* স্বামীকে বাঁচাতে সন্ত্রাসীদের সঙ্গে যুদ্ধ নারীর, তবুও শেষ রক্ষা হলো না           *  কেন্দুয়া আটপাড়ার আর্শিবাদ অসীম কুমারকে অভিশপ্ত করে তুলতে শুরু হয়েছে গভীর ষড়যন্ত্র।           * পরীক্ষা বাদ রেখে শিক্ষার্থীদের তুলে আনা হল প্রশাসনের অনুষ্ঠানে           * ময়মনসিংহে অর্থ আত্মসাতে গ্রামীণ ব্যাংক ম্যানেজারের কারাদণ্ড           * পিরোজপুরে ছুরিকাঘাতে আ.লীগ নেতা নিহত           * রোহিঙ্গায় নিরাপত্তা ব্যাহত হওয়ার শঙ্কা প্রধানমন্ত্রীর           * আমি দুর্নীতি করলেও তুলে ধরুন, সাংবাদিকদের পূর্তমন্ত্রী           * আয়লানের মতো মানবতাকে নাড়া দেয়া আরেক ছবি আন্তর্জাতিক ডেস্ক           *  দুদক কার্যালয়ের সামনে সাংবাদিকদের বিক্ষোভ           *  ময়মনসিংহে মাদক নির্মূলে কাজ করছে রেঞ্জ পুলিশ ------- এডিশনাল ডিআইজি ড. মোঃ আক্কাছ উদ্দিন ভূইয়া           * ত্রিশালে আবারও মুক্তিযোদ্ধার জমি দখলের চেষ্টা            *  ফুলবাড়ীয়ায় আলাদীন’স পার্ক সকলের নিকট জনপ্রিয়           * সমন্বিত ভর্তি পরীক্ষায় যাচ্ছে ইবি           * সাকিবকে এই বিশ্বকাপের সেরা খেলোয়াড় বললেন হাসি           * ড্রোনের কারণে ফ্লাইট বিভ্রাট সিঙ্গাপুর বিমানবন্দরে           * ছাত্রদলের তোপের মুখে রিজভী, কেন?           * প্রতীকী ‘কাবা’ বন্ধ করতে আইনি নোটিশ           * বেড়ায় ক্ষেত খাইলো গৌরীপুরের মৎস্য চাষী হারুনের!           * সৌদি সেনা ঘাঁটিতে গোলাগুলি, তিন সেনা নিহত!           * টাঙ্গাইলে মাদরাসা ছাত্রীকে গণধর্ষণ! দুই ধর্ষক গ্রেফতার          
*  ময়মনসিংহে মাদক নির্মূলে কাজ করছে রেঞ্জ পুলিশ ------- এডিশনাল ডিআইজি ড. মোঃ আক্কাছ উদ্দিন ভূইয়া           * অপহৃত সেই তিন জমজ বোন উদ্ধার, আটক - ৬           * সাভারে তিন মাস আটকে রেখে গৃহবধূকে ধর্ষণ- থানায় অভিযোগ          

শ্রীলঙ্কায় আতঙ্কে মুসলিমরা, ভাংতে হলো মসজিদ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক | সোমবার, জুন ১০, ২০১৯
শ্রীলঙ্কায় আতঙ্কে মুসলিমরা, ভাংতে হলো মসজিদ
ইস্টার সানডেতে সিরিজ বোমা হামলার পর থেকে আতঙ্ক এবং শঙ্কায় দিন কাটছে শ্রীলঙ্কার মুসলিমদের। ধারাবাহিকভাবে পুলিশের তল্লাশি এবং স্থানীয়দের সন্দেহের দৃষ্টির কারণে একটি মসজিদ ভেঙে ফেলতে বাধ্য হয়েছে সেখানকার মুসলিমরা। খবর বিবিসির।

এমএইচএম আকবর খান বলেন, ‘ইস্টার হামলার পর অমুসলিমরা আমাদের সবাইকে সন্ত্রাসী হিসেবে দেখতে শুরু করেছে।’

শ্রীলঙ্কায় ইস্টার সানডেতে গির্জা ও বিলাসবহুল হোটেলে আত্মঘাতী হামলার কথাই বলছিলেন তিনি যে ঘটনায় নিহত হয়েছে প্রায় আড়াইশ মানুষ। আর এ হামলার জন্য দায়ী করা হয় একটি মুসলিম জঙ্গি গোষ্ঠীকে।

এরপর পুরো রোজার মাস জুড়ে মুসলিমরা যখন রোজা পালন করছিল, তখন উগ্রবাদীদের কাছ থেকে দূরে থাকার জন্য মসজিদটি ভেঙে ফেলে তারা।

