শরীয়তপুরে আওয়ামী লীগ প্রার্থী নাসরিনের জামানত বাজেয়াপ্ত

অপরাধ সংবাদ ডেস্ক | বুধবার, জুন ৮, ২০১৬
শরীয়তপুরে আওয়ামী লীগ প্রার্থী নাসরিনের জামানত বাজেয়াপ্ত
শরীয়তপুরে আওয়ামী লীগ প্রার্থী নাসরিন আক্তারের জামানত বাজেয়াপ্ত হয়েছে। জেলার জাজিরা উপজেলার জয়নগর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী নাসরিন আক্তার (নৌকা) প্রতীক নিয়ে ১২০ ভোট পেয়েছেন। আর আওয়ামীলীগ বিদ্রোহী প্রার্থী ইসমাইল হোসেন খান ৪ হাজার ১শত ৭৮ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। এবার জয়নগর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী নাসরিন আক্তারের জামানত বাজেয়াপ্ত হয়েছে।
জাজিরা উপজেলা নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা যায়, জাজিরার জয়নগর ইউনিয়নের নির্বাচন পঞ্চম ধাপে অনুষ্ঠিত হয়েছে। সে ক্ষেত্রে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগে পক্ষ থেকে চেয়য়ারম্যান পদ প্রার্থী হিসেবে নাসরিন আক্তারকে মনোনয়ন দেয়া হয়। কিন্তু তার বিপরীতে জাজিরা উপজেলা আওয়ামীলীগের কৃষি বিষয়ক সম্পাদক ইসমাইল হোসেন খান এবং উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য আমিনুল ইসলাম বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন পত্র দাখিল করেন। এছাড়া আরও ছয় জন স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন করেন।
এ ব্যাপারে আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী নাসরিন আক্তার বলেন, দলীয় নেতা কর্মীরা নৌকা প্রতীকের পক্ষে কাজ না করে, বিদ্রোহী প্রার্থীর পক্ষে কাজ করেছে। তারা কেন এমন করেছেন, তা আমি জানি না। বিষয়টি আমি আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নেতাদের অবহিত করেছি।
শরীয়তপুরে আওয়ামী লীগ প্রার্থী নাসরিনের জামানত বাজেয়াপ্ত  
শরীয়তপুর প্রতিনিধি ॥
শরীয়তপুরে আওয়ামী লীগ প্রার্থী নাসরিন আক্তারের জামানত বাজেয়াপ্ত হয়েছে। জেলার জাজিরা উপজেলার জয়নগর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী নাসরিন আক্তার (নৌকা) প্রতীক নিয়ে ১২০ ভোট পেয়েছেন। আর আওয়ামীলীগ বিদ্রোহী প্রার্থী ইসমাইল হোসেন খান ৪ হাজার ১শত ৭৮ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। এবার জয়নগর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী নাসরিন আক্তারের জামানত বাজেয়াপ্ত হয়েছে।
জাজিরা উপজেলা নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা যায়, জাজিরার জয়নগর ইউনিয়নের নির্বাচন পঞ্চম ধাপে অনুষ্ঠিত হয়েছে। সে ক্ষেত্রে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগে পক্ষ থেকে চেয়য়ারম্যান পদ প্রার্থী হিসেবে নাসরিন আক্তারকে মনোনয়ন দেয়া হয়। কিন্তু তার বিপরীতে জাজিরা উপজেলা আওয়ামীলীগের কৃষি বিষয়ক সম্পাদক ইসমাইল হোসেন খান এবং উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য আমিনুল ইসলাম বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন পত্র দাখিল করেন। এছাড়া আরও ছয় জন স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন করেন।
এ ব্যাপারে আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী নাসরিন আক্তার বলেন, দলীয় নেতা কর্মীরা নৌকা প্রতীকের পক্ষে কাজ না করে, বিদ্রোহী প্রার্থীর পক্ষে কাজ করেছে। তারা কেন এমন করেছেন, তা আমি জানি না। বিষয়টি আমি আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নেতাদের অবহিত করেছি।