* চালকের ভুলেই ভয়াবহ ট্রেন            * আইসিসি র‍্যাঙ্কিংয়ে নেই সাকিব, ঢুকলেন নাঈম           * আহত বাবা-মাকে নিয়ে ঢাকার পথে অ্যাম্বুলেন্স, মর্গে পড়ে আছে ছোঁয়া মনির নিথর দেহ            * বিএনপি ছেড়ে যাবেন এমন নেতাদের তালিকায় বহুজন :তথ্যমন্ত্রী            *  দেখা হলো না ইউসুফের : স্ত্রী-সন্তানের সঙ্গে            * শিশুটির পরিচয় মিলেছে, নিখোঁজ মা-দাদি            * হাইকোর্টের আদেশের পর মুক্তি পেল সেই ১২১ শিশু           * হৃত্বিককে ভালোবাসায় স্ত্রীকে মেরে আত্মঘাতী যুবক           * নুসরাতকে জাহান্নামের ভয় দেখালেন মুসলিম ভক্তরা           * পরীক্ষার চাপ কমাতে শিক্ষার্থীদের ‘কবরে শুয়ে থাকার’ পরামর্শ            * নিহতদের পরিবারকে ১ লাখ টাকা করে দেওয়া হবে           * ট্রেন দুর্ঘটনায় রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শোক           * ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় দুই ট্রেনের সংঘর্ষে নিহত বেড়ে ১৬           * তূর্ণা সিগনাল অমান্য করায় কসবায় দুর্ঘটনা            *  কাউকেই খুঁজে পাচ্ছে না ট্রেন দুর্ঘটনায় আহত শিশুটি            * ট্রেন দুর্ঘটনা দেখতে এসে চাচা-চাচির লাশ পেলেন শাহাদৎ            *  হঠাৎ বিকট শব্দে ঘুম ভাঙে ট্রেন যাত্রীদের            * অন্যের স্ত্রীকে ভাগিয়ে বিয়ে করা সেই মেয়রের সম্পদ আর সম্পদ            * হাজার বছরেও বঙ্গবন্ধুর জন্ম হবে না : নাসিম            * মিলনের সময় পূর্ণ তৃপ্তি পেতে কি করবেন?          
* চালকের ভুলেই ভয়াবহ ট্রেন            * আইসিসি র‍্যাঙ্কিংয়ে নেই সাকিব, ঢুকলেন নাঈম           * বিএনপি ছেড়ে যাবেন এমন নেতাদের তালিকায় বহুজন :তথ্যমন্ত্রী           

চিকিৎসা সেবা থেকে বঞ্চিত এলাকাবাসী বদলগাছী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সেটি ডাক্তার শুন্যতায় ভুগছে

প্রতিনিধি বদলগাছী (নওগাঁ) | রবিবার, সেপ্টেম্বর ১৫, ২০১৯
চিকিৎসা সেবা থেকে বঞ্চিত এলাকাবাসী বদলগাছী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সেটি ডাক্তার শুন্যতায় ভুগছে

নওগাঁর বদলগাছী উপজেলা ৫০ শয্যা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সেটি মারাতœক  ভাবে ডাক্তার শূন্যতায় ভুগছে। ফলে রোগীর আগে জরুরী চিকিৎসা প্রয়োজন স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের। ডাক্তার সংকটের কারনে ঐ হাসপাতালে ১৭ ঘন্টা ডাক্তার শুন্য থাকার অভিযোগ উঠেছে। ফলে চিকিৎসা সেবা প্রাপ্তি থেকে বঞ্চিত হচ্ছে উপজেলাবাসী ।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ কানিস ফারহানা প্রশাসনিক দায়িত্ব পালন করছেন এবং মেডিক্যাল অফিসার ডাঃ মাহবুব আলী ও ডাঃ সামছুল আলম হাসপাতালে চিকিৎসা সেবা দিচ্ছেন।
 ডাক্তার কানিস ফারহানা এবং ডাঃ সামছুল আলম নওগাঁ সদরে ও ডাঃ মাহবুব আলী রাজশাহী শহরে অবস্থান করেন। তারা তাদের স্ব-স্ব অবস্থান থেকে সকাল ১০টা থেকে ১১টায় বদলগাছী হাসপাতালে এসে চিকিৎসা সেবা দিয়ে বিকাল ৫ টায় আবার তিন জন নওগাঁ এবং রাজশাহী সদরে চলে যান।এর পর থেকে পরের দিন সকাল ১০ থেকে ১১টা পর্যন্ত ১৭ ঘন্টা স্বাস্থ্য কমপ্ল্েেক্্রটিতে কোন ডাক্তার পাওয়াযায় না।
 ১৭ ঘন্টা ডাক্তার শুন্য থাকায় অন্তঃ বিভাগ (ভর্তি), বহিঃবিভাগ ও জরুরী বিভাগে আগত রোগীদের চিকিৎসা সেবা দিয়ে থাকে উপ সহকারী মেডিক্যাল অফিসার। অর্থাৎ ২ জন ডাক্তার দিয়ে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সেটি খুড়ে খুড়ে চলছে ।

