* চট্টগ্রামে আইয়ুব বাচ্চুর রূপালি গিটার উদ্বোধন           * ২২১ বার প্রেমে ব্যর্থ হয়ে পোষা কুকুরকে বিয়ে!           * মহান আল্লাহ তাআলা যেসব কাজে প্রতিযোগিতা করতে বলেছেন           * স্কুলের রাঁধুনি থেকে একরাতে কোটিপতি           * খালেদের ক্যাসিনো থেকে আটক ১৪২ জনকেই কারাদণ্ড            * অবশেষে বিএসএফ’র গুলিতে নিহত বাবুলের লাশ ১৪দিন পর হস্তান্তর           * ‘অফিসার্স রাজ্জাক’বিদেশি মদের চালানসহ ফের আটক           * শার্শায় পানিতে ডুবে ২ বছরের শিশু নিহত           * আমরা অনেক সুন্দর প্রায়শই দেখে থাকি ধন-সম্পদ জীবনে সুখে ভরে উঠে না!!!           * পিরিতি রীতি-নীতির প্রায় দীর্ঘ এক মাস পর স্কুল ছাত্রী উদ্ধার, গ্রেপ্তার প্রেমিক           * ৬ লক্ষ ৬৪ হাজার টাকা ছিনতাইকারী ডলার চক্রের প্রতারক ওসি পরিচয়দানকারী গ্রেফতার           * বেনাপোলে চোরাচালান প্রতিরোধে মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত            * ত্রিশালে বঙ্গবন্ধু ও ফজিলাতুন্নেছা মুজিব গোল্ডকাপ প্রাথমিকের উদ্বোধন           * প্রেমের ফাঁদে ফেলে হিন্দু পরিচয় গোপন করে মুসলিম পরিচয় দিয়ে বিয়ে            *  ময়মনসিংহ বিভাগে দুর্নীতির বিরুদ্ধে কঠোর অবস্থান           * ময়মনসিংহে ৬৪ ভিক্ষুককে ভ্যান গাড়ি, সেলাই মেশিন দিয়ে পুনর্বাসন           * তানোরে জালিয়াতি করে কলেজ এমপিওভুক্তকরণ !           * রিফাত হত্যায় অভিযোগপত্র গ্রহণ, ৯ জনের বিরুদ্ধে পরোয়ানা           * প্রেমিকের মৃত্যুর খবরে গলায় ফাঁস দিলো প্রেমিকা            * সৌদিতে এবার ঘোড়দৌড়ে অংশ নিচ্ছেন এক নারী জকি          
* আমাদের কাজই হচ্ছে জনগণকে সেবা দেয়া : প্রধানমন্ত্রী            * অনুরাগীদের ওপর আমার কোনও রাগ নেই           * জাকির নায়েক ভারতের জন্য ‘ক্ষতিকর’: মাহাথির          

সরকারি হাসপাতালে জখমি সনদ বাণিজ্য !

খায়রুল আলম রফিক | শনিবার, জুলাই ১৩, ২০১৯
সরকারি হাসপাতালে জখমি সনদ বাণিজ্য !

দেশের সিটি কর্পোরেশন , জেলা সদর ও উপজেলাগুলিতে জখমি সনদ বাণিজ্য জমাজমাট হয়ে উঠেছে । এখাতে সংশ্লিষ্ট চিকিৎসক, হাসপাতালের কর্মকর্তা- কর্মচারি এবং দাললরা হাতিয়ে নিচ্ছে কোটি কোটি টাকা ।

মিথ্যা, বানোয়াট এবং মনগড়া জখমি সনদ নিয়ে পুলিশ ও আদালতে ধু¤্রজালের সৃষ্টি হওয়ায় বিচারপ্রার্থীগণ বিড়ম্বনার পাশপাশি মিথ্যা মামলায় ফেঁসে গিয়ে তছনছ হয়ে গেছে অনেকের সাজানো- গোঁছানো জীবন ।

