* দুদকের তদন্তে ফেঁসে যাচ্ছেন সাবেক ওসি গোলাম সারোয়ার            * ঘুমের ঘোরে শারীরিক সম্পর্ক হলে যা করবেন           * ক্লাবে নিয়মিত জুয়ার আসর বসতো           * নুসরাতকে মাদ্রাসার ছাদে ডেকে নিতে কেউ দেখেনি, প্রত্যক্ষ স্বাক্ষী নেই’           * মুরগির ডিমের জন্য রক্তাক্ত হলেন গৃহবধূ            *  পুরুষের বিছানা গরম করাই পেশা তার            *  প্রেমিকের সঙ্গে পালালেন প্রবাসীর স্ত্রী           * শামীমের হুমকি— ‘হাইকোর্টে এলে তোকে গুলি করে মারব’           * মসজিদে সৌদির বিমান হামলা, নিহত ৭            * বরিশালে ভুয়া সেনা কর্মকর্তা আটক           * সব অপরাধীর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা -স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী           *  দনিয়া কলেজে ৪১ কোটি ৪০ লাখ ৯৪ হাজার টাকার অনিয়ম           *  অবৈধ লেনদেন ও মানি লন্ডারিংয়ের বিষয় অনুসন্ধান করতে সম্রাটের ব্যাংক হিসাব তলব           * বিয়ের ঘোষণা দিলেন ক্যাটরিনা কাইফ           * বরকে নিয়ে বাড়ী ফিরলেন সেই কনে           * গফরগাঁও পল্লী বিদ্যুৎ অফিসে দালালের হাট বসেছে            * হাসপাতালে মেয়াদ উত্তীর্ণ স্যালাইন পুশের প্রতিবাদে মানববন্ধন ॥তদন্ত কমিটি গঠন           * ফুলবাড়ীতে আগাম জাতের আলু চাষে ব্যস্ত কৃষক           * পূর্বধলার হোগলায় সামাজিক নিরাপত্তা বিষয়ক কর্মসূচী           *  ঘর পেয়ে খুশি হতদরিদ্র ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীরা          
* কখনও হৃদরোগ, কখনও মেডিসিন বিশেষজ্ঞ তিনি            * আফগানিস্তানে বিয়ের অনুষ্ঠানে বোমা হামলা, নিহত ৩৫           * ছাত্রদলের ওপর হামলাকারীদের শাস্তি দাবি ফখরুলের           

এবার উল্টো রূপ দেখলেন ডিআইজি মিজান

নিজস্ব প্রতিবেদক | মঙ্গলবার, জুলাই ২, ২০১৯
এবার উল্টো রূপ দেখলেন ডিআইজি মিজান
অস্ত্রের মুখে বিয়ে করা স্ত্রীকে ক্ষমতার অপব্যবহার করে কারাগারে নেওয়ার অভিযোগ ছিল পুলিশের বরখাস্ত ডিআইজি মিজানুর রহমানের বিরুদ্ধে। এবার তাকেই যেতে হলো পুলিশি হেফাজতে। বন্দি অবস্থায় থাকতে হচ্ছে থানায়।

দুর্নীতির মামলায় আগাম জামিন নিতে গিয়ে হাইকোর্টের আদেশে ধরা খেলেন সমালোচিত এই পুলিশ কর্মকর্তা।

২০১৭ সালের মাঝামাঝি অস্ত্রের মুখে নারীকে বিয়ে করতে বাধ্য করার অভিযোগের পর এক সাংবাদিক, টেলিভিশনের উপস্থাপিকা ও তার স্বামীকে হত্যার হুমকি দেওয়া, দুর্নীতি, দুদকের তদন্ত নিজের পক্ষে নিতে ঘুষ দেওয়া- আরও কত কী অভিযোগ ছিল মিজানের বিরুদ্ধে। কিন্তু দৃশ্যত কোনো ব্যবস্থাই নেয়া হচ্ছিল না।

