বগুড়ায় ছাত্রলীগ কর্মী হত্যায় ৩ সহোদরের মৃত্যুদ-, ৩ জনের যাবজ্জীবন

অপরাধ সংবাদ ডেস্ক | বৃহস্পতিবার, মার্চ ৩১, ২০১৬
বগুড়ায় ছাত্রলীগ কর্মী হত্যায় ৩ সহোদরের মৃত্যুদ-, ৩ জনের যাবজ্জীবন
বগুড়ায় ছাত্রলীগ কর্মী ফারুক হোসেন সবুজ হত্যা মামলায় তিন সহোদরকে মৃত্যুদ- এবং অপর তিনজনকে যাবজ্জীবন কারাদ- দিয়েছেন আদালত। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে বগুড়ার অতিরিক্ত দায়রা জজ আদালত-১ এর বিচারক মো. হাফিজুর রহমান এই রায় ঘোষণা করেন। মৃত্যুদ-প্রাপ্ত আসামিরা হলেন, বগুড়া শহরের নাটাইপাড়া এলাকার আব্দুল মজিদের ছেলে রনি মন্ডল ওরফে রনি, মাসুম পারভেজ মাসুম এবং মাসুদ পারভেজ মুন্না। এ মামলায় যাবজ্জীবন কারাদ-প্রাপ্ত আসামিরা হলেন একই এলাকার রমজান আলীর ছেলে জাহাঙ্গীর ও খোকন এবং আজগর আলীর ছেলে আব্দুল মজিদ। দ-িত আসামিদের মধ্যে মাসুম পারভেজ, খোকন ও আব্দুল মজিদ পলাতক রয়েছে। মামলা সূত্রে জানা গেছে, এলাকায় আধিপত্য বিস্তারের জের ধরে ২০০৯ সালের ৫ জানুয়ারি বিকেল ৩টার দিকে শহরের নাটাইপাড়া (কৃঞ্চপাড়া) এলাকায় ছাত্রলীগ কর্মী ফারুক হোসেন সবুজকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করা হয়। এঘটনায় নিহতের বাবা আব্দুল গফুর বাদী হয়ে ৬ জনের বিরুদ্ধে বগুড়া সদর থানায় মামলা দায়ের করেন। মামলাটি তদন্ত শেষে ৬ জনের বিরুদ্ধে আদালতে চার্জশীট দাখিল করা হয়। দীর্ঘ শুনানি শেষে বৃহস্পতিবার মামলার রায় ঘোষণা করা হয়। রায়-এ উল্লেখ করা হয় আসামি রনি মন্ডল, মাসুম পারভেজ মাসুম এবং মাসুম পারভেজ মুন্না সবুজকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে নৃশংসভাবে হত্যা করে। এই আসামিদের ভয়ে এলাকার কেউ তাদের বিরুদ্ধে কথা বলার সাহস পায়না। একারণে আসামিদেরকে সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদ- প্রদান করা যুক্তিযুক্ত। বাদীপক্ষে মামলাটি পরিচালনা করে এপিপি রেজাউল হক এবং আসামি পক্ষে আইনজীবী ছিলেন অ্যাড. হাফিজুর রহমান (৩) ও সিরাজুল ইসলাম।