অবরোধ-হরতালের মধ্যে এস.এস.সি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত খানখানাপুরে ২য় কেন্দ্রে শান্তি পূর্ণ ভাবে এস.এস.সি পরীক্ষা

মোঃ মাহ্ফুজুর রহমান, রাজবাড়ী | শুক্রবার, ফেব্রুয়ারী ৬, ২০১৫
অবরোধ-হরতালের মধ্যে এস.এস.সি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত
খানখানাপুরে ২য় কেন্দ্রে শান্তি পূর্ণ ভাবে এস.এস.সি পরীক্ষা
সারা দেশে হারতাল-অবরোধ এর মধ্যে দিয়ে গত শুক্রবার রাজবাড়ীর খানখানাপুরে ২য় কেন্দ্র হিসেবে সুরাজ মোহিনী ইনস্টিটিউট এস.এস.সি পরীক্ষা শান্তিপূর্ণ ভাবে অনুষ্ঠিত হয়। এ কেন্দ্রে মোট ১১৬০ ছাত্র-ছাত্রীর পরীক্ষায় অংশ গ্রহণ করে। সুরাজ মোহিনী উচ্চ ইনস্টিটিউট প্রধান কেন্দ্রে ৭৫৩ জন ও ভেন্যু তমিজুদ্দিন খান উচ্চ বালিকা বিদ্যালয়ে ৪০৭ জন ছাত্র-ছাত্রী উপস্থিত। প্রধান কেন্দ্র হিসেবে সুরাজ মোহিনী ইনস্টিটিউটের প্রধান শিক্ষক ও কেন্দ্র সচিব মোঃ সিরাজ উদ্দিন বিশ্বাস জানান, যে ৭টি স্কুল এই বিদ্যালয়ে অংশ গ্রহণ করেছে তা হলো - তমিজদ্দিন খান বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, কোলা সদর উদ্দিন উচ্চ বিদ্যালয়, বরাট বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, বসন্তুপুর কো-অপারেটিভ হাই স্কুল, রাজাপুর ইয়াছিন উচ্চ বিদ্যালয়, মুলঘর উচ্চ বিদ্যালয় ও সুলতান পুর উচ্চ বিদ্যালয় এবং ভেন্যু খানখানাপর তমিজদ্দিন খান বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ শফিউল্লাহ জানান, এখানে সুরাজ মোহিনী ইনস্টিটিউট, বরাট ভাকলা উচ্চ বিদ্যালয়, আলহাজ্ব নিজাম উদ্দিন উচ্চ বিদ্যালয়, মুকুন্দিয়া উচ্চ বিদ্যালয়, বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব আকবর আলী মর্জি উচ্চ বিদ্যালয় পরীক্ষায় অংশ গ্রহণ করেছে। খানখানাপুর সুরাজ মোহিনী ইনস্টিটিউট এস.এস.সি কেন্দ্র হিসেবে গত শুক্রবার পরীক্ষা চলাকালীন সময়ে পরীক্ষা কেন্দ্র পরিদর্শন করেন- রাজবাড়ী সদর উপজেলার নির্বাহী অফিসার দেওয়ান মাহবুবুর রহমান, কেন্দ্র সচিব মোঃ সিরাজ উদ্দিন বিশ্বাস, হল সুপার বাবু সুশ্রীল কুমার দত্ত এবং ভেন্যু খানখানাপুর তমিজুদ্দিন খান উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী কেন্দ্র সচিব ও প্রধান শিক্ষক মোঃ শফিউল্লাহ, হল সুপার জাকির হোসেন প্রতিটি কক্ষ পরিদর্শন করেন। সরজমিনে গিয়ে দেখা যায়, পরীক্ষা শেষ হবার ১০ মিনিট পূর্বে সুরাজ মোহিনী ইনষ্টিটিউট কেন্দ্রে ৯ নং কক্ষের সুলতান পুর উচ্চ বিদ্যালয়ের ছাত্র ইমরান, রোল নং ১৫২৮৮৭ শারিরীক অসুস্থ হয়ে পড়ে। রাজবাড়ী সদর উপজেলার নির্বাহী অফিসার দেওয়ান মাহবুবুর রহমান তাঁহার নিজ পরিদর্শন কালের গাড়িতে ছাত্রকে রাজবাড়ীতে নিয়ে যান। এসময় জরুরী ভাবে তাকে রাজবাড়ী সদর হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।