* স্বামীকে বাঁচাতে সন্ত্রাসীদের সঙ্গে যুদ্ধ নারীর, তবুও শেষ রক্ষা হলো না           *  কেন্দুয়া আটপাড়ার আর্শিবাদ অসীম কুমারকে অভিশপ্ত করে তুলতে শুরু হয়েছে গভীর ষড়যন্ত্র।           * পরীক্ষা বাদ রেখে শিক্ষার্থীদের তুলে আনা হল প্রশাসনের অনুষ্ঠানে           * ময়মনসিংহে অর্থ আত্মসাতে গ্রামীণ ব্যাংক ম্যানেজারের কারাদণ্ড           * পিরোজপুরে ছুরিকাঘাতে আ.লীগ নেতা নিহত           * রোহিঙ্গায় নিরাপত্তা ব্যাহত হওয়ার শঙ্কা প্রধানমন্ত্রীর           * আমি দুর্নীতি করলেও তুলে ধরুন, সাংবাদিকদের পূর্তমন্ত্রী           * আয়লানের মতো মানবতাকে নাড়া দেয়া আরেক ছবি আন্তর্জাতিক ডেস্ক           *  দুদক কার্যালয়ের সামনে সাংবাদিকদের বিক্ষোভ           *  ময়মনসিংহে মাদক নির্মূলে কাজ করছে রেঞ্জ পুলিশ ------- এডিশনাল ডিআইজি ড. মোঃ আক্কাছ উদ্দিন ভূইয়া           * ত্রিশালে আবারও মুক্তিযোদ্ধার জমি দখলের চেষ্টা            *  ফুলবাড়ীয়ায় আলাদীন’স পার্ক সকলের নিকট জনপ্রিয়           * সমন্বিত ভর্তি পরীক্ষায় যাচ্ছে ইবি           * সাকিবকে এই বিশ্বকাপের সেরা খেলোয়াড় বললেন হাসি           * ড্রোনের কারণে ফ্লাইট বিভ্রাট সিঙ্গাপুর বিমানবন্দরে           * ছাত্রদলের তোপের মুখে রিজভী, কেন?           * প্রতীকী ‘কাবা’ বন্ধ করতে আইনি নোটিশ           * বেড়ায় ক্ষেত খাইলো গৌরীপুরের মৎস্য চাষী হারুনের!           * সৌদি সেনা ঘাঁটিতে গোলাগুলি, তিন সেনা নিহত!           * টাঙ্গাইলে মাদরাসা ছাত্রীকে গণধর্ষণ! দুই ধর্ষক গ্রেফতার          
*  ময়মনসিংহে মাদক নির্মূলে কাজ করছে রেঞ্জ পুলিশ ------- এডিশনাল ডিআইজি ড. মোঃ আক্কাছ উদ্দিন ভূইয়া           * অপহৃত সেই তিন জমজ বোন উদ্ধার, আটক - ৬           * সাভারে তিন মাস আটকে রেখে গৃহবধূকে ধর্ষণ- থানায় অভিযোগ          

সাইবার অপরাধী আব্দুল কাইয়ুম এখন জেলহাজতে

স্টাফ রিপোর্টার | বৃহস্পতিবার, জুন ৬, ২০১৯
সাইবার অপরাধী আব্দুল কাইয়ুম এখন জেলহাজতে

আব্দুল কাইয়ুম বর্তমানে মোমেনশাহী ডিএস কামিল মাদ্রাসার অধ্যক্ষ ড.মোঃ ইদ্রিস খানের দায়ের করা ডিজিটাল আইনে মামলায় ময়মনসিংহ কেন্দ্রীয় কারাগারে রয়েছে । তার বিরুদ্ধে রয়েছে র্আও দুটি মামলা । একটি মামলার বাদী চট্রগ্রামের সাংবাদিক হাফেজ সালাহ উদ্দিন কাদের অন্যটির বাদী অপরাধ সংবাদের সম্পাদক সাংবাদিক খায়রুল আলম রফিক ।

সাংবাদিক হাফেজ সালাহ উদ্দিন কাদের জানান, তার নাম ও ঠিকানা ব্যবহার করে ব্লগ সাইট খুলে মোমেনশাহী ডিএস কামিল মাদ্রাসার অধ্যক্ষ ড.মোঃ ইদ্রিস খানের নামে মিথ্যা ও বানোয়াট সংবাদ ও বিকৃত ছবি প্রকাশ করে কাইয়ুম পরে আমাকে সাইবার অপরাধী বানাতে চেয়ে ছিল, আমি চট্রগ্রামের স্থানীয় থানার হ্যাকার আব্দুল কাইয়ুমের বিরুদ্ধে একটি অভিযোগ দায়ের করলে থানা পুলিশ  আদালতে মামলা করার পরামর্শ দেন ।
হ্যাকার আব্দুল কাইয়ুমের কাছ থেকে রেহাই পাননি ঈশ্বরগন্জ উপজেলার আঠারবাড়ি এলাকার তানিয়া নাসরিন । তানিয়া জানান,তার সাথে পরিচয় হয় আব্দুল কাইয়ুমের গত বছরের জানুয়ারী মাসে,এই পরিচয়ের মধ্যে দিয়ে আমার মোবাইল নাম্বার নেন ।  

