*  হাতি আতঙ্কে জামালপুরের সীমান্তবর্তী ৬ গ্রামের মানুষ            * আফগানদের হারাতে মরিয়া বাংলাদেশ           * ইরানকে বধ করতে সৌদিতে সেনা পাঠাচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র           * কলাবাগান ক্রীড়াচক্রের সভাপতির বিরুদ্ধে দুই মামলা           * শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের মুখে বশেমুরবিপ্রবি বন্ধ ঘোষণা            * আ. লীগ নেতার ক্লাবে অভিযান চালিয়ে ১৮ নারীসহ মদ উদ্ধার           * জামালপুরে পলিথিনে মোড়ানো নবজাতকের লাশ উদ্ধার           * ত্রিশালে ফেন্সি মান্নানসহ তার সহযোগিদের আটক করছে না থানা পুলিশ            * ‘রিফাতকে মাইর দিয়ে একটা শিক্ষা দিতে হবে’           * নেত্রকোণাকে হারিয়ে কলসিন্দুর চ্যাম্পিয়ন           * ‘বিছানা থেকে উঠতে পারছেন না খালেদা’           * একজনকেও বাংলা ছাড়তে হবে না, এনআরসি প্রসঙ্গে মমতা           * যুদ্ধের প্রস্তুতি, ইরান যুদ্ধবিমানের মহড়া শুরু করেছে            * মাফিয়া ডন শামীমের রাজকীয় বাড়ি           * ধানমন্ডি ক্লাবে র‌্যাবের অভিযান, ২৪ ঘণ্টার জন্য সিলগালা           * ইয়াবা ব্যবসায়ীর বাড়ি           * ইয়াবা পাচারকালে আওয়ামী লীগ নেতাসহ আটক ৪           * রাঙ্গামাটিতেও অভিযান, আ.লীগ নেতাসহ ১২ জনকে জরিমানা            * গভীর রাতে বাল্যবিয়ের আয়োজন, কাজীসহ তিন জনকে জরিমানা           * টাকার জন্য অপহরণ নাটক!          
* ইরানকে বধ করতে সৌদিতে সেনা পাঠাচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র           * কলাবাগান ক্রীড়াচক্রের সভাপতির বিরুদ্ধে দুই মামলা           * শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের মুখে বশেমুরবিপ্রবি বন্ধ ঘোষণা           

বাবাকে খুন করা তিন বোনের মুক্তির দাবিতে উত্তপ্ত মস্কো

স্টাফ রিপোর্টার | রবিবার, আগস্ট ২৫, ২০১৯
বাবাকে খুন করা তিন বোনের মুক্তির দাবিতে উত্তপ্ত মস্কো

রাশিয়ার মস্কোতে ২০১৮ সালের জুলাই মাসে ঘুমন্ত বাবাকে ছুরিকাঘাতে হত্যার দায়ে বন্দী তিন বোনের মুক্তিকে কেন্দ্র করে পক্ষে-বিপক্ষে বিতর্কের ঝড় ওঠেছে।এই তিন তরুণীর বোনের বিরুদ্ধে বাবাকে হত্যার অভিযোগের বেশ কিছু প্রমাণ থাকলেও রাশিয়ার বেশিরভাগ মানুষই তাদের প্রতি সহানুভূতি জানিয়েছেন। এরই মধ্যে তিন বোনের ওপর তাদের বাবার বছরের পর বছর শারীরিক এবং মানসিকভাবে নির্যাতনের বিষয়টি উল্লেখ করে তাদের মুক্তি দেওয়ার আহবান জানিয়ে তিন লাখ মানুষ স্বাক্ষরিত একটি পিটিশন মস্কোর উচ্চ আদালতে জমা দেওয়া হয়েছে।

৫৭ বছরের মিখাইল খাচাতুরিয়ান হত্যার ঘটনায় সরকার নিযুক্ত তদন্তকারীরা নিশ্চিত হয়েছেন যে, মেয়েদের বাবা দীর্ঘদিন তিন বোনের ওপর অমানবিক অত্যাচার চালিয়ে আসছিল।

তদন্ত প্রতিবেদনে বলা হয়েছে,২০১৮ সালের জুলাই মাসের বিকালে মিখাইল খাচাতুরিয়ান তার তিন মেয়ে ক্রিস্টিনা, অ্যাঞ্জেলিনা এবং মারিয়াকে একে একে ডেকে পাঠান। তিন জনই সে সময় ছিল অপ্রাপ্তবয়স্ক। ফ্ল্যাট পরিষ্কার-পরিছন্ন করে না রাখার জন্য তিনি তাদের বকাঝকা করেন এবং মুখে পেপার গ্যাস স্প্রে করেন। কিছুক্ষণ পরে তিনি ঘুমিয়ে পড়লে মেয়েরা ছুরি, হাতুড়ি আর পেপার স্প্রে নিয়ে তার ওপর হামলা করে। তারা মাথায়, গলায় এবং বুকে মারাত্মক আঘাত করে। পরবর্তীতে তার শরীরে ৩০টির বেশি ছুরিকাঘাতের চিহ্ন পাওয়া যায়। এরপর মেয়েরা পুলিশে খবর দেয় এবং ঘটনাস্থলেই তাদের গ্রেপ্তার করা হয়।