আকবর খান মাদাতুগামার প্রধান মসজিদের একজন ট্রাস্টি। তিনি ব্যাখ্যা করেছেন - কেন এমনটি করলো সেখানকার মুসলিমরা। তিনি বলেন, ইস্টার হামলার পর পুলিশ কয়েক দফা তল্লাশি করেছে মসজিদটিকে। এতে মানুষ উদ্বিগ্ন হয়ে পড়ে। মুসলিমদের সঙ্গে অন্য সম্প্রদায়গুলোর অবিশ্বাসও বেড়ে যায়।

যে মসজিদটি ধ্বংস করা হয় সেটিতে নিষিদ্ধ ঘোষিত ন্যাশনাল তাওহীদ জামাত বা এনটিজে সদস্যরা বেশি যাতায়াত করতো বলে মনে করা হয়। পরে এনটিজে পরিচালিত ওই মসজিদটি সিলগালা করে বন্ধ করে দেয় কর্তৃপক্ষ।

আকবর খান বলেন, ‘আমাদের শহরে অন্য যে মসজিদ আছে সেটি মুসলিম পরিবারগুলোর জন্য যথেষ্ট। কয়েক বছর আগে অন্য একটি গোষ্ঠী প্রশ্নবিদ্ধ মসজিদটি নির্মাণ করে।’

পরে মে মাসে পুরনো মসজিদের সদস্যরা একটি সভায় মিলিত হয়ে সর্বসম্মত হয়ে বিতর্কিত মসজিদটি ধ্বংস করার সিদ্ধান্ত নেয়। পরে স্থানীয়রা সেটি ধ্বংস করে। তিনি বলেন, ‘মিনার, নামাজ কক্ষ ধ্বংস করে ভবনটি পুরনো মালিকের হাতে দিয়ে দেয়া হয়েছে।’

শ্রীলঙ্কায় ৭০ ভাগ মানুষ বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বী। আর মুসলিম দশ ভাগের মতো। তবে মসজিদ ধ্বংস করে ফেলার সিদ্ধান্ত সবাই ভালোভাবে নেয়নি। শ্রীলঙ্কায় মুসলিমদের সর্বোচ্চ তাত্ত্বিক কর্তৃপক্ষ অল সিলন জামিয়াতুল উলামা বলছে, প্রার্থনার জায়গার ক্ষতি করা উচিত নয়।

সংস্থার পক্ষ থেকে এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ‘মসজিদ আল্লাহর ঘর। এর ধ্বংস বা ক্ষতি করা ইসলামী চেতনার পরিপন্থী।’

শ্রীলঙ্কা সরকার বলছে, দেশটিতে প্রায় ২ হাজার ৫৯৬টি রেজিস্টার্ড মসজিদ আছে। শ্রীলঙ্কার একটি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক ড: আ রামিজ বলছেন, মসজিদ ধ্বংসের পন্থা বেছে নিলে এমন শত শত মসজিদ ধ্বংস করতে হবে।

তিনি বলছেন, অনেকদিন ধরেই শ্রীলঙ্কার মুসলিমরা উগ্রবাদীদের সহ্য করে আসছিলো। কিন্তু তারা চুপ থাকায় উগ্রবাদীরা শক্তিশালী হয়ে উঠেছে।

বোমা হামলার ঘটনার পর মুখ ঢেকে রাখায় নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে সরকার। ওই হামলার পর দেশটিতে এখনো জরুরি অবস্থা জারি রয়েছে, যার অবসান হবে আগামী ২২শে জুন।

কিন্তু দেশটির মুসলিমরা সবদিক থেকেই বেশ চাপের মধ্যে আছে। ওই ঘটনার পর বহু জায়গায় মুসলিমদের বাড়িঘর ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠান আক্রান্ত হয়েছে। ড: রামিজ বলছেন, তিনি নিজেও হেনস্থার শিকার হয়েছেন।




আরও পড়ুন



১. প্রধান উপদেষ্টা ঃ এড. সাদির হোসেন (হাইকোর্ট আইনজীবি)
২. সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ মোঃ খায়রুল আলম রফিক
৩. নির্বাহী সম্পাদক ঃ প্রদীপ কুমার বিশ্বাস
৪. প্রধান প্রতিবেদক ঃ হাসান আল মামুন
প্রধান কার্যালয় ঃ ২৩৬/ এ, রুমা ভবন ,(৭ম তলা ), মতিঝিল ঢাকা , বাংলাদেশ । ফোন ঃ ০১৭৭৯০৯১২৫০
ফোন- +৮৮০৯৬৬৬৮৪, +৮৮০১৭৭৯০৯১২৫০, +৮৮০১৯৫৩২৫২০৩৭
ইমেইল- aporadhshongbad@gmail.com
(নিউজ) এডিটর-ইন-চিফ,
ইমেইল- khirulalam250@gmail.com
close