* সোনালী শীষের আড়ালে সুবিনয়ের অপসাংবাদিকতা           * ডাক্তারদের সেবার মনোভাব কম: স্বাস্থ্যমন্ত্রী           * ফুলপুরে জঙ্গীবাদ বিরোধী মা সমাবেশ অনুষ্টিত           * দুই মণ গাঁজাসহ ৩ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার            * নামাযে অজু নিয়ে সন্দেহ হলে কি করবেন?           * ৭-২৮ অক্টোবর ইলিশ ধরা নিষিদ্ধ           * মদ না খেয়েও মাতাল যারা!           * মোদির দলের হয়ে লড়বেন অক্ষয়-কঙ্গনা-সুনিল           * পাকিস্তানকে সবক শেখাতে চান ভারতের সেনাপ্রধান           * পৃথিবীকে বাংলাদেশ থেকে শিখতে বলল বিশ্বব্যাংক           * নগ্ন হয়ে ঘর পরিষ্কার করে তার মাসিক আয় ৪ লাখ টাকা            * প্রতিপক্ষকে ফাঁসাতে সন্তানকে হত্যা করলো মা            * মোস্তাফিজ একজন ম্যাজিসিয়ান : মাশরাফি            * ত্রিশালে দাখিল মাদ্রাসায় অভিভাবক সমাবেশ            * সিরাজদিখানে মুন্সীগঞ্জ-১ আসনে আওয়ামীলীগ মনোনয়ন প্রত্যাশী গিয়াস উদ্দিনের গণসংযোগ ও উঠান বৈঠক            * পূর্বধলায় গ্রাম পুলিশদের মাঝে বাই সাইকেল বিতরণ           * বেনাপোলে পিস্তল-গুলি ও গাঁজাসহ আটক-১           * পূর্বধলায় কবর থেকে শিশুর গলিত লাশ তুলে মর্গে প্রেরণ            * হালুয়াঘাটে জাল দলিলে পাহাড়ী কাষ্ঠল উদ্ভিদের বাগান দখল           * ২ আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়নের অভিযানে জুয়ার আসর হইতে ০৫ জনকে আটক          
* সোনালী শীষের আড়ালে সুবিনয়ের অপসাংবাদিকতা           * ডাক্তারদের সেবার মনোভাব কম: স্বাস্থ্যমন্ত্রী           * মোদির দলের হয়ে লড়বেন অক্ষয়-কঙ্গনা-সুনিল          

বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে বই, আইজিপিতে মুগ্ধ প্রধানমন্ত্রী

অপরাধ সংবাদ ডেস্ক | শনিবার, সেপ্টেম্বর ৮, ২০১৮
বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে বই, আইজিপিতে মুগ্ধ প্রধানমন্ত্রী

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের বিরুদ্ধে পাকিস্তানের গোয়েন্দা সংস্থার প্রতিবেদন বই আকারে প্রকাশে বিশেষ সহযোগিতা করায় পুলিশপ্রধানের ভূয়সী প্রশংসা করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ঐতিহাসিক এই কাজটি সম্পাদনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখায় আইজিপি জাবেদ পাটোয়ারিকে ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানান বঙ্গবন্ধু কন্যা।

শুক্রবার বিকালে গণভবনে এক অনুষ্ঠানে ‘সিক্রেট ডকুমেন্টস অব ইন্টিলিজেন্স ব্রাঞ্চ অন ফাদার অব দ্য নেশন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান’ বইয়ের মোড়ক উন্মোচন করেন বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা। সেখানে তিনি বারবার জাবেদ পাটোয়ারির প্রসঙ্গ উল্লেখ করেন।

এই বই কীভাবে প্রকাশনার পর্যায়ে এলো তা বর্ণনা করে প্রধানমন্ত্রী জানান, তিনি প্রথমবার প্রধানমন্ত্রী হওয়ার পর থেকেই প্রস্তুতি শুরু হয়। আর পুলিশের বর্তমান আইজি জাবেদ পাটোয়ারি পুলিশের বিশেষ শাখা এসবিতে থাকাকালে তিনি এবং তার ২২ জন কর্মকর্তা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেন। এজন্য তাদেরকে ধন্যবাদ জানিয়ে অনুষ্ঠানের শেষ পর্যায়ে ছবিও তুলেন প্রধানমন্ত্রী।

শেখ হাসিনা বলেন, ‘২১ বছর পর সরকারে আসি। এরপর একটা তথ্য পেলাম। এসবিতে তখন নিয়োগ দিয়েছিলাম শামসুদ্দিন সাহেব। তিনি আমাকে বললেন বেশ কিছু ফাইল আছে, তথ্য আছে। এর মধ্য থেকে কিছু ফাইল চেয়েছিলেন কিবরিয়া সাহেব (সাবেক অর্থমন্ত্রী) আর মোনায়েম সাহেব। তাদের একটা গবেষণা প্রতিষ্ঠান আছে। আমি সরকার প্রধান, আমার পারমিশন ছাড়া তারা ফাইল পেতে পারে না।’

