ডাকাত-পুলিশ সংঘর্ষে সাত পুলিশসহ আহত ১২

হবিগঞ্জ প্রতিনিধি, | শুক্রবার, ডিসেম্বর ১৮, ২০১৫
ডাকাত-পুলিশ সংঘর্ষে সাত পুলিশসহ আহত ১২

হবিগঞ্জ সদর উপজেলায় ডাকাত-পুলিশ সংঘর্ষে সাত পুলিশ সদস্যসহ ১২ জন আহত হয়েছেন। সংঘর্ষের সময় আহত পাঁচ ডাকাতকে আটক করেছে হবিগঞ্জ গোয়েন্দা পুলিশ।

বৃহস্পতিবার রাত ১০টার দিকে হবিগঞ্জ-নসরতপুর বাইপাস সড়কের চতুল মাহমুদপুর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

আটকরা হলেন- হবিগঞ্জ সদর উপজেলার আব্দাবখাই গ্রামের মনতাজ আলীর ছেলে সায়েদ, চুনারুঘাট উপজেলার কাচুয়া গ্রামের ইদ্রিস আলীর ছেলে ফজর আলী, একই উপজেলার সাটিয়াজুরী গ্রামের ফজর আলীর ছেলে লিটন

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবা উপজেলার লেথিকোড়া গ্রামের রফিক মিয়ার ছেলে শফিক ও আখাউড়া উপজেলার ধলেশ্বর গ্রামের খুর্শেদ মিয়ার ছেলে রাসেল। তাদের হবিগঞ্জ সদর আধুনিক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

এছাড়া ডাকাতদের হামলায় আহত হবিগঞ্জ গোয়েন্দা পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) সুদ্বীপ রায়, আব্দুল করিম, ইকবাল বাহার, সহকারী উপ-পরিদর্শক (এএসআই) মুসলিমসহ সাত পুলিশ সদস্যকে একই হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।

গোয়েন্দা পুলিশ জানিয়েছে, রাতে একদল ডাকাত হবিগঞ্জ-নসরতপুর বাইপাস সড়কের চতুল মাহমুদপুর এলাকায় ডাকাতির প্রস্তুতি নিচ্ছিল। এমন খবরের ভিত্তিতে হবিগঞ্জ গোয়েন্দা পুলিশ ডাকাতদের আটক করতে ওই এলাকায় অভিযান চালান।

পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে ডাকাতরা তাদের উপর হামলা চালায়। এতে সাত পুলিশ সদস্য আহত হন। আত্মরক্ষার্থে পুলিশ ডাকাতদের লক্ষ্য করে কয়েক রাউন্ড গুলি ছোড়ে। এতে পাঁচ ডাকাত আহত হয়।

পরে একটি পাইপগান, চার রাউন্ড গুলি, চারটি রামদা, একটি ছুরি, একটি লোহার রড ও একটি বড় পলিথিনসহ আহত পাঁচ ডাকাতকে আটক করে পুলিশ।

হবিগঞ্জ গোয়েন্দা পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এস আই) সুদ্বীপ রায় ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।