নিয়ম অনুযায়ী উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ও আবাসিক মেডিকেল অফিসারকে ২৪ ঘন্টা উপজেলা স্বাস্থ্য কম্েপ্লক্সের কোওয়াটারে অবস্থান করতে হবে। কিন্তু কোন নিয়োমনিতীর তোয়াক্কা না করে স্বাস্থ্য ও পঃ পঃ কর্মকর্তা ও অবাসিক মেডিকেল অফিসার কেউ ঐ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে অবস্থান করেননা।
ডাক্তারদের কর্ম তালিকা অনুযায়ী এই স্বাস্থ্য কমপ্লেক্্ের ২১ জন ডাক্তারের অনুমোদিত পদ রয়েছে।
অপরদিকে, স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এর ডাক্তাদের কর্মরত তালিকা অনুযায়ী দেখা যায় আরও ২ জন ডাক্তার এই স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে পোষ্টিং ও যোগদান রয়েছে। তাদের মধ্যে জুনিয়র কনসালটেন্ট ( পেডিয়াট্রিক্স) ডাঃ রতন কুমার সিংহ ২০১৩ সালের অক্টোবরের ১০ তারিখে যোগদান করলেও তখন থেকে তিনি নওগাঁ সদর হাসপাতালে কর্মরত আছেন। উজেলায় পেডিয়াট্রিক্স সার্জন ডাক্তার একটি গুরুত্বপূর্ন পদ, ওই পদে ডাক্তার থেকেও অত্র উপজেলার জনসাধারণ তাদের শিশুদের সিকিৎসার জন্য নওগাঁ ওই ডাক্তার সহ অন্যান্য শিশু ডাক্তারদের নিকট মোটা অংকের ফি সহ ধর্না দিতে হয়। অথচ এমন একজন ডাক্তার বদলগাছীতেই যোগদান রয়েছে।

স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স আর একটি সুত্র জানান,বদলগাছীতে প্রাইভেট চিকিৎসায় তেমন অর্থ উপার্জন না হওয়ায় ওই ডাক্তার উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষকে ম্যানেজ করে দির্ঘ্য প্রায় ৬ বৎসরে অধিক যাবৎ নওগাঁতে ডেপুটিসানে রয়েছেন। সরকারী বিধি অনুয়ায়ী ৩ বসৎসরের বেশি একই কর্মস্থলে থাকা যাবে না। কিন্তু ডাঃ রতন কুমার সিংহ তার যোগদানের তারিখ হইতে প্রায় ৬ বৎসর অতিক্রম করলেও উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষ রহস্যজনক কারনে নিরব রয়েছে।
  অপর এক জন ডেন্টাল সার্জন ডাঃ ফেরদৌস আমিন ২০১০ সালে অত্র উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে যোগদান করে এবং ২৬/৪/২০১৪ ইং তারিখ থেকে কর্তৃপক্ষকে না জানিয়ে নিরুদ্দেশ হয়ে রয়েছে।

অপরদিকে বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও স্বাস্থ্যমন্ত্রীর নির্দেশনা অনুযায়ী জানাযায়, চিকিৎসকদের প্রত্যন্ত গ্রাম অঞ্চলে পোষ্টিং নিয়ে চাকুরী করার মোন-মানসিকতা থাকতে হবে। কিন্তু বিসিএস পাস করার পর চিকিৎসকদের প্রত্যন্ত গ্রাম অঞ্চলে পোষ্টিং দিলেও তারা যোগদান এর কিছুদিন পর বাড়তি টাকা উপার্জন করার আশায় তদবির করে বদলি হয়ে শহর মুখী হন। এছাড়াও রয়েছে ডেপুটিসনের ব্যবস্থা। ফলে চিকিৎসকরা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্্রগুলোতে না থাকায় গ্রামের মানুষরা চিকিৎসা সেবা থেকে বঞ্চিত হন।
চিকিৎসা সেবা বিষয়ে উপজেলার একাধীক ব্যক্তির সাথে কথা বললে তারা বলেন, আমাদের এ এলাকার গ্রামের মানুষেরা বেশির ভাগ হত-দরিদ্র ও অসহায় তাই অসুস্থ হলে তারা উপজেলার সরকারি স্বাস্থ্য কমপ্লেক্্র ও ইউনিয়ন উপ স্বাস্থ্য কেন্দ্রে গিয়ে তারা চিকিৎসা সেবা নিয়ে থাকেন। কিন্তু দীর্ঘদিন থেকে হাসপাতালে ডাঃ সংক্ট এর কারনে রোগীরা চিকিৎসা সেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। দরিদ্র হওয়ায় বেশি টাকা খরচ করে বেসরকারি ক্লিনিক বা শহরের হাসপাতালে গিয়ে চিকিৎসা নিতে পারছেনা এ এলাকার লোকজন। তাই আমাদের এলাবাসীর সুবিধার্থে সুচিকিৎসার জন্য উর্দ্ধতন কতৃপক্ষের নজর দেওয়া দরকার ।