বিভিন্ন সময়ে কারনে অকারনে ফোন দেয় এবং আমার স্বামীর সাথে কেমন সম্পর্ক জানতে চায় । এক পর্যায়ে আমার স্বামী বিদেশে থাকেন কাইয়ুম জানতে পেরে আমার বাড়িতে বিভিন্ন সময়ে আসতো ।
 হঠাৎ একদিন আমি কাইয়ুমকে বলি ভাই আমার ফেসবুক নাই খুলে দিবেন তখন তিনি আমাকে বলে আপনার ফোনটা আমার কাছে দিলে রাতে খুলে দিবো । আমি সরল বিশ্বাসে আমার ক্যামেরা মোবাইল তাকে দেই সেই মোবাইলে আমার কিছু ব্যক্তিগত ছবি ছিল । কিছুদিন পরে হঠাৎ করে রাতে ফোন দিয়ে কাইয়ুম বলেন,ভাবি আপনার অশ্লীল ছবিতো ফেসবুকে ভাইরাল হয়ে গেছে তখন আমি কান্নাকাটি শুরু করলে কাইয়ুম বলেন,ভাবি কাদঁবেন না!

আমি এগুলো দেখি বন্ধ করা যায় কিনা ? ৫০ হাজার টাকা লাগবে এ টাকা ঢাকার একজনকে দিতে হবে তিনি বন্ধ করে দিবেন ।  তানিয়া স্বামী সংসারের ভয়ে তাকে ৫০ হাজার টাকা দেন কাইয়ুমকে ।

আমি তার অপরাধের বিচার চাই । হারুয়ার ইকবাল বাহার জানান,  আমার কাছ থেকে কাইয়ুম ১৫ হাজার টাকা দার নেয় আমি টাকা চাইলে সে থানা পুলিশের ভয় দেখাতো, আমি তার ভয়ে টাকা এখন আর চাই না । ব্যবসায়ী তপন সাহা জানান,কাইয়ুম আমার ফেসবুক আইডি হ্যাক করে ব্ল্যাকমেইল করে ৭৫ হাজার টাকা হাতিয়ে নেয় ।
 মোমেনশাহী ডিএস কামিল মাদ্রাসার অধ্যক্ষ ড. মোঃ ইদ্রিস খান জানান, কাইয়ুম আমার বিরুদ্ধে তার প্রকাশিত বিডিপ্রেস ২৪ নামের অনলাইনে ভুয়া, মিথ্যা ও বানোয়াট সংবাদ প্রকাশ করে এবং বিভিন্ন নামে ফেসবুক,ব্লক সাইট,ভুয়া অনলাইন পোর্টাল খুলে আমার ছবি যৌনপল্লীর নারীদের সাথে ব্যবহার করে ফেসবুকের মাধ্যমে অপ্রচার করে আমার সম্মানহানি করে ।
 একপর্যায়ে হ্যাকার কাইয়ুম আমাকে বলে এগুলো বন্ধ করা যাবে,পরে আমি বলি করেন, তখন আব্দুল কাইয়ুম বলেন,এগুলো বন্ধ করতে চাইলে ডলার লাগবে,তখন আমি আমার মানসম্মান রক্ষা করতে গিয়ে তাকে বিভিন্ন সময়ে ডলার ্ও নগত টাকা দেই ।

 তিনি র্আও জানান,কাইয়ুমের কর্মকান্ড আমার কাছে সন্দেহ হলে আমি স্থানীয় ডিবি পুলিশের কাছে যাই,পরে কাইয়ুম আমার কাছ থেকে ডলার নিতে আসলে ডিবি পুলিশের একটি দল তাকে আটক করে । আমি তার বিরুদ্ধে ডিজিটাল আইনে একটি মামলা দায়ের করি আমি আশা করি ন্যায় বিচার পাব ।

 সাংবাদিক খায়রুল আলম রফিক জানান, আব্দুল কাইয়ুম আমার নামে ভুয়া  ফেসবুক আইডি,ব্লক সাইট খুলে ড. মোঃ ইদ্রিস খানের ছবির সাথে নারীদের অশ্লীল ছবি ব্যবহার করে তা ফেসবুকের মাধ্যমে ভায়রাল করে, আর এসব ব্লগ সাইটের নিছে প্রকাশক/পাবলিষ্টকারী রফিক লিখে অপ্রচার করে আমার মানসম্মান নষ্ট করে ।
 আমি সাইবার আদালতে একটি মামলা দায়ের করেছি ।

