*  কক্সবাজারে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ দুই মাদক বিক্রেতা নিহত           *  মনোহরদীতে গৃহবধূর গলাকাটা লাশ উদ্ধার           * ইসলামপুরে ট্রাক চাপায় চা ব্যবসায়ীর মৃত্যু           * বেনাপোল সীমান্ত থেকে নাইজেরিয়ান নাগরিক ও হুন্ডি ব্যাবসায়ী আটক           *  কেন্দুয়ায় গ্রাম পুলিশ সদস্যদের ওসি যেখানেই বিশৃঙ্খলা সেখানেই পুলিশ থাকবে            * ঝিনাইগাতীতে এসএসসি পরীক্ষার ফরম পূরণের দাবিতে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ            * গফরগাঁও ২২০ বিএনপি নেতাকর্মীর আগাম জামিন           * প্রধানমন্ত্রীকন্যা পুতুলকে মন্ত্রিসভার অভিনন্দন           * মানুষ বলবে, শামীম ওসমান পাগল ছিল            * নতুন খবর দিলেন অপু বিশ্বাস            * যুক্তরাষ্ট্রে হাসপাতালে বন্দুকধারীর হামলা: নিহত ৪           * বাংলাদেশ-ওয়েস্ট ইন্ডিজের মধ্যকার পরিসংখ্যান           * আবুধাবিতে নিউজিল্যান্ডের রুদ্ধশ্বাস জয়           *  চার হাজারে ফোরজি ফোন দিচ্ছে রবি           *  দাদি হলেন মমতাজ           *  ছয় মাস পর্ন সাইট বন্ধের নির্দেশ হাইকোর্টের           * সাত খুন মামলার রায়ের পূর্ণাঙ্গ অনুলিপি প্রকাশ           * হারানো সন্তানকে খুঁজে ফিরছেন বাবা-মা           *  ময়মনসিংহের নান্দাইলে দিনমজুরকে পিটিয়ে হত্যা           * নেত্রকোনায় পিএসসিতে অনুপস্থিত ৪ হাজার শিক্ষার্থী          
*  কক্সবাজারে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ দুই মাদক বিক্রেতা নিহত           *  মনোহরদীতে গৃহবধূর গলাকাটা লাশ উদ্ধার           * ইসলামপুরে ট্রাক চাপায় চা ব্যবসায়ীর মৃত্যু          

শীতের সবজির উচ্চমূল্য

নিজস্ব প্রতিবেদক, | রবিবার, অক্টোবর ২৮, ২০১৮

শীতের সবজির উচ্চমূল্য
পরিবেশে শীতের আমেজ। কাঁচাবাজার এর বাইরে নয়। বেশ বড় আকারের ফুলকপি, শিম, নতুন আলু আর ঢেঁড়স উঠেছে বাজারে।

মৌসুমের প্রথম সবজির স্বাদ যেমন জিভে জল আনা, তেমনি তার দামও চড়া। কিনতে হলে পকেট থাকতে হবে ভারী।

এই যেমন এক কেজি আলু কিনতেই ব্যয় হবে ১২০ থেকে ১৪০ টাকা। এক কেজি শিমেরও একই দাম।

টমেটোকে এখন অবশ্য কেবল শীতের সবজি বলা যায় না। এ কারণেই এর দাম শীতকালীন অন্যান্য সবজির তুলনায় কিছুটা কম। তাও গুণতে হচ্ছে ৮০ থেকে ১০০ টাকা।

কাঁচা মরিচের দাম এবার বছর জুড়েই ছিল বেশি, মৌসুম আসার আগেও তার বাড়বাড়ন্ত দেখা গেছে, কেজিপ্রতি ব্যয় করতে হচ্ছে ১৪০ থেকে ১৬০ টাকা।

শীতের ফুলকপি আর বাঁধাকপি এখন আকারে বড় আর ঠাসা ছাড়া আর পার্থক্য নেই। এবার গ্রীষ্ম-বর্ষা সব সময়েই কেনা গেছে ফুলকপি। আকারে ছোট আর একটু ছাড়া ছাড়া ছিল সেগুলো। এ কারণে ফুলকপিও তুলনামূলক দামেই কেনা যাচ্ছে। মাঝারি আকারের

বাঁধাকপি বিক্রি হচ্ছে ৩০ থেকে ৩৫ টাকায় আর ফুলকপি ৪০ থেকে ৪৫ টাকায়।

শুক্রবার রাজধানীর মতিঝিল, গোপিবাগ, মানিকনগর, কারওয়ানবাজার, হাতিরপুল ও শান্তিনগর বাজার ঘুরে দেখ গেছে, শিম, টমেটো, গাজর, পালং শাক, বেগুন, মুলা, লাউ,বাধা, ফুলকপি, কপিসহ বেশ কিছু শীতকালিন সবজি বেশি বিক্রি হচ্ছে।