স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ কানিস ফারহানার সঙ্গে কথা বললে তিনি জানান, উল্লেখিত ডাঃ মাহবুব আলী ও ডাঃ সামছুল আলম রাজশাহী ও নওগাঁতে অবস্থান করে। তবে তারা পালাক্রমে আড়াই দিন অর্থাৎ ৫৬ ঘন্টা করে তারা ডিউটি করেন।
 নিয়ম অনুযায়ী আপনি ও আবাসিক মেডিকেল অফিসারকে ২৪ ঘন্টা হাসপাতালে অবস্থান করতে হবে বলে প্রশ্ন করলে তিনি কোন উত্তর প্রদান করেননি।
চিকিৎসা সেবা বিষয়ে তিনি আরো বলেন, সোমবার, বৃহস্পতিবার ও শুক্রবার এই তিন রাত  হাসপাতালটি ডাক্তার শুন্য থাকে। শুন্যকালীন সময়ে উপ-সহকারী চিকিৎসকরা চিকিৎসা সেবা দিয়ে থাকেন এবং ডাক্তার সংকট জনিত কারনে বহিঃবিভাগে ডাক্তার দেওয়া যায় না।
তবে অনুমোদিত বাকীঁ ১৯ জন ডাক্তার না থাকায় কাংঙ্খিত চিকিৎসা সেবা দেওয়া সম্ভব হচ্ছেনা।  স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে আরও দুই জন ডাক্তারের যোগদান রয়েছে অথচ ডেপুটিসানে অন্যত্র আবার কেউ নিরুদ্দেশ রয়েছেন। তাঁদের মধ্যে জুনিয়র কনসালটেন্ট ( পেডিয়াট্রিক্স) ডাঃ রতন কুমার সিংহ সম্পর্কে তিনি বলেন, তিনি ২০১৩ সালে অত্র স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে যোগদান করে ডেপুটিসানে নওগাঁ সদর হাসপাতালে চাকুরী করছেন।

অপরদিকে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সএর ডেন্টাল চিকিৎসক ডাঃ মোঃ ফেরদৌস আমিন ২০১৪ সালের ২৬ এপ্রিল থেকে কর্মস্থলে নিখোজ রয়েছেন। এখন পর্যন্ত তার বিপরীতে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ প্রয়োজনীয় কোন পদক্ষেপ গ্রহন করেনি। এ জন্যই ডেন্টাল চিকিৎসকের কক্ষটি ৫ বছর থেকে তালা ঝুলানো রয়েছে। ফলে ডেন্টাল চিকিৎসার যন্ত্রাংশগুলি জং বা মরিচা ধরে নষ্ট হচ্ছে। সম্পূর্ন নিরুদ্দেশ এর কারনে উপজেলা বাসী যেমন চিকিৎসা সেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে তেমনি উক্ত পদ দখল করে থাকায় কর্তৃপক্ষ ওই পদে কাউকে বদলিও করতে পারছে না।
অপরদিকে, উপজেলার জনগনের চিকিৎসা সেবা নিশ্চিত করার লক্ষ্যে অনুমোদিত পদ অনুযায়ী জরুরী ভিত্তিতে ডাক্তার নিয়োগ দেওয়ার জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সুদৃষ্টি কামনা করেছেন উপজেলার সচেতন মহল ।





আরও পড়ুন



২. সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ মোঃ খায়রুল আলম রফিক
৩. নির্বাহী সম্পাদক ঃ প্রদীপ কুমার বিশ্বাস
৪. প্রধান প্রতিবেদক ঃ হাসান আল মামুন
প্রধান কার্যালয় ঃ ২৩৬/ এ, রুমা ভবন ,(৭ম তলা ), মতিঝিল ঢাকা , বাংলাদেশ । ফোন ঃ ০১৭৭৯০৯১২৫০
ফোন- +৮৮০৯৬৬৬৮৪, +৮৮০১৭৭৯০৯১২৫০, +৮৮০১৯৫৩২৫২০৩৭
ইমেইল- aporadhshongbad@gmail.com
(নিউজ) এডিটর-ইন-চিফ,
ইমেইল- khirulalam250@gmail.com
close