* বাজেয়াপ্ত গাঁজা পোড়াল পুলিশ, নেশায় বুঁদ এলাকাবাসী            * কুমারিত্ব প্রমানে বাজারে এলো ‘আই ভার্জিন পিল’            * পেঁয়াজ বর্জনের ঘোষণা দিয়ে শপথ!           * ৩ ডাক্তার ও মেডিকেল ছাত্রীর কথোপকথন           *  ২৩ মাস ধরে গর্ভবতী!            * জান্নাত ও জাহান্নামের পরিচয় এবং সুখ-শাস্তির বিবরণ           *  জিমে গিয়ে মালিকের হাতে ধর্ষণের শিকার তরুণী            * শ্যালকের স্ত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে যুবক গ্রেপ্তার           * ইতিহাসের পাতায় অধিনায়ক কোহলি            * গফরগাঁওয়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট মাকে বাঁচাতে গিয়ে মেয়ের মৃত্যু           * এবার বিয়েতে পেঁয়াজ উপহার           * পেঁয়াজ খাওয়া ছেড়ে দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী           *  নকল সরবরাহ করার দায়ে ৫ শিক্ষকের কারাদণ্ড।           *  স্মৃতিতে সিডর নতুন করে বাঁচার নিরন্তন চেষ্টা           * শেখ রাসেলের ৫৫তম জন্মদিন নেত্রকোণায় অনুষ্ঠিত           *  ছাত্রলীগের মারধরে আহত রাবি শিক্ষার্থী ; ৩দফা দাবিতে উত্তাল ক্যাম্পাস !           * দিনাজপুরে ফার্নিচার ব্যবসায়ী থেকে কোটিপতি           * ময়মনসিংহ জেলা মটরযান কর্মচারী ইউনিয়নের সভাপতি আব্দুল সালাম সাঃ সম্পাদক চানু নির্বাচিত            * কলমাকান্দায় অপ-প্রচারের বিরুদ্ধে মানববন্ধন           *  স্কুল ছাত্রী অপহরণের পর ধর্ষণ, ইউপি সদস্য আটক          
* চারদিনের সফরে আজ আমিরাত যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী           * কুড়িগ্রামে কোটিপতি ডাক্তার অমিত কুমার বসুর চিকিৎসা বাণিজ্য            *  বাড়ছে লিড, বাড়ছে বাংলাদেশের ভয়           

ত্রিশাল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে দুর্নীতি অনিয়ম

নিজস্ব প্রতিবেদক : | বুধবার, অক্টোবর ২৩, ২০১৯
ত্রিশাল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে দুর্নীতি অনিয়ম

ময়মনসিংহের ত্রিশাল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ব্যাপক দুর্নীতি ও অনিয়ম হচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে। হাসপাতালে জখমী সনদ বাণিজ্য, ঔষুধ চুরি, দালালদের দৌরাত্ব, রোগীদের বরাদ্দকৃত খাদ্য সরবরাহে অনিয়ম, হাসপাতাল সংস্কারের নামে অর্থ আত্মসাত, কেনা কাটায় দুর্নীতিসহ নানা অভিযোগ সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে।

অভিযোগ, ত্রিশাল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সেও ঠিকাদারের ইচ্ছায় রোগীদের নি¤œমানের খাবার সরবরাহ, প্রয়োজনের তুলনায় কম মাছ, মাংস ও তেল সরবরাহ করা হচ্ছে  মাথাপিছু রোগীর জন্য প্রতিদিন পাউরুটি ২৪৪ গ্রাম, চাল ৪০০ গ্রাম, তেল ৪০ গ্রাম, মাংস -খাসি ২৫৪ গ্রাম, মুরগী -দেশী, ২৮২ গ্রাম, মাছ ,রুই, কাতল, মৃগেল, ২৮২ গ্রাম, মাছ, গ্রাসকার্প,