তবে জুন মাসটা একেবারেই ভালো যায়নি এই পুলিশ কর্মকর্তার। দুদক কর্মকর্তাকে ঘুষ দেওয়ার কথা প্রকাশ করে ফেঁসেছেন। রাষ্ট্রপতির আদেশে চাকরি থেকে বরখাস্ত হয়েছেন, বিচার হবে, ঘোষণা এসেছে প্রধানমন্ত্রীর তরফ থেকে। দুর্নীতির মামলা খেয়েছেন। আর জুলাইয়ের প্রথম দিন আগাম জামিন নিতে গিয়ে ব্যর্থ হয়ে হয়েছেন বন্দি।

হাইকোর্টের নির্দেশের পর সোমবার বিকাল ৫টা ৫৪ মিনিটে ডিআইজি মিজানকে শাহবাগ থানা নিয়ে আসে পুলিশ। এর আগে তাকে ঘণ্টাখানেক বসিয়ে রাখা হয় আদালত কক্ষে। পুরোটা সময় তার চেহারা ছিল বিমর্ষ। দেখা যায়নি হাসি। তবে কক্ষের ভেতরে বেশিক্ষণ দেখার সুযোগ ছিল না। বাইরে থেকে সাংবাদিকরা উঁকিঝুঁকি মারার পর দরজা বন্ধ করে দেওয়া হয়।

এই কক্ষ থেকে বের করে ডিআইজিকে একটি পাজেরো গাড়িতে করে নেওয়া হয় শাহবাগ থানায়। সামনের গাড়িতে নেয়া হয় তাকে। পেছনে ছিল পুলিশ সদস্যদের আরেকটি গাড়ি। রাস্তা প্রায় ফাঁকা করে নির্বিঘেœ আনা হয় থানায়।

আলিশান বাড়ি ছেড়ে রাতে অপরাধীদের সঙ্গে রাতে কাটাতে হয় পুলিশের প্রভাবশালী এই কর্মকর্তাকে। তবে তাকে সাধারণ হাজতির (পুরুষ) কক্ষে রাখা হয় নাকি কর্মকর্তাদের অন্য কক্ষে ছিলেন, সে বিষয়ে নিশ্চিত তথ্য দিতে রাজি ছিলেন না পুলিশ কর্মকর্তারা।

এমনিতে সাধারণ হাজতিদের রাখা হয় মেঝেতে। তোশক-জাজিম না থাকলেও ফ্লোরে থাকে কম্বল। যেটা পেতেই ঘুমাতে হয়। যেখানে থাকে ছোট একটি বাথরুম।

ডিএমপির রমনা জোনের উপকমিশনার (ডিসি) মারুফ হোসেন সরদার  বলেন, ‘আমরা আদালত থেকে তাকে থানা হেফাজতে নিয়েছি। দিনের সময় শেষ হয়ে যাওয়ায় আজ তাকে নিম্ন আদালতে হাজির করা যায়নি। তিনি রাতে থানা হাজতেই থাকবেন। মঙ্গলবার সকালে তাকে আদালতে নেওয়া হবে।’

এর আগে মিজানের আগাম জামিনের আবেদন নাকচ করে তার সমালোচনা করে মন্তব্য করে আদালত। তার আইনজীবীর বক্তব্যও খ-ন করেন বিচারপতি ওবায়দুল হাসান ও বিচারপতি এসএম কুদ্দুস।

মিজানের আইনজীবী মমতাজ উদ্দিন মেহেদী জামিন চেয়ে বলেন, ‘জঙ্গি দমনে ডিআইজি মিজানের অনেক ভূমিকা রয়েছে। এই বিবেচনায় আসামি জামিন পেতে পারে।’

তবে হাইকোর্ট বলে, ‘সে (মিজান) পুলিশের ভাবমূর্তি পুরোপুরি নষ্ট করেছে। আমরা টিভিতে দেখেছি, (দুদকের একজন পরিচালককে) ঘুষ দেওয়ার ব্যাপারে সে ডেসপারেট বক্তব্য দিয়েছে।...তার জামিন হবে না। আমরা তাকে পুলিশে দেব।’

এই বলে ডিআইজি মিজানের জামিন আবেদন নাকচ করে হাইকোর্ট। পাশাপাশি ২৪ ঘণ্টার মধ্যে তাকে ঢাকার মহানগর বিশেষ জজ আদালতে হাজির করতে বলা হয়।

