বগুড়ায় শিয়া মসজিদে গুলি, মুয়াজ্জিন নিহত, আহত ৩

অপরাধ সংবাদ ডেস্ক | শুক্রবার, নভেম্বর ২৭, ২০১৫
বগুড়ায় শিয়া মসজিদে গুলি, মুয়াজ্জিন নিহত, আহত ৩
বগুড়ার শিবগঞ্জে শিয়া মসজিদে দুর্বৃত্তের ছোঁড়া গুলিতে মসজিদের মুয়াজ্জিন নিহত হয়েছেন। এছাড়া ইমামসহ আহত হয়েছেন অন্তত তিনজন। বৃহস্পতিবার শিবগঞ্জের আটমুল ইউনিয়নের হরিপুরের মোহাম্মদপুর আল মোস্তফা জামে মসজিদে মাগরিবের নামাজ শেষে এ ঘটনা ঘটে। পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে পয়েন্ট টু বোরের ৭ রাউন্ড গুলির খোশা উদ্ধার করেছে।
গুলিতে নিহত হন মসজিদের মুয়াজ্জিন হরিপুর উত্তরপাড়ার মৃত বছির উদ্দিনের পুত্র মোয়াজ্জিম হোসেন (৬০) এবং আহত হয়ে চিকিৎসাধীন রয়েছেন মসজিদের ইমাম উপজেলার চককানু মধ্যপাড়ার মৃত মজিবুর রহমানের পুত্র মাওলানা শাহীনুর রহমান (৩৫), আলাদিপুরের খরু মন্ডলের পুত্র অবু তাহের মিস্ত্রী (৫৫) ও চককানু গ্রামের পিতা মৃত কুদু মিয়ার পুত্র আফতাব আলী (৫০)। পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে পয়েন্ট টু বোরের ৭ রাউন্ড গুলির খোশা উদ্ধার করেছে।

জানা যায়, বগুড়ার শিবগঞ্জ উপজেলার আটমুল ইউনিয়নের হরিপুরের মোহাম্মদপুর আল মোস্তফা জামে মসজিদে শিয়া ধর্মের অনুসারিরা নামাজ আদায় করে থাকে। ইরান সরকারের অর্থায়নে ১৯৯৮ সালে বাংলাদেশ ইনামিয়া জনকল্যাণ ফাউন্ডেশন শিবগঞ্জ হরিপুর শাখা প্রতিষ্ঠিত হয়। ইরান দূতাবাসের সহযোগিতায় ফাউন্ডেশন ও মসজিদটি পরিচালিত হয়ে থাকে।

বাংলাদেশ ইনামিয়া জনকল্যাণ ফাউন্ডেশন শিবগঞ্জ হরিপুর শাখার অর্থ সম্পাদক শাহীনুর আলম জানান, পাঁচ শতাধিক শিয়া সম্প্রদায়ের মানুষ ওই এলাকায় বসবাস করেন। মাগরিবের নামাজ শেষে মসজিদের বাহিরের গেট বন্ধ করে গুলি ছুঁড়েছে দুর্বৃত্তরা। গুলি ছুঁড়েই পালিয়ে যায় তারা।

মুসল্লিদের চিৎকারে আশপাশের লোকজন ছুটে এসে মসজিদ থেকে আহত চারজনকে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পথে মুয়াজ্জিন মোয়াজ্জিম হোসেন (৬০) মারা যান। অপর দুই জন তাহের ও শাহীনুর বগুড়া মেডিকেল কলেজে এবং আফতাব আলী শিবগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্যকেন্দ্রে চিকিৎসারত আছেন।

খবর পেয়ে বগুড়া পুলিশ সুপার মো. আসাদুজ্জামান সহ উর্দ্ধতন পুলিশ কর্মকর্তারা ঘটনাস্থলে ছুটে যান।

মসজিদের মুসল্লি সোনা মিয়া জানান, ধারণা করা হচ্ছে মসজিদের মেইন গেট থেকে দুর্বৃত্তরা গুলি ছোঁড়ে। মসজিদের তিনটি দরজা রয়েছে। এর একটি দরজার পাশ থেকে দুর্বৃত্তরা গুলি ছুঁড়েছে। মসজিদের মধ্যে থাকা ১৮ থেকে ২০ জন মুসল্লির মধ্যে ৪ জন গুলিবিদ্ধ হন।

বগুড়া পুলিশ সুপার মো. আসাদুজ্জামান জানান, মুয়াজ্জিন নামের একজন নিহত হয়েছেন। পুরো ঘটনা নিয়ে এলাকায় তদন্ত চলছে। ঘটনাস্থল থেকে পয়েন্ট টু বোরের ৭ রাউন্ড গুলির খোশা উদ্ধার করা হয়েছে। বিষয়টি নিয়ে তদন্ত চলছে।

মহররমে ঢাকায় শিয়াদের তাজিয়া মিছিলের প্রস্তুতির সময় বোমা হামলার এক মাসের মধ্যে বগুড়ার শিবগঞ্জে এই হামলা হল। ওই হামলায় দুজন নিহত হয়েছিলেন।

এদিকে বগুড়ায় হামলার ঘটনাটিকে বিচ্ছিন্ন ঘটনা হিসেবে দেখছে না স্থানীয়রা। তাদের কেউ কেউ অভিযোগ করে বলেন, এর আগে ঢাকায় তাজিয়া মিছিলের প্রস্তুতির সময় হোসেনী দালানে হামলা হলো। এবার বগুড়ায় শিয়া সমজিদে গুলির ঘটনা ঘটলো। এটা বাংলাদেশের শান্তিপ্রিয় মুসলমানদের মধ্যে সংঘাত সৃষ্টিতে কোন গোষ্ঠীর ষড়যন্ত্র কিনা তা খুঁজে দেখা দরকার। এভাবে চলতে থাকলে দেশে ঘরে ঘরে সংঘাত লেগে যেতে পারে বলে আশঙ্কা তাদের।

অপরাধ সংবাদ/রা