সিলভার কার্প, আমেরিকান রুই, ৩৩৮ গ্রাম, পাংগাস ৪২৩ গ্রাম, সবজি ৩৫০ গ্রাম, পিয়াজ ৫০ গ্রাম, রসুন ২০ গ্রাম, জিরা ৫ গ্রাম, আদা ৫ গ্রাম, তেজপাতা ৫ গ্রাম, এলাচ ১০ গ্রাম, দারুচিনি ১০ গ্রাম ও লবঙ্গ ৫ গ্রাম সরবরাহ করার নিয়ম রয়েছে।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, রোগীদের সপ্তাহে তিনদিন মাংস ও চারদিন মাছ সরবরাহ করার কথা থাকলেও ১০ দিনে একদিন মাংস সরবরাহ করা হয়।
তাও আবার ব্রয়লার মুরগীর মাংস। বাকী দিন রুই, কাতল ও মৃগেল মাছের বদলে দেয়া হয় পাঙ্গাস ও তেলাপিয়া মাছ। মাছের মাথা ও লেজ বাদ দিয়ে রোগীদের দেয়ার নিয়ম থাকলেও তাও মানা হচ্ছে না।

সকালের নাশতায় দেয়া পাউরুটির পরিমাণ কম। চিকন চালের বদলে রোগীদের খাওয়ানো হয় মোটা ও নিন্মমানের চাল।
রোগীরা সাধারণত ওই নি¤œমানের খাবার খেতে চান না। আবাসিক মেডিকেল অফিসার (আরএমও) ও নার্সিং সুপার ভাইজারের উপস্থিতিতে সরবরাহকৃত মালামাল রান্নার জন্য প্রস্তুতির কথা বলা হলেও তা করা হয় না।

ঠিকাদার তাঁর ইচ্ছামাফিক পণ্য সরবরাহ করে থাকেন। এদিকে রোগীদের খাসির মাংসের বদলে ব্রয়লার ও রুই মাছের বদলে পাঙ্গাস ও তেলাপিয়া মাছ দেয়া হলেও সরকারী নিয়মে খাসি ও রুই মাছের বিল উত্তোলন করছেন ঠিকাদার।

হাসপাতালের সংস্কার কাজে অনিয়ম ও নি¤œমানের কাজ করার অভিযোগ উঠেছে। হাসপাতালের ফ্যান, লাইট, বৈদ্যুতিক লাইন নষ্ট হয়ে গেলেও সিডিউলের নিয়মানুযায়ী কাজ করা হয়না।
হাসপাতাল থেকে নিয়মিত ঔষুধ চুরি হচ্ছে। চুরির সঙ্গে কর্মচারী, নার্স, ওয়ার্ড বয়, আয়া ও দালাল জড়িত। বিনা মূল্যে পাওয়ার কথা থাকলেও রোগীরা অনেক ওষুধ পাচ্ছেন না।

ত্রিশাল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে টাকা দিলেই মেলে ভুয়া জখমি সনদ! এখানে টাকা দিলেই সুস্থ মানুষেরও মাথা কেটে গভীর ক্ষত জখম তৈরি করে ভর্তি করে জাল-জালিয়াতির মাধ্যমে দেয়া হয় গুরুতর এসব জখমি সার্টিফিকেট।

হাসপাতালের কর্মচারী ও কর্মকর্তাদের সমন্বয়ে গঠিত একটি প্রভাবশালী সিন্ডিকেট দীর্ঘদিন ধরে চালিয়ে যাচ্ছে এ রমরমা অনৈতিক সার্টিফিকেট বাণিজ্য।
এক শ্রেণীর প্রভাব-প্রতিপত্তিশালী লোকজন সামান্য ঘটনাতেও হাসপাতাল থেকে জখমি সনদ নিয়ে মামলার জালে জড়িয়ে প্রতিপক্ষকে ঘায়েল কিংবা সম্পত্তি দখলের হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহার করছে এ সুযোগ। আর এ অনৈতিক সার্টিফিকেট বাণিজ্যের ফাঁদে পরে মিথ্যে মামলায় সীমাহীন হয়রানি ও জেল-জরিমানার মুখোমুখি হচ্ছেন ত্রিশালের সাধারণ নিরীহ মানুষ।

