ভান্ডারিয়া আতরখালীতে বাবা মেয়েকে দীর্ঘদিন জ্বালাতন, ও ধর্ষণ।

পিরোজপুর প্রতিনিধিঃ | সোমবার, জুন ২৭, ২০১৬
 ভান্ডারিয়া আতরখালীতে বাবা মেয়েকে দীর্ঘদিন জ্বালাতন, ও ধর্ষণ।
পিরোজপুর জেলার ভান্ডারিয়া উপজেলার আতরখালী গ্রামে মোঃ আলামীন সিকদার ওরোপে বয়াতী পিতা ঃ আজিজ সিকদার ওরোপে বয়াতী তিনি তার তের বছরের নাবালিকা মেয়ে ইতিকে দীর্ঘ প্রায় তিন মাস যাবৎ জোর পূর্বক জ্বালাতন ও ধর্ষণ করে আসছে। হটাৎ করে নাবালিকা মেয়ে ইতি অসয্য হয়ে গ্রাম পুলিশ মোঃ মোসলেম হাওলাদার ও এলাকার মহিলাদের কাছে প্রকাশ করে যে, তার পিতা মোঃ আলামীন সিকদার ওরোপে বয়াতী গভীর রাতে তার বিছানায় গিয়ে তাকে জোরপূর্বক শ্লিতাহানি ও ধর্ষণ করে।  এ ব্যপারে জনসাধারণের অভিমত প্রকাশ করে যে, এ রকমের জগন্য পিতাকে আইনানুগ ব্যাবস্থার মাধ্যমে ফাঁসি অথবা তার লিঙ্গে ইট বেঁধে সমস্ত গ্রামে গুরানো উচিৎ। এছাড়াও  জানা যায় মোঃ আলামীন সিকদার ওরোপে বয়াতী তার ২ বিবাহ। সাংবাদিক এর পর্যবেখনে জানা যায় যে ইতি তার প্রথম সংসারের মেয়ে। এ সাছারাও মোঃ ছাব্বির গাজী পিতা মোঃ চাঁন গাজ্ ীও মোঃ হাসান পিতা মোঃ লতিব গাজী, আলতাব দোকান দার, ইতির ছোট ভাই সবুজ সেও বলে আমার পিতা অনেক দিন যাবত এবাভে অসভ্যতামি করে আসছে,  এরা সবে মিলি  ভিডিও রেকড়িং এ সাখ্যাৎ দেয় ও জানান যে ঘটনা সত্য, ইতি আমাদের কাছে জানান তার পিতা মোঃ আলামীন সিকদার ওরোপে বয়াতী গভীর রাতে তার বিছানায় গিয়ে তাকে জোরপূর্বক শ্লিতাহানি ও ধর্ষণ করে।  কিন্তু পরিশেসে কোনো অইনের ব্যাবস্থা নেওয়া হয়নি বলে জানান এলাকার জনসাধারন। কিন্তু এলাকার জনসাধারনরা তারা সুষ্ট বিচার দাবি করে।