নীলফামারীতে বিষক্রিয়ায় এক শিক্ষার্থীর মৃত্য: গুরুত্বর অসুস্থ দুই

ইমানুর রহমান, | মঙ্গলবার, সেপ্টেম্বর ২৯, ২০১৫

নীলফামারীতে বিষক্রিয়ায় এক শিক্ষার্থীর মৃত্য: গুরুত্বর অসুস্থ দুই

কোমল পানিয় পানের বিষক্রিয়ায় এক শিক্ষার্থীর মৃত্যু হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। সেই সাথে অপর দুই তরুন অসুস্থ্য হয়ে

হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। নিহত ছাত্রটি নীলফামারীর কিশোরীগঞ্জ উপজেলার পুটিমারী ইউনিয়নের ভেড়ভেড়ী গ্রামের মুন্সি জমির উদ্দিনের ছেলে ও কিশোরীগঞ্জ শিশু নিকেতন স্কুল এন্ড কলেজের দশম শ্রেনীর ছাত্র আব্দুল কাদের। তার এবার এসএসসি পরীক্ষায় অংশ নেয়ার কথা ছিল।

নিহতের পারিবারিক সুত্র জানায়, ঈদের দিন গত শুক্রবার সন্ধ্যায় কিশোরীগঞ্জ উপজেলার ভেড়ভেড়ী গ্রামের আব্দুর সামাদের ছেলে শাহীন আলম (১৮) এস এস সি পরীক্ষার্থী মুন্সি জবির উদ্দিনের ছেলে আব্দুল কাদের(১৫) ও জলঢাকা উপজেলার খুটামারা ইউনিয়নের

চৌপথির মোড় গ্রামের শহিদুল ইসলামের ছেলে মোশফিকুল (২০) মিলে রাতে জলঢাকা পেট্রোল পাম্পের মোড়ের মিলন-ইমরান ষ্টোর নামের একটি মুদি দোকান থেকে এক লিটার ওজনের ঠান্ডা পানীয় প্রাণ আপ নিয়ে ভাগ

করে খায়। এরপর তারা নিজনিজ বাড়ি ফিরে যায়। মধ্যরাতে ওই তিনজনই নিজনিজ বাড়িতে বিষক্রিয়ায় আক্রান্ত হলে পরিবারের লোকজন স্ব-স্ব উদ্যোগে তাদের হাসপাতালে ভর্তি করে। এদের মধ্যে মোসফিকুল কে জলঢাকা উপজেলা হাসপাতালে ও শাহীন আলম,আব্দুল
কাদের কে কিশোরীগঞ্জ উপজেলা
হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। কিশোরীগঞ্জ উপজেলা হাসপাতালে এস এস সি পরীক্ষার্থী আব্দুল কাদেরের অবস্থার অবনতি হলে তাকে
রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়। সোমবার সন্ধ্যায় চিকিৎসাধীন অবস্থায় রংপুরে আব্দুল কাদের মারা যায়। অপর দুইজনের
এখনও হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। পুটিমারী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আবু সায়েম লিটন জানান আব্দুল কাদের লাশ রংপুর থেকে নিয়ে এসে সোমবার রাতেই দাফন করা হয়। কিশোরীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা

মোস্তাফিজার রহমান বলেন ঘটনাটি মানুষমুখে শুনেছি তবে এব্যাপারে কেউ থানায় অভিযোগ করেনি।