* শীতকালে শুষ্ক ও ফাটা ত্বকের ঘরোয়া সমাধান           *  ইতিহাস গড়ে জিতল বাংলাদেশ           *  দণ্ডিতদের ভোটে আসার পথ আটকাই থাকল           *  গোলাম মাওলা রনির মনোনয়নপত্র বাতিল           * হিরো আলমের প্রার্থিতা বাতিল           *  ইবি অধ্যাপক নূরী আর নেই           * কেন্দুয়ায় চিথোলিয়া গ্রামে বসেছিল রাতব্যাপী লালন সংগীতের আসর           * গাজীপুরে মরুভূমি ফুল এর মানবন্ধন           *  শান্তিচুক্তির ২১ বছর পাহাড়ে থামেনি ভাতৃঘাতী সংঘাত           *  প্রতিপক্ষকে প্রথমবার ফলোঅন করালো বাংলাদেশ           *  ১৫০ সিসির নতুন পালসার আনল বাজাজ           *  গাঁজা সেবনের দায়ে যুবকের জেল           *  সেরা ডিজিটাল ব্যাংকের পুরস্কার পেল সিটি ব্যাংক           * দেশে পৌঁছেছে ‘হংসবলাকা’            * মোদি কেমন হিন্দু, প্রশ্ন রাহুলের            * মিরাজের ঘূর্ণিতে ফলোঅনে উইন্ডিজ           * কাঠবোঝাই ট্রাক চাপায় প্রাণ গেল তিন শ্রমিকের           * নারায়ণগঞ্জে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ মাদক বিক্রেতা নিহত           * আলাস্কায় ভয়াবহ ভূমিকম্প, ৬ ঘণ্টায় ৪০ বার কম্পন           * জাতিসংঘের মিশনে বিমান বাহিনীর ২০২ সদস্যের কঙ্গো গমন          
* দেশে পৌঁছেছে ‘হংসবলাকা’            * মোদি কেমন হিন্দু, প্রশ্ন রাহুলের            * মিরাজের ঘূর্ণিতে ফলোঅনে উইন্ডিজ          

টাকার লোভে মানুষ নির্যাতনে মেতেছেন এক এসআই !

স্টাফ রিপোর্টার | মঙ্গলবার, জুলাই ৩১, ২০১৮
টাকার লোভে মানুষ নির্যাতনে মেতেছেন এক এসআই !
চাকরিবিধির তোয়াক্কা না করে টাকার লোভে নিরীহ মানুষের ওপর নির্যাতনের হলিখেলায় মেতেছেন ময়মনসিংহ জেলা গোয়েন্দা সংস্থার (ডিবি পুলিশ) কর্মরত এসআই আকরাম হোসেন।

ময়মনসিংহে মিথ্যা অভিযোগ এনে সাধারণ মানুষকে মামলা দিয়ে ফাঁসানো, গ্রেপ্তার বাণিজ্য, মাদক কারবারিদের সাথে বিশেষ সখ্যর মাধ্যমে মাসোহারা তথা আর্থিক সুবিধা আদায়সহ এই পুলিশ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে রয়েছে পাহাড়সম অভিযোগ।

অভিযোগ রয়েছে, গত রমজান মাসে শহরের ত্রিশাল বাসস্ট্যান্ড সংলগ্ন রুটিওয়ালাপাড়া এলাকার বাসিন্দা সাদ্দাম নামের এক হত্যা মামলার আসামিকে ৫ দিনের রিমান্ডে এনে ব্যাপক মারপিটের পর মোটা অংকের টাকা আদায় করেছেন এই এসআই ।

নির্যাতনের শিকার ঐ আসামির পরিবার সূত্রে জানা গেছে, আদালতের মাধ্যমে সাদ্দামকে পুলিশী রিমান্ড প্রাপ্তির পর তাকে ডিবি কার্যালয়ে না নিয়ে নেয়া হয় বাড়িতে । সাদ্দামের পরিবারের লোকজন তথা তার বাবা- মা, তার স্ত্রী, সন্তানের সামনে রড দিয়ে তার হাত, পা, কোমড়সহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে বেধরক পেটায় এসআই আকরাম হোসেন । এখানেই শেষ নয় ! সাদ্দামের চোখ বেঁধে ডিবি কার্যালয়ে নিয়ে গিয়ে গোসল করানো হয় বলে অভিযোগ রয়েছে ।

এরপর তার হাতে ও পায়ে হ্যান্ডকাপ পড়িয়ে ব্রহ্মপুত্র নদের পাড় হিমু আড্ডার বিপরীতে নিয়ে যাওয়া হয় । সেখানে মুঠোফোনে সাদ্দামের বাবা- মার সাথে কথা বলানো হয় ।

এসময় এসআই আকরাম হোসেন সাদ্দামের বাবা-মার নিকট ১০ লাখ টাকা দাবি করে । ২ ঘন্টার মধ্যে টাকা না দিলে ক্রসফায়ারের হুমকি দেয় এই এসআই । ভীত সন্তস্ত্র সাদ্দামের বাবা তার ভাই ও এক ভ্রাতুষ্পুত্রকে সাথে নিয়ে গিয়ে ২ লাখ ৬০ হাজার টাকা দিয়ে কাকুতি মিনতি করেন ।