ত্রিশালের এই সরকারি হাসপাতালে দিনের বেলা চিকিৎসা নিতে আসা রোগীরা কোনো রকম সেবা পেলেও রাত হলেই পাল্টে যায় এর দৃশ্য। সন্ধ্যার পরপরই অভিভাবকশূন্য হয়ে পড়ে এই সরকারি

হাসপাতালটি। সংঘবদ্ধ দালাল চক্র দিন-রাত ত্রিশাল সরকারি হাসপাতাল চত্বরে বসে থাকে রোগী ভাগিয়ে নেয়ার জন্য। আর রোগী ভাগিয়ে নেয়া দালালদের মধ্যে রয়েছে একাধিক গ্রুপ। হাসপাতালের কিছু অসাধু কর্মচারীর যোগসাজশে দালালরা হাসপাতাল থেকে রোগী ভাগিয়ে নিয়ে স্থানীয় বিভিন্ন বেসরকারি হাসপাতালে কমিশনে ভর্তি করাচ্ছে।

সরকারিভাবে সব ধরনের সার্জারি, প্যাথলজি, আল্ট্রাসনোলজি ও ইসিজিসহ অত্যাধুনিক ব্যবস্থা থাকলেও অতিরিক্ত অনারিয়াম বা সম্মানির লোভে দালালদের যোগসাজসে রোগীদের বিভিন্ন বাহানায় পাঠিয়ে দেয়া হয় পার্শ্ববর্তী ক্লিনিক ও ডায়াগনোস্টিক সেন্টারে।

হাসপাতালে দিনভর বিভিন্ন ঔষুধ কোম্পানির প্রতিনিধিদের ভিড় লেগেই থাকে। হাসপাতালের চিকিৎসকদের কক্ষের সামনে বিভিন্ন ঔষুধ কোম্পানির প্রতিনিধিরা রোগীদের হাত থেকে চিকিৎসাপত্র ছিনিয়ে নিয়ে নিজেদের কোম্পানির ঔষুধের তালিকার সঙ্গে মিলিয়ে দেখেন। এই হাসপাতালের কিছু অসাধু চিকিৎসক মাসোহারা নিয়ে বিভিন্ন কোম্পানির ঔষুধের নাম চিকিৎসাপত্রে দীর্ঘদিন ধরে লিখে আসছেন বলে অভিযোগ রয়েছে।

ত্রিশাল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে মেডিকেল ইকুইপমেন্ট ক্রয়ে ব্যাপক অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে। সংশ্লিষ্ট ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের সাথে যোগসাজসে কমিশন নিয়ে প্রতিটি মালামাল বাজার মূল্য অপেক্ষা কয়েকগুণ বেশি দরে ক্রয় করা হয়েছে।
এব্যাপারে ত্রিশাল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করা হলে তারা কিছুই জানেন না বলে জানায়।





আরও পড়ুন



২. সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ মোঃ খায়রুল আলম রফিক
৩. নির্বাহী সম্পাদক ঃ প্রদীপ কুমার বিশ্বাস
৪. প্রধান প্রতিবেদক ঃ হাসান আল মামুন
প্রধান কার্যালয় ঃ ২৩৬/ এ, রুমা ভবন ,(৭ম তলা ), মতিঝিল ঢাকা , বাংলাদেশ । ফোন ঃ ০১৭৭৯০৯১২৫০
ফোন- +৮৮০৯৬৬৬৮৪, +৮৮০১৭৭৯০৯১২৫০, +৮৮০১৯৫৩২৫২০৩৭
ইমেইল- aporadhshongbad@gmail.com
(নিউজ) এডিটর-ইন-চিফ,
ইমেইল- khirulalam250@gmail.com
close