* বাসর রাতে সবাইকে অবচেতন করে গয়নাগাটি নিয়ে পালাল বউ           * গণতান্ত্রিক অধিকারগুলো হরণ করা হয়েছে: ফখরুল           * রাজাকারদের উত্তরসূরিদের সঙ্গে কোনো আপস নেই           * শ্রদ্ধার ফুলে জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তানদের স্মরণ           * জুতো নেই, ব্যান্ডেজ লাগিয়ে দৌড়ে তিন স্বর্ণ কিশোরীর           * ৫০ বছর পরে কেনো রাজাকারদের তালিকা, প্রশ্ন ড. কামালের           * সাংবাদিক মুন্নাকে তুলে নেয়ার ও চাঁদাবাজীর অভিযোগে আলাউদ্দিন মেম্বারের বিরুদ্ধে কোর্টে মামলা তদন্ত করবে পিবিআই           * মা-মেয়ে দুইজনের সঙ্গেই ‘ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক’ ছিল সৌরভের           * আমরা এখন গরিব দেশ নই : তথ্যমন্ত্রী           * বিজয় দিবসের অনুষ্ঠানে হামলা ও ভাঙচুর           * কঙ্গোতে বিদ্রোহীদের হামলায় নিহত ২২            * বিপিএলের মাঝে এমন দু:সংবাদ দিলেন তামিম!           * পশ্চিমবঙ্গের পর জ্বলছে দিল্লি           * বিয়ের জন্য ভার্জিন বর চান অপু!           *  বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা            * জাতীয় স্মৃতিসৌধে জনতার ঢল           *  আ’লীগের জাতীয় সম্মেলনের আলোচনায় রেহানা, পুতুল ও জয়            * বীর শহীদদের প্রতি রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা            * আজ মহান বিজয় দিবস           * আবারও ভাইরাল প্রভার ভিডিও           
* কঙ্গোতে বিদ্রোহীদের হামলায় নিহত ২২            * বীর শহীদদের প্রতি রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা            * নিউজিল্যান্ডের দ্বীপে অগ্ন্যুৎপাতে নিহত বেড়ে ১৬          

দণ্ডিতদের ভোটে আসার পথ আটকাই থাকল

নিজস্ব প্রতিবেদক | রবিবার, ডিসেম্বর ২, ২০১৮

দণ্ডিতদের ভোটে আসার পথ আটকাই থাকল
দুই বছরের বেশি সাজা হয়েছে, এমন ব্যক্তিদের ভোটে আসার পথ খুলল না। বিএনপি নেত্রী সাবিরা সুলতানার দ- স্থগিত করে হাইকোর্ট বিভাগের আদেশ আপিল বিভাগ স্থগিত করায় এই বিষয়টি চূড়ান্ত হয়ে গেল।

রবিবার প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনসহ সাত সদস্যের আপিল বিভাগ এই আদেশ দেয়। এই মামলায় পূর্ণাঙ্গ আপিল না করা পর্যন্ত এ স্থগিতাদেশ বহাল থাকবে বলে আদেশ দেয় সর্বোচ্চ আদালত।

গত বৃহস্পতিবার সাবিরার তিন বছরের দ- স্থগিত করে হাইকোর্টের একটি ডিভিশন বেঞ্চ। তাকে যশোর-২ আসনে মনোনয়নের চিঠি দিয়েছিল বিএনপি। ফলে তার ভোটে আসার পথ উন্মুক্ত হয়। সেই সঙ্গে বেগম খালেদা জিয়াসহ দ-িত অন্যদের বিষয়ে আশার সঞ্চার হয় বিএনপিতে।

তবে শুক্রবার এই আদেশের বিরুদ্ধে চেম্বার জজ আদালতে আপিল করে রাষ্ট্রপক্ষ। শনিবার শুনানি শেষে চেম্বার বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকী বিষয়টি আপিল বিভাগের পূর্ণাঙ্গ বেঞ্চে পাঠিয়ে দেন।

এই আদেশের পর ফেনী-১ আসনে দুই মামলায় দ-িত বিএনপি চেয়ারপারসনের মনোনয়নপত্র বাতিল করে দেন রিটার্র্নিং কর্মকর্তা। তিনি বগুড়া-৬ ও ৭ আসনেও মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন।

এর আগেই দ- স্থগিত না হলে প্রার্থী হতে পারবেন না বলে রিটার্নিং কর্মকর্তাদের জানিয়ে রেখেছে নির্বাচন কমিশন।

গত সপ্তাহে বিএনপির পাঁচ নেতা উচ্চ আদালতে গিয়ে দ- স্থগিত করাতে ব্যর্থ হন। সে সময় আপিল বিভাগ জানিয়ে দেয়, কেবল আপিল করেই প্রার্থী হওয়া যাবে না। দ- স্থগিত অথবা বাতিল হতে হবে।

