কোটালীপাড়ায় আ’লীগ মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থীর ব্যানারে আগুন

অপরাধ সংবাদ ডেস্ক | রবিবার, মার্চ ২৭, ২০১৬
কোটালীপাড়ায় আ’লীগ মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থীর ব্যানারে আগুন
গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়া উপজেলার কুশলা ইউপি নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী কামরুল ইসলাম বাদলের ব্যানারে আগুন দেয়াকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষে স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী চৌধুরী সুলতান মাহামুদ কালুসহ উভয় পক্ষের  ১০ জন আহত হয়েছে।গত শনিবার ইউনিয়নটির খান মার্কেট এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।
জানাগেছে, ঘটনার দিন সন্ধ্যায় স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী সুলতান মাহামুদ কালু (আনারস) তার সমর্থকদের নিয়ে মিছিল সহকারে খান মার্কেটে এসে  আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী কামরুল ইসলাম বাদলের ব্যানারে আগুন দেয়।এ ঘটনার পর দুই পক্ষের সমর্থকরা  সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। খবর পেয়ে কোটালীপাড়া থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে।
এই সংঘর্ষে স্বতন্ত্র প্রার্থী চৌধুরী সুলতান মাহামুদ কালুসহ ১০ আহত হয়। আহত আবুল হোসেন মাতুব্বর (৭০), সজল গোলদার (২২),হান্নান গাজী (৪৫),শরিফুল ইসলাম (১৯) কে কোটালীপাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।অপরদিকে চৌধুরী সুলতান মাহামুদ কালুকে গোপালগঞ্জ সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
আওয়ামী লীগ মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী কামরুল ইসলাম বাদল বলেন, স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী চৌধুরী সুলতান মাহামুদ কালু ও তার সমর্থকরা আমাদের দলীয় সভানেত্রী ,প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছবি সংবলিত আমার নির্বাচনী ব্যানারে আগুন দিলে আমার সমর্থকদের সঙ্গে কথাকাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে কালু ও তার সমর্থকরা আমার সমর্থকদের উপর হামলা চালায়। এতে আমার ৭ জন সমর্থক আহত হয়।
এ ব্যাপারে স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী চৌধুরী সুলতান মাহামুদ কালুর বক্তব্য জানার জন্য তার ০১৭৩৪৬৫৫৩৬৭ নম্বরের মুঠোফোনে বারবার চেষ্টা করেও তাকে পাওয়া যায়নি।
কোটালীপাড়া থানার অফিসার ইনচার্জ ( ওসি) মোঃ আব্দুল লতিফ বলেন, আওয়ামী লীগ মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী কামরুল ইসলাম বাদলের পক্ষ থেকে একটি অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত পূর্বক ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

অপরাধ সংবাদ/রা