতায় ঘুমিয়ে পড়েছিল। এরপর বরের কোলে চেপেই শ্বশুর বাড়ি যায় ঘুমন্ত শিশুটি। সেদিনের সে ঘুম যে চিরঘুম হবে, তা হয়তো বুঝতে পারেননি মেয়েটির অর্থ লোভী বাবা। পরের দিন খবর পান বিয়ের রাতেই মারা গেছে রাওয়ান।

বাবা মামেদ আলী ছোট্ট রাওয়ানের মৃত্যুর খবর পাওয়ার পরের দিন থানা-পুলিশ করে ময়নাতদন্ত করিয়েছিলেন। সেখান থেকে জানা যায়, বিয়ের রাতে ধর্ষণের ফলে অভ্যন্তরীণ রক্তক্ষরণে মারা গেছে শিশু রাওয়ান।

যদিও রাওয়ানের মৃত্যুর পর বিষয়টি তেমনভাবে গণমাধ্যমের সামনে আসেনি।

গত বছরের ২৬ মার্চ ইয়েমেনে সৌদি আরবের বিমান হামলা শুরুর পর এ ঘটনাটি সামনে আসে। সে সময় রয়টার্সের সাংবাদিক পল অ্যালান রাতান প্রদেশে গিয়ে এই দুর্ভাগ্যজনক বাল্যবিবাহটি নিয়ে একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করেন।

পল অ্যালানের ওই প্রতিবেদন প্রকাশের পরই সবাই এই দুর্ভাগ্যজনক ঘটনাটির বিষয়ে জানতে পারে। এরপর সামাজিক গণমাধ্যমজুড়ে তীব্র ধিক্কার ওঠে। সকলেরই দাবি ছিল, দুর্ভাগা শিশু রাওয়ানের বাবা-মা এবং তার বরকে গ্রেফতার করা হোক। যাতে ওই এলাকায় শিশুবিবাহের মতো জঘন্য প্রথা বন্ধ হয়।

সামাজিক গণমাধ্যমের লেখা পর্যন্তই এটি সীমাবদ্ধ থাকে। এই প্রতিবাদ শুরু হয়ে আবার থেমেও গেছে। কাজের কাজ হয়নি কিছুই।

সম্প্রতি ইনডিপেনডেন্টের প্রতিবেদক ইয়েমেনের উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলের রাতান প্রদেশের হারদ গ্রামে গিয়ে দেখেন, দরিদ্র পরিবারগুলোতে এখনো হরদম চলছে শিশুবিবাহের প্রথা। সৌদি সীমান্তে বাস করা ইয়েমেনের উপজাতিদের মধ্যে এই প্রথা সবচেয়ে বেশি প্রচলিত। তারা বিশ্বাস করে স্ত্রী যত অল্প বয়সী হবে তত বেশি বাধ্য থাকবে। আর বেশি দিন সন্তান ধারণ করতে পারবে।

ওই প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, ইয়েমেনের আইনে মেয়েদের বিয়ের জন্য কোনো বয়স নির্ধারণ করে দেয়া নেই। বাবা-মা স্থির করলেই তাদের মেয়েকে বিয়ে দিতে পারেন। আর তাই বিভিন্ন বেসরকারি সেবাদানকারী সংস্থাগুলোর অনেক চেষ্টার পরও বাল্যবিবাহ বন্ধ হচ্ছে না মধ্যপ্রাচ্যের এ দেশটিতে।





আরও পড়ুন



প্রধান সম্পাদকঃ
ড. মো: ইদ্রিস খান

সম্পাদক ও প্রকাশকঃ
মোঃ খায়রুল আলম রফিক

সিয়াম এন্ড সিফাত লিমিটেড
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয়ঃ ৬৫/১ চরপাড়া মোড়, সদর, ময়মনসিংহ।
ফোন- +৮৮০৯৬৬৬৮৪, +৮৮০১৭৭৯০৯১২৫০, +৮৮০১৯৫৩২৫২০৩৭
ইমেইল- aporadhshongbad@gmail.com
(নিউজ) এডিটর-ইন-চিফ,
ইমেইল- khirulalam250@gmail.com
close