* আমার মা নাই’           *  প্রিয়া সাহার বিরুদ্ধে দায়ের করা মামলাগুলো খারিজ           * বড়পুকুরিয়া কয়লা খনির সাত এমডিসহ ২৩ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র           * ময়মনসিংহে গৃহবধূকে গলাকেটে হত্যার চেষ্টা           *  ডেল্টা গ্রুপের লুটপাট: ২২৫০ কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগ, তদন্তে নামছে দুদক            *  ময়মনসিংহে মাদক নির্মূলে দিন- রাত কাজ করছেন ডিবি ওসি           * কল্লাকাটা’র গুজব পাগলও রক্ষা পেল না জনতার রোষানল থেকে           * যশোরে দুই জঙ্গি আটক           * ব্রিটেনের হুমকি উপেক্ষা: ট্যাংক মুক্তি দেবে না ইরান           * এবার কুমিল্লায় ছেলেধরা সন্দেহে ভিক্ষুককে গণপিটুনি           * গুজব ছড়িয়ে আইন হাতে তুলে নেবেন না: পুলিশ           * মুক্তাগাছার কুমারগাতায় দালালদের দৌরাত্ম্য বাড়ছে অপরাধ           * রাষ্ট্রপতির ক্ষমার ১০ বছর পর মুক্তি মিলল স্কুলশিক্ষকের!           * আজ লন্ডন যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী           * প্রেমের টানে লক্ষ্মীপুরে আমেরিকান নারী           * মৃত্যুর ১৪ দিন পর কবর থেকে তাসলিমার লাশ উত্তোলন           *  বরগুনার এসপি এবার বললেন, ‘স্বীকারোক্তি তো পুলিশের কাছে হয় না, হয় জজের কাছে’            * দুর্নীতির অভিযোগে পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী আব্বাসি গ্রেফতার           * পূর্বধলায় ছেলে ধরা সন্দেহে ১ জন আটক            * শিশুর কাটা মাথা নিয়ে মদ খেতে গিয়েছিলেন ওই যুবক          
* কল্লাকাটা’র গুজব পাগলও রক্ষা পেল না জনতার রোষানল থেকে           * দিয়াবাড়ির অস্ত্র রহস্য তিন বছর পরও অজানা           * ত্রিশালে বাধাগ্রস্থ উন্নয়ন রাজনৈতিক বিরোধের সুযোগে সরকারি কর্মকর্তাদের দুর্নীতি          

নড়াইলের খামারিরা দেশী গরু মোটাতাজাকরণে ব্যস্ত লক্ষ্য কোরবানি ঈদ

উজ্জ্বল রায়, নড়াইল জেলা প্রতিনিধি | বুধবার, জুলাই ১৮, ২০১৮
নড়াইলের খামারিরা দেশী গরু মোটাতাজাকরণে ব্যস্ত লক্ষ্য কোরবানি ঈদ

 নড়াইল জেলা প্রাণিসম্পদ অফিস সূত্রে জানা গেছে, নড়াইলে গত বছর ৩০ হাজার গরু ও ছাগল মোটাতাজা করা হয়েছিল। এর মধ্যে প্রায় ২২ হাজার গরু এবং ৮ হাজার ৩০০ ছাগল। চলতি বছর ৩১ হাজার পশু মোটাতাজা করছেন খামারিরা। যার মধ্যে ২৩ হাজার ৪০০ দেশী গরু আর ৭ হাজার ৬০০ ছাগল। এ বছরও তিনটি উপজেলার মধ্যে নড়াইল সদরে সবচেয়ে বেশি খামার গড়ে উঠেছে।

খামারিরা গত বছরের তুলনায় বেশি গরু পালন করছেন। আবার অনেক নতুন খামারও গড়ে উঠছে। খামারি ছাড়াও সাধারণ কৃষকরাও বাড়তি আয়ের জন্য বাড়িতে দু-একটি গরু মোটাতাজা করছেন। বর্তমানে জেলায় নিবন্ধিত গরুর খামার রয়েছে ৩৯৫টি (তিনটি গরু থাকলে একটি খামার ধরে)। আমাদের নড়াইল জেলা প্রতিনিধি উজ্জ্বল রায়ের রিপোটে, কোরবানির জন্য দেশী গরুর চাহিদা দিন দিন বাড়ছে। ফলে বছরের এ সময়টায় খামারে দেশী গরু মোটাতাজাকরণে ঝুঁকছে মানুষ। ভালো লাভও পাওয়া যাচ্ছে।

