ভোলায় পৌর নির্বাচনের শেষ মুহূর্তে উত্তেজনা ককটেল বিষ্ফোরণ ॥ মারধর

শিশির হাওলাদার, ভোলা থেকে | রবিবার, ডিসেম্বর ২৭, ২০১৫
ভোলায় পৌর নির্বাচনের শেষ মুহূর্তে উত্তেজনা  
ককটেল বিষ্ফোরণ ॥ মারধর

ভোলা পৌর নির্বাচনের শেষ মুহূর্তে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ছে। প্রচার প্রচারণাকে কেন্দ্র করে বিভিন্ন এলাকায় কাউন্সিলর প্রার্থীদের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া ও সংঘর্ষের ঘটনা ঘটছে। শনিবার রাত ৮টার দিকে  ৪ নং ওয়ার্ডের নমস্কুল মাঠে এক কাউন্সিলর প্রার্থীর উঠান বৈঠক শুরুর আগে পার্শ্ববর্ত এলাকায় ককটেল বিষ্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে। পরে পুলিশ গিয়ে ওই এলাকা থেকে দুটি মিষ্টির প্যাকেটে বোমা সদৃশ বস্তু উদ্ধার করে।  গভীর রাতে ৫ নং ওয়ার্ডের ওয়েস্টার্ন পাড়ায় বিকট শব্দে মোবা বিষ্ফোরণের শব্দ পাওয়া গেছে। এ নিয়ে ভোরে ওই এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে।

এদিকে রবিবার ভোরে ২ নং ওয়ার্ডের গাজীপুর রোডে সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর প্রার্থী নাহিদা আক্তার লুনার স্বামী সাবেক পৌর কাউন্সিলর হুমায়ুন কবির সোপানকে প্রতিপক্ষ মহিলা কাউন্সিলর প্রার্থীর লোকজন মারধরে বা’ হাত ভেঙ্গে দিয়েছে। গুরুরত আহত সোপানকে ভোলা সদর হাসপাতালে ভর্তি কারা হয়েছে।

এদিকে রবিবার দুপুর ১২টায় আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী মনিরুজ্জামান মনিরের পক্ষে শতশত নারী পুরুষ সদর রোডে গণসংযোগ ও লিফলেট বিতরণ করেছে। এ সময় মেয়র প্রার্থী মনিরুজ্জামান মনির বলেন, ভোলা পৌর সভায় কোন ঝুকিপূর্ণ কেন্দ্র নেই। শান্তিপূর্ণ পরিবেশেই অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

আবার রবিবার দুপুরে দেড় টার দিকে বিএনপির কেন্দ্রীয় ভাইস চেয়ারম্যান মেজর (অব) হাফিজ উদ্দিন আহমেদ বীর বিক্রম ভোলা পৌর নির্বাচনে বিএনপির প্রার্থী হারুন অর রশিদ ট্রুম্যানের পক্ষে শহরে প্রচারণায় নেমে ভোটারদের মাঝে  লিফলেট বিরতণ করেন। এ সময় তিনি বলেন, ভোলায় আইন শৃঙ্খলা পরিস্তিতি ঘোরতর অবনতি হয়েছে। এখানে প্রশাসন আছে বলে মনে হয় না। প্রতি রাতে বিএনপির নেতাকর্মীদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে হুমকি দেয়া হচ্ছে।