দেশের সিটি কর্পোরেশন এলাকা, সরকারি মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, জেলা সদরের সরকারি হাসপাতাল এবং উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সগুলিতে এচিত্র উঠে এসেছে দৈনিক আমাদের কন্ঠের অনুসন্ধানী প্রতিবেদনে ।

খোঁজ খবর নিয়ে এবং অভিযোগে প্রকাশ, জমি সংক্রান্ত বিরোধ, সন্ত্রাসী বাহিনীর অনৈতিক কার্যক্রম , রাজনৈতিক নেতা- কর্মীদের অভ্যন্তরীন কোন্দল -বিরোধসহ নানা কারনে প্রতিপক্ষের হামলায় জখম অর্থাৎ আহত হয়ে সরকারি হাসপাতালগুলিতে ভর্তি হন ভুক্তভোগীরা ।
হাসপাতালে ভর্তির পর জখমী সার্টিফিকেট নিয়ে চলে ঘুষ বাণিজ্য । যেনতেন ঘুষ নয় । সারাদেশে এখাতে প্রতি সপ্তাহে কোটি টাকারও বেশি লেনদেনের ঘটনা ঘটে ।
হাসপাতালের ডাক্তার, পরিচালক, উপ পরিচালক, সহকারি পরিচালক, প্রশাসনিক কর্মকর্তা, প্রধান সহকারি, মেডিকেল অফিসার, ওয়ার্ড রেজিস্ট্রার, ৪র্থ ও ৩য় শ্রেণির কর্মচারিসহ অনেকেই এই ঘুষ গ্রহনের সাথে জড়িত ।
সামান্য জখমী অর্থাৎ আঘাতপ্রাপ্ত রোগীদের মারাত্বক আঘাতপ্রাপ্ত , মারাত্বক আঘাত প্রাপ্তদের সামান্য আঘাতপ্রাপ্ত দেখিয়ে সার্টিফিকেট দেন সংশ্লিষ্ট ঘুষ গ্রহনকারীরা । অর্থনৈতিক দৈন্যতার কারণে অনেক রোগীর আতœীয়- স্বজন ঘুষ দিতে পারেন না । এসব রোগীদের সনদ সংগ্রহ করতে গিয়ে দিনের পর দিন, মাসের পর মাস এমনকি বছরের পর বছর ঘুরেও সনদ সংগ্রহ করতে পারেন না তারা । আবার ধনাঢ্য রোগীর আতœীয়- স্বজনরা তার রোগীর সামান্য আঘাততে মারাতœক আঘাত হিসাবে ঘুষের বিনিময়ে মারাতক জখম দোিখয়ে সার্টিফিকেট সংগ্রহ করে থাকেন ।

সামান্য জখমপ্রাপ্তদের মারাতœক জখম (গ্রিবিয়ার) সার্টিফিকেট সংগ্রহ করতে ক্ষেত্র বিশেষ ১২ হাজার টাকা থেকে ৫০ হাজার ঘুষ দিতে হয় । ঘুষ ছাড়া সার্টিফিকেট সংগ্রহ করার নজির নেই বললেই চলে । সরকারি হাসপাতালের সংশ্লিষ্টরা মোটা অংকের ঘুষ নিয়ে আলিসান বাড়ি দামি গাড়িতে চড়ে বিলাশবহুল জীবন যাপন করছে ।

থানা পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, মারমারি সংক্রান্ত ঘটনায় মামলার প্রেক্ষিতে তদন্তের সাথে জখমি সনদ প্রয়োজন পড়ে । আমাদের এই সনদ প্রতিবেদন অর্থাৎ চূড়ান্ত প্রতিবেদন আদালতে দাখিল করতে হয় । সেজন্য সনদ সংগ্রহের জন্য আমাদের হাসপাতালের সংশ্লিষ্ট দপ্তরে গিয়ে সনদ সংগ্রহ করতে হয় । সনদ সংগ্রহ করতে গিয়ে আমরা বিড়ম্বনার সন্মুখীন হই ।

