রবি ঠাকুরের কুঠিবাড়ি থেকে তরবারি চুরি

অপরাধ সংবাদ ডেস্ক | সোমবার, এপ্রিল ৪, ২০১৬
রবি ঠাকুরের কুঠিবাড়ি থেকে তরবারি চুরি
বিশ্ব নন্দিত কবি রবিন্দ্রনাথ ঠাকুর। তিনি জন্ম গ্রহন করেছিলেন ১৮৬১ সালের ৭ ই মে কলকাতার জোড়া সাঁকোর পরিবারে। তিনি ছিলেন অতি এক বিখ্যাতো মানুষ। যার প্রতিভার উন্মেষ ঠটেছিল ছোটবেলা থেকেই। তিনি শুধুই কবিই ছিলেন না। তিনি ছিলেন একাধারে ওপন্যাসিক, সংগীতস্রষ্টা, নাট্যকার, চিত্রকার,ছোটগল্পকার,প্রাবন্ধিক,অভিনেতা  কন্ঠশিল্পী ও দার্শনিক। তাকে ভাষা সাহিত্যিক মনে করা হতো। তিনি ১৯১৩ সালে তার বিখ্যাত কাব্যগ্রন্থ গীতাঞ্জলী ইংরেজিতে অনুবাদ করার জন্য নোবেল পুরুস্কারে ভূসিত হয়েছিলেন। এই বিক্ষাত মানুষ তার জীবনের বেশির ভাগ সময় কলকাতাতে  কাটালেও তিনি কুষ্টিয়ার শিলাহদাহতেও থেকেছিলেন। তিনি ১৮৯০ সাল থেকে কুষ্টিয়ার শিলাইদহের জমিদারী এস্টেটে বসবাস করেন। তার এই কুষ্টিয়ার বাড়িতে নানা সৃতি বিজরিত করে গেছেন। কিন্তু হঠাত করে তার এই বাড়ি থেকে তার ব্যাবহার করা তার আমলের ২ টা তরবাড়ি হারিয়ে গেছে। এই তরবাড়ির এখনো কোন সন্ধান পাওয়া যাইনি। চুরির এই বিষয়ে কুমারখালি থানাই ডিডি করা হয়েছে। এই বিষয়টি তে  কুষ্টিয়া জেলা প্রশাসক সৈয়দ বেলাল হোসেন বলেন চুরির ঘটনা তাকে কেউ অবহিত করে নি। তবে তিনি এই ধরনের ঘটনাতে দুঃখ জনক  বলে জানান।
তবে কুঠিবাড়িতে রাতে ব্যাটালিয়ন আনসারের পাহারার ব্যবস্থা থাকা সত্বেও কি করে এ চুরির ঘটনা ঘটলো তা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। কুঠিবাড়িতে সিসি ক্যামেরা বসানো থাকলেও ওই রাতে ঝড়ের কারনে বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ থাকায় কোন ফুটেজ নাই বলে দাবি করেছেন কর্তৃপক্ষ।

এই ঘটনার পরিপেক্ষিতে কুষ্টিয়াবাসির সকলের প্রত্যাসা ভবিষ্যতে যেন এই ধরনের অপ্রিতর ঘটনা না ঘটে।

অপরাধ সংবাদ/রা