তদন্ত করতে গিয়ে ঐ পরিবারের মধ্যে চরম নির্যাতন ও সহিংসতার ইতিহাস বেরিয়ে আসে। খাচাতুরিয়ান গত তিন বছর ধরে তার মেয়েদের নিয়মিত মারধর করতেন, নির্যাতন করতেন, দাসী করে রেখেছিলেন এবং যৌন নিপীড়নও করতেন। তিন বোনই তাদের বাবার বিরুদ্ধে এসব অভিযোগ করেছে। এই মামলাটি দ্রুতই রাশিয়ায় আলোচনার বিষয় হয়ে ওঠে। মানবাধিকার সংগঠনগুলো দাবি করে যে, এই বোনরা কোনো অপরাধী নয়, বরং ভুক্তভোগী। কারণ নির্যাতনকারী পিতার কবল থেকে বাইরে গিয়ে সাহায্য চাওয়ার কোনো জায়গা বা সুরক্ষার কোনো উপায় তাদের ছিল না।

২০১৭ সালে প্রথম আইনে কিছু পরিবর্তন আনা হয়, যার ফলে পরিবারের কোনো সদস্য অপর সদস্যকে যদি এমনভাবে মারধর করে যাতে তার আঘাত হাসপাতালে ভর্তি করার মতো গুরুতর না হয় তাহলে তাকে শুধু জরিমানা করা যাবে অথবা দুই সপ্তাহ পর্যন্ত আটক রাখা যাবে। হত্যাকাণ্ডের সময় কিশোরী বোনদের মা তাদের সঙ্গে বসবাস করতেন না এবং মেয়েদের সঙ্গে মায়ের যোগাযোগের ওপর নিষেধাজ্ঞা দিয়েছিলেন খাচাতুরিয়ান।

খাচাতুরিয়ান বোনদের মামলাটি খুবই আস্তে আস্তে এগোচ্ছে। তারা আটক অবস্থায় নেই, তবে তাদের চলাফেরার ওপর কিছু বিধিনিষেধ আছে। তারা সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলতে পারেন না, এমনকি নিজেদের মধ্যেও না। কৌঁসুলিরা দাবি করছেন যে, খাচাতুরিয়ানকে হত্যার বিষয়টি পূর্বপরিকল্পিত হত্যাকাণ্ড, যেহেতু তিনি ঘুমিয়েছিলেন আর বোনরা সুসংগঠিতভাবে হামলা করেছে, আগেই ছুরি সংগ্রহ করে রেখেছে।

তারা বলছেন, বোনদের উদ্দেশ্য ছিল প্রতিশোধ নেয়া। এসব অভিযোগ প্রমাণিত হলে বোনদের বিশ বছর পর্যন্ত কারাদণ্ড হতে পারে। অভিযোগ আছে যে অ্যাঞ্জেলিনা হাতুড়ি দিয়ে আঘাত করেছে, মারিয়া ছুরিকাঘাত করেছে আর ক্রিস্টিনা পেপার স্প্রে ছুঁড়েছে।

তবে বোনদের আইনজীবীরা বলছেন, নিজেদের রক্ষা করতেই তারা এই হত্যাকাণ্ডটি ঘটেছে। রাশিয়ার ফৌজদারি আইনে ‘আত্মরক্ষার’ বিষয়টি শুধু তাত্ক্ষণিক হামলা থেকে নিজেকে বাঁচাতেই নয়, বরং নিয়মিত অপরাধ থেকে বাঁচার ক্ষেত্রেও প্রযোজ্য। যেমন, কেউ জিম্মি হয়ে থাকলে, সে অবস্থায় নির্যাতনের শিকার হলে নিজের আত্মরক্ষার জন্য ব্যবস্থা নিতে পারেন।

আইনজীবীরা বলছেন, এই বোনরা “নিয়মিত অপরাধের” শিকার এবং এ কারণেই তাদের খালাস দেওয়া উচিত। তারা আশা করছেন, মামলাটি বাতিল করা হবে, যেহেতু তদন্তকারীরা দেখতে পেয়েছেন যে, ২০১৪ সাল থেকেই এই বোনরা বাবার হাতে নিপীড়নের শিকার হয়েছেন।





আরও পড়ুন



১. প্রধান উপদেষ্টা ঃ এড. সাদির হোসেন (হাইকোর্ট আইনজীবি)
২. সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ মোঃ খায়রুল আলম রফিক
৩. নির্বাহী সম্পাদক ঃ প্রদীপ কুমার বিশ্বাস
৪. প্রধান প্রতিবেদক ঃ হাসান আল মামুন
প্রধান কার্যালয় ঃ ২৩৬/ এ, রুমা ভবন ,(৭ম তলা ), মতিঝিল ঢাকা , বাংলাদেশ । ফোন ঃ ০১৭৭৯০৯১২৫০
ফোন- +৮৮০৯৬৬৬৮৪, +৮৮০১৭৭৯০৯১২৫০, +৮৮০১৯৫৩২৫২০৩৭
ইমেইল- aporadhshongbad@gmail.com
(নিউজ) এডিটর-ইন-চিফ,
ইমেইল- khirulalam250@gmail.com
close