সংবিধানের বিধান অনুযায়ী দুই বছর বা তার চেয়ে বেশি দ- হলে সাজা ভোগের পাঁচ বছর অতিবাহিত না হওয়া পর্যন্ত তিনি প্রার্থী হতে পারবেন না। তবে এই সাজা বিচারিক আদলতের দ- নাকি আপিলের চূড়ান্ত মীমাংসার পর ঠিক হবে, এ নিয়ে বিতর্ক ছিল।

বিএনপির পাঁচ নেতার বিষয়ে উচ্চ আদালতের আদেশের পর গত ২৮ নভেম্বর বিষয়টির চূড়ান্ত নিস্পত্তি হয়েছে বলেই ধারণা করা হচ্ছিল। কিন্তু এর পর দিনই সাবিরার আবেদনে বিচারপতি রইচ উদ্দিনের দেয়া রায়ের পর্যবেক্ষণে বলা হয়, হাইকোর্টের দ- স্থগিতের ক্ষমতা রয়েছে এবং আপিল নিষ্পত্তি না না হওয়া পর্যন্ত কারো দ- চূড়ান্ত বলা যায় না। এই নতুন প্রশ্নের কারণেই মনোনয়নপত্র যাচাইবাছাইয়ের আগেই এই আদেশের বিরুদ্ধে শুক্রবার ছুটির দিন উচ্চ আদালতে যায় রাষ্ট্রপক্ষ, শুনানি হয় সাপ্তাহিক ছুটির দ্বিতীয় দিন শনিবার। তবে বিষয়টি নিয়ে আইনি প্রশ্ন থাকায় চেম্বার বিচারপতি আদেশ না দিয়ে তা পূর্ণাঙ্গ বেঞ্চে পাঠিয়ে দেন।

রবিবারের কার্যতালিকায় এই মামলাটি এক নম্বরে ছিল। আর এই বিষয়ে আদেশ দেয়ার আগেই মনোনয়নপত্র যাচাই বাছাইয়ের আনুষ্ঠানিকতা শুরু হয় প্রতিটি জেলায় রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয়ে।

আপিল বিভাগে রাষ্ট্রপক্ষে শুনানি করেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম। সঙ্গে ছিলেন অতিরিক্ত অ্যাটর্নি জেনারেল মুরাদ রেজা, ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল বশির উদ্দীন প্রমুখ।

সাবিরা সুলতানার পক্ষে ছিলেন এ জে মোহাম্মদ আলী, জয়নুল আবেদীন, এ এম মাহবুব উদ্দিন খোকন, আমিনুল ইসলাম প্রমুখ।
দুদকের পক্ষে ছিলেন  খুরশীদ আলম খান ও এ বি এম বায়েজিদ।

গত ২৯ নভেম্বর যশোরের ঝিকরগাছা উপজেলার চেয়ারম্যান সাবিরা সুলতানাকে বিচারিক আদালতের দেওয়া সাজা স্থগিত করে আদেশ দেন বিচারপতি মোহাম্মদ হাইকোর্ট বেঞ্চ। ওই আদেশের ফলে নির্বাচন করার পথ সুগম হয় সাবিরা সুলতানার। এই আদেশ স্থগিত চেয়ে রাষ্ট্রপক্ষ আবেদন করে।

আদেশের পর সাবিরা সুলতানার আইনজীবী আমিনুল ইসলাম বলেন, ‘অ্যাটর্নি জেনারেল গতকাল (শনিবার) অস্বাভাবিকভাবে চেম্বার আদালত বসিয়ে হাই কোর্টের আদেশের ওপর স্থগিতাদেশ নিয়েছেন। আজকে আপিল বিভাগ সেই স্থগিতাদেশই চলমান রেখেছেন।’

‘একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিএনপির প্রার্থীদের অযোগ্য ঘোষণার জন্য সরকার এই আইনগত কৌশল নিয়েছে। আমরা এর তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি।’
এই আদেশের বিরুদ্দে কোনো আইনি পদক্ষেপ নেয়া হবে কি না, এই প্রশ্নে জ্যেষ্ঠ আইনজীবীদের সঙ্গে পরামর্শ করে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে বলে জানান আমিনুল।




আরও পড়ুন



২. সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ মোঃ খায়রুল আলম রফিক
৩. নির্বাহী সম্পাদক ঃ প্রদীপ কুমার বিশ্বাস
৪. প্রধান প্রতিবেদক ঃ হাসান আল মামুন
প্রধান কার্যালয় ঃ ২৩৬/ এ, রুমা ভবন ,(৭ম তলা ), মতিঝিল ঢাকা , বাংলাদেশ । ফোন ঃ ০১৭৭৯০৯১২৫০
ফোন- +৮৮০৯৬৬৬৮৪, +৮৮০১৭৭৯০৯১২৫০, +৮৮০১৯৫৩২৫২০৩৭
ইমেইল- aporadhshongbad@gmail.com
(নিউজ) এডিটর-ইন-চিফ,
ইমেইল- khirulalam250@gmail.com
close