এরপর দুই বিচারপতি এজলাস কক্ষ ত্যাগ করেন। পরে আদালতের আদেশটি কোর্ট প্রশাসন শাহবাগ থানাকে জানালে পুলিশের রমনা বিভাগের একজন অতিরিক্ত উপ-কমিশনার ও শাহবাগ থানার ওসি আবুল হাসান হাইকোর্টে আসেন।

আদালতে দুদকের পক্ষে খুরশীদ আলম খান এবং রাষ্ট্রপক্ষে ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল রাফি আহমেদ শুনানি করেন। এসআই মাহমুদুল হাসানের পক্ষে ছিলেন আমিনুল ইসলাম।

দুদকের পরিচালক মনজুর মোরশেদের আবেদনে ইতিমধ্যে ডিআইজি মিজানের স্থাবর-অস্থাবর সম্পত্তি এবং ব্যাংক হিসাব জব্দের আদেশ দিয়েছে ঢাকার জ্যেষ্ঠ বিশেষ জজ আদালত।

ডিআইজি মিজানের বিষয়টি নিয়ে তুমুল আলোচনা হয় ২০১৭ সালের একেবারে শেষের দিকে। ভুয়া কাবিননামা তৈরির অভিযোগে একজন নারীকে গ্রেপ্তারের ঘটনা নিয়ে কাজ করতে গিয়ে বের হয় কেঁচো খুড়তে সাপ। বেরিয়ে আসে, ওই নারীকে অস্ত্রের ভয় দেখিয়ে বিয়ে করেছেন তিনি। যে সাংবাদিক এই প্রতিবেদন তৈরি করেছেন, হত্যার হুমকি দেওয়া হয়েছিল তাকেও।

তখন ঢাকা মহানগর পুলিশের সদরদপ্তরে সংযুক্ত করে রেখে দেওয়া হয় এক বছরেরও বেশি সময়। এর মধ্যে নারী উপস্থাপিকাকে ফোন করে স্বামী সমেত হত্যা করার হুমকি, ওই নারীর আপত্তিকর ছবি ফেসবুকে ছড়ানো, দুর্নীতির অভিযোগের তদন্ত নিজের পক্ষে নিতে ঘুষ দেওয়াসহ নানা অভিযোগ এসেছে গণমাধ্যমে। আড়ালে আবডালে আরও অনেক কথা ছড়িয়েছে।

গত ২৪ জুন রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ তাকে পুলিশ থেকে বরখাস্তের চিঠিতে সই করেন। পরদিন তাকে বরখাস্ত করে জারি হয় প্রজ্ঞাপন।

আগের দিন ডিআইজি মিজান ছাড়াও তার প্রথম স্ত্রী সোহেলিয়া আনার রতœা, ভাই মাহবুবুর রহমান ও ভাগ্নে এসআই মাহমুদুল হাসানের বিরুদ্ধে দুর্নীতির মামলা করে দুদক। এতে মামলায় আসামিদের বিরুদ্ধে তিন কোটি ২৮ লাখ ৬৮ হাজার টাকার অবৈধ সম্পদ অর্জন এবং তিন কোটি সাত লাখ পাঁচ হাজার টাকার সম্পদের তথ্য গোপনের অভিযোগ আনা হয়।




আরও পড়ুন



১. প্রধান উপদেষ্টা ঃ এড. সাদির হোসেন (হাইকোর্ট আইনজীবি)
২. সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ মোঃ খায়রুল আলম রফিক
৩. নির্বাহী সম্পাদক ঃ প্রদীপ কুমার বিশ্বাস
৪. প্রধান প্রতিবেদক ঃ হাসান আল মামুন
প্রধান কার্যালয় ঃ ২৩৬/ এ, রুমা ভবন ,(৭ম তলা ), মতিঝিল ঢাকা , বাংলাদেশ । ফোন ঃ ০১৭৭৯০৯১২৫০
ফোন- +৮৮০৯৬৬৬৮৪, +৮৮০১৭৭৯০৯১২৫০, +৮৮০১৯৫৩২৫২০৩৭
ইমেইল- aporadhshongbad@gmail.com
(নিউজ) এডিটর-ইন-চিফ,
ইমেইল- khirulalam250@gmail.com
close