সিরাজগঞ্জে দুদল গ্রামবাসীর সংঘর্ষে পুলিশসহ আহত ৫০

সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি | বুধবার, সেপ্টেম্বর ৩০, ২০১৫
সিরাজগঞ্জে দুদল গ্রামবাসীর সংঘর্ষে পুলিশসহ আহত ৫০
 সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুরে দু’দল গ্রামবাসীর সংঘর্ষে পুলিশসহ উভয়পক্ষের অন্তত ৫০ জন আহত হয়েছেন। এ সময় ঘটনাস্থল থেকে চারজনকে আটক করেছে পুলিশ।


মঙ্গলবার সকাল ১০টা থেকে দুপুর সাড়ে ১২টা পর্যন্ত এ সংঘর্ষ চলে। এ সময় বগুড়া-নগরবাড়ি মহাসড়কে প্রায় ৩ ঘণ্টা যান চলাচল বন্ধ থাকে।


পুলিশ ১১২ রাউন্ড রাবার বুলেট, ২ রাউন্ড শিশা বুলেট ও ২টি টিয়ারশেল নিক্ষেপ করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।


আহতরা হলেন- শাহজাদপুর সার্কেল এএসপি আবুল হাসনাত, ওসি রেজাউল হক, পরিদর্শক মুনির হোসেন, যুগ্নিদহ গ্রামের গুলিবিদ্ধ টিক্কা, হাসেম, মাসুদ, সাইফুল, কপিল, আশরাফ, মমিন, রাশেদ, শাহিন, হাফিজ, পারকোলা গ্রামের শফিকুল, সজিব, জলিল, কালা খাঁ। এদের মধ্যে আনসার আলীকে ঢাকায় এবং বাকিদের স্থানীয়ভাবে চিকিৎসা দেওয়া হয়। বাকি আহতদের নাম-পরিচয় পাওয়া যায়নি।


স্থানীয়দের বরাত দিয়ে পরিদর্শক মনিরুল ইসলাম জানান, ঈদের আগে বাচামরা গ্রামের ডাল হামিদের ছেলে আলমাস এবং ঈদের পরে যুগ্নিদহ গ্রামের ব্যাংক কর্মকর্তা মতিউর রহমানকে প্রতিপক্ষরা মারধর করে। এরই জের ধরে মঙ্গলবার সকাল ১০টার দিকে যুগ্নিদহ ও বাচামরা গ্রামের শত শত লোকজন দেশীয় অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে সংঘর্ষে লিপ্ত হয়। এ সময় লাঠিসোঁটা, রামদা, হলঙ্গা, বল্লমসহ দেশী অস্ত্র ও ইট-পাটকেল নিয়ে বগুড়া-নগরবাড়ি মহাসড়কে  উভয়পক্ষ দফায় দফায় হামলা চালায়। দুপুর সাড়ে ১২টা পর্যন্ত এ সংঘর্ষ চলে। এ সময় মহাসড়কে প্রায় ৩ ঘণ্টা যান চলাচল বন্ধ থাকে।


তিনি আরও জানান, প্রথমে শাহজাদপুর থানা পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে চেষ্টা চালায়। অবস্থা বেগতিক হওয়ায় জেলা সদর থেকে অতিরিক্ত পুলিশ এনে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করা হয়। এ সময় ১১২ রাউন্ড রাবার বুলেট, ২ রাউন্ড শিশা বুলেট ও ২টি টিয়ার শেল নিক্ষেপ করা হয়। ঘটনাস্থল থেকে চারজনকে আটক করা হয়েছে। এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন রয়েছে বলে জানান পরিদর্শক মনিরুল।