শরীয়তপুরে নির্বাচনে পরাজিত হওয়ায় বাঁধ দিয়ে ১ হাজার একর জমির ফসল নষ্ট

অপরাধ সংবাদ ডেস্ক | রবিবার, জুন ১২, ২০১৬
শরীয়তপুরে নির্বাচনে পরাজিত হওয়ায় বাঁধ দিয়ে ১ হাজার একর জমির ফসল নষ্ট
ভাবি সংরক্ষিত মহিলা মেম্বার পরাজিত হওয়ায় বাঁধ দিয়ে ১ হাজার একর জমির ফসল নষ্ট করলেন বাদল মুন্সী ও দেলোয়ার মুন্সী। ঘটনাটি ঘটেছে শরীয়তপুর জেলার গোসাইরহাট উপজেলার গোসাইরহাট ইউনিয়নের পূর্ব সাইখ্যা গ্রামে।

স্থানীয় কৃষকরা জানান, গোসাইরহাট উপজেলার পূর্ব সাইখ্যা গ্রামের বাদল মুন্সী ও দেলোয়ার মুন্সীর ভাবি ৩য় ধাপে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে গোসাইরহাট ইউনিয়নের ৭, ৮, ও ৯ নং ওয়ার্ডে সংরক্ষিত মহিলা মেম্বার হিসেবে তাদের ভাবি সুফিয়া বেগমকে বই মার্কা নিয়ে প্রার্থী করেন। সুফিয়া নির্বাচনে পরাজিত হওয়ায় বাঁধ দিয়ে পূর্ব সাইখ্যা মৌজার ১ হাজার একর জমির ফসল আউশ ধান, পাট, মরিচ পানিতে ডুবিয়ে নষ্ট করে দেয়।

এ ব্যাপারে কৃষক মুজাফ্ফর সরদার জানান, নির্বাচনে হেরে বাদল মুন্সী, দেলোয়ার মুন্সী ও সহযোগী শাহজাহান সিকদার ওরফে সাজু তাদের জমিতে বাধ নির্মাণ করে। বাঁধ নির্মানের ফলে পানি নিষ্কাশন বন্ধ হয়ে যাওয়ায়  আমার ৫ একর জমিতে আউশ ধান, পাট, মরিচ নষ্ট হয়ে যায়।

এ ব্যাপারে কৃষক হাজী মকবুল হাওলাদার জানান, এখানে ১ হাজার একর জমি রয়েছে বাঁধ দেওয়ার ফলে বৃষ্টির পানি জমাট হয়ে আমার ১০ একর জমির ফসল নষ্ট হলো। ফসল নষ্ট হওয়ায় আমি পথে বসে গেছি।

এ ব্যাপারে দেলোয়ার মুন্সী জানান, নির্বাচনে হেরে গেছি এ জন্য বাঁধ দেব এটা মিথ্যে কথা। তিনি বলেন, এখানে আমার ১০ এক জমি রয়েছে। আমি আগে এখানে ইরি ধান করতাম। বৃষ্টি হওয়ার ফলে ইরি ধান পানিতে ডুবে যায়। আমার ধান পানিতে ডুবে নষ্ট হয়ে যাবে তাই পানি নামার জন্য আমার জমিতে খাল খনন করি। এ খাল দিয়ে আমার জমির পানি নিষ্কাশন হতো। আমার জমির কাছাকাছি নদী এসে যাওয়ায় এ বাঁধ দিয়ে পানি নামলে জমিগুলো ভেঙে যাবে তাই আমি বাঁধ দিয়েছি।