*  বদলগাছীতে পাখির জন্য গাছে হাঁড়ি-পাতিল বাঁধা অভয়াশ্রম           * প্রথম অভিজ্ঞতায় আয়েশা মৌসুমী            * বেনাপোলে আটটি ভারতীয় এয়ারগান জব্দ           * মইনুলের বিরুদ্ধে জামালপুরে আরেক গ্রেপ্তারি পরোয়ানা           * ভারতে এসে কানাডীয় তরুণীর প্রেম-বিয়ে           * আব্দুল আলীম সাগরের পক্ষথেকে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন           * এ দেশ যেন আর থেমে না যায় : প্রধানমন্ত্রী            * বাচ্চু ভাইয়ের গান আমরা বাঁচিয়ে রাখবো : আসিফ আকবর           * হাত ভেঙেছে মেসির, ৩ সপ্তাহ মাঠের বাইরে           * যুক্তরাষ্ট্র-রাশিয়া সম্পর্কের আরেক ধাপ পতন            * ত্রিশালে মর্মান্তিক সড়ক দুর্ঘটনায় যুবক নিহত           * ত্রিশাল উপজেলা প্রেসক্লাবের আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত           *  জিম্বাবুয়ের কাছে হারলে কেউ মানতে পারবে না: মাশরাফি           *  এরশাদের ১৮ দফা ইশতেহার           *  চতুর্থ শ্রেণির ছাত্রী ধর্ষণ           * দারাজে ১১ টাকায় কেনাকাটা           *  কেঁচোসার উৎপাদনে ভাগ্যবদল           * চেয়ারম্যান হতে পারলে সকল ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানকে অত্যাধনিক করে দিব- ইকবাল হোসেন           * ভারতে ট্রেনচাপায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৬০           * রোহিঙ্গা সঙ্কট : বাংলাদেশকে জোরালো সমর্থন সুইস প্রেসিডেন্টের           
* এ দেশ যেন আর থেমে না যায় : প্রধানমন্ত্রী            * বাচ্চু ভাইয়ের গান আমরা বাঁচিয়ে রাখবো : আসিফ আকবর           * হাত ভেঙেছে মেসির, ৩ সপ্তাহ মাঠের বাইরে          

নদীভাঙন : পূর্বপ্রস্তুতি না নেয়ায় প্রধানমন্ত্রীর ক্ষোভ

অপরাধ সংবাদ ডেস্ক | সোমবার, সেপ্টেম্বর ১৭, ২০১৮
নদীভাঙন : পূর্বপ্রস্তুতি না নেয়ায় প্রধানমন্ত্রীর ক্ষোভ

নদী ভাঙন বিষয়ে পূর্বপ্রস্তুতি না নেয়ায় সংশ্লিষ্টদের প্রতি তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

সোমবার প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে মন্ত্রিসভার বৈঠকে অনির্ধারিত আলোচনায় এ ক্ষোভ প্রকাশ করেন তিনি। বৈঠকে উপস্থিত একাধিক মন্ত্রী সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

সূত্র জানায়, বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী নদী ভাঙন কবলিত এলাকার সংসদ সদস্য, সংশ্লিষ্ট মন্ত্রীসহ এর সঙ্গে জড়িতদের উদ্দেশ্যে বলেন, ভাদ্র মাসে নদীতে পানির টান পড়ে। তাই এ সময় নদী ভাঙনের ঘটনা ঘটে। তবে আগে থেকে বুঝা যায় না কোন এলাকায় নদীভাঙন হবে। তারপরও যেসব এলাকা নদীভাঙন কবলিত বলে চিহ্নিত সেসব এলাকায় পূর্ব প্রস্তুতি নেয়া উচিত ছিল। কিন্তু সেরকমভাবে প্রস্তুতি নেয়া হয়নি।

তিনি বলেন, এমনকি নদী ভাঙন বিষয়ে তাকে কেউ জানায়ওনি। এজন্য তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করে তিনি ক্ষতিগ্রস্তদের ঘুরে দাঁড়ানোর জন্য আর্থিক সহায়তা দেয়ার জন্য সংশ্লিষ্টদের নির্দেশ দেন।

উল্লেখ্য, গত কিছুদিন যাবত শরিয়তপুরসহ দেশের বিভিন্ন এলাকায় ব্যাপক নদীভাঙনের ঘটনা ঘটেছে। শরীয়তপুরে এখনও অব্যাহত রয়েছে পদ্মার ভাঙন। গত দেড় বছরে পদ্মার ভাঙনে সেখানে নিঃস্ব হয়েছে ৫ হাজার ৮১টি পরিবার। ঝুঁকিতে রয়েছে আরও ৮ হাজার পরিবার। ভাঙনে নড়িয়ার কেদারপুর, মোক্তারের চর ইউনিয়ন ও নড়িয়া পৌরসভার ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে সবচেয়ে বেশি। এছাড়া উত্তারাঞ্চলেরও বেশ কয়েকটি এলাকা নদীভাঙনে বহু পরিবার ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এসব এলাকায় সরকারি বিভিন্ন গুরুত্বপুর্ণ স্থাপনাসহ হাজার হাজার ঘরবাড়ি বিলিন হয়ে গেছে। হাজার হাজার পরিবার নিঃস্ব হয়ে খোলা আকাশের নিচে অবস্থান করছে।





আরও পড়ুন



প্রধান সম্পাদকঃ
ড. মো: ইদ্রিস খান

সম্পাদক ও প্রকাশকঃ
মোঃ খায়রুল আলম রফিক

সিয়াম এন্ড সিফাত লিমিটেড
বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয়ঃ ৬৫/১ চরপাড়া মোড়, সদর, ময়মনসিংহ।
ফোন- +৮৮০৯৬৬৬৮৪, +৮৮০১৭৭৯০৯১২৫০, +৮৮০১৯৫৩২৫২০৩৭
ইমেইল- aporadhshongbad@gmail.com
(নিউজ) এডিটর-ইন-চিফ,
ইমেইল- khirulalam250@gmail.com
close