প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তরের তথ্য অনুযায়ী, গত বছর কোরবানি ঈদে নড়াইলের খামারিরা স্থানীয় চাহিদা মিটিয়ে প্রায় সাড়ে ১০ হাজার গরু বিভিন্ন জেলায় পাঠিয়েছেন। এ বছরও দেশী গরু ও ছাগল মোটাতাজা করতে ব্যস্ত সময় পার করছেন খামারি ও কৃষকরা। ভারতীয় গরু আমদানি নিয়ন্ত্রণে থাকলেও এবারো বেশ লাভ হবে বলে আশা করছেন তারা।

খোঁজ নিয়ে দেখা গেছে, নড়াইল সদরের মির্জাপুর, চাকই, সিঙ্গাশোলপুর, গোবরা, কমখালী, শাহবাদ, সিমানন্দপুর, জুড়ুলিয়া; লোহাগড়া উপজেলার শিয়েরবর, চাঁচই, কোলা, কুমড়ি, দীঘলিয়া, মল্লিকপুর, মাকড়াইল, লাহুড়িয়া; কালিয়া উপজেলার বড়দিয়া, মহাজন, টোনা, খাশিয়াল, বাবরা, গ্রামের কৃষক ও খামারিরা অন্যান্য এলাকা থেকে বেশি গরু মোটাতাজা করছেন। এর মধ্যে ৫৫ ভাগ গরু মোটাতাজা করছেন খামারিরা, আর বাকি ৪৫ ভাগ করছেন সাধারণ কৃষকরা।
সদরের বিছালী গ্রামের কৃষক আকরাম, চুন্নু, রহমত জানান, তারা কোরবানি ঈদের ৬-৭ মাস আগে একটি বাছুর ১৫-২০ হাজার টাকায় কেনেন। কাজের ফাঁকে মাঠ থেকে কাঁচা ঘাস কেটে এনে খাওয়ান। আর ঈদের দুই মাস আগে খড়, খৈল, চালের কুঁড়া ও ভুসি খাওয়ানো হয়। ঈদের বাজারে গরুটি ৪০-৯০ হাজার টাকায় বিক্রি হয়।
নড়াইলের লোহাগড়া উপজেলার গ-ব গ্রামের খামারি জিল্লাল শেখ, আড়পাড়া গ্রামের রিদয় শেখ, আমাদের নড়াইল জেলা প্রতিনিধি উজ্জ্বল রায়কে জানান, বছর দশেক আগ থেকে তারা গরু মোটাতাজাকরণের সঙ্গে জড়িত। গত বছর নড়াইলে ভারতীয় গরু কম এসেছিল। তাই দেশী গরুতে ভালো লাভ হয়েছে। এ কারণে এ বছর খামারে গরুর সংখ্যা বাড়িয়েছেন।

নড়াইল জেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ডা. মো. মারফি হাসান আমাদের নড়াইল জেলা প্রতিনিধি উজ্জ্বল রায়কে জানান,১০ বছর আগে নড়াইলের চাষীরা অল্প পরিসরে গরু মোটাতাজা করতেন। তখন ঈদের সময় গরু আমদানি করায় জেলার অনেক খামারি ও কৃষক গরুর ন্যায্যমূল্য পাননি। কয়েক বছর ধরে আমদানি না হওয়ায় স্থানীয় কৃষকের গরুর চাহিদা বেড়ে গেছে। অনেক কৃষক গরু মোটাতাজা করতে আগ্রহী হয়েছেন। তাদের কৃমির ওষুধ ও ভ্যাকসিনসহ ৪৫-৫০ ভাগ ওষুধ ফ্রি দেয়া হচ্ছে। কৃষক ও খামারিদের কয়েকবার প্রশিক্ষণও দেয়া হয়েছে





আরও পড়ুন



১. প্রধান উপদেষ্টা ঃ এড. সাদির হোসেন (হাইকোর্ট আইনজীবি)
২. সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ মোঃ খায়রুল আলম রফিক
৩. নির্বাহী সম্পাদক ঃ প্রদীপ কুমার বিশ্বাস
৪. প্রধান প্রতিবেদক ঃ হাসান আল মামুন
প্রধান কার্যালয় ঃ ২৩৬/ এ, রুমা ভবন ,(৭ম তলা ), মতিঝিল ঢাকা , বাংলাদেশ । ফোন ঃ ০১৭৭৯০৯১২৫০
ফোন- +৮৮০৯৬৬৬৮৪, +৮৮০১৭৭৯০৯১২৫০, +৮৮০১৯৫৩২৫২০৩৭
ইমেইল- aporadhshongbad@gmail.com
(নিউজ) এডিটর-ইন-চিফ,
ইমেইল- khirulalam250@gmail.com
close