লালমনিরহাট-সান্তাহার রুটে দুই জোড়া মেইল ট্রেন বন্ধ: যাত্রীদের দূর্ভোগ

গাইবান্ধা প্রতিনিধি | শনিবার, জুন ২০, ২০১৫
লালমনিরহাট-সান্তাহার রুটে দুই জোড়া মেইল ট্রেন বন্ধ: যাত্রীদের দূর্ভোগ
বাংলাদেশ রেলওয়ের পশ্চিমাঞ্চলের লালমনিরহাট-সান্তাহার সেকশনে চলাচলকারি গুরুত্বপূর্ণ দুই জোড়া  যাত্রীবাহি মেইল ও লোকাল ট্রেন হঠাৎ করেই বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। আবার কবে নাগাদ চলাচল চালু হবে তা অনিশ্চিত।

ফলে এ দুটো ট্রেনে চলাচলকারি উত্তরাঞ্চলের ৮টি জেলার হাজার হাজার রেল যাত্রী এখন চরম দুর্ভোগের কবলে পড়েছে। পশ্চিম অঞ্চল রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ গত ১৩ জুন থেকে ১৯নং মেইল ও ২০নং ডাউন ট্রেন দুটির এবং ১৬ জুন থেকে ৭নং মেইল ও ৮নং ডাউন ট্রেন দুটির চলাচল বন্ধ করে দেয়।

এ ব্যাপারে গাইবান্ধার বোনারপাড়া ষ্টেশন মাষ্টার আতাউর রহমান জানান, ট্রেনের চালক ও জনবল সংকট থাকায় উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশে এ ট্রেন দুটি চলাচল বন্ধ করে দেয়া হয়েছে।

অপরদিকে বোনারপাড়া রেলওয়ে লোকো সেকশন সুত্রে জানা গেছে, এ সেকশনে চালক সহকারী চালক সহ অন্যান্য সৃষ্ট পদের সংখ্যা ৬৪ জন। তার মধ্যে চালকেরই (এলএম) এর পদ ১৮ জন। কিন্তু ১৪ জন চালকের পদ এখন শূন্য। কর্মরত রয়েছে মাত্র ৪ জন। পদগুলো অবিলম্বে পূরণ করা না হলে ট্রেন চলাচল ব্যবস্থা আরও বিপন্ন হয়ে পড়তে পারে বলে আশংকা করা হচ্ছে।

উল্লেখ্য, বাংলাদেশের রেলওয়ের পশ্চিমাঞ্চলের লালমনিরহাট-সান্তাহার সেকশনে চলাচলকারী অতি গুরুত্বপূর্ণ দুই জোড়া মেইল লোকাল ট্রেন যার নং ২০ নিম্নগামী, ১৯ উর্দ্ধগামী, ৭নং উর্দ্ধগামী এবং ৮নং নিম্নগামী যাত্রীবাহি ট্রেন গুলো লালমনিরহাট- সান্তাহার এবং পঞ্চমগড় সান্তাহার ষ্টেশনের মধ্যে চলাচল করছিল। ট্রেন গুলোর মধ্যে যাত্রীবাহি ২০নং লোকাল ট্রেনটি লালমনিরহাট থেকে সকাল সালে ৮টায় সান্তাহার অভিমুখে ছেড়ে আসতো এবং ১৯নং মেইল ট্রেনটি সান্তাহার ষ্টেশন থেকে লালমনিরহাট অভিমুখে ছেড়ে আসতো বিকাল ৪টায়।

এছাড়া ৭নং মেইল ট্রেনটি সান্তাহার ষ্টেশন থেকে পঞ্চগড় অভিমুখে ছেড়ে আসতো সকাল সাড়ে ৯টায় এবং ৮নং ডাউন ট্রেনটি পঞ্চগড় ষ্টেশন থেকে সান্তাহার অভিমুখে ছেড়ে আসতো সন্ধা সারে ৮টায়। উক্ত দুই জোড়া মেইল ও লোকাল ট্রেনে রংপুর ও রাজশাহী বিভাগের পঞ্চগড়, নীলফামারী, দিনাজপুর, রংপুর, গাইবান্ধা, লালমনিরহাট, কুড়িগ্রাম, বগুড়া ও নাটোর জেলাসহ পার্শ্ববর্তী জেলার লাখ লাখ শ্রমিক মেহনতি ও সাধারণ যাত্রীরা প্রতিদিন এক ষ্টেশন থেকে অপর ষ্টেশনে নিরাপদে যাতায়াত ও মালামাল পরিবহন করত। এছাড়াও স্কুল কলেজের ছাত্রছাত্রী ও বিভিন্ন জেলার অফিস আদালতে এবং ব্যবসা বাণিজ্যের উদ্দেশ্যে যাতায়াতের সুবিধা ও নিরাপদ মাধ্যম ছিল ট্রেনগুলো।