 এতেও গলেনি এই এসআই । মামলার ফাইনালে সাদ্দামকে অব্যাহতি দেয়া হবে বলে আরো ৫ লাখ টাকা দাবি করেন ।  বেধরক পিটুনির শিকার সাদ্দামকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয় । হাসপাতালের ডাক্তারদের দেয়া পরীক্ষার রিপোর্টে দেখা গেছে, তার কোমড় ও মেরুদন্ডের হাড় ভেঙে গেছে বলে জানান সাদ্দামের বাবা ।

এদিকে শহরের চরপাড়ার অপর একটি ঘটনার বর্ণনা দেন , পৌরসভার স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলর । তিনি বলেন, পূবালী ব্যাংক সংলগ্ন বিদ্যুৎ নামের এক ছেলেকে আটক করেন এসআই আকরাম হোসেন । পরে তাকে মোটর সাইকেল চুরির অভিযোগে হাতে- পায়ে ডান্ডাবেরি পড়িয়ে অমানুষিক নির্যাতন করে ।

 বিদ্যুতের স্ত্রীর মাধ্যমে ৮ লাখ টাকা দাবি করেন এই এসআই । স্বামীকে ছাড়াতে নিরুপায় হয়ে ২ লাখ টাকা দিতে বাধ্য হন বিদ্যুতের স্ত্রী । বিষয়টি নিয়ে ঐ কাউন্সিলর জেলা পুলিশ সুপারের (এসপি) স্মরণাপন্নও হন । ঘটনার প্রেক্ষিতে এসপি ঐ এসআইকে বদলী করলেও রহস্যজনক কারনে সেটি আর বাস্তবায়ন হয়নি ।


এসআই আকরাম হোসেন ময়মনসিংহে অবস্থান করছেন দীর্ঘ সময় ধরে । ইতিপূর্বে ৩নং পুলিশ ফাঁড়িতে কর্মরত থাকাকালে বেপরোয়া গ্রেপ্তার বাণিজ্য, মাদক সংশ্লিষ্টতার অভিযোগে তাকে বদলী করা হয় । দীর্ঘদিন তার ময়মনসিংহে অবস্থানের কারণে এখানকার অপরাধী, চিহ্নিত মাদক কারবারি ও সন্ত্রাসীদের সাথে তার সখ্যতা গড়ে উঠেছে ।

 পুলিশের উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা তাকে বারবার সতর্ক করলেও তিনি ঐনির্দেশ বৃদ্ধঙ্গুলি দেখিয়ে চলেছেন ।
 
অভিযোগ রয়েছে, অনেক মাদক ব্যবসায়ীর কাছ থেকে প্রতি মাসে মোটা অঙ্কের মাসোয়ারা আদায়সহ নানা ধরনের অনৈতিক কর্মকা-ের সঙ্গে জড়িয়ে পড়েছেন

আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর এই কর্মকর্তা। যেকারনে তিনি ময়মনসিংহে বহুল আলোচিত । এই এসআইয়ের সঙ্গে মোবাইল ফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করা হয়। কিন্তু তার ফোনটি কখনও বন্ধ থাকায় আবার কখনও রিসিভ না করায় বক্তব্য পাওয়া সম্ভব হয়নি।

ময়মনসিংহের সচেতন মহল বলছেন, এই এসআইয়ের বেপরোয়া হয়ে উঠা কোন রাজনৈতিক কিম্বা সামাজিক দায়বদ্ধতা থেকে নয়। এর পেছনে উদ্দেশ্য একটাই । অর্থলিপ্সা । ¯্রফে ব্যক্তি স্বার্থে গ্রেপ্তার বাণিজ্য। টাকার জন্য ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের নির্দেশও অমান্য করছেন তিনি । এতে ‘পুলিশ জনগণের বন্ধু’ এমন উক্তি কেবল কাগজেই । বাড়ছে পুলিশের প্রতি সাধারণ মানুষের অবিশ্বাস।


ময়মনসিংহের মানবাধিকার সংগঠনের নেতৃবৃন্দ বলেন, রিমান্ডের নামে পুলিশ হেফাজতে নির্যাতনের ঘটনা দুঃখজনক। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর এই এসআই নির্মম নির্যাতনের সঙ্গে জড়িত ।

এর দায়ভার অন্যেরা কেনো নেবেন ? তার বিরুদ্ধে যথাযথ আইনি ব্যবস্থা নিতে হবে। যাতে পরে আইন শৃঙ্খলা বাহিনী কর্তৃক এমন ঘটনা আর যেন না ঘটে।

নেতৃবৃন্দ এসআই আকরাম হোসেন মানুষের চোখ ও হাত পা বেঁধে পিটানোসহ অমানুষিক নির্যাতনকে পুলিশী অপরাধ বলে মন্তব্য করে জানান, এই অপরাধের লাগাম শক্তহাতে টেনে না ধরলে ময়মনসিংহের মানুষ আর পুলিশকে বিশ্বাস করবে না।







আরও পড়ুন



সম্পাদক ও প্রকাশকঃ
মোঃ খায়রুল আলম রফিক

বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয়ঃ ৬৫/১ চরপাড়া মোড়, সদর, ময়মনসিংহ।
ফোন- +৮৮০৯৬৬৬৮৪, +৮৮০১৭৭৯০৯১২৫০, +৮৮০১৯৫৩২৫২০৩৭
ইমেইল- aporadhshongbad@gmail.com
(নিউজ) এডিটর-ইন-চিফ,
ইমেইল- khirulalam250@gmail.com
close