‘আমি সমস্ত ফাইলগুলো নিয়ে আসি তখন। সেগুলো আমি ফটোকপি করি, তিনটা সেট তৈরি করি। একটা সেট আমি আলাদা ট্রাঙ্কে ভরে রেখে দেই একটা সিক্রেট জায়গায়, আরেকটা সেট আমার কাছেই রাখি আরেকটা ফাইল আমি আমেরিকায় ড. এনায়েত রহিম সাহেব তখন বঙ্গবন্ধুর ওপর তখন গবেষণা শুরু করেন, বঙ্গবন্ধু চেয়ার প্রতিষ্ঠা করা হয়। তার কাছে নিয়ে যাই, তার কাছেই দিয়ে দিই।’

‘আমাদের কাছে যে কপিগুলো ছিল, আমি আর বেবী মওদুদ, আমার বান্ধবী। আমরা বসে বসে সেগুলো নিয়ে কাজ করতে শুরু করি, আমরা অনেক তথ্য সংগ্রহ করতে শুরু করি।’


‘এখানে পুলিশের ভাষা অনেক কিছু বুঝতাম না, বা তাদের লেখা অনেক কিছু বুঝতাম না, অনেক জায়গায় নষ্ট হয়ে গেছে, ছেড়া, ওগুলো ফটোকপি করাও কঠিন ছিল।’

প্রধানমন্ত্রী জানান, ২০০৯ সালে তিনি দ্বিতীয়বার প্রধানমন্ত্রী হওয়ার পর বর্তমান আইজিপি জাবেদ পাটোয়ারিকে বই আকারে গোয়েন্দা রিপোর্ট প্রকাশের ইচ্ছার কথা বলেন। এরপর তার নেতৃত্বে ২২ জনের দল কাজ শুরু করে।

‘এই ডকুমেন্টগুলো যখন আমি সিদ্ধান্ত নিলাম প্রকাশ করব-তখন এগুলোকে ডিক্লাসিফাইড করা হয়। এরপর প্রকাশনার জন্য প্রায় ৪৬টি ফাইল, ৪০ হাজারের মতো পাতা। সেগুলোতে বসে এডিট করে করে, যেগুলো খুবই গুরুত্বপূর্ণ সেগুলো নিয়ে আজকে প্রকাশনা করতে পারছি।’

অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী জানান, এই গোয়েন্দা রিপোর্ট ভাষান্তরের সময় ২২ পুলিশ কর্মকর্তা প্রতিটি ক্ষেত্রে তারা পরামর্শ দিতেন। বইয়ের মলাট, মলাটের রঙ এবং যা কিছু করা হতো, তার ফটোকপি করে জাবেদ পাটোয়ারিতে তিনি পাঠাতেন এবং এবং তার পরামর্শ তিনি নিতেন।

প্রধানমন্ত্রী জানান, কারাগারে বঙ্গবন্ধুর লেখা দুটি ডায়েরি বাজেয়াপ্ত করা হয়েছিল, সেই দুটি ডায়রিও জাবেদ পাটোয়ারি তাকে উদ্ধার করে দিয়েছেন। সে কাহিনিও অনুষ্ঠানে তুলে ধরেন তিনি।

‘জাবেদ পাটোয়ারি তখন এসবির ডিজি। তাকে আমি যখন বললাম যে আমার বাবার দুইটা খাতা বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে, এটা খুঁজে পাওয়া যায় কি না, দেখতে হবে।’

‘আমি ধন্যবাদ জানাচ্ছি, তিনি একদিন কাগজে মোড়ানো সুন্দর করে র‌্যাপিং করে একটা বই নিয়ে এসে বললেন, আপনার জন্য একটা উপহার নিয়ে এসেছি। আমি প্রথমে বুঝতে পারিনি, বই-টই হবে। খুলে দেখে আমি চোখের পানি রাখতে পারিনি।’





আরও পড়ুন



প্রধান সম্পাদকঃ
ড. মো: ইদ্রিস খান

সম্পাদক ও প্রকাশকঃ
মোঃ খায়রুল আলম রফিক

সিয়াম এন্ড সিফাত লিমিটেড
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয়ঃ ৬৫/১ চরপাড়া মোড়, সদর, ময়মনসিংহ।
ফোন- +৮৮০৯৬৬৬৮৪, +৮৮০১৭৭৯০৯১২৫০, +৮৮০১৯৫৩২৫২০৩৭
ইমেইল- aporadhshongbad@gmail.com
(নিউজ) এডিটর-ইন-চিফ,
ইমেইল- khirulalam250@gmail.com
close