চাঁদা না দেওয়ায় শহীদ মিনারে ফুল দিতে বাঁধা দিল সিরাজগঞ্জ প্রেস ক্লাবের সভাপতি ও সাধারন সম্পাদক

স্টাফ রিপোর্টার | বুধবার, ডিসেম্বর ১৬, ২০১৫
চাঁদা না দেওয়ায় শহীদ মিনারে ফুল দিতে বাঁধা দিল সিরাজগঞ্জ প্রেস ক্লাবের সভাপতি ও সাধারন সম্পাদক
বিজয় দিবসে একটি লজ্জাজনক কর্মকান্ড উপহার দিল সিরাজগঞ্জ প্রেস ক্লাবের সভাপতি এবং সাধারন সম্পাদক সহ বেশ কয়েকজন। উল্লেখ্য যে, বাংলাদেশ অনলাইন সাংবাদিক কল্যান ইউনিয়ন (বসকো) সিরাজগঞ্জ শাখার পক্ষ হতে শহীদ মিনারের শ্রদ্ধাঞ্জলি অপর্ন করতে গেলে সিরাজগঞ্জ প্রেস ক্লাবের লোক জন তাদের কাছে চাঁদা দাবি করে। এসময় প্রেস ক্লাবের সভাপতি হেলাল, সাধারন সম্পাদক লিটন ও চাঁদাবাজ বাবুসহ বেশ কয়েকজন বাংলাদেশ অনলাইন সাংবাদিক কল্যান ইউনিয়নের নেতৃবৃন্দের কাছ থেকে চাঁদা দাবি করে এবং এতে বসকোর সিরাজগঞ্জ জেলা শাখার নেতৃবৃন্দরা তাতে অস্বীকৃতি জানালে প্রেস ক্লাবের নেতৃবৃন্দরা তাদের প্রতি আকষ্মিক হামলা চালায়। এতে বাংলাদেশ অনলাইন সাংবাদিক কল্যান ইউনিয়ন (বসকো) র বেশ কয়েকজন আহত হন বলে জানা যায়। আরো উল্লেখ্য যে, একটি বিশেষ সুত্রে জানা যায়, সম্প্রতি বাংলাদেশ অনলাইন সাংবাদিক কল্যাণ ইউনিয়ন (বসকো) সাম্প্রতিক সাফল্যে চরম ঈর্ষান্বিত সিরাজগঞ্জ প্রেস ক্লাবের সদস্যরা। উক্ত প্রেস ক্লাবের বেশির ভাগ সদস্য বিভিন্ন চাঁদাবাজিতে লিপ্ত থাকায় তাদের সাংগঠনিক কার্যক্রম এবং কাঠামো ভঙ্গুর এবং প্রশ্নবিদ্ধ। এমতাবস্থায় বাংলাদেশ অনলাইন সাংবাদিক কল্যাণ ইউনিয়ন (বসকো) সিরাজগঞ্জ শাখা গনমাধ্যম এবং সাংবাদিকতার সাংগঠনিক কার্যে অভুতপূর্ব সাফল্যে অর্জন করায় প্রেস ক্লাবের রোষানলে পড়ে বসকোর নেতৃবৃন্দ এবং সেই রোষানলের বহি:প্রকাশ হিসেবে আজ বিজয় দিবসে এমন ঘৃন্য কর্মকান্ড সংগঠিত করে তারা। এদিকে শহীদ মিনারে শ্রদ্ধাঞ্জলি দিতে বাঁধা দেওয়ায় বিশিষ্ট জনেরা এর বিরূপ প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন। তাদের মতে, কোন স্বাধীনতা বিরোধী শক্তি ছাড়া এমন কাজ করার সাহস হয় না। এই প্রেস ক্লাবের সভাপতি ও সাধারন সম্পাদকরা জামায়াত শিবির তথা স্বাধীনতা বিরোধী শক্তি হিসেবে সাংবাদিকতার খোলস পরে ঘাপটি মেরে আছে কিনা তা খতিয়ে দেখা দরকার বলে মনে করেন তারা। উল্লেখ্য যে, প্রেস ক্লাবের সভাপতি ও সাধারন সম্পাদকের এমন আচরনকে অসুস্থ্য মস্তিস্কের ফল বলে সচেতন মহল আখ্যয়িত করেন । এদিকে বিশ্বস্থ সুত্রে জানা যায়, প্রেস ক্লাবের তিন ব্যক্তির একজনের পরিবারের সাথে রাজাকার আলবদর এর সরাসরি সম্পৃক্ততা রয়েছে। উল্লেখ্য প্রেস ক্লাবের সাধারন সম্পাদক লিটন এর রাজাকার পিতা সরাসরি মুক্তিযোদ্ধাদের হাতে নিহত হন সেজন্যেই এই চক্রটি বিজয় দিবস উৎযাপনের বিপক্ষে এবং সামান্য একটি অযুহাত সৃষ্টি করে বিজয় উৎযাপন উৎসব বানচাল করাই তাদের আসল উদ্দেশ্য ছিল বলে জানা যায়।