আজ হবে না , কাল হবে না । কাগজপত্র আসেনি, ডাক্তার এখনও রিপোর্ট দেননি এমন অজুহাত দেখিয়ে ফিরিয়ে দেন মামলার তদন্তকারী পুলিশ কর্মকর্তাদের । একজন পুলিশ কর্মকর্তা জানান, একটি জখমি সনদ সংগ্রহ করতে গিয়ে আমার নতুন একজোড়া জুতা ক্ষয় হয়ে গেছে । এই পুলিশ কর্মকর্তার মত অনেক পুলিশ কর্মকর্তারই একই অবস্থা ।

একজন মামলার আসামি বলেন, মারামারির একটি ঘটনায় সামান্য আঘাতপ্রাপ্ত ব্যক্তির নামে ৩২৬ ধারায় অর্থাৎ মারাতœক আঘাতপ্রাপ্ত বানিয়ে সার্টিফিকেট দিয়েছেন একজন ডাক্তার ।

রাজনৈতিক দলের নেতারাও ভয় দেখিয়ে সার্টিফিকেট সংগ্রহ করেন বলে অভিযোগ রয়েছে । এই নেতারা মোটা অংকের টাকার বিনিময়ে ডাক্তারদের ম্যনেজ করে সার্টিফিকেট সংগ্রহ করেন ।

ঢাকা বারের আইনজীবি শাহরিয়ার জানান, মিথ্যা জখমী সার্টিফিকেটের কারণে মামলায় জটিলতার সৃষ্টি হয় । এতে করে বিচারপ্রার্থীরা ন্যায় বিচার থেকে যেমন বঞ্চিত হন । আবার তেমনি মিথ্যা মামলায় ফেঁসে গিয়ে বছরের পর বছর কারাবন্দি হয়ে রয়েছেন অনেকেই ।

রহস্যজনক মিথ্যা জখমী  সনদ সরবরাহকারী ডাক্তাররা ঘুষ, দুর্নীতি , অনিয়ম এবং অপকর্ম করেও তারা যুগের পর যুগ, বছরের পর বছর থেকে যান একই হাসপাতালে । তারাই আবার প্রমোশন পান ।

ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ডাক্তার সাইফুল ইসলাম জখমী সনদ বাণিজ্য করে বিশাল অংকের টাকা, বাড়ি ও জমির মালিক হয়েছেন । তার বিরুদ্ধে পত্র পত্রিকায় রিপোর্ট প্রকাশিতও হয় । সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা তো নেয়ইনি উপরন্তু তাকে প্রমোশন দিয়ে বদলী করে আবার ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ফিরিয়ে আনেন ।

আমাদের কণ্ঠের অনুসন্ধানে বরিশাল মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, চট্রগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, টাঙ্গাইল সদও হাসপাতাল, নেত্রকোনা সদর সাসপাতাল, লক্ষীপুর সদর হাসপাতাল, নোয়াখালী সদর হাসপাতাল, গাজীপুর সদর হাসপাতাল, কুমিল্লার কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স, ময়মনসিংহের ফুলবাড়ীয়া, ত্রিশাল, ভালুকা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স গিয়ে এমন অভিযোগ পাওয়া গেছে ।





আরও পড়ুন



১. প্রধান উপদেষ্টা ঃ এড. সাদির হোসেন (হাইকোর্ট আইনজীবি)
২. সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ মোঃ খায়রুল আলম রফিক
৩. নির্বাহী সম্পাদক ঃ প্রদীপ কুমার বিশ্বাস
৪. প্রধান প্রতিবেদক ঃ হাসান আল মামুন
প্রধান কার্যালয় ঃ ২৩৬/ এ, রুমা ভবন ,(৭ম তলা ), মতিঝিল ঢাকা , বাংলাদেশ । ফোন ঃ ০১৭৭৯০৯১২৫০
ফোন- +৮৮০৯৬৬৬৮৪, +৮৮০১৭৭৯০৯১২৫০, +৮৮০১৯৫৩২৫২০৩৭
ইমেইল- aporadhshongbad@gmail.com
(নিউজ) এডিটর-ইন-চিফ,
ইমেইল- khirulalam250@gmail.com
close