এই আব্দুল কাইয়ুমের দীর্ঘদিনের ষড়ন্ত্রের নিলনকশায় ২ কোটি টাকারও অধিক  আর্থিক ক্ষতির সন্মুখীন হয়েছি ।  দৈনিক ময়মনসিংহ প্রতিদিন পত্রিকাটির প্রকাশক ও মোমেনশাহী ডিএস কামিল মাদ্রাসার অধ্যক্ষ ড. ইদ্রিস খান তিনি বাংলাদেশ জমিয়াতুল মোর্দারেছিন এর কেন্দ্রীয় শাখার সাংগঠনিক সম্পাদক,ময়মনসিংহ জেলা শাখার সভাপতি এবং দৈনিক ময়মনসিংহ প্রতিদিন পত্রিকার ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক খায়রুল আলম রফিকের বিরুদ্ধে আব্দুল কাইয়ুম তার প্রকাশিত বিডিপ্রেস ২৪ নামের অনলাইনে ভুয়া, মিথ্যা ও
বানোয়াট সংবাদ প্রকাশ করে । ফুসেঁ ওঠেন ময়মনসিংহবাসী । এহেন ঘটনার প্রতিকার ও কাইয়ুমের শাস্তি চান ড. ইদ্রিস খান ও খায়রুল আলম রফিক ।  দারস্থ হন আদালতের । ড. ইদ্রিস খান ও খায়রুল আলম রফিকের মধ্যে দ্বন্ধ তৈরি করে দৈনিক ময়মনসিংহ প্রতিদিন পত্রিকাটির প্রকাশনা সাময়িকভাবে বন্ধ রাখা হয় । এতে প্রায় ২ কোটি টাকা ক্ষতি সাধিত হয় । কাইয়ুমের সাথে যোগ দেয় কয়েকটি চক্র তাদের বিরুদ্ধ্ওে মামলার প্রস্ততি চলছে। অভিযোগ রয়েছে, আব্দুল কাইয়ুম ভুয়া সংবাদ ও জোড়া লাগানো ছবি লাগিয়ে সমাজের বিশিষ্ট মানুষজনকে ইন্টারনেটের মাধ্যমে ছড়িয়ে দিয়ে দীর্ঘদিন ধরে সাইবার অপরাধ করে যাচ্ছে ।

 যার ক্ষতিকর প্রভাব পড়ছে ব্যক্তি থেকে শুরু করে জাতীয় জীবনেও। এ অবস্থায় শঙ্কা প্রকাশ করে ভুক্তভোগীরা বলছেন, আব্দুল কাইয়ুমের  সাইবার অপরাধ নিয়ন্ত্রণ করা না গেলে অচিরেই হুমকির মুখে পড়বেন তারা । আব্দুল কাইযুম সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অহরহ-ই কওে আসছিল হ্যাকিং, ঘটাচ্ছিলো ব্ল্যাকমেইলের মত ঘটনাও।

অভিজ্ঞরা জানান, কেবল সামাজিক মাধ্যমই নয়, সাইবার আক্রমণ হয়েছে সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানগুলোতেও। এমনকি নিরাপত্তা বাহিনীর ওয়েবসাইটগুলোও এ হামলা থেকে রেহাই পাচ্ছে না। তথ্য চুরির পাশাপাশি দেশের ব্যাংকিং ও অনলাইন ভিত্তিক প্রতিষ্ঠানে প্রায়ই ঘটছে ডিজিটাল জালিয়াতির মাধ্যমে অর্থ হাতিয়ে নেয়ার মত ঘটনা।

এ অবস্থাকে সমাজ ও রাষ্ট্রের জন্য 'অশনি সংকেত' হিসেবে দেখছেন সমাজবিজ্ঞানীরা। সমাজবিজ্ঞানী ড. মনিরুল ইসলাম খান বলেন, 'যেকোনো প্রযুক্তির নেতিবাচক প্রয়োগ আছে। এটার মাধ্যমে ক্রাইম যদি হতে থাকে তাহলে অপরাধ বাড়তে থাকবে। এতে করে এই প্রযুক্তি ভয়াবহ ক্রিমিনাল প্রুস্তক্তিতে রূপান্তরিত হবে। ইন্টারনেটের ঝুঁকিগুলো সম্বন্ধে মানুষকে বেশি করে সজাগ করতে হবে।





আরও পড়ুন



১. প্রধান উপদেষ্টা ঃ এড. সাদির হোসেন (হাইকোর্ট আইনজীবি)
২. সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ মোঃ খায়রুল আলম রফিক
৩. নির্বাহী সম্পাদক ঃ প্রদীপ কুমার বিশ্বাস
৪. প্রধান প্রতিবেদক ঃ হাসান আল মামুন
প্রধান কার্যালয় ঃ ২৩৬/ এ, রুমা ভবন ,(৭ম তলা ), মতিঝিল ঢাকা , বাংলাদেশ । ফোন ঃ ০১৭৭৯০৯১২৫০
ফোন- +৮৮০৯৬৬৬৮৪, +৮৮০১৭৭৯০৯১২৫০, +৮৮০১৯৫৩২৫২০৩৭
ইমেইল- aporadhshongbad@gmail.com
(নিউজ) এডিটর-ইন-চিফ,
ইমেইল- khirulalam250@gmail.com
close