‘সাধের লাউ’ও এখন মিলছে সারা বছর। তবে শীতের লাউয়ের স্বাদই আলাদা। বছরের অন্যান্য সময়ের তুলনায় দামও খানিকটা কম। পাওয়া যাচ্ছে ৪০ থেকে ৫০ টাকা দরে।

প্রতি কেজি দেশি শসা বিক্রি হচ্ছে ৭০ থেকে ৮০ টাকায়, ঢেঁড়স ৪০ থেকে ৫০ টাকায়, বেগুন ৫০ থেকে ৭০ টাকায়, কচুর লতি ৫০ থেকে ৬০ টাকা, গাজর ৮০ থেকে ১০০ টাকায়।

গ্রীষ্মকালীন সবজিও আছে বাজারে। ঝিঙার কেজি ৫০ থেকে ৬০ টাকা, করলা ৪০ থেকে ৫০ টাকা, কাকরোল ৪৫ থেকে ৬০ টাকা আর কুমড়া প্রতি পিস ৩০ থেকে ৪০ টাকায় বিক্রি করতে দেখা গেছে।

শাকের দাম কিছুটা কমেছে। কলমি শাক প্রতি আটি ৫ থেকে ৭ টাকা, লাল শাক ৭ থেকে ১০ টাকা, লাউ শাক ২৫ থেকে ৩৫ টাকা ও পালং শাক ২৫ টাকায় বিক্রি করতে দেখা গেছে।

সবজি বিক্রেতা মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, ‘এখন শীতের আগাম চাষের শাক পরিমাণে কম, এজন্য একটু বাড়তি দামে বিক্রি হচ্ছে। চাহিদার উপযোগী সরবরাহ আসতে আরও অন্তত ১৫ দিনের মতো সময় লাগবে। তখন দাম কমবে।’

সবজির উচ্চমূল্যের ভিড়ে পেঁয়াজের দাম কিছুটা কমেছে। ভারতীয় পেঁয়াজ কেজিতে ৫ টাকা কমে বিক্রি হচ্ছে ২৫ থেকে ৩০ টাকায়। দেশি পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ৪০ থেকে ৪৫ টাকায়। যা গত সপ্তাহে ছিল ৪৫ থেকে ৫৫ টাকা।

মাছের মধ্যে চাষের পাঙ্গাস ১৪০ থেকে ১৭০ টাকা, চাষের কৈ ১৫০ থেকে ২০০ টাকা, তেলাপিয়া ১৪০ থেকে ১৬০ টাকা, ট্যাংরা ৪০০ থেকে ৬০০ টাকা, শিং ৫০০ থেকে ৬০০ টাকা, পাবদা ৪০০ থেকে ৬০০ টাকা, চিংড়ি ৫০০ থেকে ৮০০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে।

কেজিতে পাঁচ টাকা করে বেড়ে প্রতি কেজি ব্রয়লার মুরগি বিক্রি হচ্ছে ১৩০ থেকে ১৩৫ টাকায়। সঙ্গে প্রতি কেজি গরুর মাংস ৪৮০ থেকে ৫০০ টাকা, খাসির মাংস ৭০০ থেকে ৭৫০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

ডিমের দামও রয়েছে গত সপ্তাহের মতই। বেশিরভাগ খুচরা দোকানে ৩৮ টাকা হালি বা একেকটা সাড়ে ৯ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে। কিন্তু পাইকারি বাজারে যার শুধু ডিমই বিক্রি করেন তারা রাখছেন ১০৫ থেকে ১১০ টাকা ডজন।

চালের বাজার ঘুরে সপ্তাহের ব্যবধানে দামে তেমন কোনো পার্থক্য দেখা যায়নি। মোটা গুটি স্বর্ণা চাল বিক্রি হচ্ছে ৪০ থেকে ৪২ টাকায়। এছাড়া পাইজাম ৪৩ টাকা, মিনিকেট ৫৫ টাকা নাজিরশাইল ৬২ থেকে ৬৫ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে।




আরও পড়ুন



সম্পাদক ও প্রকাশকঃ
মোঃ খায়রুল আলম রফিক

বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয়ঃ ৬৫/১ চরপাড়া মোড়, সদর, ময়মনসিংহ।
ফোন- +৮৮০৯৬৬৬৮৪, +৮৮০১৭৭৯০৯১২৫০, +৮৮০১৯৫৩২৫২০৩৭
ইমেইল- aporadhshongbad@gmail.com
(নিউজ) এডিটর-ইন-চিফ,
ইমেইল- khirulalam250@gmail.com
close